X
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ৬ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য অভিন্ন বৃক্ষরোপণ নীতিমালা

আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৬:০০

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দৃষ্টিনন্দন করার উদ্যোগের অংশ হিসেবে এবার সারাদেশে প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণে একটি অভিন্ন নীতিমালা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। নীতিমালার আলোকে বিদ্যালয়ের ভূমির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করে বৃক্ষরোপণ করা হবে। যেখানে সেখানে গাছ লাগানো এবং ক্ষতিকর গাছ লাগানো যাবে না। খেলার মাঠ উন্মুক্ত রাখতে হবে। বিদ্যালয় দৃষ্টিনন্দন করতে সুনির্দিষ্ট নিয়ম মেনে গাছ লাগানোর এসব বিধান রাখা হবে নীতিমালায়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দৃষ্টিনন্দন করার অংশ হিসেবে প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের আদলে প্রতিটি বিদ্যালয়ে একইরকম শহীদ মিনার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ নীতিমালার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকায় যত্রযত্র গাছে লাগানো হয়। ক্ষতিকর বৃক্ষও রোপণ করা হয়ে থাকে। খেলার মাঠের মাঝখানেও গাছ লাগানো হয়। অল্প জায়গায় পরিকল্পিতভাবে বৃক্ষরোপণ না করায় বিদ্যালয়ের মাঠ ও ভূমি আঙিনার যথাযথ ব্যবহার করা যায় না। তাই একটি নীতিমালা করা হবে। নীতিমালা অনুযায়ী প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ করতে হবে। ‘

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গত ডিসেম্বরের সমন্বয় সভায় বৃক্ষরোপণের জন্য একটি অভিন্ন নীতিমালা প্রণয়ন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  সমন্বয় সভায় জানানো হয়, বিপন্ন প্রজাতির বিভিন্ন ধরনের ফলের গাছ রোপণ করে ছাদ-বাগান করা হয়েছে। বৃক্ষরোপণের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের জন্য ক্ষতিকর বৃক্ষ পরিহার করা এবং ভবন থেকে নির্দিষ্ট দূরত্ব বাজায় রাখার বিষয়টিকে গুরুত্ব আরোপ করে মাঠ পর্যায়ে পত্র পাঠানো হয়েছে। এই আলোচনার পর বৃক্ষ রোপণের বিষয়ে একটি অভিন্ন নীতিমালা তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। নীতিমালা তৈরির বিষয়টি বাস্তবায়নের জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয় উপ-পরিচালক সংস্থাপনকে।

/এমআর/

সর্বশেষ

দিল্লিতে লকডাউন জারি

দিল্লিতে লকডাউন জারি

ময়মনসিংহের করোনা ইউনিটে বেড়েছে ৩ আইসিইউ বেড

ময়মনসিংহের করোনা ইউনিটে বেড়েছে ৩ আইসিইউ বেড

ঈদের আগে লকডাউন শিথিল হবে

ঈদের আগে লকডাউন শিথিল হবে

জান্তা সরকারের বন্দি নির্যাতনের ছবি প্রকাশ, মিয়ানমারে বাড়ছে ক্ষোভ

জান্তা সরকারের বন্দি নির্যাতনের ছবি প্রকাশ, মিয়ানমারে বাড়ছে ক্ষোভ

ফেসবুক অ্যাকাউন্টের জেরে পান্থ কানাইয়ের জিডি

ফেসবুক অ্যাকাউন্টের জেরে পান্থ কানাইয়ের জিডি

ব্যাংকে ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার হচ্ছে না

ব্যাংকে ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার হচ্ছে না

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সম্পাদকের দুই পায়ে সন্ত্রাসীদের গুলি (ভিডিও)

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সম্পাদকের দুই পায়ে সন্ত্রাসীদের গুলি (ভিডিও)

নাভালনির মৃত্যু হলে রাশিয়াকে ভুগতে হবে: যুক্তরাষ্ট্র

নাভালনির মৃত্যু হলে রাশিয়াকে ভুগতে হবে: যুক্তরাষ্ট্র

বার্সেলোনায় মেসির বাবা, ভবিষ্যৎ এখনও অনিশ্চিত!

বার্সেলোনায় মেসির বাবা, ভবিষ্যৎ এখনও অনিশ্চিত!

প্রধানমন্ত্রীর কাছে জাফরুল্লাহ চৌধুরীর খোলা চিঠি

প্রধানমন্ত্রীর কাছে জাফরুল্লাহ চৌধুরীর খোলা চিঠি

লকডাউন বাড়ানো হলো যে কারণে

লকডাউন বাড়ানো হলো যে কারণে

হাইকোর্টের নজরে আনা হলো চিকিৎসক-পুলিশ বাগবিতণ্ডা

হাইকোর্টের নজরে আনা হলো চিকিৎসক-পুলিশ বাগবিতণ্ডা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

হাইকোর্টের নজরে আনা হলো চিকিৎসক-পুলিশ বাগবিতণ্ডা

হাইকোর্টের নজরে আনা হলো চিকিৎসক-পুলিশ বাগবিতণ্ডা

৩০টি কবর আগে থেকেই খুঁড়ে রাখা

৩০টি কবর আগে থেকেই খুঁড়ে রাখা

মামুনুলকে ইবাদতের উপযোগী জায়গায় রাখতে বললেন আদালত

মামুনুলকে ইবাদতের উপযোগী জায়গায় রাখতে বললেন আদালত

৭ দিনের রিমান্ডে মামুনুল

৭ দিনের রিমান্ডে মামুনুল

বাস ছাড়া সবই চলে!

বাস ছাড়া সবই চলে!

আদালতে মামুনুল হক, নিরাপত্তা জোরদার

আদালতে মামুনুল হক, নিরাপত্তা জোরদার

দুই নারী সঙ্গীর বিষয়ে পুলিশকে যা বললেন মামুনুল

দুই নারী সঙ্গীর বিষয়ে পুলিশকে যা বললেন মামুনুল

রোজা রেখে সুগন্ধি ব্যবহার করা যাবে?

রোজা রেখে সুগন্ধি ব্যবহার করা যাবে?

হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে আরও ৬২ আলেমের বিবৃতি

হেফাজতে ইসলামের বিরুদ্ধে আরও ৬২ আলেমের বিবৃতি

৫০০ বছর আগের মসজিদটি ঘিরে কত গল্প!

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদ৫০০ বছর আগের মসজিদটি ঘিরে কত গল্প!

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune