X
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

গ্রাম পুলিশের বাড়িতে ১০৬৫ কেজি সরকারি চাল!

আপডেট : ২৫ মে ২০২০, ০৬:০৯




গ্রাম পুলিশ সদস্যের বাড়ি থেকে ১০৬৫ কেজি চাল উদ্ধার কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার বজরা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের পাশে এক গ্রাম পুলিশের বাড়ি থেকে সরকারি ত্রাণের জন্য বরাদ্দ এক হাজার ৬৫ কেজি চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। রবিবার (২৪ মে) রাতে উপজেলা প্রশাসন ও উলিপুর থানা পুলিশ চাল জব্দ করে থানায় নেয়। উলিপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল কাদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, ওই ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা ট্যাগ কর্মকর্তা, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান এবং উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা সৈফুর রহমান মিয়ার নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে বজরা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের পাশে চাঁদনি বজরা গ্রামের গ্রাম পুলিশ সদস্য বিপুল মিয়ার বাড়ি থেকে এক হাজার ৬৫ কেজি চাল উদ্ধার করা হয়। অভিযানের খবর টের পেয়ে গ্রাম পুলিশ সদস্য বিপুল মিয়া পালিয়ে যায়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ জনগণের জন্য বরাদ্দ ত্রাণের চাল বজরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের যোগসাজসে লুট করা হয়েছে।

তবে বজরা ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম আমিন অভিযোগ নাকচ করে বলেন, ‘ভিজিডি সুবিধাভোগীদের অনেকে সরকারি চাল নিয়ে তা বিক্রি করেন। ওই গ্রাম পুলিশ ইউনিয়নের অনেকের কাছ থেকে চাল কিনে নেন বলে জানি। সম্ভবত সেই চাল তার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে। এখানে আমার কোনও সম্পৃক্ততা নেই।’

ইউনিয়ন পরিষদের চাল বিতরণে কোনও অনিয়ম নেই বলে দাবি করেন চেয়ারম্যান।

অভিযানে থাকা ট্যাগ কর্মকর্তা, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান জানান, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সরকারি ত্রাণ সহায়তার জন্য বরাদ্দ ১২টন জিআরের চাল হতে এক হাজার ৬৫ কেজি চাল গ্রাম পুলিশ বিপুল মিয়ার বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় মামলা করা হয়েছে। চাল আত্মসাতের সঙ্গে কারা কারা জড়িত তা তদন্তে বেরিয়ে আসবে।

উলিপুর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ইউএনও আব্দুল কাদের বলেন, ‘ এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ট্যাগ কর্মকর্তা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এ ঘটনায় যেই জড়িত থাক তদন্তে তা বেরিয়ে আসবে।’

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

দিনাজপুরে আরও ৬ জনের মৃত্যু

দিনাজপুরে আরও ৬ জনের মৃত্যু

নীলফামারীতে প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট

নীলফামারীতে প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট

বৃষ্টির আশায় ধুমধাম করে ব্যাঙের বিয়ে!

বৃষ্টির আশায় ধুমধাম করে ব্যাঙের বিয়ে!

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০১:৩২

করোনাভাইরাস রোধে সরকার আরোপিত কঠোর লকডাউনের মধ্যে যেকোনও জনসমাগম নিষিদ্ধ থাকলেও নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভা হলরুমে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের দুই শতাধিক নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে চা-চক্রের আয়োজন করেছেন পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে সোমবার (২৬ জুলাই) বিকালে প্রায় দুই শতাধিক নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে এ চা-চক্রের আয়োজন করা হয়।

কাদের মির্জার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে চা-চক্র অনুষ্ঠানের চারটি ছবি আপলোড করলে, স্থানীয় সচেতন মহল ক্ষোভ প্রকাশ করেন। স্থানীয়রা বলছেন, তার এ ধরনের কর্মকাণ্ড সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। একজন জনপ্রতিনিধির এমন কর্মকাণ্ডে এ ধরনের কাজে অনেকেই উৎসাহিত হবেন।

