X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

কালীগঞ্জে ৩শ’ কৃষকের বিকল্প পদ্ধতিতে ধান চাষ

আপডেট : ২৩ মার্চ ২০২০, ১৩:৩৬

ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় উৎপাদন খরচ কমাতে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের তিনশ’ চাষি বিকল্প পদ্ধতিতে ধান চাষাবাদ শুরু করেছেন। তারা স্থানীয় এনজিও সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় “পানি সাশ্রয়ী কার্যকরী কৃষি অনুশীলন প্রকল্প” এর আওতায় ধান রোপণ করা জমির এক কোনায় মিনি পুকুর খনন করছেন। সেই পুকুরে বৃষ্টির পানি ধরে রেখে সেখানে করছেন মাছ চাষ। পাশাপাশি পুকুরের পানি সেচ হিসেবে ব্যবহার করছেন।

এছাড়া পুকুরের চারপাশে রোপণ করছেন লাউ, বেগুন, পেঁপে, কচু, কলা, টমেটোসহ নানা প্রজাতির শাকসবজি। পুকুরের মাছ ও সবজি বিক্রি করে তারা আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছেন। পাশাপাশি জমিতে উৎপাদন হচ্ছে ধান। ধানের লোকসান পুষিয়ে উঠতে কালীগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর ও সুন্দরপুর-দুর্গাপুর ২টি ইউনিয়নের ২০টি গ্রামের ৩শ’ চাষি বিকল্প এ পদ্ধতিতে চলতি বোরো মৌসুমে চাষাবাদ শুরু করেছেন।

সুন্দরপুর গ্রামের কৃষক চান্দু বিশ্বাস জানান, ৪৬ শতকের এক বিঘা জমিতে চাষ দেওয়া বাবদ ৩৪শ’ টাকা, বীজ ও বীজতলা খরচ বাবদ ৮৫০, সেচ বাবদ ২ হাজার টাকা, সার, কিটনাশক, আগাছ পরিষ্কার, ধানকাটা, পরিবহন, ধানঝাড়া, শ্রমিক খরচ দিয়ে মোট খরচ হয় ২০ হাজার টাকা। অবশ্য আমনে সেচ খরচ কম অর্থাৎ ১ হাজার টাকা লাগে। এক বিঘা জমিতে ধান পাওয়া যায় ৩৩ মণ। যার বাজার মূল্য ৭০০ টাকা করে পাওয়া যায় ২৩ হাজার ১০০ টাকা। উৎপাদন খরচ বাদে ধান থেকে পাওয়া যায় প্রায় ৩ হাজার ১০০ টাকা। অনেক সময় এর কমবেশি হয়ে থাকে। তাহলে ধান চাষ করে কৃষকের আর কয় টাকাই থাকে? এমনটি জানান তিনি।
তাই তিনি সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় পানি সাশ্রয়ী কার্যকরী কৃষি অনুশীলন প্রকল্পের আওতায় জমির এক কোনায় ১ শতকের একটি মিনি পুকুর খনন করেছেন। ওই পুকুরে তিনি বৃষ্টির পানি ধরে রেখেছিলেন। সেই পানি দিয়ে জমিতে সেচ দিয়েছেন। তাতে তার সেচ খরচ ২ হাজার টাকা বেঁচে গেছে। এছাড়া ওই পুকুরে তিনি মাছ চাষ করেছেন। পুকুরের চারপাশে লাগিয়েছেন নানা প্রজাতির শাকসবজি। পরিবারের চাহিদা মিটিয়ে তিনি বাজারে ২ হাজার টাকার মতো শাকসবজি ও ৩ হাজার টাকার মতো মাছ বিক্রি করেছেন। এতে তার ৫ হাজার টাকা আয় হয়েছে। আবার সেচ খরচ বেঁচে গেছে ২ হাজার টাকা।

চান্দু বিশ্বাসের মত মহাদেবপুর গ্রামের নাছিম মন্ডল, বেজপাড়া গ্রামের সুফল ঘোষ, সুন্দরপুর গ্রামের বজলুর রহমান, আশাদুল ইসলাম, আব্দুস সাত্তারসহ দুই ইউনিয়নের ৩শ কৃষক এ পদ্ধতিতে ধান চাষ করেছেন।

সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের প্রকল্প সমন্বয়কারী তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘আমরা সুন্দরপুর-দুর্গাপুর ইউনিয়নের সুন্দরপুর, দুর্গাপুর, পূর্ব মহাদেবপুর, পশ্চিম মহাদেবপুর, আলাইপুর, কমলাপুর, ইছাপুর, পাইকপাড়া, ভাটপাড়া ও বেজপাড়া, এছাড়া নিয়ামতপুর ইউনিয়নের কুড়–লিয়া, বারোপাখিয়া, নরেন্দ্রপুর, নিয়ামতপুর, মহিষাডেরা, দাপনা, মোস্তবাপুর, মহেশ্বরচাঁন্দা, হরিগোবিন্দপুর ও আড়–য়াশলুয়া গ্রামে তাদের এই প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ করছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘২টি ইউনিয়নের ২০টি গ্রামের ৩শ’ জন চাষিকে ভূগর্ভস্থ পানির উত্তোলন কমিয়ে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা, বোরোর পরিবর্তে রবি শস্য লাগাতে উদ্বুদ্ধ করা এবং ভেজা-শুকনা পদ্ধতিতে চাষিদের আগ্রহী করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে।’

সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শিবুপদ বিশ্বাস বলেন, ‘জাপান ফান্ড ফর গ্লোবাল এনভায়রমেন্টের (জেএফজিই) আর্থিক সহযোগিতায় ২০১৯ সাল থেকে শেয়ার দ্য প্ল্যানেট অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায় কালীগঞ্জের ২০ গ্রামে পানি সাশ্রয়ী কার্যকরী কৃষি অনুশীলন প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হয়ে আসছে। তারা নিয়ামতপুর ও সুন্দরপুর-দুর্গাপুর ২টি ইউনিয়নের ১০০ জন চাষিকে ১০০টি পুকুর কেটে দিয়েছেন। ১০ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রতিটি পুকুর খনন করা হয়েছে। পুকুরে পানি কীভাবে সংরক্ষণ করতে হবে, কীভাবে ক্ষেতে দিতে হবে, পুকুর পাড়ে কিভাবে সবজী উৎপাদন করতে হবে এসব বিষয়ে তাদের ওরিয়েন্টেশন দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বীজ সংরক্ষণের জন্য তাদের ড্রাম প্রদান ও প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। কৃষকদের লাভজনক সফল উৎপাদনে বোরোর পরিবর্তে রবি শস্য চাষে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।’

কালীগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ জাহিদুল করিম বলেন, ‘সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় যেভাবে পুকুর খনন করা হচ্ছে তাতে কৃষকরা লাভবান হচ্ছেন। এছাড়া ভুগর্ভস্থ পানির চাপও কম হবে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা হবে। বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে তারা সেচ হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। পুকুরে মাছ চাষ ও পুকুর পাড়ে শাক-সবজি উৎপাদন করতে পারবেন। এটা একটা ভালো দিক।’ তবে ওই পানি দিয়ে শতভাগ সেচ দেওয়া সম্ভব হবে না বলে তিনি মনে করেন। শুস্ক মৌসুমে কিছুটা সেচ অন্য ভাবে দিতে হবে। কৃষি বিভাগও বিভিন্ন সভা সেমিনারে কৃষকদের এভাবে চাষাবাদে উদ্বুদ্ধ করছেন বলেও তিনি জানান।

/এআর/

সম্পর্কিত

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের প্রয়োজন আছে: ইনু

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের প্রয়োজন আছে: ইনু

বিয়ে দিতে বাবার অসম্মতির কারণে ছেলের আত্মহত্যার অভিযোগ

বিয়ে দিতে বাবার অসম্মতির কারণে ছেলের আত্মহত্যার অভিযোগ

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া উপহার দিলো ভারত

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া উপহার দিলো ভারত

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

সিলেটে জ্বালানি তেলের সংকট, আন্দোলনের হুঁশিয়ারি 

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৪২

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সিলেটে জ্বালানি তেলের সংকট নিরসন না হলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার চণ্ডীপুলে একটি কনভেনশন হলে সভা করে এই হুঁশিয়ারি দেন বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম ডিলারস ডিস্ট্রিবিউটরস এজেন্ট অ্যান্ড পেট্রোলিয়াম ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সিলেট বিভাগীয় শাখার নেতারা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমদ চৌধুরী।

