সেকশনস

দুর্বল নেটওয়ার্ক: অনলাইন ক্লাস নিয়ে বিড়ম্বনায় উপকূলের শিক্ষার্থীরা

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০২০, ২০:৪০




দুর্বল নেটওয়ার্কের জন্য ঘরের বাইরে বসে ক্লাস করতে হয় শিক্ষার্থীদের মোবাইলফোনের দুর্বল নেটওয়ার্কের কারণে অনলাইন ক্লাস নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েছেন খুলনাসহ উপকূলীয় অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা। ফলে করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাজীবন নিয়ে অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। দাকোপ, কয়রা, পাইকগাছা, বটিয়াঘাটাসহ উপকূলীয় এলাকা জুড়ে এ চিত্র রয়েছে।

করোনার কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বৃদ্ধি করা হয়েছে। এ অবস্থায় অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। তবে খুলনাসহ উপকূলীয় অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা অনলাইন ক্লাস থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, অধিকাংশ শিক্ষার্থীর স্মার্টফোন নেই, যাদের আছে- দুর্বল নেটওয়ার্কের কারণে তারাও ক্লাস করতে পারছেন না। আর প্রত্যন্ত গ্রামের অস্বচ্ছল পরিবারের শিক্ষার্থীরা স্মার্টফোন না থাকার কারণে অনলাইন ক্লাসে অংশই নিতে পারছেন না।

এ অবস্থায় উপকূলীয় শিক্ষার্থীরা ‘গতিশীল মোবাইল টাওয়ার চাই’ নামে দাকোপে একটি প্ল্যাটফর্ম গঠন করেছেন। এই গ্রুপের সদস্য শিক্ষার্থী সৌরভ বিশ্বাসের বাড়ি দাকোপ উপজেলার কামারখোলা ইউনিয়নের শ্রীনগর গ্রামে। তিনি চীনের একটি মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী। করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে তিনি চীন থেকে গ্রামে চলে আসেন।

সৌরভ বলেন, প্রতিদিন ক্লাস চলছে অনলাইনে। তবে দেশে এসে বড় দুশ্চিন্তায় পড়েছি। ক্লাস করার সময় ল্যাপটপে ঠিকমতো নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না। বিকল্প কোনও সুবিধা না থাকায় মোবাইল ডাটা ব্যবহারই একমাত্র পন্থা। তবে ক্লাস শুরু হলে ল্যাপটপ ও মোবাইল ডিভাইস নিয়ে রাস্তার পাশে বা উঁচু কোনও জায়গা খুঁজে বসে পড়াশোনা করতে হয়।

সুতারখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাজেরা খাতুন জানান, মোবাইলফোন হাতে ধরে বসে থাকতে হয়। সঠিকভাবে কোথাও মোবাইল নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না। ফলে ক্লাসের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় থেকে অনেক সময় বাদ পড়ে যাচ্ছি। দুর্ভোগে পড়তে হয় সব সময়।

দুর্বল নেটওয়ার্কের জন্য অনলাইন ক্লাসে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে উপকূলীয় এলাকার শিক্ষার্থীদের চুনকুড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার রায় বলেন, করোনাকালে শিক্ষার্থীরা যাতে না ঝরে পড়ে, সেক্ষেত্রে অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা খুবই কার্যকরি। তবে নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে বেশিরভাগ সময় বিষয়ভিত্তিক আলোচনা থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছে। অনলাইন শিক্ষা গ্রহণের জন্য উপকূলীয় অঞ্চলের জন্য প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করতে গতিশীল মোবাইল টাওয়ার স্থাপন করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

‘গতিশীল মোবাইল টাওয়ার চাই’ গ্রুপটির ফোকাল পারসন অসীম ঘরামী বলেন, করোনাকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় অনলাইন মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্লাস ও শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের জন্য বড় সমস্যা হলো মোবাইল নেটওয়ার্ক। এ কারণে প্রযুক্তির ব্যবহার করে অনলাইনে শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়ার আগে প্রযুক্তি ব্যবস্থা নিশ্চিত করার দাবি জানানো হচ্ছে।

খুলনা জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নিভা রানী পাঠক বলেন, অনলাইনের শিক্ষা সুবিধা সবাই পাচ্ছে না। প্রত্যন্ত এলাকায় অনলাইন শিক্ষা পেতে গেলে একটি স্মার্টফোন লাগে। কিন্তু অনেকেরই স্মার্টফোন কেনার সামর্থ নেই। আবার যাদের স্মার্টফোন আছে তারাও দুর্বল নেটওয়ার্কের কারণে ঠিকমতো ক্লাস করতে পারছে না বলে জানান তিনি।

/টিটি/

সম্পর্কিত

যশোরে খুন হওয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

যশোরে খুন হওয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা প্রত্যাহার চেয়ে  ‘সিটিও ফোরাম’ সভাপতির চিঠি

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা প্রত্যাহার চেয়ে  ‘সিটিও ফোরাম’ সভাপতির চিঠি

