সেকশনস

ফের পেছনের দরজা দিয়ে বেরিয়ে গেলেন বেরোবি উপাচার্য

আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ২১:১৫

রংপুরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (রেরোবি) উপাচার্য অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহর বাসভবন আবারও ঘেরাও করে অবস্থান নিয়েছেন শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এবারও উপাচার্য পেছনের দরজা দিয়ে বাসভবনে এসে চলে গেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকের এ ঘটনায় শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান অভিযোগ করে বলেন, ‘দীর্ঘ এক বছর ধরে উপাচার্য ক্যাম্পাসে আসেন না। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড স্থবির হয়ে পড়েছে। তার উপর নিয়োগ বাণিজ্য, অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতার কাছে জিম্মি আমরা সবাই। এক বছর পর গত শুক্রবার সকালে উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল প্রবেশপথে না এসে পেছনের গেট দিয়ে বাসায় ঢোকেন। আমরা খবর পেয়ে তার সঙ্গে দেখা করার জন্য বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছিলাম। কখন যে তিনি বাসার পেছনের গেট দিয়ে চলে গেছেন আমরা বুঝতেই পারিনি। আজ রবিবারও একই ঘটনা ঘটেছে। ইউজিসির একটি তদন্তকারী দল বিশ্ববিদ্যালয়ে আসছেন জানতে পেরে উপাচার্য রবিবার দুপুরের দিকে একইভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের পেছনের গেট দিয়ে বাসভবনে আসেন। খবর পেয়ে শতাধিক শিক্ষক-কর্মকর্তা বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন তার সঙ্গে দেখা করার জন্য। আজও দুপুর ৩টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অপেক্ষা করলাম, তিনি আসলেন না। একজন উপাচার্য অত্যন্ত সম্মানিত ব্যক্তি। আমরা মনে করি, এরকম আচরণ করে তিনি উপাচার্যের মতো সম্মানিত পদে থাকার নৈতিকতা হারিয়েছেন। আমরা চাই মাননীয় রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মহোদয় এবং প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি দেখবেন। একজন মানুষ তো রাষ্ট্রের চেয়ে বড় হতে পারেন না। তিনি রাষ্ট্রের সব আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দিনের পর দিন বাইরে থাকেন, মিথ্যাচার করেন। আমরা উচ্চ পর্যায়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি অধিকার সুরক্ষা পরিষদের সদস্য ড. তুহিন ওয়াদুদ বলেন, ‘রবিবার দুপুর পৌনে ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছেই লালবাগ এলাকায় জনতা ব্যাংকে উপাচার্য অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহর সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে। তাকে বললাম, আপনার সঙ্গে অধিকার সুরক্ষা পরিষদের নেতৃবৃন্দ দেখা করতে চান। উপাচার্য বললেন, ক্যাম্পাসে নয়, তার বাসায় দেখা করবেন। তার কথা অনুযায়ী দুপুর ৩টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপাচার্যের বাসভবনের সামনে আমরা অবস্থান নিয়ে অপেক্ষা করলাম, তিনি আর বাসায় আসলেন না।’

এদিকে উপাচার্যের বাসার কর্মচারী এবং নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তার ঘনিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, উপাচার্য দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা থেকে সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল গেট ব্যবহার না করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পেছনে তার বাসভবনের পেছনের গেট দিয়ে বাসায় আসেন। দু ঘণ্টা অবস্থান করে আবারও পেছনের গেট দিয়ে চলে যান। যাওয়ার সময় বলেন, বাইরে অপেক্ষমানদের বলা যাবে না আমি বাসায় নেই।’

এদিকে, বিকালে ইউজিসির সচিব ফেরদৌস জামানের নেতৃত্বে ইউজিসির একটি তদন্ত দল ক্যাম্পাসে এসে উপাচার্যের খোঁজ করে তার দেখা পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন বলে জানা গেছে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

জনবল সংকটে খুঁড়িয়ে চলছে রংপুরের দুদক কার্যালয়

জনবল সংকটে খুঁড়িয়ে চলছে রংপুরের দুদক কার্যালয়

ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ: দুই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা

ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ: দুই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা

প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা: ৫ নারীসহ গ্রেফতার ১১

প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা: ৫ নারীসহ গ্রেফতার ১১

বোচাগঞ্জে আগুনে পুড়লো ১৯ ঘর

বোচাগঞ্জে আগুনে পুড়লো ১৯ ঘর

নতুন শনাক্ত বাড়ছেই

নতুন শনাক্ত বাড়ছেই

দেশ কোনও ভাষণে স্বাধীন হয়নি, হয়েছে যুদ্ধে: গয়েশ্বর

দেশ কোনও ভাষণে স্বাধীন হয়নি, হয়েছে যুদ্ধে: গয়েশ্বর

মোটরসাইকেলে জেলার গণ্ডি পেরোতে পারবে না পুলিশ

মোটরসাইকেলে জেলার গণ্ডি পেরোতে পারবে না পুলিশ

ক্ষেতে পানি দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু

ক্ষেতে পানি দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু

ভারতীয় জাতের ধান গাছে ‘অদ্ভুত’ রোগ

ভারতীয় জাতের ধান গাছে ‘অদ্ভুত’ রোগ

অর্থপাচার থামছে না, কঠোর আইন চায় তদন্ত সংস্থাগুলো

অর্থপাচার থামছে না, কঠোর আইন চায় তদন্ত সংস্থাগুলো

সর্বশেষ

রাজশাহীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ব্যবসায়ী নিহত

রাজশাহীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ব্যবসায়ী নিহত

জুনের মধ্যে সরবে বিমানবন্দরের পরিত্যক্ত উড়োজাহাজ

জুনের মধ্যে সরবে বিমানবন্দরের পরিত্যক্ত উড়োজাহাজ

পুকুরে ভাসছিল দুই শিশুর মরদেহ

পুকুরে ভাসছিল দুই শিশুর মরদেহ

মিয়ানমারে এবার অসহযোগ আন্দোলনে অর্ধসহস্রাধিক পুলিশ সদস্য

মিয়ানমারে এবার অসহযোগ আন্দোলনে অর্ধসহস্রাধিক পুলিশ সদস্য

চীনে ২০২১ সালে ৬ শতাংশের বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা

চীনে ২০২১ সালে ৬ শতাংশের বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা

বাফুফে টার্ফ পরিদর্শনে দক্ষিণের মেয়র

বাফুফে টার্ফ পরিদর্শনে দক্ষিণের মেয়র

জনবল সংকটে খুঁড়িয়ে চলছে রংপুরের দুদক কার্যালয়

জনবল সংকটে খুঁড়িয়ে চলছে রংপুরের দুদক কার্যালয়

চকবাজারে বিস্ফোরক জাতীয় দ্রব্যসহ গ্রেফতার ৪

চকবাজারে বিস্ফোরক জাতীয় দ্রব্যসহ গ্রেফতার ৪

‘প্রিয়’ নম্বরে বিকাশের সেন্ড মানি ফ্রি

‘প্রিয়’ নম্বরে বিকাশের সেন্ড মানি ফ্রি

ঝিনাইদহে শিক্ষক-শিক্ষার্থী-শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা

ঝিনাইদহে শিক্ষক-শিক্ষার্থী-শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় বুড়োরা বাদ!

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় বুড়োরা বাদ!

বিমানের বহরে যুক্ত হলো ‘শ্বেতবলাকা’

বিমানের বহরে যুক্ত হলো ‘শ্বেতবলাকা’

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

জনবল সংকটে খুঁড়িয়ে চলছে রংপুরের দুদক কার্যালয়

জনবল সংকটে খুঁড়িয়ে চলছে রংপুরের দুদক কার্যালয়

ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ: দুই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা

ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ: দুই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা

প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা: ৫ নারীসহ গ্রেফতার ১১

প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা: ৫ নারীসহ গ্রেফতার ১১

বোচাগঞ্জে আগুনে পুড়লো ১৯ ঘর

বোচাগঞ্জে আগুনে পুড়লো ১৯ ঘর

ক্ষেতে পানি দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু

ক্ষেতে পানি দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু

ভারতীয় জাতের ধান গাছে ‘অদ্ভুত’ রোগ

ভারতীয় জাতের ধান গাছে ‘অদ্ভুত’ রোগ

আপেল কুলে সব কূল জয়!

আপেল কুলে সব কূল জয়!

ডিমলায় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার

ডিমলায় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.