X
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ছুটি শেষে স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী চলবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

আপডেট : ২৬ মে ২০২০, ২০:৪৩

মাউশি করোনাভাইরাসে কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে ছুটির পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আবার চালু হলে আগের মতো পরিচালিত হবে না। এক্ষেত্রে শিক্ষার পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাবে শিক্ষার্থীর স্বাস্থ্য সচেতনতা। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা কার্যক্রম চললেও অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম গুরুত্ব পাবে বেশি।  মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ক্লাসে আগে যেমন একসঙ্গে পাশাপাশি অনেক শিক্ষার্থীর বসার ব্যবস্থা ছিল, তা থাকবে না। টিফিনে দল বেঁধে আড্ডা দেওয়ার পরিবেশও বদলে যাবে। সামাজিক দূরত্ব মেনে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আসা-যাওয়া করতে হবে। এসব বিষয় চিন্তা করে স্বাস্থ্য অধিদফতরের স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালাতে আগে থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হোক বা না হোক বিকল্পভাবে পাঠদান চলবে সারাবছরই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) অধ্যাপক মো. শাহেদুল খবির চৌধুরী বলেন, ‘করোনা বিস্তার কমে গেলে যদি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়, তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চলবে। আগের মতো করে স্বাভাবিক নিয়মে ক্লাসসহ শিক্ষা কার্যক্রম চলবে না। কারণ করোনাভাইরাসের এই সমস্যা রাতারাতি নির্মূল হচ্ছে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার আগেই সব প্রস্তুতি নিতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিলে যে জটলা সৃষ্টি হবে তা কীভাবে সমন্বয় করা হবে তা নিয়ে ভাবা হচ্ছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সুস্থ আছেন কিনা তা যাচাই করতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কারোনা রোগ নিয়ন্ত্রণের পূর্ণ ব্যবস্থা নিতে হবে। পাশাপাশি অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হবে বিকল্প হিসেবে।’

করোনার বিস্তার রোধ ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় গত ১৭ মার্চ থেকে আগামী ৩০ মে পর্যন্ত ছুটি চলছে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। এই সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ছুটির সময় ঘরে বসেই শিক্ষার্থীদের অনলাইনে পাঠদানের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

তবে এই ছুটি বাড়তে পারে এমন সম্ভাবনায় সব শিক্ষার্থীকে পাঠদানের আওতায় আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার ভাষণে জানিয়েছিলেন পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেওয়া হবে।  বর্তমানে ৩০ মে পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

তবে করোনা পরিস্থিতি ভালোর দিকে গড়ায় তাহলে দীর্ঘদিন বন্ধ না রেখে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হতে পারে। আর সেই পরিপ্রেক্ষিতে আগে থেকেই প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা করার।

বন্ধ থাকা কালে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ শিরোনামে সংসদ টেলিভিশনে ক্লাস চলছে এবং ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও ক্লাস আপলোড করা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের জন্য। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ঘরে বসে শিখি’ শিরোনামে সংসদ টেলিভিশনে ভিডিও ক্লাস চলছে। এছাড়া ‘ঘরে বসে শিখি’ শিরোনামে একটি ওয়েব পোর্টাল ডেভেলপ করা হচ্ছে।      

এই পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর কীভাবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চলবে তার একটি গাইড লাইন দেয় শিক্ষা অধিদফতর। গত ২ মে প্রকাশিত ‘বাংলাদেশে কোভিড-১৯ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ এবং অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ক্রমান্বয়ে চালু করার সুবিধার্থে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, স্থাপনা ও পেশার জন্য কারিগরি নির্দেশনা’ শীর্ষক পুস্তিকায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য একটি গাইডলাইন দেওয়া হয়। এই গাইডলাইন ধরেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনার নির্দেশনা দেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ওই গাইডলাইন বাস্তবায়নের পদক্ষেপ নেবে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর।