৩৭১ ইউনিয়ন পরিষদে ভোটের তারিখ ঘোষণা

৩৭১ ইউনিয়ন পরিষদে ভোটের তারিখ ঘোষণা

তিন অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল

তিন অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল

নদীর সমস্যা সমাধানে গবেষণার বিকল্প নেই: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

নদীর সমস্যা সমাধানে গবেষণার বিকল্প নেই: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

বাংলাদেশ মেডিক্যাল টিম এখন মালদ্বীপে

বাংলাদেশ মেডিক্যাল টিম এখন মালদ্বীপে

‘উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে যা হারাবো, তার বহুগুণ বেশি পাবো’

‘উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে যা হারাবো, তার বহুগুণ বেশি পাবো’

ভ্যাট অব্যাহতি পেলো করোনার টিকা

ভ্যাট অব্যাহতি পেলো করোনার টিকা

জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী আমদানিতে শুল্ক মওকুফের দাবি

জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী আমদানিতে শুল্ক মওকুফের দাবি

ক্ষতিপূরণ চান সোলার মিনিগ্রিডের উদ্যোক্তারা

ক্ষতিপূরণ চান সোলার মিনিগ্রিডের উদ্যোক্তারা

টিকা নিয়েছেন ৩৪ লাখ ৬০ হাজার মানুষ

টিকা নিয়েছেন ৩৪ লাখ ৬০ হাজার মানুষ

সিনহার দুর্নীতি মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ

সিনহার দুর্নীতি মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ

সর্বশেষ

আসামির নাম জামাল, গ্রেফতার হলেন কামাল!

আসামির নাম জামাল, গ্রেফতার হলেন কামাল!

অভয়াশ্রমে মাছ শিকারের অভিযোগ: ১৮ জেলের জেল-জরিমানা

অভয়াশ্রমে মাছ শিকারের অভিযোগ: ১৮ জেলের জেল-জরিমানা

প্রাথমিকের উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র!

প্রাথমিকের উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র!

র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক কারবারি নিহত

র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক কারবারি নিহত

এইচ টি ইমাম আর নেই

এইচ টি ইমাম আর নেই

পাসপোর্ট করতে গিয়ে রোহিঙ্গা নারীসহ গ্রেফতার ২

পাসপোর্ট করতে গিয়ে রোহিঙ্গা নারীসহ গ্রেফতার ২

১৮ মার্চ তাদের ‘কন্ট্রাক্ট’

১৮ মার্চ তাদের ‘কন্ট্রাক্ট’

‘বন্ধ’ হলেও দিব্যি আছেন তারা

‘বন্ধ’ হলেও দিব্যি আছেন তারা

অনুরাগ-তাপসীর বাসায় আয়কর বিভাগের হানা

অনুরাগ-তাপসীর বাসায় আয়কর বিভাগের হানা

লক্ষ্মীপুরের পোড়াগাছায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের অনুমোদন

লক্ষ্মীপুরের পোড়াগাছায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের অনুমোদন

সড়কে নবনির্বাচিত মেয়রের স্ত্রী-ছেলেসহ নিহত ৩

সড়কে নবনির্বাচিত মেয়রের স্ত্রী-ছেলেসহ নিহত ৩

আজ ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

আজ ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

যশোরে খুন হওয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

যশোরে খুন হওয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

অজ্ঞাত ব্যক্তির হাত-পা বাঁধা বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার

অজ্ঞাত ব্যক্তির হাত-পা বাঁধা বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার

কালীগঞ্জে গত ২০ দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৬

কালীগঞ্জে গত ২০ দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৬

দিনমজুরের সঞ্চয়ে গড়া গ্রাম পাঠাগার 'সাতভিটা গ্রন্থনীড়'

দিনমজুরের সঞ্চয়ে গড়া গ্রাম পাঠাগার 'সাতভিটা গ্রন্থনীড়'

সাতক্ষীরায় হঠাৎ করেই বাস চলাচল বন্ধ: যাত্রী হয়রানির অভিযোগ

সাতক্ষীরায় হঠাৎ করেই বাস চলাচল বন্ধ: যাত্রী হয়রানির অভিযোগ

হাতিয়ায় গৃহবধূকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

হাতিয়ায় গৃহবধূকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

ভাসানচরে যাচ্ছেন আরও ২ হাজার ২৫৭ জন রোহিঙ্গা

পঞ্চম ধাপের প্রথম দফায় স্থানান্তরভাসানচরে যাচ্ছেন আরও ২ হাজার ২৫৭ জন রোহিঙ্গা

অস্ত্র ও গোলাবারুদ মজুতের সংবাদে সাতছড়িতে অভিযান

অস্ত্র ও গোলাবারুদ মজুতের সংবাদে সাতছড়িতে অভিযান

বেরোবিতে হল ও ভবন নির্মাণে অনিয়ম, উপাচার্যকে দায়ী করে প্রতিবেদন

প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদিত নকশা পরিবর্তনবেরোবিতে হল ও ভবন নির্মাণে অনিয়ম, উপাচার্যকে দায়ী করে প্রতিবেদন

বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতে আটকে আছে ৫৫০০ পণ্যবাহী ট্রাক

বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতে আটকে আছে ৫৫০০ পণ্যবাহী ট্রাক


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.