X
শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

মোটরসাইকেলে আগ্রহ বেড়েছে নগরবাসীর

আপডেট : ০৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪:০৫

শায়লা জামাল কানাডার ওন্টারিওতে অবস্থিত ম্যাকমাস্টার ইউনিভার্সিটির একজন পিএইচডি গবেষক। তার গবেষণায় করোনা মহামারিতে মোটরসাইকেল ভ্রমণের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়ানোর বিষয়টি উঠে এসেছে।

তিনি তার গবেষণায় করোনার কারণে ভ্রমণের অভ্যাসে মানুষের যে পছন্দের পরিবর্তন এসেছে সেটি বিশ্লেষণ করেন। বিশেষ করে ঢাকার মতো জনবহুল একটি শহরে, যেখানে গণপরিবহনের ব্যাপক সংকট রয়েছে, সেখানে মোটরসাইকেল অন্যতম নিরাপদ মাধ্যমে হিসেবে বিশ্লেষণে প্রতীয়মান হয়েছে। প্রায় তিনশোর বেশি নমুনা বিশ্লেষণের মাধ্যমে এটি উঠে এসেছে যে, করোনা মহামারিতে স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়ানোর ক্ষেত্রে মোটরসাইকেল অন্যান্য গণপরিবহনের চাইতে অধিক নিরাপদ।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় অনেক দেশ লকডাউন পর্ব থেকে বেরিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে শুরু করেছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ব্যতীত প্রায় সব ধরনের ব্যবসা-বাণিজ্য, অফিসসহ সব কিছুই ফিরে এসেছে তাদের পুরনো স্বাভাবিক গতিতে। এতে করে কর্মরত প্রায় প্রতিটি মানুষই আবার তাদের পুরনো রুটিনে ফেরত এসেছেন। যাতায়াতে ফিরেছে গতি। প্রথমদিকে গনপরিবহনগুলোতে দুই সিটে একজন করে বসার নিয়ম থাকলেও বাড়তি চাপে এখন তা আবার আগের অবস্থায় ফিরে এসেছে। এজন্য করোনার কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের ঝুঁকি আবার আগের জায়গাতে ফিরে এসেছে। যারা সচেতন, তারা পায়ে হেঁটে কিংবা ব্যক্তিগত বাহনে চড়ে যাতায়াত করছেন। এক কথায় গণপরিবহন এড়িয়ে চলছেন। কিন্তু যারা নিরুপায়, তাদের জন্য পাবলিক বাসই একমাত্র ভরসা।

তবে জরিপ বলছে ভিন্নকথা। শত সমস্যার মাঝেও জনগণের মাঝে সচেতনতা এখনো ফুরিয়ে যায়নি। আর তাই গুগলের কমিউনিটি মবিলিটি রিপোর্ট অনুযায়ী, করোনা মহামারিতে বাংলাদেশে বাস এবং ট্রেনসহ সকল গণপরিবহনে যাত্রীর সংখ্যা ৩৬ শতাংশ কমে গেছে।

ঢাকার প্রায় ৭৫ শতাংশ নাগরিক মনে করেন, গণপরিবহনে সামাজিক দূরত্ব মেনে স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়িয়ে চলাফেরা এককথায় অসম্ভব। কিন্তু জনবহুল শহর হওয়ার কারণে বাস, অটোরিকশা, রাইড শেয়ারিং বা রিকশা ছাড়া উপায়ও নেই। সাশ্রয়ী বাহনের মাঝে অন্যতম হচ্ছে সাইকেল, যার বেশ কিছু সমস্যাও রয়েছে। ঢাকার রাস্তায় নেই কোনও আলাদা সাইকেল লেন। আবার খানাখন্দে ভরা, ধুলাবালির শহরে রোদবৃষ্টির ঝামেলা তো আছেই। এসবের মাঝে প্যাডেল চালিয়ে কর্মস্থলে যাওয়া বেশ কষ্টসাধ্য। তাই সাইকেল থেকে মোটরসাইকেল অনেক বেশি আরামদায়ক এবং সময় সাশ্রয়ী।

মোটরসাইকেলে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা সম্ভব এমন মনে করেন জরিপে অংশ নেওয়া ৮০ শতাংশ মানুষ। এর মাঝে ৭৯ শতাংশ নাগরিক মনে করেন করোনা মহামারির সময়ে অন্যান্য বাহনের চেয়ে মোটরসাইকেল তুলনামূলক নিরাপদ ও ঝুঁকিমুক্ত। ট্রাফিক জ্যামের এই শহরে প্রায় ৮৪ ভাগ মানুষের কাছে মোটরসাইকেল একটি সহজ যাতায়াত মাধ্যমে। আবার প্রায় ৬৯ ভাগ মানুষই মনে করেন মোটরসাইকেলে যাতায়াত অপেক্ষাকৃত সাশ্রয়ী।