করোনা পুরো নির্মূল না হলে বা পরিস্থিতি খুবই অনুকূলে না গেলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা কঠিন হবে বলে মনে করেন শিক্ষা সংশ্লিষ্টরা।  কারণ, রাজধানীর বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানসহ দেশের বেসরকারি অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গাদাগাদি করে ক্লাস নেওয়া হয়। বেসরকারি অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বেঞ্চগুলো চার বা সাড়ে চার ফিট। এসব বেঞ্চে বসানো হয় তিন থেকে চারজন শিক্ষার্থী। এ কারণে সব শিক্ষার্থীর উপস্থিতি নিশ্চিত করে শারীরিক দূরত্ব মেনে ক্লাস করানো সম্ভব হবে না।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফওজিয়া রেজওয়ান বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা নির্দিষ্ট সময়ে একসঙ্গে ঢোকার সময় এবং ক্লাস নেওয়ার সময় শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা সবচেয়ে কঠিন কাজ। তাছাড়া শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ক্লাস চালাবে এমন অবকাঠামো বেশির ভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই। তাই করোনা সংকট না কাটলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া ঝুঁকির বিষয়। তাছাড়া অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। প্রয়োজেন শিক্ষাবর্ষ বাড়িয়ে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করা যেতে পারে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অধ্যাপক মো. শাহেদুল খবির চৌধুরী বলেন, ‘পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া অনিরাপদ হবে। তবে পরিস্থিতি ভালোর দিকে গড়ালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার বিষয়টি ভাবতে হবে। সে ক্ষেত্রে শিফটিং ও রেশনিং করে ক্লাস নেওয়ার ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রতিষ্ঠান খুলে দিলে অনলাইনে ক্লাস চলবে, ভার্চ্যুয়াল ক্লাসও চলবে। কিছু প্রতিষ্ঠান হয়তো অনলাইনে ভালো করেছে, কিন্তু আমাদের টার্গেট দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ সব শিক্ষার্থী। তাই  শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যদি খুলে দেওয়া হয়, সেক্ষেত্রে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালানোর জন্য যা করা দরকার তা আমাদের করতে হবে।’     

স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাইডলাইনে বলা হয়েছে: শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে মহামারি প্রতিরোধক মাস্ক, জীবাণুনাশক এবং নন-কন্ট্যাক্ট থার্মোমিটার সংগ্রহ করতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রবেশপথে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও বহিরাগত শিক্ষাদানকর্মীদের শরীরের তাপমাত্রা নিতে হবে। যাদের শরীরের তাপমাত্রা বেশি পাওয়া যাবে তাদের প্রবেশ নিষেধ করতে হবে। শ্রেণিকক্ষসহ মেঝে ও ঘরের দরজার হাতল, সিঁড়ির হাতলসহ বিভিন্ন বস্তুর তলপৃষ্ঠ ঘন ঘন পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করতে হবে। শিক্ষাদান কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীদের মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। হাত ধোয়াসহ অন্যসব স্বাস্থ্যবিধি শক্তিশালী করতে হবে। দ্রুত হাত শুকানো জীবাণুনাশক বা জীবাণুনাশক টিস্যু ব্যবহার করুন। হাঁচি দেওয়ার সময় মুখ ও নাক ঢাকতে টিস্যু বা কনুই ব্যবহার করতে হবে।

আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় ছুটির পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যা করতে হবে

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদের হিসাব চেয়েছে সরকার

সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদের হিসাব চেয়েছে সরকার

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

ডেঙ্গু চিকিৎসায় আলাদা হাসপাতাল

ডেঙ্গু চিকিৎসায় আলাদা হাসপাতাল

কোভিড মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়তে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২২:২০

'জঙ্গিবাদ দমনে আমরা সফল হয়েছি। বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিংয়ের মতো সমস্যাগুলোও সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছি। সাধারণ মানুষকে সম্পৃক্ত করার ফলেই এটা সম্ভব হয়েছে। একইভাবে কোভিড-১৯ মোকাবিলায়ও জনসম্পৃক্ততা বৃদ্ধির জন্য সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।'

