সেকশনস

অবশেষে এলপিজির মূল্য নির্ধারণে বিইআরসির গণশুনানি

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২০, ১৪:১৮

এলপিজি শেষ পর্যন্ত আদালত অবমাননার রুল থেকে বাঁচতে তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) দাম নির্ধারণ করার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। আগামীকাল ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে দাম নির্ধারণের জন্য এলপিজি ব্যবসায়ীদের কাছে প্রস্তাব জমা দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে ১৪ থেকে ১৮ জানুয়ারি গণশুনানির দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিইআরসি’র একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আজই আমরা আদালতের আদেশ হাতে পেয়েছি। তিনি জানান, এই আদেশ পাওয়ার পরপরই এলপিজি ব্যবসায়ীদের কাছে প্রস্তাব চাওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ১৪ জানুয়ারি থেকে গণশুনানির দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিইআরসি সূত্র বলছে, এজন্য একটি শিডিউল ঘোষণা করা হয়েছে। শিডিউলের মধ্যে রয়েছে ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ও লাইসেন্সিদের দাম সম্পর্কিত দলিলাদি জমা, ১৩ ডিসেম্বর কোম্পানিগুলোর প্রস্তাব পেলে মূল্যায়ন কমিটি গঠন এবং গণশুনানির তারিখ নির্ধারণ করা হবে। ১৩ ও ১৪ ডিসেম্বর স্বার্থ সংশ্লিষ্টদের গণশুনানির বিষয়ে নোটিশ দেওয়া হবে। এরপর ১৫ ও ১৬ শুনানির তারিখ জানিয়ে বিজ্ঞাপন দেওয়া, পত্রিকায় প্রকাশ করবে বিইআরসি। এছাড়া ১৪ ডিসেম্বর থেকে ৪ জানুয়ারি গণশুনানির বিষয়ে সবার মতামত প্রদান, ৪ জানুয়ারি লিখিত মতামত প্রাপ্তি, এবং শুনানিতে অংশগ্রহণের জন্য নামের তালিকাভুক্তকরণ করা হবে।

এরপর ১৪, ১৭ ও ১৮  জানুয়ারি এলপিজির দাম নির্ধারণে গণশুনানি করবে কমিশন। শুনানির পর ২৪ জানুয়ারি লাইসেন্সি ও স্বার্থ সংশ্লিষ্টদের সাথে শুনানি পরবর্তীতে লিখিত মতামত প্রদান করা যাবে।

সূত্র জানায়, দাম নির্ধারণে প্রাথমিক ধাপ হিসেবে কোনও কোম্পানিকে যেহেতু দামের প্রস্তাব দিতে হয় সেহেতু বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি)-এর অধীনে যে কোম্পানি এলপিজি বিক্রি করে তাদের দাম নির্ধারণের প্রস্তাব দিতে বলা হয়েছে। তারা প্রস্তাব দিলে প্রথমে মূল্যায়ন কমিটি করবে কমিশন। এরপর গণশুনানির আয়োজন করা হবে।

বিইআরসির চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা এতদিন এই দাম নির্ধারণের চেষ্টা করে আসছিলাম। কিন্তু নানা কারণে তা করা যাচ্ছিল না। এখন আমাদের আদালত আদেশ দিয়েছেন। আমরা আদালতের নির্দেশে কাজ শুরু করেছি। ইতোমধ্যে কোম্পানিগুলোকে দামের বিষয়ে অবহিত করার জন্য চিঠি দিয়েছি। তিনি জানান, দাম নির্ধারণের প্রস্তাব পেলে আমরা মূল্যায়ন কমিটি করবো। তাদের সুপারিশ অনুযায়ী পরবর্তীতে গণশুনানি করা হবে।

এদিকে কমিশনের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, আমরা একটা শিডিউলও করেছি। সে অনুযায়ী কাজ করছি আমরা। তিনি জানান, আমাদেরও কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। আমরা চাইলে সব করতে পারি না। অনেক ক্ষেত্রে মন্ত্রণালয়ের মতামতের প্রয়োজন হয়। এখন আদালত যে রুল জারি করেছে তার জবাব দিতেই হবে। এবং সে অনুযায়ী কাজ শুরু করতে আমরা আসলে এখন বাধ্য।

সরকারি এলপিজি বিপণন কোম্পানি এলপিজি লিমিটেড-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুর রহমান জানান, আজ রবিবার তারা বিইআরসির চিঠি পেয়েছেন। বিইআরসি আগামীকাল সোমবারের মধ্যেই প্রস্তাব জমা দিতে বলছে। তারা কালকের মধ্যেই প্রস্তাবটি জমা দিতে পারবেন বলে আশা করছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ নভেম্বর গণশুনানির মাধ্যমে এলপিজির দাম নির্ধারণ করে প্রতিবেদন দাখিল না করায় বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেন হাইকোর্ট। দুই সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে আগামী ১৫ ডিসেম্বর এ মামলার পরবর্তী শুনানির দিন নির্ধারণ করা হয়।