ব্যক্তিগত মোটরসাইকেলের প্রতি ঝোঁক দিন দিন বাড়ছে, বিশেষ করে ঢাকা শহরে। আগে গণপরিবহনে চড়তেন এখন মোটরসাইকেলে যাতায়াত করতে চাইছেন এমন মানুষের সংখ্যা ঊর্ধ্বগামী। প্রায় ৩৩ শতাংশ মানুষ চাইছেন ২০২১ সালে নিজেদের জন্য একটি মোটরসাইকেল কিনে ফেলতে। সংখ্যার বিচারে এটি ব্যাপক। পরিবহনবিদ, স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এবং অন্যান্য গবেষকদের মতে, স্বাস্থ্যঝুকি এড়াতে মোটরসাইকেলের কোনও বিকল্প নেই। 

যাত্রাপথে গন্তব্যস্থলে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তায় জ্যামে আটকে থাকার যন্ত্রণা থেকে মুক্তির পাশাপাশি এখন নিরাপত্তার দিক থেকেও মোটরসাইকেল পরিবহণ হিসেবে শীর্ষে অবস্থান করছে। জরিপে দেখা যাচ্ছে, মানুষের আস্থা মোটরসাইকেলের প্রতি দিন দিন বাড়ছে। সেই সাথে এর চাহিদা এবং বিক্রি বাড়ছে পাল্লা দিয়ে।

/এনএ/

সর্বশেষ

আরমানিটোলায় কেমিক্যাল গোডাউনে আগুন: নিহত ১, আহত ১৮

আরমানিটোলায় কেমিক্যাল গোডাউনে আগুন: নিহত ১, আহত ১৮

পাকিস্তানের বর্বরোচিত হুমকির বিরুদ্ধে কঠোর ঢাকা

পাকিস্তানের বর্বরোচিত হুমকির বিরুদ্ধে কঠোর ঢাকা

সাংবাদিক পরিচয়ে গাড়ি থামিয়ে চাঁদা দাবি, গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

সাংবাদিক পরিচয়ে গাড়ি থামিয়ে চাঁদা দাবি, গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

এসিআই হাইব্রিড ধানে হেক্টর প্রতি লক্ষ্য ১৫ টন

এসিআই হাইব্রিড ধানে হেক্টর প্রতি লক্ষ্য ১৫ টন

যেভাবে কমবে তামাকের ব্যবহার

যেভাবে কমবে তামাকের ব্যবহার

বরগুনায় এক যুগে সর্বোচ্চ ডায়রিয়ার রোগী, মৃত্যু ৮

বরগুনায় এক যুগে সর্বোচ্চ ডায়রিয়ার রোগী, মৃত্যু ৮

খালে ভাসছিল লাশ

খালে ভাসছিল লাশ

হাসপাতালে ঠাঁই নেই, তাঁবু খাটিয়ে চলে ডায়রিয়া রোগীদের চিকিৎসা

হাসপাতালে ঠাঁই নেই, তাঁবু খাটিয়ে চলে ডায়রিয়া রোগীদের চিকিৎসা

মোস্তাফিজদের নখদন্তহীন বোলিং, জয়ে শীর্ষে কোহলিরা

মোস্তাফিজদের নখদন্তহীন বোলিং, জয়ে শীর্ষে কোহলিরা

ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট, যুবদল নেতা আটক

ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট, যুবদল নেতা আটক

অ্যাস্ট্রাজেনেকার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

অ্যাস্ট্রাজেনেকার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে  ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রোজায় দৈনিক কত ক্যালোরি গ্রহণ করবেন?

রোজায় দৈনিক কত ক্যালোরি গ্রহণ করবেন?

রেসিপি: করোনা ঠেকাতে ইফতারে দুই শরবত

রেসিপি: করোনা ঠেকাতে ইফতারে দুই শরবত

বর্ণিল ঈদ আয়োজন এনেছে সারা

বর্ণিল ঈদ আয়োজন এনেছে সারা

বিড়ম্বনা যখন তেলতেলে নাক

বিড়ম্বনা যখন তেলতেলে নাক

যা খেলে শিশু জলদি ঘুমাবে

যা খেলে শিশু জলদি ঘুমাবে

লকডাউন কি করোনাভাইরাসের বিস্তার কম করতে সহায়তা করে?

লকডাউন কি করোনাভাইরাসের বিস্তার কম করতে সহায়তা করে?

ঈদে লা রিভের এক্সক্লুসিভ ফ্যাশন লেবেল ‘নার্গিসাস’

ঈদে লা রিভের এক্সক্লুসিভ ফ্যাশন লেবেল ‘নার্গিসাস’

ডায়াবেটিস রোগীরা রোজায় কী খাবেন, থাকলো ১০ পরামর্শ

ডায়াবেটিস রোগীরা রোজায় কী খাবেন, থাকলো ১০ পরামর্শ

ক্যাটস আইয়ে ঈদ পোশাক মিলবে ২০ শতাংশ ছাড়ে

ক্যাটস আইয়ে ঈদ পোশাক মিলবে ২০ শতাংশ ছাড়ে

ঈদ আয়োজন নিয়ে এসেছে ফেইসরঙ

ঈদ আয়োজন নিয়ে এসেছে ফেইসরঙ

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune