সেকশনস

হাতিয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার তদন্ত চলছে, ভাইরাল ভিডিওটি ভিন্ন ঘটনার: পুলিশ

আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ২১:২৭

নোয়াখালীতে ধর্ষণ, নির্যাতন ও বিবস্ত্র করার অভিযোগ যেন থামছেই না। মাত্র চার মাস আগে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনা দেশজুড়ে চরম সমালোচিত হওয়ার পর আবারও একই জেলার দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় প্রায় একই ধরনের ঘটনা ঘটেছে। এবারও স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে তাকে শারীরিক নির্যাতন ও যৌন হয়রানি করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ নিজেই আদালতে গিয়ে এ ঘটনায় মামলা করেছেন।

তবে এ ঘটনায় ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিও গণমাধ্যমে ভাইরাল হলেও পুলিশের দাবি, এটি নির্যাতনের ভিডিও হলেও ওই নারীর ঘটনার সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। নারীর বাড়িঘরের সঙ্গে ঘটনাস্থলের মিল নেই। অভিযোগকারী নারীও এ বিষয়ে কোনও দাবি করেননি। পুলিশ বলেছে, ঘটনার সত্যতা যাচাইসহ তদন্ত চলছে। তদন্তে দোষীদের গ্রেফতারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আদালতেও প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।

জানা গেছে, নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চানন্দী ইউনিয়নের একটি গ্রামে নিজ বাড়িতে গত ১ জানুয়ারি শুক্রবার রাতে ধর্ষণচেষ্টার শিকার হন অভিযোগকারী গৃহবধূ (৩৫)। ঘটনার সময় তার স্বামী বাড়িতে ছিলেন না। তিনি সন্তানদের নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। এ সময় স্থানীয় সন্ত্রাসী জিয়া বাহিনীর প্রধান জিয়া ওরফে জিহাদ কৌশলে ঘরে ঢুকে তাকে শারীরিক নির্যাতনসহ ধর্ষণের চেষ্টা করে। বাধা দেওয়ায় তাকে মারধর করে জিয়া ও তার সঙ্গীরা।এ ঘটনায় গত ৫ জানুয়ারি ওই গৃহবধূ জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২-এ একটি পিটিশন মামলা দায়ের করেন। বিচারক বাদীর অভিযোগ আমলে নিয়ে হাতিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে সাত কর্মদিবসের মধ্যে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার আদেশ দেন।

গৃহবধূর দায়ের করা মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মামলার প্রধান আসামি জিয়া বাহিনীর প্রধান জিয়া ওরফে জিহাদ (৩০) ওই গৃহবধূকে দীর্ঘদিন ধরে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে জিহাদ। গত ১ জানুয়ারি শুক্রবার রাত ৯টায় গৃহবধূর স্বামী বাড়িতে ছিলেন না। তিনিও সন্তানদের নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। এর সুযোগে জিহাদ তার চার সহযোগীকে নিয়ে তার বাড়িতে আসে। এ সময় সহযোগী ফারুক, এনায়েত, ভুট্টু মাঝি ও ফারুক হোসেনকে বাইরে রেখে কৌশলে তার ঘরে ঢোকে জিহাদ। এরপর ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় এবং তার পোশাক ছিঁড়ে ফেলে। এ সময় তিনি বাধা দিলে সহযোগী ফারুক ও ফারুক হোসেনও ঘরে ঢোকে এবং জিহাদকে ধর্ষণচেষ্টায় সহযোগিতা করে। এ সময় ধস্তাধস্তির শব্দে ছেলেমেয়েরা জেগে উঠে চিৎকার শুরু করলে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে তার স্বামী এসে তাকে পরদিন শনিবার (২ জানুয়ারি) ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। হাসপাতালে দুই দিন চিকিৎসা নিয়ে ৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার নোয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ আদালতে ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন তিনি।
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম জানান, হাতিয়ার চানন্দী ইউনিয়নের আদর্শ গ্রামের এক গৃহবধূ শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন।

এদিকে, এ ঘটনার পর গতকাল শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। সেখানে এই গৃহবধূকে নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে ভিডিওটি আপলোড করার পর তা গণহারে শেয়ার করা হচ্ছে। তবে ভিডিওটি পুলিশের দৃষ্টিতে এলে তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দাবি করেন, এই ভিডিওর ঘটনাটিতেও নির্যাতনের আলামত আছে, তবে এটি একজন পুরুষের সঙ্গে ঘটেছে। এটি ওই গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনার সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। ভিডিওতে যে পরিবেশ ও ঘরবাড়ি দেখা গেছে ভিকটিম গৃহবধূর বাড়িঘরের সঙ্গে তা সঙ্গতিপূর্ণ ও সম্পর্কিত নয়।
প্রসঙ্গত, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন লোক বিবস্ত্র অবস্থায় একজনকে অর্ধনগ্ন অবস্থায় নির্যাতন করে টেনেহিচঁড়ে ঘরের একটি কক্ষ থেকে বের করে নিয়ে যাচ্ছে। এরপর একজন লাঠি দিয়ে ওই ঘরের দেয়ালে পেটাচ্ছে। এ সময় বেশ কিছু কণ্ঠস্বর শোনা যায়, তাতে জনৈক নারী ভালো নয় এমন কথা বলা হয়। তবে এতে ভিকটিমের চেহারা এক ঝলক দেখা গেলেও আক্রমণকারীদের চেহারা অস্পষ্ট। তবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই ভিডিও ছড়িয়ে দিয়ে বলা হচ্ছে, এটি ওই নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনা।
তবে এই দাবি উড়িয়ে দিয়ে হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের পাল্টা দাবি করেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যে ভিডিওটি ভাইরাল হচ্ছে সেটি ওই বাড়ির ছবি নয়। আপনারা দেখেন এটি পুরুষের ভিডিও। এটি জনৈক মহিউদ্দিনের ভিডিও বলে শোনা যাচ্ছে। এ বিষয়ে আরও তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা চলছে।
পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও ভাইরাল ভিডিওটিকে নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর ভিডিও নয় বলেই মন্তব্য করেছেন।

হাতিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার গোলাম ফারুক জানান, আদালতের নির্দেশনা হাতে পাওয়ার পর গতকাল শনিবার (১৬ জানুয়ারি) ঘটনাস্থলে যাই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যে ভিডিওর কথা বলা হচ্ছে, সেটি আমি দেখেছি। এটি সে গৃহবধূর ভিডিও নয় এবং ওই গৃহবধূর ঘরও নয়। এটা আশপাশের কোনও বাড়ির ঘটনা এবং জনৈক মহিউদ্দিন নামে এক পুরুষের ওপর কে বা কারা নির্যাতন করে, তারই ভিডিও হতে পারে এটি। তবে, কে বা কারা কী উদ্দেশ্যে এ ভিডিও পোস্ট করেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২ সেপ্টেম্বর রাতে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী ও দেলোয়ার বাহিনীর প্রধান দেলোয়ারের ইন্ধনে তার সাগরেদদের দ্বারা চরমভাবে নিগৃহীত হন এক নারী। বাবার বাড়িতে থাকাবস্থায় অনেক দিন পর ওই নারীর স্বামী তার কাছে আসে। কিন্তু, এটিকেই অপরাধ সাজিয়ে ওই নারীর স্বামীকে বেঁধে রেখে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে চরম নির্যাতনের পর সে ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেড়ে দেয় দেলোয়ার বাহিনী। এ ঘটনায় দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হলে হাইকোর্টের নির্দেশে ভিডিওটি অনলাইন থেকে সরিয়ে ফেলা হয়। এরপর আইন প্রয়োগকারী একাধিক সংস্থার সাঁড়াশি অভিযানে ধরা পড়ে দেলোয়ার বাহিনীর জড়িত সদস্যরা। মামলাটি এখন চলমান এবং আসামিরা কারাগারে আছে।

/টিএন/

সম্পর্কিত

টেকনাফে বসতবাড়িতে ডাকাতি, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

টেকনাফে বসতবাড়িতে ডাকাতি, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

সুবর্ণচরে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে হত্যা

সুবর্ণচরে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে হত্যা

শিগগিরই শিল্পাঞ্চলে পরিণত হবে মহেশখালী: হানিফ

শিগগিরই শিল্পাঞ্চলে পরিণত হবে মহেশখালী: হানিফ

সাগরে মাছ শিকারে গিয়ে তিন জেলে অপহরণের শিকার

সাগরে মাছ শিকারে গিয়ে তিন জেলে অপহরণের শিকার

অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় দুই যুবলীগ নেতার ৫ লাখ টাকা জরিমানা

অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় দুই যুবলীগ নেতার ৫ লাখ টাকা জরিমানা