এর আগে ক্যাব-এর দায়ের করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ২৫ আগস্ট বিইআরসিকে গণশুনানির মাধ্যমে এলপিজির দাম নির্ধারণ করে ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। ওই আদেশ দেওয়ার পর দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হলেও বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আদেশটি প্রতিপালনে কোনও উদ্যোগ নেয়নি। এমনকি তারা আদালত প্রতিবেদন দাখিল করেনি।

দেশে এখন রান্নার কাজে প্রধান জ্বালানি হিসেবে এলপিজি ব্যবহার হচ্ছে। প্রাকৃতিক গ্যাসের নতুন সংযোগ না দেওয়ায় এখন ঢাকা শহরেও এলপিজি ব্যবহার করছে অনেকে। সরকার পাইপ লাইনের মাধ্যমে নতুন কোন গ্রাহককে আর গ্যাস সংযোগ না দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। ফলে এখন এলপিজির ওপরই নির্ভর করতে হবে। কিন্তু এত বছরেও এলপিজির দাম নিয়ন্ত্রণে সরকারের তরফ থেকে কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। বরং এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন উদ্যোগ নিতে চাইলেও অদৃশ্য হস্তক্ষেপে বারবার তা থেমে গেছে।

বিইআরসির একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বিষয়টি আমাদের জন্যই ভালো হয়েছে। এখন আমরা আদালতের আদেশ মানতে বাধ্য।

এলপিজি শুধু রান্নার জন্যই নয়, পরিবহন এবং শিল্পর জ্বালানি হিসেবেও জনপ্রিয় হচ্ছে। যেখানে প্রাকৃতিক গ্যাস নেই সেখানে এলপিজি দিয়ে শিল্পের গ্যাসের চাহিদা মেটানো সম্ভব। আর পরিবহনের জ্বালানি হিসেবে এরমধ্যেই এলপিজি জনপ্রিয়তা পেয়েছে। পেট্রোল অকটেনের চেয়ে অর্ধেক দামে এলপিজি পাওয়া সম্ভব।

/এফএএন/এমওএফ/

সম্পর্কিত

সিটিও ফোরামের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

সিটিও ফোরামের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতে আটকে আছে ৫৫০০ পণ্যবাহী ট্রাক

বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতে আটকে আছে ৫৫০০ পণ্যবাহী ট্রাক

সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা

সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা

আকার কমিয়ে সংশোধিত এডিপি অনুমোদন

আকার কমিয়ে সংশোধিত এডিপি অনুমোদন

‘মুগ্ধতার সড়ক’ সম্প্রসারণের নামে পাহাড় কেটে সাবাড়!

‘মুগ্ধতার সড়ক’ সম্প্রসারণের নামে পাহাড় কেটে সাবাড়!

ট্রেনে ঘটছে ছিনতাই, থামছে না ঢিল ছোঁড়ার ঘটনা

ট্রেনে ঘটছে ছিনতাই, থামছে না ঢিল ছোঁড়ার ঘটনা

পতাকা সেই যে উড়েছিল, আজও উড়ছে

পতাকা সেই যে উড়েছিল, আজও উড়ছে

স্যানিটারি পণ্যের সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহার চায় বিসিএমইএ

স্যানিটারি পণ্যের সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহার চায় বিসিএমইএ

সর্বশেষ

৩ মার্চ ১৯৭১: স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ ঘোষণা

৩ মার্চ ১৯৭১: স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ ঘোষণা

সাতছড়ি উদ্যানে ফের অবৈধ অস্ত্রের সন্ধানে অভিযান

সাতছড়ি উদ্যানে ফের অবৈধ অস্ত্রের সন্ধানে অভিযান

জমিদার রাজেন্দ্র বাবুর বাড়ি সংরক্ষণের দাবিতে মানববন্ধন

জমিদার রাজেন্দ্র বাবুর বাড়ি সংরক্ষণের দাবিতে মানববন্ধন

বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস আজ

দখল আর দূষণে অনিরাপদ প্রাণিকুল

শিশু সূচি হত্যা: মায়ের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

শিশু সূচি হত্যা: মায়ের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

মোদির সফর চূড়ান্ত করতে ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

মোদির সফর চূড়ান্ত করতে ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

ফুলগাজী ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

ফুলগাজী ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের

রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সিটিও ফোরামের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

সিটিও ফোরামের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

স্যানিটারি পণ্যের সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহার চায় বিসিএমইএ

স্যানিটারি পণ্যের সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহার চায় বিসিএমইএ

ফেব্রুয়ারিতেও রেমিট্যান্সে রেকর্ড

ফেব্রুয়ারিতেও রেমিট্যান্সে রেকর্ড

মুজিববর্ষের সেরা করদাতার স্বীকৃতি পেলেন কাউছ মিয়া

মুজিববর্ষের সেরা করদাতার স্বীকৃতি পেলেন কাউছ মিয়া

শুধু বেসরকারি ঋণ প্রবাহে স্থবিরতা কাটছে না

শুধু বেসরকারি ঋণ প্রবাহে স্থবিরতা কাটছে না


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.