X
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

যশোরে দুই কাউন্সিলরসহ চার আ. লীগ নেতার বাড়ি মধ্যরাতে ভাঙচুরের অভিযোগ

আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:৪৮

যশোর পৌরসভার দুই কাউন্সিলরসহ আওয়ামী ও যুবলীগের চার নেতার বাড়িতে সোমবার (১১ জানুয়ারি) মধ্যরাতে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। ওই নেতাদের অভিযোগ, পুলিশের ৪০-৫০ জনের একটি দল এসে এ ভাঙচুর চালিয়েছে।

অবশ্য পুলিশ বলছে, তারা আসামি ধরতে অভিযানে ছিল, কোনও নেতার বাড়িতে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটায়নি।

সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাতে ইমরান নামে এক পুলিশ সদস্যকে মারপিট ও অপহরণ চেষ্টার অভিযোগে যশোর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপুসহ চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়। এরপর গভীর রাতে কয়েকটি বাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও পৌরসভার সাত নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘রাত ১টা ৪০ মিনিটের দিকে চিৎকার চেঁচামেচি শুনে ঘুম থেকে উঠি। জানালা দিয়ে দেখি ৪০-৫০ জন পোশাক পরিহিত পুলিশ। তারা চিৎকার করছে এবং এক পর্যায়ে আমার বাড়ির জানালার গ্লাস ভাঙচুর ও গালিগালাজ করে।’

কাউন্সিলর হাজি সুমনের বাড়িতে ভাঙচুরের সময় সিসি ক্যামেরাও ভেঙে ফেলা হয়।

তিনি বলেন, ‘কোনও সন্ত্রাসী গ্রুপও এভাবে ভাঙচুর করে না যেভাবে পুলিশ করেছে। প্রতিবেশীরা বেরিয়ে এলে তাদের তাড়িয়ে দেওয়া হয়। শিশুরা যে আতঙ্কিত হয়ে মারা যায়নি, তার জন্য আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। কোনও সভ্য দেশে এটা সম্ভব না। পুলিশ কোনও অভিযোগ ছাড়াই যদি একজন জনপ্রতিনিধির সাথে এমন আচরণ করতে পারে তাহলে কোন দেশে বসবাস করছি? এর উপযুক্ত শাস্তি হওয়া উচিত। মানুষের নিরাপত্তাটা কোথায়?’

তিনি দাবি করেন, হামলাকারীরা ১০-১২টি গাড়িতে এসেছে তা সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে।

অপর কাউন্সিলর হাজি সুমনের বাবা ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক বলেন, ‘রাত দুইটা থেকে আড়াইটার মধ্যে পোশাক পরা একদল পুলিশ আমার বাড়িতে ঢুকে গেট ভাঙচুর করে। পরে তারা সিসিটিভি ক্যামেরা, জানালা, দরজা ভাঙচুর করে। অপরাধ কী প্রশ্ন করলে গেট খুলতে বলে। এক পর্যায়ে গালিগালাজ করে চলে যায়।’

জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মীর জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘গতকাল রাতে দুর্ভাগ্যজনকভাবে যশোরের মাটিতে পুলিশ প্রশাসন কর্তৃক যে ঘটনা সংঘঠিত হয়েছে তা নজিরবিহীন। সামরিক স্বৈরাচার সরকার বলেন আর বিএনপি-জামায়াত সরকার বলেন তারাও কখনও এমন ঘটনা ঘটায়নি। পুলিশ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপির বাড়ির নিচে প্রেসে হামলা করেছে। আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল খালেক, মোস্তফা, যুবলীগ নেতা মনসুরসহ বিভিন্ন নেতার বাড়িতে হামলা হয়েছে। পুরো শহরজুড়ে ত্রাস সৃষ্টি করেছে পুলিশ। আমরা এর সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের আহ্বান রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের বাড়িতে এ ধরনের হামলার বিচার করা হোক।’

তবে, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘বিপু ও তার লোকজন পুলিশ সদস্যকে মারধর করে আইন ভঙ্গ করেছে। ওই ঘটনায় জড়িতদের ধরতে রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়েছে। তবে আওয়ামী লীগ নেতাদের বাড়িতে ভাঙচুরের অভিযোগ ভিত্তিহীন। এর সঙ্গে পুলিশ জড়িত নয়। সব পলিটিকস।’

তারপরও বিষয়টি তদন্ত করা হবে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত: সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাত আটটার দিকে শহরের পুরাতন কসবায় নতুন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় ইমরান নামে এক পুলিশ সদস্য সাদা পোশাকে তার বান্ধবীর সঙ্গে কথা বলছিলেন। এ সময় ক্ষমতাসীন দলের কতিপয় নেতাকর্মী সেখানে গিয়ে নারীর সঙ্গে গল্প করতে দেখে তার ওপর চড়াও হন। নিজের পরিচয় ও পরিচয়পত্র দেখিয়ে পুলিশ কনস্টেবল ইমরান এর প্রতিবাদ করেন। কিন্তু তারা এরপরও ওই পুলিশ সদস্যের গায়ে হাত তোলে এবং তাকে পাশের আবু নাসের ক্লাবে তুলে নিয়ে যায়।

পুলিশ দাবি করেছে, ওই ঘটনার সময় সেখানে শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপুও ছিলেন। খবর পেয়ে পুলিশের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা শহীদ ইমরানকে উদ্ধার করেন। এসময় তারা আওয়ামী লীগ নেতা মাহমুদ হাসান বিপুসহ ৪ জনকে হেফাজতে নেন। এর ১৯ ঘণ্টা পর বিপু ছাড়া পেলেও বাকিদের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

 

/টিএন/

সম্পর্কিত

ভারত থেকে ফিরলেন আড়াই হাজার বাংলাদেশি, পজিটিভ ১৪ জন

ভারত থেকে ফিরলেন আড়াই হাজার বাংলাদেশি, পজিটিভ ১৪ জন

কাল মোংলা বন্দরে আসছে মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালান

কাল মোংলা বন্দরে আসছে মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালান

বিদেশে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে হানিফের শঙ্কা

বিদেশে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে হানিফের শঙ্কা

আরও দুই জনের শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

আরও দুই জনের শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

‌'বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন হন আলমগীর'

‌'বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন হন আলমগীর'

সুন্দরবনে নিরাপত্তা জোরদার, কর্মীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ

সুন্দরবনে নিরাপত্তা জোরদার, কর্মীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ

অর্থকষ্টে কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারত ফেরত যাত্রীরা

অর্থকষ্টে কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারত ফেরত যাত্রীরা

ভারত ফেরত ৪৪৫ জন কোয়ারেন্টিনে

ভারত ফেরত ৪৪৫ জন কোয়ারেন্টিনে

মা-বাবা হারা মীমের পাশে খুলনার প্রশাসন

মা-বাবা হারা মীমের পাশে খুলনার প্রশাসন

সেপটিক ট্যাংকে নেমে দুই রাজমিস্ত্রির মৃত্যু

সেপটিক ট্যাংকে নেমে দুই রাজমিস্ত্রির মৃত্যু

সর্বশেষ

ঘুরে দাঁড়াতে সহায়তা চায় দেশি এয়ারলাইন্স, আশ্বাস প্রতিমন্ত্রীর

ঘুরে দাঁড়াতে সহায়তা চায় দেশি এয়ারলাইন্স, আশ্বাস প্রতিমন্ত্রীর

‘মানবিক কারণে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের চাকরি দিয়েছি’

রাবির সদ্য বিদায়ী উপাচার্যের দাবি‘মানবিক কারণে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের চাকরি দিয়েছি’

বিশ্বায়ন প্রসঙ্গে অর্থনীতি সমিতির ওয়েবিনার

বিশ্বায়ন প্রসঙ্গে অর্থনীতি সমিতির ওয়েবিনার

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর আরেকটি ঘাঁটি দখল করলো কারেন বিদ্রোহীরা

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর আরেকটি ঘাঁটি দখল করলো কারেন বিদ্রোহীরা

একচেটিয়া বাজার ভাঙতে পেরেছে ‘নগদ’: বিটিআরসি চেয়ারম্যান

একচেটিয়া বাজার ভাঙতে পেরেছে ‘নগদ’: বিটিআরসি চেয়ারম্যান

ঈদযাত্রা রোধে দুই ফেরিঘাটে বিজিবি’র পাহারা

ঈদযাত্রা রোধে দুই ফেরিঘাটে বিজিবি’র পাহারা

‘গ্যাস ঘাটতি মেটাতে পার্বত্য চট্টগ্রামে অনুসন্ধান শুরু করতে হবে’

‘গ্যাস ঘাটতি মেটাতে পার্বত্য চট্টগ্রামে অনুসন্ধান শুরু করতে হবে’

ভারত থেকে ফিরলেন আড়াই হাজার বাংলাদেশি, পজিটিভ ১৪ জন

ভারত থেকে ফিরলেন আড়াই হাজার বাংলাদেশি, পজিটিভ ১৪ জন

বিদ্যুৎ বিতরণে শিল্প মালিকদের আস্থায় আনার নির্দেশ

বিদ্যুৎ বিতরণে শিল্প মালিকদের আস্থায় আনার নির্দেশ

অবৈধভাবে যাত্রী পারাপার করায় পদ্মায় ৬ ট্রলার জব্দ

অবৈধভাবে যাত্রী পারাপার করায় পদ্মায় ৬ ট্রলার জব্দ

ট্রাকের তেলের ট্যাংকিতে মিললো ১০ হাজার ইয়াবা

ট্রাকের তেলের ট্যাংকিতে মিললো ১০ হাজার ইয়াবা

পিএসজিকেই ভালোবাসলেন নেইমার

পিএসজিকেই ভালোবাসলেন নেইমার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ভারত থেকে ফিরলেন আড়াই হাজার বাংলাদেশি, পজিটিভ ১৪ জন

ভারত থেকে ফিরলেন আড়াই হাজার বাংলাদেশি, পজিটিভ ১৪ জন

কাল মোংলা বন্দরে আসছে মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালান

কাল মোংলা বন্দরে আসছে মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালান

বিদেশে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে হানিফের শঙ্কা

বিদেশে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে হানিফের শঙ্কা

আরও দুই জনের শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

আরও দুই জনের শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

‌'বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন হন আলমগীর'

‌'বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন হন আলমগীর'

সুন্দরবনে নিরাপত্তা জোরদার, কর্মীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ

সুন্দরবনে নিরাপত্তা জোরদার, কর্মীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ

অর্থকষ্টে কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারত ফেরত যাত্রীরা

অর্থকষ্টে কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারত ফেরত যাত্রীরা

ভারত ফেরত ৪৪৫ জন কোয়ারেন্টিনে

ভারত ফেরত ৪৪৫ জন কোয়ারেন্টিনে

© 2021 Bangla Tribune