অনুষ্ঠানে নেতাকর্মীদের সমাগম

জানা গেছে, চিকিৎসার জন্য বুধবার (২৮ জুলাই) ভোর ৪টায় আমেরিকার উদ্দেশে উড়াল দেবেন বসুরহাটের পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বেলা ১১টায় কোম্পানীগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবেন। এ জন্য অনুসারীদের নিয়ে তিনি এ চা-চক্রের আয়োজন করেন।

লকডাউনে এমন অনুষ্ঠান আয়োজনের বিষয়ে জানতে কাদের মির্জার মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি। তবে চা-চক্র অনুষ্ঠানের পর নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে চারটি ছবি আপলোড করে কাদের মির্জা লেখেন, আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দর সঙ্গে চা-চক্রে দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা হয়। কোম্পানীগঞ্জে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে ধৈর্য নিয়ে কাজ করার নির্দেশনা দিই। আসুন, সবাই শান্তশিষ্ট কোম্পানীগঞ্জ প্রতিষ্ঠায় যে যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করি।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান বলেন, করোনা সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন ভঙ্গ করে এ ধরনের চা-চক্র করার কোনও সুযোগ নেই।

/এফআর/

সম্পর্কিত

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০১:২৭

করোনা মহামারির মধ্যে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে গত তিন মাসে ছয় হাজার ৫৬৮ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। এর মধ্যে করোনা রোগীও রয়েছেন। একই সময়ে ভারতীয় ও বাংলাদেশি মিলে ভারত গেছেন প্রায় দুই হাজার ১২০ জন।

সোমবার (২৬ জুলাই) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মুজিবুর রহমান। তিনি বলেন, ভারতে যাওয়া যাবে সপ্তাহে সাত দিন ফেরা যাবে তিন দিন।

মুজিবুর রহমান বলেন, কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন থেকে অনাপত্তিপত্র নিয়ে গত ২৬ এপ্রিল থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত অর্থ্যাৎ তিন মাসে ছয় হাজার ৫৬৮ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। এদের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত রয়েছেন ১৭ জন। অন্যদিকে বাংলাদেশ থেকে দুই হাজার ১২০ জন ভারতীয় ও বাংলাদেশি ভারতে গেছেন। তাদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ইউসুফ আলী বলেন, ভারতফেরত যাত্রীরা নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকছেন। এসব পাসপোর্ট যাত্রীকে বেনাপোলের ১৪টি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে। এছাড়া ঝিকরগাছার গাজিরদরগা, সাতক্ষীরা, নড়াইল, খুলনা, মাগুরা ও ঝিনাইদহে কয়েকটি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন রয়েছে। যাত্রীর পরিমাণ বাড়লে সেখানেও রাখা হয়।

তিনি বলেন, ভারতফেরত নারীদের নিরাপত্তায় পৃথক কোয়ারেন্টিন সেন্টার করা হয়েছে যশোর শহরের রেল রোডের জয়তী সোসাইটিতে। কোয়ারেন্টিনে নারী পুলিশ সদস্যের সঙ্গে সেখানকার নারী স্বাস্থ্যকর্মীরা দায়িত্বপালন করছেন। করোনা পজিটিভ ও গুরুতর অসুস্থদের যশোর জেনারেল হাসপাতাল ও বক্ষব্যাধিসহ অন্য হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

যেসব যাত্রী করোনায় আক্রান্ত কিংবা উপসর্গ নিয়ে দেশে ফিরছেন তাদের যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে পাঠানো হচ্ছে বলেও জানান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ইউসুফ আলী।

