সেকশনস

ফাইজারের টিকা নেওয়ার পর নরওয়েতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯

আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১১:০৩

নরওয়েতে ফাইজারের উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার পর মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯ জনে দাঁড়িয়েছে। শুক্রবার দেশটির কর্তৃপক্ষকে উদ্ধৃত করে ২৩ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ। সবশেষ তথ্য হাজির করে তারা বলছে, নতুন করে আরও ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

প্রথমে যে ২৩ জনের মৃত্যুর খবর দেওয়া হয়েছিল, তাদের সবার বয়স ছিল ৮০-এর বেশি। তবে নতুন করে যে ৬ জনের মৃত্যুর তথ্য দেওয়া হয়েছে, তাদের বয়স ৭৫ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে।

শুক্রবার পর্যন্ত নরওয়েতে একক ভ্যাকসিন হিসেবে ফাইজারের টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে। শনিবার ব্লুমবার্গের প্রশ্নের লিখিত জবাবে তাই দেশটির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করেছে, সবগুলো মৃত্যুর সঙ্গেই ফাইজারের টিকার সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।

নরওয়ের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘এরইমধ্যে ১৩ জনের মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হয়েছে।’ সবগুলো মৃত্যুই ‘বয়স্কদের, যারা টিকা নেওয়ার পর ভয়ানক শারীরিক সংকটের মুখোমুখি হয়েছিলেন।’  বাকী ১৬ জনের মৃত্যুর ঘটনাও তদন্তাধীন।

ব্লুমবার্গের শনিবারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল,  ভ্যাকসিন গ্রহণের পর বয়স্কদের মৃত্যুর জেরে অতিবৃদ্ধ ও দীর্ঘমেয়াদে অসুস্থ মানুষের জন্য ফাইজারের ভ্যাকসিনকে ‘মারাত্মক ঝুঁকি’ হিসেবে অভিহিত করেছে নরওয়ে। ফলে করোনা টিকার সুরক্ষা ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে নতুন করে সংশয় দেখা দিয়েছে। 

স্থানীয় সময় শুক্রবার নরওয়েজিয়ান মেডিসিন এজেন্সির চিফ ফিজিশিয়ান সাইগার্ড হোর্তেমো বলেছিলেন, টিকা নেওয়ার পর জ্বর ও বমি বমি ভাবের সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সঙ্গে ‘কিছু কিছু দুর্বল রোগীর ক্ষেত্রে তা ভয়াবহ পরিণতি’ নিয়ে আসতে পারে।

করোনার মহামারি অবসানে তড়িঘড়ি করে টিকার অনুমোদন নিয়ে আগে থেকেই সমালোচনা হচ্ছিল। এমন সময় ইউরোপের দেশটির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে টিকার সুরক্ষা নিয়ে এমন সতর্কবার্তা আসলো।

গত ডিসেম্বর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ফাইজার এবং জার্মানির গবেষণা প্রতিষ্ঠান বায়োএনটেকের যৌথ উদ্যোগে তৈরি করোনা ভ্যাকসিন ‘কমিরনাটি’ র প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন নরওয়ের ৩০ হাজারেরও বেশি অধিবাসী। ঝুঁকি বিবেচনায় প্রথম ধাপে দেশটিতে বয়োজ্যেষ্ঠদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দেওয়া হচ্ছিল।

/বিএ/

সর্বশেষ

যুক্তরাষ্ট্রে জনসনের এক ডোজের ভ্যাকসিন অনুমোদন

যুক্তরাষ্ট্রে জনসনের এক ডোজের ভ্যাকসিন অনুমোদন

ঘাটতি নেই, তবু চালের দাম বাড়ছেই

ঘাটতি নেই, তবু চালের দাম বাড়ছেই

যোগ্যতানুসারে হিজড়াদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে

যোগ্যতানুসারে হিজড়াদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে

পঞ্চম ধাপে পৌর নির্বাচন শুরু

পঞ্চম ধাপে পৌর নির্বাচন শুরু

দুষ্কৃতিকারীদের দিন ঘনিয়ে এসেছে

দুষ্কৃতিকারীদের দিন ঘনিয়ে এসেছে

কালীগঞ্জ পৌরসভায় নির্বিঘ্নে ভোট দেওয়ার পরিবেশ চান প্রার্থীরা

কালীগঞ্জ পৌরসভায় নির্বিঘ্নে ভোট দেওয়ার পরিবেশ চান প্রার্থীরা

বন্যপ্রাণীর বিলুপ্তি ও অবৈধ বাণিজ্য ঠেকাতে গণমাধ্যমকর্মীদের দায়িত্বশীলতা জরুরি

বন্যপ্রাণীর বিলুপ্তি ও অবৈধ বাণিজ্য ঠেকাতে গণমাধ্যমকর্মীদের দায়িত্বশীলতা জরুরি

মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে মসজিদের সম্পত্তি দখলচেষ্টার অভিযোগ

মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে মসজিদের সম্পত্তি দখলচেষ্টার অভিযোগ

পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

কুষ্টিয়া ও পটুয়াখালীতে দুই গৃহবধূর লাশ

কুষ্টিয়া ও পটুয়াখালীতে দুই গৃহবধূর লাশ

মাদক বিক্রিতে বাধা, বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

মাদক বিক্রিতে বাধা, বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

ট্রলি ও ভটভটির ধাক্কায় তিন জেলায় নিহত ৩

ট্রলি ও ভটভটির ধাক্কায় তিন জেলায় নিহত ৩

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রে জনসনের এক ডোজের ভ্যাকসিন অনুমোদন

যুক্তরাষ্ট্রে জনসনের এক ডোজের ভ্যাকসিন অনুমোদন

ব্রিটিশ নাগরিকত্ব কি কখনও ফিরে পাবেন আইএস বধূ শামীমা?

ব্রিটিশ নাগরিকত্ব কি কখনও ফিরে পাবেন আইএস বধূ শামীমা?

ভারতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা

ভারতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ, দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা

সেনাবিরোধী বক্তব্যের পর মিয়ানমারের জাতিসংঘ দূত বরখাস্ত

সেনাবিরোধী বক্তব্যের পর মিয়ানমারের জাতিসংঘ দূত বরখাস্ত

মিয়ানমারে পুলিশের বড় ধরনের ধরপাকড় অভিযান, এক নারী গুলিবিদ্ধ

মিয়ানমারে পুলিশের বড় ধরনের ধরপাকড় অভিযান, এক নারী গুলিবিদ্ধ

বাম-আব্বাস ‘অশুভ জোট’ নিয়ে ক্ষুব্ধ সিপিএমের সাবেক নেতারা

বাম-আব্বাস ‘অশুভ জোট’ নিয়ে ক্ষুব্ধ সিপিএমের সাবেক নেতারা

আটকে পড়া রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে বাংলাদেশ বাধ্য নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আটকে পড়া রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে বাংলাদেশ বাধ্য নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

‘১৬ কোটি ক্ষুধার্ত, দুর্ভিক্ষের মুখে ৫০ লাখ ইয়েমেনি’

‘১৬ কোটি ক্ষুধার্ত, দুর্ভিক্ষের মুখে ৫০ লাখ ইয়েমেনি’

জিনজিয়াং-এর পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধানের উদ্বেগ

জিনজিয়াং-এর পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধানের উদ্বেগ

খাশোগি হত্যার মার্কিন প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করলো সৌদি আরব

খাশোগি হত্যার মার্কিন প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করলো সৌদি আরব


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.