কালো পতাকা মিছিলে মুজাক্কিরকে স্মরণ, হত্যাকারীদের বিচার দাবি

কালো পতাকা মিছিলে মুজাক্কিরকে স্মরণ, হত্যাকারীদের বিচার দাবি

কন্টেইনার জট কমাতে দ্বিগুণ হয়েছে স্টোররেন্ট

কন্টেইনার জট কমাতে দ্বিগুণ হয়েছে স্টোররেন্ট

লালদিয়ার চরে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের উচ্ছেদ অভিযান

লালদিয়ার চরে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের উচ্ছেদ অভিযান

ধর্ষণের বিচার চাওয়ায় একঘরে, পুকুরের পানি ছাড়া সব ছোঁয়া মানা!

ধর্ষণের বিচার চাওয়ায় একঘরে, পুকুরের পানি ছাড়া সব ছোঁয়া মানা!

মাদকের টাকা না পেয়ে মাকে হত্যা করলো মেয়ে!

মাদকের টাকা না পেয়ে মাকে হত্যা করলো মেয়ে!

সর্বশেষ

নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছিলেন বঙ্গবন্ধু

নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছিলেন বঙ্গবন্ধু

৮ ভূমিহীন পরিবারকে জমিসহ বাড়ি করে দেবেন হাসনাত-পারুল দম্পতি

৮ ভূমিহীন পরিবারকে জমিসহ বাড়ি করে দেবেন হাসনাত-পারুল দম্পতি

নসিমন উল্টে স্কুল শিক্ষার্থী নিহত

নসিমন উল্টে স্কুল শিক্ষার্থী নিহত

কলাবাগানে শিক্ষার্থী হত্যার অভিযোগে বাসা মালিকের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

কলাবাগানে শিক্ষার্থী হত্যার অভিযোগে বাসা মালিকের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

শ্রদ্ধা ভালোবাসায় পুলিশ মেমোরিয়াল ডে পালিত

শ্রদ্ধা ভালোবাসায় পুলিশ মেমোরিয়াল ডে পালিত

বগুড়ায় আ.লীগ মেয়র প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত

বগুড়ায় আ.লীগ মেয়র প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত

ট্রাক্টরের চাপায় শিশু নিহত

ট্রাক্টরের চাপায় শিশু নিহত

ইসির তিন কর্মকর্তা নির্বাচনি পদক পাচ্ছেন

ইসির তিন কর্মকর্তা নির্বাচনি পদক পাচ্ছেন

সাভারে চলন্ত প্রাইভেটকারে আগুন

সাভারে চলন্ত প্রাইভেটকারে আগুন

সাংবাদিকদের কল‍্যাণে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

সাংবাদিকদের কল‍্যাণে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

ছাত্র-শিক্ষক অনুপাতে আন্তর্জাতিক মান নেই জবিতে

ছাত্র-শিক্ষক অনুপাতে আন্তর্জাতিক মান নেই জবিতে

চুলের বৃদ্ধি বাড়াবে যে ৫ তেল

চুলের বৃদ্ধি বাড়াবে যে ৫ তেল

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

টেকনাফে বসতবাড়িতে ডাকাতি, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

টেকনাফে বসতবাড়িতে ডাকাতি, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

সুবর্ণচরে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে হত্যা

সুবর্ণচরে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে হত্যা

শিগগিরই শিল্পাঞ্চলে পরিণত হবে মহেশখালী: হানিফ

শিগগিরই শিল্পাঞ্চলে পরিণত হবে মহেশখালী: হানিফ

সাগরে মাছ শিকারে গিয়ে তিন জেলে অপহরণের শিকার

সাগরে মাছ শিকারে গিয়ে তিন জেলে অপহরণের শিকার

অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় দুই যুবলীগ নেতার ৫ লাখ টাকা জরিমানা

অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় দুই যুবলীগ নেতার ৫ লাখ টাকা জরিমানা

কালো পতাকা মিছিলে মুজাক্কিরকে স্মরণ, হত্যাকারীদের বিচার দাবি

কালো পতাকা মিছিলে মুজাক্কিরকে স্মরণ, হত্যাকারীদের বিচার দাবি

কন্টেইনার জট কমাতে দ্বিগুণ হয়েছে স্টোররেন্ট

কন্টেইনার জট কমাতে দ্বিগুণ হয়েছে স্টোররেন্ট

লালদিয়ার চরে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের উচ্ছেদ অভিযান

লালদিয়ার চরে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের উচ্ছেদ অভিযান


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.