X
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

‘এক মাস আগে মাটি কাটছি, আইজও টেকা দেয় না পিআইসি’

আপডেট : ০২ মার্চ ২০২১, ২২:১৩

‘হাওরের বান্দো (বাঁধে) এক মাস আগে মাটি কাটছি আইজও টেকা দেয় না পিআইসি, আমরা কি বাতাস খাইয়া বাঁচতাম? বান্দও মাটি কাইট্টা বিপদও পড়ছি লাগে’–এ মন্তব্য সুনামগঞ্জের সদর উপজেলার রঙ্গাচর ইউনিয়নের বিরামপুর গ্রামের মাটি কাটার শ্রমিক কমর উদ্দিনের। চলতি বছর কানলার হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণে তিনিসহ ১০০ শ্রমিক বাঁধ নির্মাণের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়ে মাটি কেটেছেন। কিন্তু, শ্রমিকদের অভিযোগ, মাটি কেটে দিলেও প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সভাপতি আজও তাদের পাওনা পরিশোধ করেনি।

শ্রমিক সিরাজ মিয়া বলেন, পাওনা টাকার আদায়ের জন্য পিআইসির বাড়ি আইতে আর যাইতে জুতার তলা ক্ষয়ে যাচ্ছে। খালি কয় বিল পাইলে টেকা দিমু। দিনের পর দিন টাকা লইয়া ঘুরাঘুরি করে। বৃন্দাবন নগরের শ্রমিক আরশাদুল ইসলাম বলেন, পাওনা টেকার লাগি পিআইসিদের ফোন দিলে ফোন বন্ধ করি রাখি দেয়, খুঁজতে বাড়িত গেলে ঘরের মাইসে কয় তাইন বাড়িত নায়। ইতা কিতা শুরু হইলো বুঝলাম নায়।

সুনামগঞ্জে হাওরের বাঁধে মাটি কাটছে শ্রমিকরা

শ্রমিক হাবিজুর মিয়া বলেন, মাটির কাজ করতে অনেক কষ্ট হয়, শক্তি লাগে। এরকম কাজ করে মুজুরি না পাইলে এরচেয়ে কষ্ট আর কুন্তা (কিচ্ছু) নাই।

একই কথা বলেন, বিরামপুর,গুচ্ছগ্রাম, বৃন্দাবননগর গ্রামের মাটি কাটার শ্রমিক রমজান আলী, সোনাই মিয়া, সাইফুদ্দিন, ময়না মিয়া, মহিম মিয়া, শরীফ উদ্দিন,শফিক মিয়া,সিরাজ মিয়া,তাজুল ইসলামের মতো অর্ধশত মাটি কাটার শ্রমিক।

শ্রমিকরা এসব কাজে নিয়োগ হয় তাদের সর্দারের মাধ্যমে। টাকা না পেয়ে পিআইসি’র পাশাপাশি সর্দারকে চাপ দেয়, বিচার দেয়। কিন্তু সমাধান কিছু দিতে পারেন না তিনি।

শ্রমিক সর্দার মোশাহিদ আলী বলেন, তার অধীনে দুই শতাধিক শ্রমিক কানলার হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধে মাটি ফেলার কাজ করেছে। মাটির কাজ শেষ হলেও এখনও বাঁধে বাঁশ লাগানো ও বস্তা দুর্মুজের কাজ রয়ে গেছে। প্রতিদিন শ্রমিকরা তাকে পাওনা টাকার জন্য তাগিদ দেয় তিনি কোনও উত্তর দিতে পারেন না। মাঝে মধ্যে ফোন বন্ধ করে রাখেন। এরকম চলতে থাকলে হাওরে বাঁধের কোনও কাজ ভালোভাবে শেষ হবে না।

তবে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সভাপতি বলেন, ‘যত দোষ নন্দ ঘোষ’-এই হচ্ছে তাদের অবস্থা। তারা বিল জমা দিয়ে চেয়ে থাকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের দিকে, আর পেছন থেকে শ্রমিকরা তাদের টাকার জন্য চাপ দিতে থাকে। এই অবস্থা চলতে থাকলে ভবিষ্যতে শ্রমিক পাওয়াই তাদের জন্য কঠিন হবে।

কানলার হাওরের ৩১ নং প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি আনোয়ার মিয়া বলেন, বাঁধে মাটি ফেলার কাজ অনেক আগেই শেষ করছি। যে টাকার মাটি ফেলা হয়েছে তার অর্ধেক টাকাও দেয়নি পানি উন্নয়ন বোর্ড।

তারও অভিযোগ, এখন টাকার অভাবে বাঁধে দুর্মুজ, বাঁশ, বস্তা, চাঁটাই ফেলার কাজ করতে পারছেন না। কবে পানি উন্নয়ন বোর্ড টাকা দেবে আর কবে এসব কাজ শেষ হবে তিনি তা বলতে পারেন না। এদিকে বৃষ্টিপাত শুরু হলে বাঁধে কাজ করা আরও কঠিন হয়ে যাবে। হাওরের বিভিন্ন পিআইসি কমিটির লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সব পিআইসি অর্থ সংকটের কারণে বাঁধের কাজ ভালোভাবে শেষ করতে পারছেন না। অধিকাংশ প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি যে পরিমাণ মাটি বাঁধে ফেলেছেন তার টাকা পাননি।

হাওরে বাঁধে মাটি কাটছে শ্রমিকরা (এক মাস আগের ছবি)

