সেকশনস

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০১:৩৮

দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের জারি করা নির্দেশনা এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনেস্কো, ইউনিসেফ, বিশ্বব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক নির্দেশনা অনুসরণ করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কথাও বলা হয়েছে। তবে স্থানীয় বাস্তবতার সঙ্গে সামঞ্জস্য বিধান করতে এবং প্রতিটি শিক্ষার্থীর শিখন, স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার চাহিদা পূরণ করতে নির্দেশিকা প্রয়োজনে প্রাসঙ্গিকীকরণের নির্দেশ রয়েছে।

নির্দেশিকা প্রণয়নে অনুসরণ করা মূলনীতির মধ্যে রয়েছে-
১) শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষাকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়া।
২) জাতীয় পর্যায়ের সব স্বাস্থ্যবিধি ও নির্দেশনা মেনে এবং আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য বিধিসমূহ বিবেচনায় রেখে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় চালু করতে হবে।
৩) প্রতিষ্ঠান পুনরায় চালু করতে সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের (শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থী, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃৃপক্ষ, স্থানীয় স্বাস্থ্য ও প্রশাসন এবং কমিউনিটি) সম্পৃক্ত করতে হবে।
৪) স্থানীয় প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালুকরণ এবং সার্বক্ষণিক যোগাযোগের মাধ্যমে সঠিক তথ্য প্রাপ্তি, বাছাই ও তা প্রতিষ্ঠানের জন্য প্রাসঙ্গিক করতে হবে।
৫) দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত, জেন্ডার, নৃগোষ্ঠি, প্রতিবন্ধিতা বিবেচনা করে সবার জন্য প্রযোজ্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
৬) প্রতিটি শিক্ষার্থীর শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে আনন্দঘন শিখন পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।
৭) প্রতিটি শিক্ষার্থীর পুষ্টি উন্নয়নের মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধ করার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে পুষ্টি শিক্ষা এবং পুষ্টিসেবা প্রদান নিশ্চিত করার কথাও বলা হয়েছে।
৮) কোভিড-১৯ পরিস্থিতিকে নতুন স্বাভাবিকতা হিসেবে বিবেচনা করতে হবে।
৯) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (সরকারি/বেসরকারি, আবাসিক/অনাবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান) জন্য বিবেচনা করতে হবে।
১১) সর্বোপরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবস্থান, প্রাতিষ্ঠানিক ও আর্থিক সক্ষমতা, জনবল ও দক্ষতা ইত্যাদি বিবেচনায় বাস্তবসম্মতভাবে নির্দেশনা প্রণয়ন করতে হবে।

নির্দেশিকা প্রণয়নে যে সব স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা সূচকসমূহকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে-
১) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অবস্থানকালে সব শিক্ষার্থী, শিক্ষক, স্টাফ ও সংশ্লিষ্ট সবার সর্বদা মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করা।
২) প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কার্যক্রমে নির্দেশিত (৩ ফুট) শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।
৩) একসঙ্গে অধিক সংখ্যক মানুষের জমায়েতকে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।
৪) প্রতিষ্ঠানগুলোতে নির্দিষ্ট সময় পর পর নিয়ম মেনে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া ও পরিষ্কারের ব্যবস্থা রাখতে হবে।
৫) হাঁচি-কাশির শিষ্টাচার পালন করা ও উৎসাহিত করতে হবে।
৬) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মেঝেসহ সব এলাকা প্রতিদিন নিয়মিত পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করতে হবে।
৭) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়মিত পানি, স্যানিটেশন এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সুবিধা রাখা এবং পরিচ্ছন্ন ও দূষণমুক্ত পরিবেশ বজায় রাখার পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।
৮) শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপ করা এবং কেউ অসুস্থ/আক্রান্ত থাকলে/হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থার পাশাপাশি কন্টাক্ট ট্রেসিং করে অন্যদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কমিউনিটির মধ্যে নিয়মিত যোগাযোগ ও সহযোগিতার মাধ্যমে গুজবের আতঙ্ক ও মহামারির বিস্তার রোধে শিক্ষার্থীসহ সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার কথাও গাইডলাইনে বলা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (সরকারি/বেসরকারি, আবাসিক/অনাবাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান) এই নির্দেশিকা ব্যবহার করতে পারবে।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কবে থেকে পুনরায় চালু হবে তা কেন্দ্রীয়ভাবে সরকার কর্তৃক ঘোষণা করা হবে। তবে পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ বেশ কিছু উদ্যোগ বিশেষ করে বিস্তারিত পরিকল্পনা প্রণয়ন, অর্থসংস্থান এবং প্রয়োজনীয় সামগ্রী সংগ্রহ করবে। প্রতিষ্ঠান খোলা সংক্রান্ত সরকারি ঘোষণা অনুসরণের পাশাপাশি প্রধান শিক্ষক, অন্যান্য শিক্ষক ও ব্যবস্থাপনা কমিটিকে নিয়ে এলাকার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করতে হবে। পরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় খোলার বিষয়ে সবাইকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে। প্রতিষ্ঠান চালু করতে বিভিন্ন উদ্যোগের পাশাপাশি স্থানীয় পর্যায়ে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিষয়ে সম্যক ধারণা থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এক্ষেত্রে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এলাকার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিশ্লেষণ, করোনা সংক্রমণের বিস্তার বিবেচনায় নিরাপদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বিশ্লেষণ করে দেখার কথা বলা হয়েছে। সব প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে পারবে কিনা, প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ রাখার প্রভাব সেখানকার শিক্ষার্থীদের ওপর কীভাবে পড়েছে এবং প্রতিষ্ঠান খোলা হলে এবং চালু রাখলে, তা ওই এলাকায় সংক্রমণ আরও বাড়িয়ে দিতে পারে কিনা ইত্যাদি ভালোভাবে বিশ্লেষণ করে দেখতে হবে। সব পরিস্থিতি ও তথ্য বিশ্লেষণের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান চালু রাখতে পদক্ষেপ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে প্রস্তুতির নির্দেশনা জারি

দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে রিট
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রস্তুতির নির্দেশনা দু-একদিনের মধ্যেই
কীভাবে খুলতে পারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

 

/এসএমএ/টিটি/

সম্পর্কিত

পিলখানা হত্যা দিবস আজ

পিলখানা হত্যা দিবস আজ

করোনাকালে বাংলাদেশের পাশে থাকায় ৬ এয়ারলাইন্সকে সম্মাননা

করোনাকালে বাংলাদেশের পাশে থাকায় ৬ এয়ারলাইন্সকে সম্মাননা

ভিকারুননিসাকে সতর্কতামূলক ৭ নির্দেশনা প্রতিযোগিতা কমিশনের

ভিকারুননিসাকে সতর্কতামূলক ৭ নির্দেশনা প্রতিযোগিতা কমিশনের

১০ এপ্রিলকে ‘প্রজাতন্ত্র দিবস’ ঘোষণার দাবি রবের

১০ এপ্রিলকে ‘প্রজাতন্ত্র দিবস’ ঘোষণার দাবি রবের

ঢাকা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন: প্রথম দিন ভোট পড়েছে ৩৯৮৮

ঢাকা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন: প্রথম দিন ভোট পড়েছে ৩৯৮৮

টিকা নিলেন ২৬ লাখের বেশি মানুষ

টিকা নিলেন ২৬ লাখের বেশি মানুষ

১ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে প্রাক বাজেট আলোচনা

১ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে প্রাক বাজেট আলোচনা

চির নিদ্রায় শায়িত সৈয়দ আবুল মকসুদ

চির নিদ্রায় শায়িত সৈয়দ আবুল মকসুদ

শাস্তি হিসেবে পার্বত্য এলাকায় বদলি, এই অপপ্রচার বন্ধের সুপারিশ

শাস্তি হিসেবে পার্বত্য এলাকায় বদলি, এই অপপ্রচার বন্ধের সুপারিশ

দেশে পৌঁছেছে ‘আকাশ তরী’

দেশে পৌঁছেছে ‘আকাশ তরী’

পার্বত্য চট্টগ্রামের বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিষয়ে দিল্লির সঙ্গে আলোচনা করবে ঢাকা