তিনি বলেন, সিলেটে জ্বালানি তেল সংকট প্রকট আকার ধারণ করছে। তেল সংকটের কারণে দিনে দিনে স্থবির হয়ে পড়ছে এর সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন খাতের মানুষের জীবনযাত্রা। সংকটের জন্য সংশ্লিষ্টরা রেলের ওয়াগন সংকটকে দায়ী করছেন। এ ছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে জ্বালানি তেল উৎপাদন বন্ধ থাকার কারণে সংকট আরও তীব্র আকার ধারণ করেছে বলেও জানান তিনি।

জুবায়ের আহমদ চৌধুরী বলেন, সিলেটে প্রতিদিন প্রায় ১০ লাখ লিটার জ্বালানি তেলের চাহিদা রয়েছে। এর মধ্যে বর্তমানে সরবরাহ আছে এক থেকে সোয়া এক লাখ লিটারের মতো। বর্তমানে যে তেল সরবরাহ হচ্ছে তা সিলেটের চারটি ডিপোর মধ্যে ভাগ করে নিতে হয়। এ জন্য কোনও কোম্পানি তাদের গ্রাহকের চাহিদা পূরণ করতে পারে না।

সংগঠনের সভাপতি মো. মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন খান মো. ফরিদ উদ্দিন, নুরুল ওয়াছেহ আলতাফী, হুমায়ুন আহমেদ, সায়েম আহমেদ, জুবের আহমেদ চৌধুরী, রিয়াশাদ আজিম হক, সিরাজুল হোসেন আহমদ, সাহেদ আহমদ চৌধুরী, এনামুল হক রুবেল ও রিয়াদ উদ্দিন।

/এএম/ 

সম্পর্কিত

ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় কুষ্টিয়ায় গ্রেফতার সিলেটের সাদি  

ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় কুষ্টিয়ায় গ্রেফতার সিলেটের সাদি  

দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেলো চালকদের 

দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেলো চালকদের 

‘জুড়ীতে সাফারি পার্ক হলে পাহাড়-জীববৈচিত্র্য রক্ষা পাবে’

‘জুড়ীতে সাফারি পার্ক হলে পাহাড়-জীববৈচিত্র্য রক্ষা পাবে’

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালু

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালু

ব্যবসায়ীর গুদামে গরিবের ১০ হাজার ৭০০ কেজি চাল

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৪০

বগুড়ার আদমদীঘির নশরতপুর বাজারে আল মামুন (৪৫) নামে এক চাল ব্যবসায়ীর গুদাম থেকে দরিদ্রদের জন্য খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ হাজার ৭০০ কেজি (১০.৭০ মেট্রিক টন) চাল জব্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) রাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শ্রাবণী রায় অভিযান চালিয়ে এই চাল জব্দ করেন। এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। বুধবার সন্ধ্যায় আদমদীঘি থানার ওসি জালাল উদ্দিন এ তথ্য জানান।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আদমদীঘি উপজেলার পূর্ব ডালম্বা গ্রামের একরাম আলীর ছেলে আল মামুন চাল ব্যবসায়ী। তিনি উপজেলার নশতরপুর বাজারে ইসমাইল হোসেনের চালকলের গুদাম ভাড়া নিয়ে সেখানে সরকারি কর্মসূচির এবং বেসরকারি চাল কেনাবেচা করেন। তিনি সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি দরের বিপুল পরিমাণ চাল কিনে ওই গুদামে রেখে রিপ্যাকিং করছিলেন। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে গোপনে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শ্রাবণী রায় গুদামে অভিযান চালান। আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে গুদাম মালিক আল মামুন ও তার লোকজন পালিয়ে যান। সেখানে খাদ্য অধিদফতরের ছাপানো ২১৪ চটের বস্তায় থাকা ১০ হাজার ৭০০ কেজি চাল ঢেলে প্লাস্টিকের বস্তায় তোলা হচ্ছিল। রাতেই চালগুলো জব্দ করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শ্রাবণী রায় জানান, অবৈধভাবে সরকারি চাল মজুতকারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

খাদ্য নিয়ন্ত্রক কেএম গোলাম রব্বানী জানান, জব্দ করা চালগুলো পুলিশের হেফাজতে দেওয়া হয়েছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে তিনি বাদী হয়ে থানায় মামলা করবেন।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

আর্থিক ক্ষমতা পেলেন দুপচাঁচিয়ার ভারপ্রাপ্ত মেয়র

আর্থিক ক্ষমতা পেলেন দুপচাঁচিয়ার ভারপ্রাপ্ত মেয়র

৩১৯০ কেজি সরকারি চালসহ ট্রাকচালক গ্রেফতার

৩১৯০ কেজি সরকারি চালসহ ট্রাকচালক গ্রেফতার

আর্থিক ক্ষমতা পেলেন দুপচাঁচিয়ার ভারপ্রাপ্ত মেয়র

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৫

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র ইদ্রিস আলীকে আর্থিক ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। বুধবার (২৭ অক্টোবর) স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ পৌর-১ শাখার উপ-সচিব মোহাম্মদ ফারুক হোসেন স্বাক্ষরিত পত্রে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

এতে পৌরসভার অর্থ সংক্রান্ত অচলাবস্থার অবসান হওয়ায় পৌরবাসীদের মাঝে স্বস্তি দেখা দিয়েছে। ভারপ্রাপ্ত মেয়র (প্যানেল মেয়র-১ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর) এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, আর্থিক দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ায় দুপচাঁচিয়া পৌরসভার বিএনপি সমর্থিত মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে গত বছরের ২৭ অক্টোবর সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। এরপর ১ নম্বর প্যানেল মেয়র ইদ্রিস আলীকে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব দেওয়া হয়। কিন্তু আর্থিক লেনদের ক্ষমতা না থাকায় তিনি গত এক বছরে কোনও কাজ
করতে পারছিলেন না। কিছু দিন আগে আর্থিক ক্ষমতা চেয়ে মন্ত্রণালয়ে আবেদন করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার এক চিঠিতে তাকে আর্থিক ক্ষমতা দেয় স্থানীয় সরকার বিভাগ।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, দুপচাঁচিয়া পৌরসভার মেয়র জাহাঙ্গীর আলম সাময়িক বরখাস্ত হওয়ায় স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ এর ধারা ৪০ উপধারা (৩) অনুযায়ী মেয়র কার্যভার গ্রহণ না করা পর্যন্ত প্যানেল মেয়র-১ ইদ্রিস আলীকে প্রশাসনিক ও দাফতরিক কাজের সুবিধার্থে আর্থিক ক্ষমতা দেওয়া হলো।

/এফআর/

সম্পর্কিত

ব্যবসায়ীর গুদামে গরিবের ১০ হাজার ৭০০ কেজি চাল

ব্যবসায়ীর গুদামে গরিবের ১০ হাজার ৭০০ কেজি চাল

৩১৯০ কেজি সরকারি চালসহ ট্রাকচালক গ্রেফতার

৩১৯০ কেজি সরকারি চালসহ ট্রাকচালক গ্রেফতার

তেলের ড্রাম তুলতে নেমে স্রোতে ভেসে গেলেন শ্রমিক

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:১৪

লক্ষ্মীপুরে নির্মাণাধীন ব্রিজের এক শ্রমিক খালের পানিতে নেমে নিখোঁজ রয়েছেন। ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সাত ঘণ্টা অভিযান চালিয়েও তাকে উদ্ধার করতে পারেনি।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) ভোরে তিনি সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন ওয়াপদা খালে পড়ে যান। এর পরই ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল তাকে উদ্ধারের অভিযান শুরু করে। নিখোঁজ শ্রমিকের নাম মো. বাবুল (৫৫)। তার বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায় বলে জানা গেছে। তিনি দিঘলীর ওয়াপদা খালের ওপর নির্মিত একটি ব্রিজের পাইলিং গ্রুপের শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন।