রবিবার (২৫ জুলাই) মেহেরপুর জেলা প্রশাসন আয়োজিত কোভিড-১৯ বিস্তার রোধে চলমান বিধিনিষেধ বাস্তবায়ন সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে  জনপ্রশাসন মন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এসব কথা বলেন তিনি।

মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান, মেহেরপুরের পুলিশ সুপার, সিভিল সার্জন, বিভিন্ন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিসহ সামাজিক ও রাজনৈতিক নেতারা আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘কোভিড-১৯ মোকাবিলায় জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব অনেক বেশি। জনগণকে সচেতন করতে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলায় উদ্বুদ্ধ করতে জনপ্রতিনিধিদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় প্রতিটি পাড়ায় করোনা প্রতিরোধ কমিটি গঠন করতে হবে বলেও জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে নিয়ে প্রতিটি পাড়ায় করোনা প্রতিরোধ কমিটি গঠন করতে হবে। যেহেতু করোনা সংকটটি দীর্ঘদিন ধরে চলার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই এই কমিটিকেও দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করার প্রস্তুতি রাখতে হবে।

‘এই কমিটির মূল কাজ হবে- মাস্ক বিতরণ ও পরিধানে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা। কারও করোনা উপসর্গ দেখা দিলে তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া ও টেস্টের ব্যবস্থা করা এবং সকলকে ভ্যাকসিন গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করা। পাশাপাশি এই কমিটি জনসমাগম হয় এরূপ স্থানে তদারকি জোরদার করবে, যাতে সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে। সবার আন্তরিক সহযোগিতার ফলেই দ্রুত করোনা সংক্রমণ রোধ করা সম্ভব বলেও জানান তিনি।

 

/এসআই/এফএএন/

সম্পর্কিত

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও  ব্রুনাইয়ের সুলতানের জন্য আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও  ব্রুনাইয়ের সুলতানের জন্য আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

টি-২০ সিরিজ জেতায় রাষ্ট্রপতির অভিনন্দন

টি-২০ সিরিজ জেতায় রাষ্ট্রপতির অভিনন্দন

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও  ব্রুনাইয়ের সুলতানের জন্য আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২২:২২

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে ‘আম কূটনীতি’র পরে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতেও আম উপহার পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইতোমধ্যে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতি জোকো উইদোদো ও ব্রুনাইর সুলতান হাসসান আল-বলকিয়াহকে ১ হাজার কেজি করে আম পাঠানো হয়েছে।

ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ওই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে ১ হাজার কেজি আম রাষ্ট্রপতির মারদেকা প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসে গত সপ্তাহে হস্তান্তর করা হয়।

রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেস প্রোটোকল অফিসার, রাষ্ট্রপতির ব্যক্তিগত কর্মকর্তা, ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রটোকল অফিসার এই উপহার গ্রহণ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এদিকে ব্রুনাইর সুলতানের জন্য শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে এক হাজার কেজি বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ ‘হাঁড়িভাঙা’ আম পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী হাসিনা।

উপহারের এই আমগুলো শনিবার ব্রুনাইয়ের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাষ্ট্রাচার কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন। আমগুলো সরাসরি ব্রুনাইয়ের সুলতানের প্রাসাদ ইস্তানা নুরুল ইমানে নিয়ে যাওয়া হয়।

/এসএসজেড/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

গণসংগীতের জন্য ফকির আলমগীর স্মরণীয় হয়ে থাকবেন: প্রধানমন্ত্রী

গণসংগীতের জন্য ফকির আলমগীর স্মরণীয় হয়ে থাকবেন: প্রধানমন্ত্রী

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে আম পাঠালেন শেখ হাসিনা

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে আম পাঠালেন শেখ হাসিনা

‘ঈদে মায়ের কাছে আমরা কোনও আবদার করিনি’

