সেকশনস

পুরান ঢাকার আকাশে আজও উড়ছে রঙিন ঘুড়ি!

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২১, ২৩:০১

পৌষ সংক্রান্তির ঘুড়ি উৎসবে মেতে উঠেছে পুরান ঢাকাবাসী। তাদের কাছে এই উৎসবের নাম ‘সাকরাইন’। সাকরাইনের আজ দ্বিতীয় দিনেও উৎসবে কোনও ভাটা পড়েনি। আলোকসজ্জা, আতশবাজি আর গানবাজনা খানিকটা কম হলেও পুরান ঢাকার আকাশে আজও উড়েছে রঙিন ঘুড়ি। প্রতিযোগিতা চলছে ঘুড়ি কেটে ফেলার।  আনন্দ আয়োজনও চলছে। 

স্থানীয়রা বলছেন, গতকাল বৃহস্পতিবার ও আজ শুক্রবার পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে পুরান ঢাকার বাড়িতে বাড়িতে ‘সাকরাইন’ উৎসব উপলক্ষে ঘুড়ি ওড়ানো ছাড়াও আছে নানা আয়োজন।

ঘুড়ি পুরান ঢাকায় থাকা লেখক ও গবেষক আনিসুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রাচীন উৎসবসমূহের মধ্যে পুরান ঢাকার এই সাকরাইন উৎসব অন্যতম। যদিও এটা দেশব্যাপী পালিত হয় না, কিন্তু খুব জনপ্রিয় এবং গুরুত্বপূর্ণ পুরান ঢাকার সংস্কৃতির জন্য। এটাকে ঐক্য এবং বন্ধুত্বের প্রতীক হিসেবে দেখেন এখানকার মানুষ। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে এই উৎসবে। আগে এই আয়োজনগুলো হতো খোলা বড় মাঠে। এখন ফাঁকা জায়গায় বিল্ডিং উঠে যাওয়ায় আয়োজনগুলো চলে গেছে বাসার ছাদে। আনন্দ হচ্ছে পরিবারকেন্দ্রিক।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সরেজমিন দেখা যায়, শাঁখারীবাজার, তাঁতীবাজার, গোয়ালনগর, লক্ষ্মীবাজার, সূত্রাপুর, গেণ্ডারিয়া, লালবাগ ও এর আশপাশের এলাকায় আজও ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। প্রায় প্রতিটি বাড়ির ছাদ এখনও সাজানো আছে, গান বাজছে আর আকাশে ঘুড়ি উড়ছে। কে কার ঘুড়ি কাটতে পেরেছে সেই প্রতিযোগিতা চলছে।

ঘুড়ি উড়ছে গতকাল প্রথম দিনে সাকরাইনে বেশিরভাগ বাড়ির ছাদেই ছিল গানবাজনার আয়োজন ও লাইটিং করা। বাড়িতে বাড়িতে আত্মীয়। ঘুড়ি ওড়ানো মানুষ কমই চোখে পড়েছে। আজকে সেই সংখ্যাটা বেড়েছে। কিন্তু সন্ধ্যায় আতশবাজি ও আগুন খেলা নেই বললেই চলে।

পুরান ঢাকার স্থায়ী বাসিন্দা মুসলিম আলী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এই উৎসবকে মাথায় রেখে টানা এক সপ্তাহ পুরান ঢাকার রাস্তাগুলোর অধিকাংশ গলিতে ও খোলা ছাদে সুতা মাঞ্জা দেওয়ার ধুম পড়ে। পিঠা-পুলিসহ নানা ধরনের মিষ্টির আয়োজন হয়। গতকাল মূল উৎসব থাকলেও এটা চলবে আরও বেশ কয়েক দিন। যেমনটা প্রস্তুতি শুরু হয়েছিল আগে থেকেই।’

সাকরাইন উপলক্ষে আলোকসজ্জা মুসলিম আলী বলেন, ‘আসলে আমাদের এখানে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা যারা আছেন, তারা এটাকে পৌষ সংক্রান্তি বলেন। আমরা ঢাকাইয়ারা বলি সাকরাইন। তবে দুইটা একই। হিন্দুদের মধ্যে পূজার বিষয়টা আছে, মুসলমানদের মধ্যে সেটা নেই। তবে আনন্দ ভাগাভাগি হয়।’