জানা গেছে, সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কাজ শুরু করার সময় খালের পানিতে একটি তেলের ড্রাম পড়ে গেলে সেটি উদ্ধার করতে ঝাঁপ দেন বাবুল। পানির তীব্র স্রোত থাকায় তিনি আর উঠতে পারেনি। এক পর্যায়ে স্রোতে তলিয়ে যান। তার সঙ্গে আরেকজন শ্রমিক তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতায় ওই ব্রিজ নির্মাণ করছে মেসার্স মোজাহার এন্টারপ্রাইজ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এর সুপারভাইজার জিল্লুর রহিম বলেন, ‘ওই শ্রমিক পাইলিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন।
সাইট ঠিকাদারের হয়ে কাজ করতেন তিনি।’

ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার অভিযান দলের প্রধান রঞ্জিত কুমার সাহা বলেন, ‘সকাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে। অভিযান অব্যাহত আছে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

ফ্লাইওভারের র‍্যাম্পের পিলারে ফাটল পায়নি বিশেষজ্ঞ দল

ফ্লাইওভারের র‍্যাম্পের পিলারে ফাটল পায়নি বিশেষজ্ঞ দল

নোয়াখালীতে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ৮ আসামির রিমান্ড

নোয়াখালীতে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ৮ আসামির রিমান্ড

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলা: ৩ মামলা সিআইডিতে, গ্রেফতার আরও ৩ 

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলা: ৩ মামলা সিআইডিতে, গ্রেফতার আরও ৩ 

মিতু হত্যা: বাবুলের নারাজি আবেদনের পরবর্তী শুনানি ৩ নভেম্বর

মিতু হত্যা: বাবুলের নারাজি আবেদনের পরবর্তী শুনানি ৩ নভেম্বর

৩১৯০ কেজি সরকারি চালসহ ট্রাকচালক গ্রেফতার

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৪

বগুড়ার ধুনটে পাচারের সময় ট্রাকভর্তি সরকারি তিন হাজার ১৯০ কেজি ভিজিডি, খাদ্যবান্ধব ও পুষ্টি কর্মসূচির চাল জব্দ করা হয়েছে। বুধবার সকালে ৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে পুলিশ উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের কাছ থেকে ৬৫ বস্তা চালসহ ট্রাকচালক শাহ্ আলমকে (৩৮) গ্রেফতার করেছে। এ ব্যাপারে এসআই আসাদুজ্জামান থানায় তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

অপর দুই আসামি হলেন– কালেরপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারেজ উদ্দিন আকন্দের ভাই ঈশ্বরঘাট গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে ডিলার আমিনুল ইসলাম ঠান্ডু এবং এলাঙ্গী গ্রামের শামসুল প্রামাণিকের ছেলে মিঠু প্রামাণিক।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার সকালে ধুনট উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের কাছে রোহান এন্টারপ্রাইজের একটি ট্রাকে (ঢাকা মেট্টো-ন-১৭-৫৫১০) ৬৫ বস্তায় থাকা ওই চাল বোঝাই করা হয়। এর মধ্যে ৫০ কেজি ওজনের ৬২ বস্তা এবং ৩০ কেজির তিন বস্তা ছিল। এ সময় সরকারি চাল পাচারের ঘটনা টের পেয়ে স্থানীয় এক যুবক জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেন। খবর পেয়ে ধুনট থানা পুলিশ ট্রাকভর্তি চাল জব্দ করে। এ সময় চাল পাচারকারী ডিলার ঠান্ডু ও মিঠু পালিয়ে গেলে ট্রাকচালক সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার পারুলকান্দি গ্রামের বিশা প্রামাণিকের ছেলে শাহ আলমকে গ্রেফতার করা হয়। চালগুলো কালেরপাড়া ইউনিয়নের কান্তনগর বাজারে দুস্থদের মাঝে বিতরণের কথা ছিল।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, ‘কালেরপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারেজের ভাই ডিলার ঠান্ডু এবং তার সহযোগী মিঠু সরকারি ভিজিডি, খাদ্যবান্ধব ও পুষ্টি কর্মসূচির চাল পাচারে জড়িত। এসআই আসাদুজ্জামান থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে ওই দুজন ও চালকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। বিকালে চালক শাহ আলমকে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। মূল হোতা মিঠু ও ঠান্ডুকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