/এএম/

সম্পর্কিত

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

সিলেটে রেকর্ড মৃত্যু 

সিলেটে রেকর্ড মৃত্যু 

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০০:২২

করোনাভাইরাস রোধে সরকার আরোপিত কঠোর লকডাউন অমান্য করায় চতুর্থ দিনে ময়মনসিংহ জেলা, উপজেলা প্রশাসন ও সিটি করপোরেশনের ভ্রাম্যমাণ আদালত ৩৪০ মামলায় দুই লাখ ৩৯ হাজার ৭৩০ টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।

সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সময়ে এসব জরিমানা আদায় করা হয়।

এ তথ্য নিশ্চিত করে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা হক জানান, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ১৪৮ মামলায় ৭২ হাজার টাকা, উপজেলা প্রশাসন ১৭৬ মামলায় এক লাখ ৬২ হাজার ৩৮০ টাকা এবং ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন ১৬ মামলায় পাঁচ হাজার ৩৫০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

তিনি আরও জানান, কঠোর লকডাউন শুরুর পর থেকে চার দিনে এক হাজার ৪৮৪ মামলার বিপরীতে আট লাখ ৬৩ হাজার ৪৭৫ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সরকারি বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে এ ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত থাকার কথাও জানান তিনি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে এসে জরিমানা গুনলো স্কুলছাত্র

স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে এসে জরিমানা গুনলো স্কুলছাত্র

ময়মনসিংহ মেডিক্যালের কোভিড ওয়ার্ডে চিকিৎসক সংকট

ময়মনসিংহ মেডিক্যালের কোভিড ওয়ার্ডে চিকিৎসক সংকট

পথচারীর প্রাণ বাঁচাতে গিয়ে খাদে ইউএনওর গাড়ি

পথচারীর প্রাণ বাঁচাতে গিয়ে খাদে ইউএনওর গাড়ি

মেয়াদোত্তীর্ণ ও সৌজন্য ওষুধ বিক্রি, ৫ ফার্মেসিকে জরিমানা

মেয়াদোত্তীর্ণ ও সৌজন্য ওষুধ বিক্রি, ৫ ফার্মেসিকে জরিমানা

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৪৫

পাহাড় থেকে কক্সবাজারের টেকনাফের প্রধান সড়কে একটি বন্যহাতি নেমে এসেছে। ধারণা করা হচ্ছে, খাবারের খোঁজে হাতিটি পাহাড় থেকে নেমে এসেছে। সোমবার (২৬ জুলাই) রাত ১১টায় টেকনাফ পৌরসভার নাইট্যাং পাড়ায় বন বিভাগের পাশে প্রধান সড়কে অবস্থান করছে হাতিটি। এ সময় হাতিটি সড়কের পাশের কয়েকটি গাছ ভেঙে ফেলায় কক্সবাজার-টেকনাফ প্রধান সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এ বিষয়ে দক্ষিণ বন বিভাগ টেকনাফের রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ বলেন, ‘প্রচণ্ড বৃষ্টিতে রাতে প্রধান সড়কে একটি পাহাড়ি হাতি নেমে আসার খবর পেয়েছি। ঘটনাস্থলে পৌঁছে আমাদের লোকজন হাতিটিকে পাহাড়ের ভেতরে ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে।’

টেকনাফ সদর সিবিজি সভাপতি মাহমদুল্লাহ বলেন, ‘সোমবার রাতে প্রচণ্ড বৃষ্টিতে পাহাড় থেকে প্রধান সড়কে একটি বন্যহাতি নেমে এসে গাছপালা ভেঙে ফেলছে। এতে রাস্তার দু’পাশে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছি। হাতিটিকে পাহাড়ে ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছি।’

স্থানীয় বাসিন্দা মো. আরাফাত বলেন, ‘পাহাড়ি একটি বন্যহাতি প্রধান সড়কে নেমে এদিক-ওদিক ছুটছে। এতে এখানকার বাসিন্দারা ভয়ের মধ্য রয়েছেন।’ 

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ পারভেজ চৌধুরী বলেন, ‘পাহাড়ি হাতিটি সড়কে নেমে আসার খবর পেয়ে বন বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। যাতে এটি নাফ নদের সীমান্তে না যাওয়ার আগে পাহাড়ের ভেতরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।’

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুন টেকনাফ সীমান্তে নাফ নদে দুটি হাতির দেখা মেলে। সেদিন সন্ধ্যায় পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর টেকনাফ জালিয়াপাড়া প্যারাবন থেকে হাতি দুটিকে বনাঞ্চলে ঢুকিয়ে দেন দক্ষিণ বন বিভাগ টেকনাফ ও এলিফ্যান্ট রেসপন্স টিমের সদস্যরা। তবে রবিবার সকালে আবার নাফ নদে নেমে আসে হাতি দুটি। পরের দিন শাহপরীর দ্বীপ এলাকার সমুদ্র সৈকত থেকে ট্রলারের সহতায় হাতি দুটিকে উদ্ধার করে টেকনাফে পাহাড়ে দিকে নিয়ে আসার সময় আবার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। যদিও দক্ষিণ বন বিভাগ টেকনাফ কর্মকর্তারা দাবি করে আসছিলেন, হাতি দুটিকে তারা পাহাড়ে ঢুকিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছেন।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৪০

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা চিকিৎসার জন্য আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে কোম্পানীগঞ্জে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠায়’ সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন। সোমবার (২৬ জুলাই) বিকালে পৌরসভা মিলনায়তনে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে চা-চক্রে তিনি এ নির্দেশনা দেন।

এরপর সন্ধ্যা ৬টায় তার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন-

আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দর সঙ্গে চা-চক্রে দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা হয়। কোম্পানীগঞ্জে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে ধৈর্য নিয়ে কাজ করার নির্দেশনা দিই। আসুন, সবাই শান্তশিষ্ট কোম্পানীগঞ্জ প্রতিষ্ঠায় যে যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করি।

আবদুল কাদের মির্জার চা-চক্রে উপস্থিত নেতাকর্মীরা

আমার অনেক আগে আমেরিকা যাওয়ার কথা ছিল। নানা কারণে যেতে পারিনি। আগামীকাল মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) আমেরিকার উদ্দেশে কোম্পানীগঞ্জ ত্যাগ করব। সেখানে চিকিৎসা নিতে আমার প্রায় ১০ দিন সময় লাগতে পারে। এ সময় আপনারা সবাই শান্ত থাকবেন। কোনও অনুষ্ঠান করতে হলে সংগঠনের ঊর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করে করবেন। আমি চাই, শান্তির জনপদ কোম্পানীগঞ্জে শান্তি ফিরে আসুক।

চা-চক্রে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইস্কাদার হায়দার চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মো. ইউনুছ, সহ-সভাপতি হাসান ইমাম বাদল, জামাল উদ্দিন, আইনবিষয়ক সম্পাদক শঙ্কর ভৌমিক, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি আজিজুল হক এবং কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সর্বশেষ

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

শেষ মুহূর্তে হাসপাতালে আসায় মৃত্যু বাড়ছে

শেষ মুহূর্তে হাসপাতালে আসায় মৃত্যু বাড়ছে

টিকা দিতে কারিগরি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

টিকা দিতে কারিগরি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দিনাজপুরে আরও ৬ জনের মৃত্যু

দিনাজপুরে আরও ৬ জনের মৃত্যু

নীলফামারীতে প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট

নীলফামারীতে প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট

বৃষ্টির আশায় ধুমধাম করে ব্যাঙের বিয়ে!

বৃষ্টির আশায় ধুমধাম করে ব্যাঙের বিয়ে!

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

‘রোহিঙ্গা’ সম্বোধনে পিটিয়ে হত্যা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ

‘রোহিঙ্গা’ সম্বোধনে পিটিয়ে হত্যা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

লকডাউনেও জমজমাট পশুর হাট

লকডাউনেও জমজমাট পশুর হাট

© 2021 Bangla Tribune