সেকশনস

অল্প খরচে প্রয়োজন মেটাচ্ছে ‘রিসাইকেল বিন’

আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:২৭

পিসি বা ল্যাপটপে কোনও তথ্য ডিলিট করলে তা জমা হয় রিসাইকেল বিনে। এটা হলো মুছে ফেলা তথ্যের ভাগাড়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এরকম রিসাইকেল বিন গ্রুপ বা পেজ রয়েছে, যেখানে মুছে ফেলা কোনও তথ্য পাওয়া যায় না। বরং পাওয়া যায় লোকজনের ব্যবহৃত পোশাক, আসবাবপত্র, ইলেক্ট্রিক আইটেম, গ্যাজেটস, মিউজিক্যাল ইন্সট্রুমেন্ট ইত্যাদি। অনেক সময় নতুন পণ্যও পাওয়া— যা ব্যবহার করা হয়নি, বহুদিন ধরে ঘরে পড়ে আছে। প্রয়োজনের তুলনায় বেশি আছে— এমন সব পণ্যও পাওয়া যায় রিসাইকেল বিনে। এক কথায় বলা যায়, কী নেই রিসাইকেল বিনে!

যার অনেক আছে বা প্রয়োজন নেই এমন জিনিসে ঘর ভর্তি, অথচ বিক্রি করে দিলে কিছু টাকা পাওয়া যাবে। আবার এই পণ্য যিনি কিনবেন তারও সাশ্রয় হবে— এমনই একটি প্ল্যাটফর্ম হলো রিসাইকেল বিন। ফেসবুক ঘেঁটে অন্তত এ রকম ৬টি রিসাইকেল বিনের খোঁজ পাওয়া গেছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এ সংখ্যা আরও বেশি। ঢাকার বাইরেও বিভিন্ন জেলাভিত্তিক রিসাইকেল বিন গ্রুপ বা পেজের খোঁজ পাওয়া গেছে।

একই নাম, একই প্ল্যাটফর্ম, আবার সবার উদ্দেশ্যও প্রায় একই— পুরনো জিনিস বিক্রি। যাদের সামর্থ্য আছে তারাও যেমন এখান থেকে জিনিসপত্র কিনছেন, আবার যাদের নেই, তারাও। অনেকের হঠাৎ টাকার প্রয়োজন, তার অনেক ড্রেস আছে, বা পুরনো সোফা বা ফ্রিজ বিক্রি করে দিয়ে নতুন কিনতে চান, তিনিও এই প্ল্যাটফর্মে বিক্রি করে কিছু আয় করতে পারেন। আবার যার হাতে অল্প টাকা আছে কিন্তু তার ফ্রিজ বা সোফা কেনা প্রয়োজন, তিনিও তার বাজেটের মধ্যে এখান থেকে কিনতে পারছেন। অনেকের কাছে নতুন পাঞ্জাবি আছে, যা সাইজের কারণে পরা হয় না বা একাধিক মিউজিক্যাল ইন্সট্রুমেন্ট রয়েছে, যার সবগুলোর প্রয়োজন নেই। তিনিও রিসাইকেল বিনে গিয়ে বিক্রি করে দিতে পারেন। আর এই কেনাবেচার মধ্য দিয়েই জনপ্রিয়তা পেয়েছে রিসাইকেল বিন।

কী আছে রিসাইকেল বিনে

রিসাইকেল বিন ঘেঁটে দেখা গেলো, স্বল্প ব্যবহৃত বা ব্যবহৃত কিংবা ঘরে পড়ে থাকা মোবাইল ফোন, ট্যাব, টেবিল, জামা কাপড়, এসি, শোকেস, ডায়েরি, সেলফি স্টিক, ফুলদানি, ট্রলি, ক্যামেরা, আইফোন, রিস্ট ব্যান্ড, বইয়ের তাক, হেডফোন, রাউটার, সোফা, রাইস কুকার, বাচ্চাদের কাপড়চোপড়, সেলাই মেশিন, বাসন-কোসন, বিয়ের শাড়ি, ক্রোকারিজ ইত্যাদি বিক্রির জন্য পোস্ট দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বিক্রির তালিকায় আরও পাওয়া রয়েছে— ফ্রিজ, জুতা স্যান্ডেল, শার্ট, মিউজিক্যাল ইন্সট্রুমেন্ট, ফুলের টব, রুম হিটার, বাচ্চাদের পড়ার টেবিল, হিজাব, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, পার্স, ওয়ার্ডরোব, মোবাইল ভ্যান, জুয়েলারি, ফার্নিচার, টেবিল ফ্যান, মেকআপ বক্স ইত্যাদি।