পার্বত্য চট্টগ্রামের বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিষয়ে দিল্লির সঙ্গে আলোচনা করবে ঢাকা

সর্বশেষ

এক জালে ধরা পড়লো চার লাখ টাকার মাছ

এক জালে ধরা পড়লো চার লাখ টাকার মাছ

রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সম্মেলনে লেখকের ঘোষণা, কমিটি হবে ঢাকায়

রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সম্মেলনে লেখকের ঘোষণা, কমিটি হবে ঢাকায়

স্টার লাইন বিস্কুট কারখানায় ভয়াবহ আগুন

স্টার লাইন বিস্কুট কারখানায় ভয়াবহ আগুন

মুন্সীগঞ্জে হামদর্দ জেনারেল হাসপাতালের উদ্বোধন

মুন্সীগঞ্জে হামদর্দ জেনারেল হাসপাতালের উদ্বোধন

মান্নান হীরা স্মরণে ‘মরমী নাট্যমেলা’

মান্নান হীরা স্মরণে ‘মরমী নাট্যমেলা’

সাংবাদিক মুজাক্কিরকে হত্যার প্রতিবাদে বিভিন্ন জেলায় মানববন্ধন

সাংবাদিক মুজাক্কিরকে হত্যার প্রতিবাদে বিভিন্ন জেলায় মানববন্ধন

প্রযুক্তির প্রসারকে রাজনৈতিক জটিলতায় ফেলে দেওয়া হচ্ছে: হুয়াওয়ের ক্যাথরিন চেন

প্রযুক্তির প্রসারকে রাজনৈতিক জটিলতায় ফেলে দেওয়া হচ্ছে: হুয়াওয়ের ক্যাথরিন চেন

৩ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহতের খবরে ক্যাম্পে স্বস্তি, মিষ্টি বিতরণ 

৩ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহতের খবরে ক্যাম্পে স্বস্তি, মিষ্টি বিতরণ 

পিলখানা হত্যা দিবস আজ

পিলখানা হত্যা দিবস আজ

সাত শর্তে বাড়িতেই দুই বোনের দুই বছরের সাজা

সাত শর্তে বাড়িতেই দুই বোনের দুই বছরের সাজা

করোনাকালে বাংলাদেশের পাশে থাকায় ৬ এয়ারলাইন্সকে সম্মাননা

করোনাকালে বাংলাদেশের পাশে থাকায় ৬ এয়ারলাইন্সকে সম্মাননা

গোপালগঞ্জে সমাহিত খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ

গোপালগঞ্জে সমাহিত খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পিলখানা হত্যা দিবস আজ

পিলখানা হত্যা দিবস আজ

টিকা নিলেন ২৬ লাখের বেশি মানুষ

টিকা নিলেন ২৬ লাখের বেশি মানুষ

১ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে প্রাক বাজেট আলোচনা

১ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে প্রাক বাজেট আলোচনা

শাস্তি হিসেবে পার্বত্য এলাকায় বদলি, এই অপপ্রচার বন্ধের সুপারিশ

শাস্তি হিসেবে পার্বত্য এলাকায় বদলি, এই অপপ্রচার বন্ধের সুপারিশ

দেশে পৌঁছেছে ‘আকাশ তরী’

দেশে পৌঁছেছে ‘আকাশ তরী’

পার্বত্য চট্টগ্রামের বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিষয়ে দিল্লির সঙ্গে আলোচনা করবে ঢাকা

পার্বত্য চট্টগ্রামের বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিষয়ে দিল্লির সঙ্গে আলোচনা করবে ঢাকা

সাধারণ ছুটি ছাড়াই ভোট হবে ৩০ পৌরসভায়

সাধারণ ছুটি ছাড়াই ভোট হবে ৩০ পৌরসভায়

বিমান বাহিনী প্রধানের সঙ্গে ভারতীয় বিমান বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

বিমান বাহিনী প্রধানের সঙ্গে ভারতীয় বিমান বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

পাউবোতে ছয় হাজার পদ শূন্য

পাউবোতে ছয় হাজার পদ শূন্য


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.