‘ঈদে মায়ের কাছে আমরা কোনও আবদার করিনি’

টি-২০ সিরিজ জেতায় রাষ্ট্রপতির অভিনন্দন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২২:৩২

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ী বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এক বার্তায় রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সব খেলোয়াড় ও ম্যানেজমেন্ট সংশ্লিষ্টদের অভিনন্দন জানান।

রবিবার (২৫ জুলাই) জিম্বাবুয়ের হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে শেষ টি-২০ ম্যাচে ১৯৪ রান তাড়া করে জেতে বাংলাদেশ। দ্বিপাক্ষিক টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের চতুর্থ সিরিজ জয় এটি। তিনটি জয়ই এলো দেশের বাইরে।

এবারের জিম্বাবুয়ে সফরে একমাত্র টেস্ট, তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের সবক’টি জয়ের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজও জিতলো বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন: স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

/ইএইচএস/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

কোভিড মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়তে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কোভিড মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়তে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও  ব্রুনাইয়ের সুলতানের জন্য আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও  ব্রুনাইয়ের সুলতানের জন্য আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২১:০২

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, ভারপ্রাপ্ত নৌবাহিনী প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ আবু আশরাফ এবং বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান।

রবিবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে পৃথকভাবে তিন বাহিনীর প্রধান সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন।

তিনি বলেন, ‘তিন বাহিনীর প্রধান রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এ সময় রাষ্ট্রপতি সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য ও তাদের পরিবারের সদস্যদের ঈদের শুভেচ্ছা জানান। তারা করোনাভাইরাস মোকাবিলা ও নিজ নিজ বাহিনীর উন্নয়নে গৃহীত পদক্ষেপগুলো সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।’

প্রেস সচিব জানান, সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে গোটা বিশ্ব আজ বিপর্যস্ত। বাংলাদেশেও করোনাভাইরাসের প্রভাব দিন দিন প্রকট হচ্ছে।’

রাষ্ট্রপতি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিটি সদস্যসহ সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম, প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন এবং সচিব (সংযুক্ত) ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

/ইএইচএস/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদের হিসাব চেয়েছে সরকার

সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদের হিসাব চেয়েছে সরকার

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

ডেঙ্গু চিকিৎসায় আলাদা হাসপাতাল

ডেঙ্গু চিকিৎসায় আলাদা হাসপাতাল

মৃত্যু ও সংক্রমণে এগিয়ে ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদফতর

মৃত্যু ও সংক্রমণে এগিয়ে ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদফতর

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২০:১৪

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, করোনার সংক্রমণ কমাতে না পারলে শুধু হাসপাতালের শয্যা সংখ্যা ক্রমাগত বাড়িয়ে লাভ হবে না। করোনার বিস্তার রোধে সরকারপ্রদত্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

রবিবার (২৫ জুলাই) প্রগতিশীল ন্যাপের ৬৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক ও মওলানা ভাসানীর দৌহিত্র পরশ ভাসানীর সভাপতিত্বে অনলাইন আলোচনা সভায় মন্ত্রী ঢাকায় তার বাসভবন থেকে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

তিনি বলেন, মাওলানা ভাসানী প্রতিষ্ঠিত ন্যাপ সবসময়ই অপরাজনীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার। মওলানা ভাসানীর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে ড. হাছান বলেন, তিনি ক্ষমতার জন্য নয়, রাজনীতি করেছেন মানুষের কল্যাণে। এই নির্মোহ জননেতার কাছ থেকে আমাদের রাজনীতিবিদদের অনেক শেখার আছে। 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু, সকল মুক্তিযোদ্ধা, মওলানা ভাসানী এবং জাতীয় চার নেতার স্বপ্নের ঠিকানায় বাংলাদেশকে পৌঁছে দেওয়া। এজন্য অন্য দলগুলোকেও এগিয়ে আসতে হবে।

