X
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

কেন হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক

আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৩:৫৫

দেশে প্রথমবারের মতো এতিম-বিপন্ন শিশুদের জীবন বাঁচাতে ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক’ প্রতিষ্ঠা করেছে মাতুয়াইল শিশু ও মাতৃস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট। গত ১ ডিসেম্বর থেকে এর কার্যক্রম চলার কথা থাকলেও সামাজিক ও ধর্মীয় বিধি-নিষেধের কারণে এর কার্যক্রম এখনও শুরু করতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি। আর এই ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক’ প্রতিষ্ঠা নিয়ে আলেমরা ভিন্ন ভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন। একপক্ষের দাবি, এই ধরনের প্রচেষ্টা ইসলামসম্মত নয়। অন্যপক্ষের মতে, এটি একটি ভালো উদ্যোগ। তারা যুক্তি দিয়ে বলছেন, প্রয়োজনে বিষয়টি নিয়ে আলেমদের সঙ্গে বসে আলোচনা করে সমাধান বের করতে হবে। কোনোভাবে এমন একটি মহৎ উদ্যোগের বিরোধিতা করা উচিত হবে না বলেও তারা মনে করেন।

‘মিল্ক ব্যাংক’ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জাতীয় তাফসির পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম দুধমায়ের সন্তানদের সম্পর্ক হবে ভাই-বোনের সম্পর্ক। ভবিষ্যতে তাদের মধ্যে বিয়ে হলে সেটি হারাম (নিষিদ্ধ) হবে বলেও তিনি দাবি করেন।

তবে ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংকের’ সমন্বয়ক ও ইনস্টিটিউটের নবজাতক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক  ডা. মজিবুর রহমান বলেন, ‘‘সম্পূর্ণভাবে ইসলামি বিধিবিধান মেনেই এই ‘মিল্ক ব্যাংক’ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। দুধদাতা ও গ্রহীতাদের প্রত্যেককে আলাদা আইডিকার্ড দেওয়া হবে। একজন মেয়ে শিশুর মা একজন মেয়ে শিশুকে এবং একজন ছেলে শিশুর মা ছেলে শিশুকেই দুধ দেবেন। যে কারণে যারা দুধ ভাই-বোনের মধ্যে বিয়ে হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে মনে করে বিরোধিতা করছেন, আশঙ্কা এখানে নেই। যারা বিরোধিতা করছেন, তারা যদি পুরো বিষয়টি সঠিকভাবে জানেন, তাহলে এখানে বিরোধিতা করার কিছু নেই।’’

বিষয়টি নিয়ে ‘জিদ’ না ধরে আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের পরামর্শ দিয়েছেন ইসলাহুল মুসলিমিন পরিষদের চেয়ারম্যান ও কিশোরগঞ্জ শোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘দুধ ভাই-বোনের বিয়ের বিষয়টির সমাধান করতে হবে।’  

ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, ‘উদ্যোক্তাদের উচিত আলেমদের নিয়ে বসা। পুরো বিষয়টি আলেমদের ভালোভাবে বুঝিয়ে বলা। আর ভালো কাজে কেউ বাধা দেবে না। এজন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বলবো, আলেমদের নিয়ে বসুন। তাদের বুঝিয়ে বলুন।’ তিনি আরও বলেন, ‘‘মুসলিম দেশ কুয়েত, মালয়েশিয়া, ইরাক, ইরান ও পাকিস্তান যে পদ্ধতি অনুসরণ করে ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক’ প্রতিষ্ঠা করেছে, আমাদের দেশেও সে প্রক্রিয়া অনুসরণ করা যাবে কেন?’’

এক প্রশ্নের জবাবে মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ আরও বলেন, ‘‘শুনেছি মাতুয়াইল শিশু ও মাতৃস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের ‘মিল্ক ব্যাংকের উদ্যোক্তারা’ যে পদ্ধতিতে দুধদাতা গ্রহণকারীদের প্রত্যেককে যেভাবে আলাদা আইডিকার্ড দেওয়া হবে, তাতে তাদের সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য থাকবে উদ্যোক্তাদের কাছে। একজন মেয়ে শিশুর মা একজন মেয়ে শিশুকে এবং একজন ছেলে শিশুর মা ছেলে শিশুকেই দুধ দেবেন। যদি এমন পদ্ধতিতে মিল্ক ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয়, তাহলে ভবিষ্যতে দুধ ভাই-বোনের বিয়ের ক্ষেত্রে কোনও জটিলতা হবে না। কারণ, বিয়ের আগে  সংশ্লিষ্টরা খোঁজ নেবেন, তারা এতিম ছিলেন কি না, তারা মিল্ক ব্যাংক থেকে দুধ গ্রহণ করেছেন কিনা। তখন তাদের সম্পর্কিত তথ্য যাচাই করলেই বিষয়টি ধরা পড়বে। প্রকৃত তথ্যও জানা যাবে। ফলে যারা দুধ ভাই-বোনের মধ্যে বিয়ে হওয়ার আশঙ্কা করছেন, তারা ভুল করছেন।’’  

বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) মাতুয়াইলে অবস্থিত ‘মাতুয়াইল শিশু ও মাতৃস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটে গিয়ে দেখা গেছে, ইনস্টিটিউটে ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক’ নামে একটি কর্নার রয়েছে। প্রথম কক্ষেই মায়ের বুকের দুধ সংরক্ষণ করে রাখার আধুনিক যন্ত্রপাতি। পাস্তুরিত মেশিনের ভেতরে পৃথক পৃথক ঘরে রয়েছে একেকটি কৌটা, এসব কৌটায় মায়ের দুধ সংরক্ষণ করা হবে। এরও ভেতরের আরেকটি বড় কক্ষের ভেতরে পার্টিশান দিয়ে দু’টি কক্ষ বানানো হয়েছে। এর সামনে কালো গ্লাস দেওয়া হয়েছে।

কী করে এই ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংকের’ উদ্যোগ নেওয়া হলো—জানতে চাইলে ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংকের’ সমন্বয়ক অধ্যাপক ডা. মজিবুর রহমান বলেন, ‘দুই বছর আগে দেশের বাইরে নবজাতক বিষয় একটি আন্তর্জাতিক সেমিনারে যাই। সেখানেই একজন চিকিৎসকের প্রেজেন্টেশন ছিল হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক নিয়ে। আর চিকিৎসক হিসেবে জানতাম, একজন নবজাতকের জন্য মায়ের দুধের কোনও বিকল্প নেই। বুকের দুধ খাওয়ানো যায় না বলেই কেবল অনেক শিশু মারা যায়। বেঁচে থাকলেও অনেকে সারাজীবনের জন্য অপুষ্টিতে ভোগে, কেউ কেউ প্রতিবন্ধী হিসেবে বেড়ে ওঠে।’  

ডা. মজিবুর রহমান বলেন, ‘এ সময় মাথায় আসে নবজাতকের ইনফেকশনজনিত পেটের ভেতরে ছোট ছোট ক্ষত হওয়ার একটা রোগ আছে। এই রোগের একমাত্র ওষুধ মায়ের বুকের দুধ। মায়ের বুকের দুধ খেতে পারলেই ওই নবজাতক বেঁচে যায়।’ তিনি আরও বলেন, ‘‘মুসলিম দেশ কুয়েত, মালয়েশিয়া, ইরাক, ইরান ও পাকিস্তানে হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক রয়েছে। মালয়েশিয়ায় তাদের স্লোগানই হচ্ছে, ‘হিউম্যান মিল্ক ফর হিউম্যান বেবি’। তখন মনে হয়, ইরান, কুয়েত, মালয়েশিয়া যদি করতে পারে, আমরা কেন পারবো না? আর বাইরের কথা যদি বাদও দেই, এই হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে যেসব বাচ্চারা থাকে, যেসব বাচ্চার দত্তক নেওয়া হয়, তাদের সাহায্য করার জন্যও ‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক’ প্রতিষ্ঠা করা জরুরি।’’

‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংকের’ সমন্বয়ক বলেন, ‘‘ভারতের রাজীব গান্ধী মেডিক্যাল কলেজে পৃথিবীর সবচেয়ে ‘বড় হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক’ রয়েছে, সেখানেও গিয়েছি পুরো বিষয়টি জানার জন্য। সেখানেই একাধিক মায়ের বুকের দুধ একসঙ্গে রাখা হয়, কিন্তু আমাদের দেশে এটা সম্ভব নয়। আমাদের দেশে আলাদা করে রাখতে হবে। এ কারণে আমরা ছক করে পাস্তুরিত মেশিন তৈরি করালাম, যেখানে প্রত্যেক মায়ের বুকের দুধ আলাদা কৌটায় রাখা যাবে।’ 

‘হিউম্যান মিল্ক ব্যাংকের’ এই উদ্যোক্তা আরও বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা ইতোমধ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনে আবেদন করেছি। শুরুতে তাদের দ্বিধায় থাকলেও পুরো বিষয়টি বুঝিয়ে বলার পর সেই সন্দেহ দূর হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, তারা নিজেরা ওয়ার্কশপ করে শিগগিরই আমাদের জানাবে।’

বুকের দুধ দাতা-গ্রহণকারী নাম-পরিচয় সংরক্ষণ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ডা. মজিবুর রহমান বলেন, ‘প্রত্যকের জন্য আলাদা ডাটা, আলাদা আইডি কার্ড  রাখা হবে। যিনি দান করবেন এবং যিনি গ্রহণ করবেন, তাদের দুজনের কাছেই পরিচয়পত্র থাকবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এখানে প্রত্যেক মায়ের দুধ আলাদা কৌটায় রাখা হবে, যেসব শিশুকে আরেক মায়ের দুধ খাওয়ানো হবে, তাদের দুই পক্ষকেই আইডি কার্ড দেওয়া হবে। রেফারেন্স নম্বর-রেজিস্ট্রেশন নম্বর, খাতা ও ভলিউম, এন্ট্রি পৃষ্ঠার নম্বর, সবই তাদের দেওয়া হবে।’ একজন মায়ের দুধের সঙ্গে আরেকজন মায়ের দুধ মিশে যাওয়ার কোনও আশঙ্কা নেই বলেও তিনি জানান।

কবে থেকে এই ‘মিল্ক ব্যাংক’ চালু করা হবে—জানতে চাইলে ডা. মজিবুর রহমান বলেন, ‘সব নিয়ম মেনে গত ১ ডিসেম্বর থেকে চালু করার কথা ছিল। কিন্তু কিছু প্রতিবন্ধকতার কারণে আপাতত সময় পিছিয়ে গেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘কেবল যেসব শিশুকে মায়ের বুকের দুধ ছাড়া বাঁচানো যাচ্ছে না, সেসব বাচ্চাকেই এই দুধ খাওয়ানো হবে।’

উদ্বেগজনক হারে রাস্তায় ফেলে যাওয়া এতিম ও অনাথ শিশুর সংখ্যা বাড়ছে উল্লেখ করে ডা. মজিবুর রহমান বলেন, ‘এসব শিশুকে বাঁচিয়ে রাখার জন্যই হিউম্যান মিল্ক ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এর মাধ্যমে যেন শরিয়তের পরিপন্থী কিছু না হয়, সেদিকে আমরা বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘এছাড়া একজন চাকরিজীবী মা যদি চান, তার মাতৃত্বকালীন ছুটির সময়ে তার বুকের দুধ এখানে জমা রাখতে, তাহলে তিনি তা পারবেন। পরে এখান থেকে নিয়ে সন্তানকে খাওয়াতে পারবেন। যে পদ্ধতিতে একজন মায়ের বুকের দুধ প্রিজার্ভ করার পদ্ধতি রয়েছে, তাতে তিন থেকে ১৮ মাস পর্যন্ত সম্পূর্ণ গুণ বজায় থাকবে।’ 

ব্যক্তিগতভাবে অনেক আলেমের সঙ্গে কথা হয়েছে উল্লেখ করে ডা. মজিবুর রহমান বলেন, ‘প্রথমে তারা দ্বিধান্বিত হলেও পরে পুরো বিষয়টি জানার পর আর দ্বিমত করেননি। তারা বলেছেন, দুধমায়ের বিষয়টি মাথায় রেখে যদি বিষয়টির ব্যবস্থাপনা করা যায়, তাহলে  কোনও সমস্যা থাকবে না।’  

প্রসঙ্গত, মাতৃদুগ্ধ সংরক্ষণে ‘মিল্ক ব্যাংক’ স্থাপনের বিরুদ্ধে যথাযথ শর্ত আরোপ চেয়ে গত ২৪ ডিসেম্বর ধর্ম মন্ত্রণালয়, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, শিশু-মাতৃস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট (আইসিএমএইচ), নবজাতক পরিচর্যা কেন্দ্র (স্কানো), নবজাতক আইসিইউ (এনআইসিইউ) এবং ঢাকা জেলা প্রশাসসকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মাহমুদুল হাসান। নোটিশে বলা হয়েছে, ‘মিল্ক ব্যাংক’ ইস্যুতে আইনগত ও ধর্মীয় সমস্যা রয়েছে। ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী, কোনও শিশু কোনও নারীর দুধ পান করলে ওই নারী ওই শিশুর দুধমাতা হয়ে যান। বাংলাদেশে ওই ‘মিল্ক ব্যাংক’ স্থাপনের ফলে একই মায়ের দুধ পানের কারণে যারা দুধ পান করবে, তারা প্রত্যেকে ভাই-বোন হয়ে যাবে। তাই ভবিষ্যতে এসব ভাই-বোনের মধ্যে বিয়ে হলে সেটি ইসলাম ধর্মবিরোধী হয়ে যাবে।

এছাড়া ‘মিল্ক ব্যাংক’ ১৯৩৭ সালের মুসলিম ব্যক্তিগত আইনের সরাসরি লঙ্ঘন। তাই নোটিশ অনুসারে মিল্ক ব্যাংক স্থাপনে যথাযথ শর্ত আরোপ চাওয়া হয়েছে। না হলে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

আইনি নোটিশের প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ডা. মুজিবুর রহমান বলেন, ‘নোটিশ এখনও হাতে পাইনি।’ হাতে পাওয়ার  প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন বলেও তিনি জানান।

/এমএনএইচ/এমএমজে/

সম্পর্কিত

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে মৃত্যু: চার পরিবার পেলো ১ কোটি টাকা

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে মৃত্যু: চার পরিবার পেলো ১ কোটি টাকা

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৩:৩৮

সপ্তাহের প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় নিজ নিজ বাসা-বাড়ি পরিচ্ছন্ন রাখতে নগরবাসীকে অন্তত ১০ মিনিট সময় দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকালে গুলশানের নগর ভবন থেকে ডিএনসিসির বিভিন্ন এলাকার সার্বিক অবস্থা সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে গিয়ে ডিএনসিসি মেয়র এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমকে একটি  সামাজিক আন্দোলনে রূপ দিতে হবে এবং এডিস মশার বংশবিস্তাররোধে আমাদের সকলকেই লজ্জা পরিহার করে প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ নিজ বাসাবাড়ি পরিষ্কার করতে হবে।

আতিকুল ইসলাম জানান, তিনি নিজেও আগামীকাল শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট নিজের বাসাবাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করবেন এবং তার ফেসবুক ভেরিফাইড পেইজ থেকেও তা শেয়ার করবেন। ডিএনসিসি মেয়র নগরবাসীকেও একযোগে এক‌ই সময়ে নিজ নিজ বাসাবাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করতে এবং তা ফেসবুকে শেয়ার দিতে আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত মসজিদের ইমামগণ যাতে শুক্রবারের জুম্মার নামাজের খুতবায় মুসল্লিদের উদ্দেশে ‘১০টায় ১০ মিনিট প্রতি শনিবার, নিজ নিজ বাসাবাড়ি করি পরিষ্কার’ স্লোগানটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে কমপক্ষে পাঁচ মিনিট আলোচনা করেন সেজন্য অনুরোধপত্র প্রেরণ করা হয়েছে।
 
এডিস মশা, ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধকল্পে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে, নিজেদের বাসাবাড়ি ও আশেপাশের পরিবেশকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানান আতিকুল ইসলাম। ডিএনসিসি মেয়র বলেন, নিজেদের বাসাবাড়িতে ফুলের টব, যানবাহনের অব্যবহৃত টায়ার, ডাবের খোসা, বিভিন্ন ধরনের খোলা প্যাকেট বা পাত্র, ছাদ কিংবা অন্য কিছুতে যাতে তিন দিনের বেশি পানি জমে না থাকে সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।

তিনি বলেন, করোনা মহামারিকালে যেন ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ায় কার‌ও মৃত্যু না হয়, সেজন্যই ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ১০টি অঞ্চলের ৫৪টি ওয়ার্ডে একযোগে ২৭ জুলাই থেকে ৭ আগস্ট পর্যন্ত শুক্রবার ব্যতীত ১০ দিনব্যাপী মশক নিধনে চিরুনি অভিযানসহ জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

নগরবাসীর কল্যাণে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৪৪টি নগর স্বাস্থ্যকেন্দ্রেই ফ্রি ডেঙ্গু পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলেও জানান মেয়র।

/এসএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে মৃত্যু: চার পরিবার পেলো ১ কোটি টাকা

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে মৃত্যু: চার পরিবার পেলো ১ কোটি টাকা

ডিএনসিসিতে ৩৬ মামলায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা

ডিএনসিসিতে ৩৬ মামলায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৩:১২

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে চলমান কঠোর লকডাউনে প্রতিদিনই রাজধানীর সড়কগুলোতে ব্যক্তিগত ও জরুরি পরিষেবার গাড়ি এবং রিকশার চাপ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তবে আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) সাপ্তাহিক ছুটির দিনে সড়কে মানুষের চলাচল কম লক্ষ্য করা গেছে। চেকপোস্টে দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা বলছেন, এমনিতেই সাপ্তাহিক ছুটির দিন, তারওপর সকাল থেকে বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হওয়ায় লোকজন খুব একটা বাইরে বের হননি।

নগরীর মালিবাগ, শান্তিনগর, মৌচাক ও রামপুরাস্থ সড়কে থাকা পুলিশের চেকপোস্ট ঘুরে দেখা গেছে, কিছু মানুষ আজও রিকশা, মোটরসাইকেল বা প্রাইভেট কারে করে বাইরে বের হচ্ছেন। তাদের কেউ হাসপাতালে যাচ্ছেন বা কাঁচাবাজারের উদ্দেশে বেরিয়েছেন। তবে সন্দেহ হলে চেকপোস্টে তাদের বাইরে বের হওয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

শান্তিনগর চেক পোস্টের পুলিশ সার্জেন্ট মো. ইউসুফ পাটোয়ারি বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, আজ এমনিতেই শুক্রবার। তাই ব্যাংক, বিমাসহ অন্যান্য সব অফিসই বন্ধ। বিশেষ করে এই এলাকা থেকে মতিঝিল, দিলকুশা ও এর আশপাশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরতরা বেশি চলাচল করে থাকে। আজ ছুটির দিন হওয়ায় তাদের উপস্থিতি কম। এদিকে পাশেই রাজারবাগ পুলিশ লাইন থাকায় পুলিশ সদস্যদের এ এলাকা দিয়ে চলাচলটা বেশি। তবে সকাল থেকে এ পর্যন্ত কাউকে আটক বা জরিমানা করা হয়নি।

রামপুরা চেকপোস্টের পুলিশ সার্জেন্ট মো. আরিফুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে জানালেন, অনেকেই জরুরি প্রয়োজনেই সড়কে চলাচল করছেন। বিশেষ করে মধ্যবিত্তরা বেশি অসহায় পড়েছেন। আবার অনেকেই অযৌক্তিক কারণেও বাইরে বেরোচ্ছেন, আমরা সন্দেহ হলেই জিজ্ঞাসাবাদ করছি। বাইরে বের হওয়ার উপযুক্ত কারণ দেখাতে না পারলে জরিমানা করছি। সকাল থেকে এ পর্যন্ত ১০ জনকে প্রায় ১৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

কী কী কারণে লোকজন বাইরে বের হচ্ছেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, যাদের জরিমানা করা হয়েছে একজন সিগন্যাল অমান্য করেছেন এবং কয়েকজনের গাড়ির কাগজ ঠিক ছিল না। আর কেউ কেউ টিকা নেওয়ার জন্য বের হচ্ছেন, কেউ আবার ছুটির দিনেও জরুরি পরিষেবার অফিস খোলা থাকায় বাইরে বেরিয়েছেন।

/বিআই/ইউএস/

সম্পর্কিত

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

লকডাউনে বন্ধ মার্কেট ও দোকানে চলছে ‘বিকল্প’ লেনদেন

লকডাউনে বন্ধ মার্কেট ও দোকানে চলছে ‘বিকল্প’ লেনদেন

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

ডিএনসিসিতে দেড় হাজার কর্মহীন পরিবহন শ্রমিকের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

ডিএনসিসিতে দেড় হাজার কর্মহীন পরিবহন শ্রমিকের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

দেশে পৌঁছেছে সিনোফার্মের ৩০ লাখ ডোজ টিকা

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৩:২৭

চীনের সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ করোনার টিকা দেশে পৌঁছেছে।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অধিদফতরের একটি সূত্র জানায়, এসব টিকার ১০ লাখ ডোজ স্বাস্থ্য অধিদফতরের কেন্দ্রীয় সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির (ইপিআই) কোল্ড স্টোরে সংরক্ষণ করা হয়েছে। আর ২০ লাখ ডোজ টিকা রাখা হয়েছে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের কোল্ড স্টোরেজে।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দিনগত রাতে পৃথক ফ্লাইটে চীন থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে টিকাগুলো এসে পৌঁছায়।

উল্লেখ্য, সিনোফার্মের দেড় কোটি ডোজ টিকা কিনতে চীনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সরকার। তিন মাসের মধ্যে এগুলো পর্যায়ক্রমে দেশে আসবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এর আগে চুক্তির আওতায় গত ৩ জুলাই দিনে এবং ওইদিন রাতে দুই দফায় ২০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা চীন থেকে দেশে পৌঁছায়। এরপর গত ১৭ জুলাই ১০ লাখ এবং ১৮ জুলাই আরও ১০ লাখ, মোট ২০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসে।

তারও আগে গত ১২ মে পাঁচ লাখ এবং ১৩ জুন ছয় লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে দেয় চীন সরকার।

সেই হিসেবে উপহার এবং কেনা চুক্তির আওতায় মোট ৫১ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে এসেছে। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দিনগত রাতে আসা ৩০ লাখ ডোজসহ এ পর্যন্ত মোট ৮১ লাখ সিনোফার্মের টিকা পেয়েছে বাংলাদেশ। 

আরও পড়ুন: সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

/জেএ/এমএস/

সম্পর্কিত

অন্তঃসত্ত্বা নারীদের অগ্রাধিকার-ভিত্তিতে টিকা দিতে আইনি নোটিশ

অন্তঃসত্ত্বা নারীদের অগ্রাধিকার-ভিত্তিতে টিকা দিতে আইনি নোটিশ

‘সবাইকে নিয়ে সেই বিপদেই পড়তে হলো’

‘সবাইকে নিয়ে সেই বিপদেই পড়তে হলো’

কোথায় গেলে একটা সিট পাবো?

কোথায় গেলে একটা সিট পাবো?

‘হতভম্ব’ জাতীয় কমিটি এবার ‘হতাশ’

‘হতভম্ব’ জাতীয় কমিটি এবার ‘হতাশ’

লকডাউনে বন্ধ মার্কেট ও দোকানে চলছে ‘বিকল্প’ লেনদেন

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৩:১৮

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে গত ২৩ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হয়। জরুরি সেবা ব্যতীত বন্ধ ঘোষণা করা হয় সকল শপিং মল ও দোকানপাট। আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত বিধিনিষেধ জারি করা থাকলেও এরইমধ্যে নানা কৌশলে যে যেভাবে পারছেন দোকান খোলা রাখা ও কেনাবেচা চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

রাজধানীতে মোবাইল বিক্রি ও সারাইয়ের অন্যতম বড় মার্কেট মোতালেব প্লাজা। চলমান লকডাউনে বন্ধ থাকলেও সকাল ১০টার পর থেকেই এই মার্কেটের সামনে দোকানের কর্মচারীদের আনাগোনা দেখা যায়। নতুন মোবাইল লাগবে? কিংবা ভেঙে গেছে মোবাইলের স্ক্রিন? ‑ মার্কেটের সামনে গেলে মিলবে সমাধান। কিংবা অনলাইনে কেনাবেচা চলছে? শাড়ি লাগবে কিংবা কাপড়ের থান? শপিং মলের ভেতর থেকে অথবা গোডাউন থেকে তাও পৌঁছে যাবে আপনার বাসায় ঠিকঠাক।

আবার আবাসিক এলাকা কিংবা পুরান ঢাকার সারি সারি দোকানে নেওয়া হয়েছে আরেক কৌশল। শংকর, মোহাম্মদপুর, মিরপুরের নানা এলাকা ঘুরে দেখা যায় দোকানের শাটার অর্ধেক খোলা থাকে। কোনওটা বা পুরো বন্ধ। কিন্তু দোকানের সামনে বা আশেপাশে রয়েছেন দোকানি। ক্রেতা দেখলে প্রয়োজন জেনে নিয়ে টুপ করে দোকানের ভেতর থেকে পাঠিয়ে দিচ্ছেন সদাই।

একদিকে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে নেওয়া হচ্ছে নানা উদ্যোগ, আরেকদিকে জীবিকার তাগিদে মানুষের এই চোর-পুলিশ খেলা। এতে করে সংক্রমণ আসলে কমবে না বলে শঙ্কা জনস্বাস্থ্যবিদদের। তারা বলছেন, যাদের জন্য এতো বিধিনিষেধ তারাই যদি বিষয়ের গুরুত্ব না বুঝতে চান তাহলে সবাই মিলেই বিপদে পড়তে হবে।

গত ২৪ ঘণ্টায় (স্বাস্থ্য অধিদফতরের ২৯ জুলাইয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী) করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৩৯ জন। তাদের নিয়ে করোনাতে সরকারি হিসাবে মোট মারা গেলেন ২০ হাজার ২৫৫ জন।

একই সময়ে করোনাতে শনাক্ত হয়েছেন ১৫ হাজার ২৭১ জন। দেশে সরকারি হিসেবে করোনাতে মোট শনাক্ত হলেন ১২ লাখ ২৬ হাজার ২৫৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২৩৯ জনের মধ্যে শনাক্ত হওয়া ১৫ হাজার ২৭১ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশী রোগীর মৃত্যু এবং সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন ঢাকা বিভাগে।

কথা হয় মোতালিব প্লাজার এক দোকানীর সঙ্গে। তিনি জানান, পরিচিতদের মধ্যে, অনলাইনে যারা যোগাযোগ করতে পারছেন তারা সেবা পাচ্ছেন। দিনের পর দিন দোকান বন্ধ রাখলে তাদের চাকরি থাকবে না বলে কর্মচারীরা রিস্ক নিয়ে মার্কেটের সামনে থাকেন।

মোহাম্মদপুরের এক ইলেক্ট্রিকের যন্ত্রপাতির দোকানের কর্মচারী বসে ছিলেন দোকানের সামনে। শুরুতে ক্রেতা ভেবে এগিয়ে এলেও সাংবাদিক শুনে আর কথা বলতে চাননি। পরে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমাদের শাটার লাগিয়ে সামনে থাকতে বলা হয়েছে। ফোনে অর্ডার করা হলে দোকানে ঢুকে মাল নিয়ে আবার শাটার ফেলে দেওয়া হয়। পুলিশ টহলে এলে আশেপাশের গলিতে অবস্থান নেন সকলে।

ঘোষণা অনুযায়ী বন্ধ থাকার কথা থাকলেও লুকিয়ে দোকান-শপিং মল খোলার চেষ্টা হওয়ার কথা অস্বীকার করছেন না খোদ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদুদ হাওলাদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী শপিং মলগুলো বন্ধ রয়েছে। তবে অনেক সময় আমরা শুনতে পাই শপিং মল খোলা রাখা হচ্ছে এবং পুলিশের তৎপরতা দেখলে বন্ধ করে তারা সরে যাচ্ছেন। মোতালেব প্লাজার বিষয়ে আপনি যে বিষয়টি আমাদেরকে অবহিত করেছেন সে বিষয়ে আমরা আরও খোঁজ-খবর নিচ্ছি। অনেক সময় আমরা দেখতে পাই‑ আমাদের উপস্থিতি টের পেয়ে অনেকে আমাদের সাথে চোর-পুলিশ খেলা শুরু করে।

/এমএস/

সম্পর্কিত

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

লকডাউন অমান্য করায় রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৬৮

লকডাউন অমান্য করায় রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৬৮

এখনও ভেঙে ভেঙে রাজধানীতে আসছে মানুষ

এখনও ভেঙে ভেঙে রাজধানীতে আসছে মানুষ

ঢাকায় গ্রেফতার বেড়েছে

ঢাকায় গ্রেফতার বেড়েছে

ঝরে পড়াদের শিক্ষায় ফিরিয়ে আনার আহ্বান বাউবি ভিসির

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১১:২৮

ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের শিক্ষায় ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাউবি) উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার। দেশের ১২টি আঞ্চলিক কেন্দ্রের আঞ্চলিক পরিচালকদের সঙ্গে ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় সংশ্লিষ্টদের তিনি এ আহ্বান জানান।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বুধবার (২৮ জুলাই) রাতে মতবিনিময় সভায় উপাচার্য আঞ্চলিক পরিচালকদের ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের শিক্ষায় ফেরানোর বিষয়ে উদ্যোগ নিতে বলেন।

মতবিনিময় সভায় বাউবি উপাচার্য বলেন, “জাতির পিতার  ‘সোনার বাংলা’ গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারকে দৃঢ় প্রত্যয় ও অঙ্গীকার নিতে হবে। এই লক্ষ্যে দক্ষ জনশক্তি সৃজনে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় সারাদেশে শিক্ষা সুবিধা বিস্তরণ করে চলেছে।”

মতবিনিময়কালে উপাচার্য মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নিষ্ঠা ও সততার সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘দেশের আর্থসামাজিক অবস্থার কথা বিবেচনা করে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, পিছিয়ে পড়া নারী ও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জনগণকে শিক্ষায় ফেরাতে হবে। পিছিয়ে পড়া অঞ্চলের চাহিদার সঙ্গে মিল রেখে বাউবিতে নীড বেজ এডুকেশন, গণশিক্ষা, কর্মমুখী শিক্ষা ও জীবনব্যাপী শিক্ষা চালু করতে হবে।’

মতবিনিময় সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. মহা. শফিকুল আলম বক্তব্য রাখেন।

/এসএমএ/এমএস/

সম্পর্কিত

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা নিতে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই পরিকল্পনা

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা নিতে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই পরিকল্পনা

এলএলএম-এ ভর্তির সুযোগ পাচ্ছেন না উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

এলএলএম-এ ভর্তির সুযোগ পাচ্ছেন না উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

সর্বশেষ

করোনার প্রতি লাশে ৩০০ টাকা করে নিয়েছেন হাসপাতাল কর্মকর্তা! 

ময়মনসিংহ মেডিক্যালকরোনার প্রতি লাশে ৩০০ টাকা করে নিয়েছেন হাসপাতাল কর্মকর্তা! 

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

দেশে পৌঁছেছে সিনোফার্মের ৩০ লাখ ডোজ টিকা

দেশে পৌঁছেছে সিনোফার্মের ৩০ লাখ ডোজ টিকা

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন ৪ সেপ্টেম্বর

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন ৪ সেপ্টেম্বর

লকডাউনে বন্ধ মার্কেট ও দোকানে চলছে ‘বিকল্প’ লেনদেন

লকডাউনে বন্ধ মার্কেট ও দোকানে চলছে ‘বিকল্প’ লেনদেন

গৃহবধূর সঙ্গে পুলিশ সদস্যের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ, বাড়ি ঘেরাও 

গৃহবধূর সঙ্গে পুলিশ সদস্যের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ, বাড়ি ঘেরাও 

গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই বন্ধুর

গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই বন্ধুর

সাঁতারে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম সোনা

টোকিও অলিম্পিকসাঁতারে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম সোনা

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

করোনায় অসহায় মানুষের পাশে মৌসুমী ও সুমি  (ভিডিও)

করোনায় অসহায় মানুষের পাশে মৌসুমী ও সুমি  (ভিডিও)

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

প্রতি শনিবার সকাল ১০টায় ১০ মিনিট সময় চাই: আতিকুল ইসলাম

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে মৃত্যু: চার পরিবার পেলো ১ কোটি টাকা

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে মৃত্যু: চার পরিবার পেলো ১ কোটি টাকা

ঢাকায় একদিনে রেকর্ড ডেঙ্গু রোগী

ঢাকায় একদিনে রেকর্ড ডেঙ্গু রোগী

প্রযুক্তি সহায়ক শিক্ষাব্যবস্থা প্রবর্তনের আহ্বান ইউজিসির

প্রযুক্তি সহায়ক শিক্ষাব্যবস্থা প্রবর্তনের আহ্বান ইউজিসির

অনুমোদন পেলো বুয়েট উদ্ভাবিত অক্সিজেট

অনুমোদন পেলো বুয়েট উদ্ভাবিত অক্সিজেট

‘সবাইকে নিয়ে সেই বিপদেই পড়তে হলো’

‘সবাইকে নিয়ে সেই বিপদেই পড়তে হলো’

ওমর ফারুকের ‘মানসিক সুস্থতা’ পরীক্ষা করবে বিএসএমএমইউ

ওমর ফারুকের ‘মানসিক সুস্থতা’ পরীক্ষা করবে বিএসএমএমইউ

মাস্ক সঙ্গে থাকলেই হবে?

মাস্ক সঙ্গে থাকলেই হবে?

© 2021 Bangla Tribune