সবেচেয়ে বড় রিসাইকেল বিনেরও দেখা মিললো ফেসবুক ঘেঁটে।  অন্যান্য রিসাইকেল বিনে যা পাওয়া যায় তারচেয়ে বেশি আইটেম পাওয়া যাচ্ছে এই গ্রুপে।  এটাই রিসাইকেল বিনের মধ্যে সবেচেয় বড় গ্রুপ বলে জানা গেছে।  এই গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ৯ লাখ।  এই গ্রুপটি তৈরি ২০২০ সালের ৫ অক্টোবর।  সাইটটিতে একটি ব্যতিক্রম দিক রয়েছে।

গ্রুপটির অ্যাডমিন মাসুম আব্দুল্লাহ গ্রুপে এক পোস্টের মাধ্যমে জানিয়েছেন, গ্রুপে একের পর এক আর্থিক লেনদেনে জটিলতা, অনিশ্চিয়তা, ও প্রতারণার ঘটনায় নিরূপায় হয়ে রিসাইকেল বিন অ্যাডমিন প্যানেল সিকিউর পে‌' চালু করেছে।  এতে করে অপরিচিত ক্রেতা ও বিক্রেতাদের মধ্যে আস্থার সম্পর্ক নতুন করে রচিত হবে সিকিউর পের মাধ্যমে।

অভিযোগ আছে , রিসাইকেল বিন কপি হচ্ছে।  বিশেষ করে সর্বোচ্চ সংখ্যক সদস্যদের রিসাইকেল বিনের আইডিয়া কপি করে অনেকে গ্রুপ চালু করেছে।  এতে করে প্রকৃত রিসাইকেল বিন খুঁজে পাওয়া কষ্টের।  সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, দ্রুত জনপ্রিয়তা পাওয়ার কৌশল হিসেবে অনেকে রিসাইকেল বিন কপি করছে।

নাম এক হলেও রিসাইকেল বিনগুলোর সদস্য সংখ্যা আর হোম পেজ দেখে কেবল আলাদা করা যায়। এমনই একটা রিসাইকেল বিনের সদস্য সংখ্যা সাড়ে ৮৩ হাজার। গ্রুপটির প্রতিষ্ঠাতা ও অ্যাডমিন সাদিয়া শাহনেওয়াজ জানান, তিনি ২০১৮ সালের দিকে এটি শুরু করেছেন। সেসময় লোকজন এ বিষয়ে তত অ্যাক্টিভ ছিল না। যারা এ বিষয়টা নিয়ে জানে তারাই এটাতে সক্রিয় ছিল। পরিবর্তীতে এটার প্রসার হয়েছে এবং সদস্য সংখ্যাও বেড়েছে। তবে একই নামের আরও কয়েকটি ‘রিসাইকেল বিন’ থাকায় একটু সমস্যা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘মানুষ কনিফিউজড হয়ে যায় এতগুলো রিসাইকেল বিন দেখে। আমরা আমাদের সেবা দিয়ে সেই কনফিউশন দূর করার চেষ্টা করছি।’

সাদিয়া এটাকে সামাজিক উদ্যোগ হিসেবে দেখেছেন। আর্থিক কোনও বিষয় এটাতে কখনও সম্পৃক্ত হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন। পেশায় ব্যাংকার সাদিয়া শাহনেওয়াজ বলেন, ‘মেয়েরা কোনও ড্রেস কিনে একবার পরে ছবি তুলে ফেসবুকে শেয়ার করলে, পরে আর সেটা পরতে চায় না। এভাবে অনেক কাপড় জমে যায়— যা কাউকে দিয়ে দিতে পারে না, বা বিক্রিও করতে পারে না। এটা এক ধরনের সমস্যা। এই প্ল্যাটফর্ম সেই সমস্যা দূর করেছে। যাদের যেটা দরকার নেই, তারা সেটা এখানে বিক্রি করে দিতে পারে। আবার যার যেটা প্রয়োজন সে তা সাশ্রয়ী মূল্যে কিনে নিতে পারে। এক পক্ষের প্রয়োজন মিটলো, আবার অন্যপক্ষের কিছু আয়ও হলো।’

তিনি জানান, অনেকের বেশি বেশি কাপড় চোপড় থাকে, থাকে প্রয়োজনের অতিরিক্ত অন্যান্য জিনিসিপত্র। এমন অনেক মানুষ আছে যারা নিডি ও শিক্ষার্থী। নতুন কিছু কিনতে পারে না। তাদের কথা ভেবেই আসলে আইডিয়াটা মাথায় আসে। তিনি ছাড়াও তার গ্রুপের আরেকজন অ্যাডমিন হলেন মো. সিয়াম হোসেন। এছাড়া তার এক কাজিন মডারেটর হিসেবে রয়েছেন। পেশাগত কাজের বাইরে যে সময়টুকু পান, সেটা তিনি রিসাইকেল বিনের পেছনে ব্যয় করেন। জানা গেছে, তার গ্রুপে রোজ ১৫-২০টি পোস্ট পড়ে। কিন্তু শর্ত না মানায় সবগুলো অনুমোদন পায় না। যারা শর্ত মেনে পোস্ট দেন তাদেরগুলো অনুমোদন পায়। তার গ্রুপে প্রতিদিন অন্তত ১৫ জন নতুন সদস্য যুক্ত হন।

আরেকটি রিসাইকেল বিনের প্রতিষ্ঠাতা ও অ্যাডমিন সুমন ইসলাম আকাশ পেশায় শৌখিন আলোকচিত্রী। একটি জাতীয় দৈনিকের বিনোদন বিভাগের জন্য শখের ছবি তোলেন। পাশাপাশি গড়ে তুলেছেন রিসাইকেল বিন। এক বছর বয়সী এই গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ১৮ হাজারের কিছু বেশি। তিনি বলেন, ‘আমরা ইদানিং প্রচুর সাড়া পাচ্ছি। প্রতিদিন ২৫০ জনের বেশি নতুন সদস্য যুক্ত হচ্ছে গ্রুপে। প্রতিদিন অন্তত ১৫-২৫টা পোস্ট গ্রুপে শেয়ার হচ্ছে। যদিও জমা পড়ে আরও অনেক বেশি। কিন্তু সব অনুমোদন দেওয়া যায় না।’

তিনি জানান, আমাদের শর্ত হচ্ছে যা বিক্রির জন্য গ্রুপে পোস্ট করা হবে, তা অবশ্যই ব্যবহৃত হতে হবে এবং তার কেনাদাম ও বিক্রির দাম উল্লেখ করতে হবে। কোনও পেজের লিংক বা লাইভ শেয়ার করা যাবে না। অনেকে এগুলো মানতে চান না। ফলে অ্যাপ্রুভ করা যায় না সব। সুমন ইসলাম আকাশ জানান, তিনি একাই এর উদ্যোক্তা। মডারেটর আছে ৭ জন। তিনি কোনও ধরনের আর্থিক সংশ্লিষ্টতায় না গিয়ে সমাজের মানুষকে সেবা করতে চান।

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

রংপুরের বিভিন্ন উপজেলায় এক কেজি ধান-চালও কেনা যায়নি!

রংপুরের বিভিন্ন উপজেলায় এক কেজি ধান-চালও কেনা যায়নি!

করোনায় হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বন্ধ, রাজস্ব ঘাটতি ৫ কোটি

করোনায় হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বন্ধ, রাজস্ব ঘাটতি ৫ কোটি

পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোট রবিবার

পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোট রবিবার

সড়কে জরিমানা আদায়ে এখনও চালু হয়নি পজ মেশিন

সড়কে জরিমানা আদায়ে এখনও চালু হয়নি পজ মেশিন

যশোরে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে ৩ কিশোর হত্যা: ১২ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

যশোরে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে ৩ কিশোর হত্যা: ১২ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

চতুর্থ স্ত্রীর মামলায় হাসানুর রহমান নক্সেবন্দী কারাগারে

চতুর্থ স্ত্রীর মামলায় হাসানুর রহমান নক্সেবন্দী কারাগারে

দেশে রোবটকে বাংলায় কথা বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক

দেশে রোবটকে বাংলায় কথা বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক

‘বিডিআর হত্যাকাণ্ডের সকালে খালেদা জিয়া ক্যান্টনমেন্ট ছেড়েছিলেন কেন’

‘বিডিআর হত্যাকাণ্ডের সকালে খালেদা জিয়া ক্যান্টনমেন্ট ছেড়েছিলেন কেন’

অন্যায়কে প্রশ্রয় দেওয়ায় রাষ্ট্রের বৈধতা প্রশ্নবিদ্ধ: রব

অন্যায়কে প্রশ্রয় দেওয়ায় রাষ্ট্রের বৈধতা প্রশ্নবিদ্ধ: রব

সাত জেলায় সড়কে নিহত ২৩

সাত জেলায় সড়কে নিহত ২৩

সর্বশেষ

প্রেমের টানে সংসার ছাড়া স্বামীকে ঘরে ফেরালো পুলিশ!

প্রেমের টানে সংসার ছাড়া স্বামীকে ঘরে ফেরালো পুলিশ!

রংপুরের বিভিন্ন উপজেলায় এক কেজি ধান-চালও কেনা যায়নি!

রংপুরের বিভিন্ন উপজেলায় এক কেজি ধান-চালও কেনা যায়নি!

করোনায় হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বন্ধ, রাজস্ব ঘাটতি ৫ কোটি

করোনায় হিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে যাত্রী পারাপার বন্ধ, রাজস্ব ঘাটতি ৫ কোটি

দেবিদ্বারে গণসংযোগে হামলা, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৫

দেবিদ্বারে গণসংযোগে হামলা, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৫

কুমিল্লায় ওরশের মেলায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৩ জনকে ছুরিকাঘাত

কুমিল্লায় ওরশের মেলায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৩ জনকে ছুরিকাঘাত

পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোট রবিবার

পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোট রবিবার

লেখক মুশতাকের মৃত্যুতে ১৩ রাষ্ট্রদূতের উদ্বেগ

লেখক মুশতাকের মৃত্যুতে ১৩ রাষ্ট্রদূতের উদ্বেগ

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১১ কোটি ৩৭ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১১ কোটি ৩৭ লাখ ছাড়িয়েছে

সড়কে জরিমানা আদায়ে এখনও চালু হয়নি পজ মেশিন

সড়কে জরিমানা আদায়ে এখনও চালু হয়নি পজ মেশিন

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ২

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ২

‘কেএম নূরুল হুদা শুধু মিথ্যুকই নন, জনগণের শত্রু’

‘কেএম নূরুল হুদা শুধু মিথ্যুকই নন, জনগণের শত্রু’

ট্রাকের ধাক্কায় ২ মোটর সাইকেল আরোহী নিহত

ট্রাকের ধাক্কায় ২ মোটর সাইকেল আরোহী নিহত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দেশে রোবটকে বাংলায় কথা বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক

দেশে রোবটকে বাংলায় কথা বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক

‘করোনার ১০ মাসে তথ্যপ্রযুক্তিতে ১০ বছর এগিয়েছি’

‘করোনার ১০ মাসে তথ্যপ্রযুক্তিতে ১০ বছর এগিয়েছি’

যেকোনও ফোন বদলে নেওয়া যাবে মটোরোলা স্মার্টফোন

যেকোনও ফোন বদলে নেওয়া যাবে মটোরোলা স্মার্টফোন

‘সৃজনশীল জাতি গঠনে শিশুদের ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে’

‘সৃজনশীল জাতি গঠনে শিশুদের ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে’

সম্ভাবনাময় ব্লকচেইন প্রযুক্তি বিশ্বকে বদলে দেবে: পলক

সম্ভাবনাময় ব্লকচেইন প্রযুক্তি বিশ্বকে বদলে দেবে: পলক


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.