প্রগতিশীল ন্যাপের সদস্য সচিব মোহাম্মদ আলী কিসমতের সঞ্চালনায় দলের সহ-আহ্বায়ক মোহা. ইলিয়াস, যুগ্ম আহ্বায়ক বাবুল আহমেদ, মোহাম্মদ মনিরুল হাসান মনির, মৌসুমী দেওয়ান মিনু এবং জেলা প্রতিনিধিরা সভায় অংশ নেন।

/এমএইচবি/এমআর/

সম্পর্কিত

কোভিড মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়তে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কোভিড মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়তে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও  ব্রুনাইয়ের সুলতানের জন্য আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও  ব্রুনাইয়ের সুলতানের জন্য আম পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

টি-২০ সিরিজ জেতায় রাষ্ট্রপতির অভিনন্দন

টি-২০ সিরিজ জেতায় রাষ্ট্রপতির অভিনন্দন

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

সর্বশেষ

বিদ্যুতের অভিযোগ সেল নিয়ে জানা নেই গ্রাহকের

বিদ্যুতের অভিযোগ সেল নিয়ে জানা নেই গ্রাহকের

ভারী বৃষ্টিপাতের পর লন্ডনে আকস্মিক বন্যা

ভারী বৃষ্টিপাতের পর লন্ডনে আকস্মিক বন্যা

ব্যবসায়ীর কাছে ২ কোটি টাকা দাবি, পরিদর্শক বদলি এসআই বরখাস্ত

ব্যবসায়ীর কাছে ২ কোটি টাকা দাবি, পরিদর্শক বদলি এসআই বরখাস্ত

পাথরের ধাক্কায় বিধ্বস্ত সেতু, ৯ পর্যটক নিহত

পাথরের ধাক্কায় বিধ্বস্ত সেতু, ৯ পর্যটক নিহত

কবিরাজের পানিপড়া খেয়ে নিস্তেজ শিশুকে টয়লেটে ফেলে দেন মা

কবিরাজের পানিপড়া খেয়ে নিস্তেজ শিশুকে টয়লেটে ফেলে দেন মা

ভারতের কাছে টি-টোয়েন্টিতেও হারে শুরু শ্রীলঙ্কার

ভারতের কাছে টি-টোয়েন্টিতেও হারে শুরু শ্রীলঙ্কার

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

১ কোটি ১৮ লাখের বেশি ভ্যাকসিন দেওয়া শেষ

১ কোটি ১৮ লাখের বেশি ভ্যাকসিন দেওয়া শেষ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদের হিসাব চেয়েছে সরকার

সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদের হিসাব চেয়েছে সরকার

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

সরকারি ৭ হাসপাতালে আইসিইউ ফাঁকা নেই

ডেঙ্গু চিকিৎসায় আলাদা হাসপাতাল

ডেঙ্গু চিকিৎসায় আলাদা হাসপাতাল

মৃত্যু ও সংক্রমণে এগিয়ে ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদফতর

মৃত্যু ও সংক্রমণে এগিয়ে ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদফতর

করোনামুক্ত হয়েও ধকল বয়ে বেড়াচ্ছেন তারা

করোনামুক্ত হয়েও ধকল বয়ে বেড়াচ্ছেন তারা

বঙ্গবন্ধুর ১৮ দিনের বিদেশ সফর ২৬ জুলাই

বঙ্গবন্ধুর ১৮ দিনের বিদেশ সফর ২৬ জুলাই

টিকার জন্য জাপানকে ধন্যবাদ জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

টিকার জন্য জাপানকে ধন্যবাদ জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাতেই দেশে আসছে ২০০ টন অক্সিজেন

রাতেই দেশে আসছে ২০০ টন অক্সিজেন

নমুনা পরীক্ষার সঙ্গে কমেছে শনাক্তও

নমুনা পরীক্ষার সঙ্গে কমেছে শনাক্তও

© 2021 Bangla Tribune