অনেক অনেক বছর আগে জমিদার বাড়িগুলোতে ঘুড়ির উৎসব হতো। এখন সেই উৎসবের অনেক পরিবর্তন হয়েছে। তবে জৌলুসটা একটুও কমেনি; বরং বেড়েছে। এখনকার তরুণ প্রজন্ম সাদরে গ্রহণ করেছে সেই উৎসব। এই উৎসব দীর্ঘদিন টিকে থাকুক এটাই প্রত্যাশা পুরান ঢাকাবাসীর।

 

/এসএইচ/আইএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

এইচ টি ইমাম আর নেই

এইচ টি ইমাম আর নেই

আজ ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

আজ ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

এনআইডি জালিয়াতি:  ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

এনআইডি জালিয়াতি: ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা প্রত্যাহার চেয়ে  ‘সিটিও ফোরাম’ সভাপতির চিঠি

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা প্রত্যাহার চেয়ে  ‘সিটিও ফোরাম’ সভাপতির চিঠি

গ্রেফতারকৃতদের জামিন না দেওয়ায় ফের মশাল মিছিল

গ্রেফতারকৃতদের জামিন না দেওয়ায় ফের মশাল মিছিল

তিন অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল

তিন অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল

নদীর সমস্যা সমাধানে গবেষণার বিকল্প নেই: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

নদীর সমস্যা সমাধানে গবেষণার বিকল্প নেই: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

বাংলাদেশ মেডিক্যাল টিম এখন মালদ্বীপে

বাংলাদেশ মেডিক্যাল টিম এখন মালদ্বীপে

গৃহকর্মীদের শ্রমকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

গৃহকর্মীদের শ্রমকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

বেজার জমিতে কাজ করবে বেপজা

বেজার জমিতে কাজ করবে বেপজা

সর্বশেষ

প্রাথমিকের উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র!

প্রাথমিকের উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র!

র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক কারবারি নিহত

র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক কারবারি নিহত

এইচ টি ইমাম আর নেই

এইচ টি ইমাম আর নেই

পাসপোর্ট করতে গিয়ে রোহিঙ্গা নারীসহ গ্রেফতার ২

পাসপোর্ট করতে গিয়ে রোহিঙ্গা নারীসহ গ্রেফতার ২

১৮ মার্চ তাদের ‘কন্ট্রাক্ট’

১৮ মার্চ তাদের ‘কন্ট্রাক্ট’

‘বন্ধ’ হলেও দিব্যি আছেন তারা

‘বন্ধ’ হলেও দিব্যি আছেন তারা

অনুরাগ-তাপসীর বাসায় আয়কর বিভাগের হানা

অনুরাগ-তাপসীর বাসায় আয়কর বিভাগের হানা

লক্ষ্মীপুরের পোড়াগাছায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের অনুমোদন

লক্ষ্মীপুরের পোড়াগাছায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের অনুমোদন

সড়কে নবনির্বাচিত মেয়রের স্ত্রী-ছেলেসহ নিহত ৩

সড়কে নবনির্বাচিত মেয়রের স্ত্রী-ছেলেসহ নিহত ৩

আজ ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

আজ ঢাকা আসছেন জয়শঙ্কর

যশোরে খুন হওয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

যশোরে খুন হওয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

এনআইডি জালিয়াতি:  ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

এনআইডি জালিয়াতি: ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

এনআইডি জালিয়াতি:  ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

এনআইডি জালিয়াতি: ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

গ্রেফতারকৃতদের জামিন না দেওয়ায় ফের মশাল মিছিল

গ্রেফতারকৃতদের জামিন না দেওয়ায় ফের মশাল মিছিল

তিন অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল

তিন অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল

নদীর সমস্যা সমাধানে গবেষণার বিকল্প নেই: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

নদীর সমস্যা সমাধানে গবেষণার বিকল্প নেই: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

বাংলাদেশ মেডিক্যাল টিম এখন মালদ্বীপে

বাংলাদেশ মেডিক্যাল টিম এখন মালদ্বীপে

গৃহকর্মীদের শ্রমকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

গৃহকর্মীদের শ্রমকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান

সোহেল তাজের শরীরচর্চা কেন্দ্রে বন্ধু কাজী নাবিল আহমেদ

সোহেল তাজের শরীরচর্চা কেন্দ্রে বন্ধু কাজী নাবিল আহমেদ


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.