আর্থিক ক্ষমতা পেলেন দুপচাঁচিয়ার ভারপ্রাপ্ত মেয়র

আর্থিক ক্ষমতা পেলেন দুপচাঁচিয়ার ভারপ্রাপ্ত মেয়র

ঘটনার বর্ণনা দিলেন চুল কেটে দেওয়া ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী

ঘটনার বর্ণনা দিলেন চুল কেটে দেওয়া ভুক্তভোগী ১৪ শিক্ষার্থী

চলন্ত ট্রাক থেকে মাল চুরির চেষ্টা, প্রাণ গেলো যুবকের

চলন্ত ট্রাক থেকে মাল চুরির চেষ্টা, প্রাণ গেলো যুবকের

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের প্রয়োজন আছে: ইনু

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের প্রয়োজন আছে: ইনু

বিয়ে দিতে বাবার অসম্মতির কারণে ছেলের আত্মহত্যার অভিযোগ

বিয়ে দিতে বাবার অসম্মতির কারণে ছেলের আত্মহত্যার অভিযোগ

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া উপহার দিলো ভারত

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া উপহার দিলো ভারত

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

পাবজি খেলতে ডেকে ৫ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় কুষ্টিয়ায় গ্রেফতার সিলেটের সাদি  

ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় কুষ্টিয়ায় গ্রেফতার সিলেটের সাদি  

ফেরিডুবির ঘটনা তদন্তে ৪ সদস্যের কমিটি

ফেরিডুবির ঘটনা তদন্তে ৪ সদস্যের কমিটি

৪০০ টনের ফেরি উদ্ধারে কাজ করছে ৬০ টন সক্ষমতার হামজা

৪০০ টনের ফেরি উদ্ধারে কাজ করছে ৬০ টন সক্ষমতার হামজা

বাবা-মা-মেয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আসামি অজ্ঞাত

বাবা-মা-মেয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আসামি অজ্ঞাত

করোনায় আক্রান্ত শের-ই বাংলা মেডিক্যালের ৪২৬ নার্স, প্রণোদনা পাননি একজনও

করোনায় আক্রান্ত শের-ই বাংলা মেডিক্যালের ৪২৬ নার্স, প্রণোদনা পাননি একজনও

খিচুড়ি খেয়ে হাসপাতালে একই পরিবারের ৮ সদস্য 

খিচুড়ি খেয়ে হাসপাতালে একই পরিবারের ৮ সদস্য 

সর্বশেষ

সিলেটে জ্বালানি তেলের সংকট, আন্দোলনের হুঁশিয়ারি 

সিলেটে জ্বালানি তেলের সংকট, আন্দোলনের হুঁশিয়ারি 

ব্যবসায়ীর গুদামে গরিবের ১০ হাজার ৭০০ কেজি চাল

ব্যবসায়ীর গুদামে গরিবের ১০ হাজার ৭০০ কেজি চাল

‘ফেসবুক প্রটেক্ট’ কেন প্রয়োজন?

‘ফেসবুক প্রটেক্ট’ কেন প্রয়োজন?

প্রাইম ব্যাংককে যুক্তরাজ্যের সিডিসি গ্রুপের ৩০ মিলিয়ন ডলার ট্রেড লোন প্রদান

প্রাইম ব্যাংককে যুক্তরাজ্যের সিডিসি গ্রুপের ৩০ মিলিয়ন ডলার ট্রেড লোন প্রদান

আর্থিক ক্ষমতা পেলেন দুপচাঁচিয়ার ভারপ্রাপ্ত মেয়র

আর্থিক ক্ষমতা পেলেন দুপচাঁচিয়ার ভারপ্রাপ্ত মেয়র

© 2021 Bangla Tribune