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর জেলার ছোটবড় ৫২টি হাওরে ১৩৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮০৯টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে ৬২০ কিলোমিটার ডুবন্ত বাঁধ ও ২০৮ টি ব্রিচ নির্মাণ করা হবে। তবে প্রথম ও  দ্বিতীয় কিস্তি বাবদ ছাড় দেওয়া হয়েছে মাত্র ৬২ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। বকেয়া রয়েছে ৭০ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। বাঁধের মাটির কাজ ৮০ ভাগ শেষ হলেও ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিচে বাঁশ,বস্তা, চাঁটাই ফেলা দুরমুজ করা ও ঘাস লাগানোর কাজ বাকি রয়ে গেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ সহকারী প্রকৌশলী মো. আশরাফুল সিদ্দিকী বলেন, পাওনা টাকা দিতে না পারায় বাঁধের বাকি কাজ শেষ করতে পারছে না প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি। দ্রুত টাকা ছাড় দেওয়া প্রয়োজন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সবিবুর রহমান বলেন, পিআইসিদের বিল প্রদানের টাকা ছাড় করার জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। টাকা ছাড় হলে পিআইসিদের বিল পরিশোধ করা হবে। এবিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে পানি উন্নয়ন বোর্ডের যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।

/টিএন/

সম্পর্কিত

কষ্টিপাথরের মূর্তিসহ দুই পাচারকারী গ্রেফতার

কষ্টিপাথরের মূর্তিসহ দুই পাচারকারী গ্রেফতার

৩১০০ কেজি সরকারি চাল জব্দ, একজনের কারাদণ্ড

৩১০০ কেজি সরকারি চাল জব্দ, একজনের কারাদণ্ড

সিলেটে এক বছরে লন্ডন ও ভারত থেকে এসেছেন ৪০ হাজার ২২৫ জন

সিলেটে এক বছরে লন্ডন ও ভারত থেকে এসেছেন ৪০ হাজার ২২৫ জন

সামাজিক শাস্তির জেরে হিন্দু বাড়িতে হামলা, গ্রেফতার ২

সামাজিক শাস্তির জেরে হিন্দু বাড়িতে হামলা, গ্রেফতার ২

প্রথমদিনে সারাদেশে লকডাউন মোটামুটি সফল

প্রথমদিনে সারাদেশে লকডাউন মোটামুটি সফল

ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে বখাটেদের হামলা, আহত ৮

ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে বখাটেদের হামলা, আহত ৮

দু পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫

দু পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫

স্বাধীনতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে: পরিবেশমন্ত্রী

স্বাধীনতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে: পরিবেশমন্ত্রী

মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতের ছড়া থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতের ছড়া থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

সর্বশেষ

রাখাইনে অস্থিতিশীলতা দেশের নিরাপত্তার জন্য উদ্বেগের বিষয়: পররাষ্ট্র সচিব

রাখাইনে অস্থিতিশীলতা দেশের নিরাপত্তার জন্য উদ্বেগের বিষয়: পররাষ্ট্র সচিব

শ্রমিক নিহতের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি সাকির

শ্রমিক নিহতের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি সাকির

যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ৩

যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ৩

বুড়িমাড়ীতে জুয়েল হত্যা: আরও এক আসামি গ্রেফতার

বুড়িমাড়ীতে জুয়েল হত্যা: আরও এক আসামি গ্রেফতার

শিশু নির্যাতনের মামলায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে জামিন দেননি হাইকোর্ট

শিশু নির্যাতনের মামলায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে জামিন দেননি হাইকোর্ট

পুলিশের গুলিতে নিহত শ্রমিকদের স্মরণে প্রদীপ প্রজ্বলন

পুলিশের গুলিতে নিহত শ্রমিকদের স্মরণে প্রদীপ প্রজ্বলন

একই কেন্দ্রে টিকা না নিলে সার্টিফিকেট মিলবে না

একই কেন্দ্রে টিকা না নিলে সার্টিফিকেট মিলবে না

‘৩০ লাখ মামলার জট কমাতে তিনগুণ বিচারক দরকার’

‘৩০ লাখ মামলার জট কমাতে তিনগুণ বিচারক দরকার’

সাকিবের খরুচে বোলিংয়ের দিনে কলকাতার আরেকটি হার

সাকিবের খরুচে বোলিংয়ের দিনে কলকাতার আরেকটি হার

আবারও চিকিৎসক দম্পতিকে জরিমানা

আবারও চিকিৎসক দম্পতিকে জরিমানা

রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছে মাদানীকে

রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছে মাদানীকে

বিদেশে বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন দিবস পালিত

বিদেশে বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন দিবস পালিত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কষ্টিপাথরের মূর্তিসহ দুই পাচারকারী গ্রেফতার

কষ্টিপাথরের মূর্তিসহ দুই পাচারকারী গ্রেফতার

৩১০০ কেজি সরকারি চাল জব্দ, একজনের কারাদণ্ড

৩১০০ কেজি সরকারি চাল জব্দ, একজনের কারাদণ্ড

সিলেটে এক বছরে লন্ডন ও ভারত থেকে এসেছেন ৪০ হাজার ২২৫ জন

সিলেটে এক বছরে লন্ডন ও ভারত থেকে এসেছেন ৪০ হাজার ২২৫ জন

সামাজিক শাস্তির জেরে হিন্দু বাড়িতে হামলা, গ্রেফতার ২

সামাজিক শাস্তির জেরে হিন্দু বাড়িতে হামলা, গ্রেফতার ২

প্রথমদিনে সারাদেশে লকডাউন মোটামুটি সফল

প্রথমদিনে সারাদেশে লকডাউন মোটামুটি সফল

ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে বখাটেদের হামলা, আহত ৮

ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে বখাটেদের হামলা, আহত ৮

দু পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫

দু পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune