X
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

জাতিসংঘের সব দাফতরিক ভাষায় ৭ মার্চের ভাষণ বিষয়ক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

আপডেট : ০৬ মার্চ ২০২১, ০১:০১

জাতিসংঘের সব দাফতরিক ভাষায় বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ বিষয়ক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। ইউনেস্কো সদর দফতরের বাংলাদেশ দূতাবাস, প্যারিস ও ইউনেস্কোতে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন কর্তৃক এটি প্রকাশিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) ইংরেজি, ফ্রেঞ্চ, স্প্যানিশ, আরবি, রুশ ও চীনা ভাষাভাষী ১২ জন রাষ্ট্রদূত এবং ইউনেস্কোতে স্থায়ী প্রতিনিধিরা গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেন।

দূতাবাস থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০১৭ সালে এ ঐতিহাসিক ভাষণ ইউনেস্কোর মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড রেজিস্টারে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়। এই প্রথম বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ জাতিসংঘের সব দাফতরিক ভাষায় অনূদিত হলো। ইউনেস্কো সদর দফতরে কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনায় শুধুমাত্র আমন্ত্রিত অতিথিদের উপস্থিতিতে গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। দূতাবাসের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

প্রকাশিত এ গ্রন্থে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর বিশেষ বাণী অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। যৌথভাবে গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন এবং সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করেন ইউনেস্কোতে নিযুক্ত অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, আইভোরি কোস্ট, সেনেগাল, স্পেন, কিউবা, সৌদি আরব, মৌরিতানিয়া, কুয়েত, রাশিয়া, চীন ও বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধিরা।

ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও ইউনেস্কোতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি কাজী ইমতিয়াজ তার স্বাগত বক্তব্যের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, ‘ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ছিল মূলত বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা। এ ভাষণ দীর্ঘ নয় মাসের মুক্তি সংগ্রামে মূল অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধিরা তাদের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের সফল নেতৃত্ব প্রদানে এবং বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা স্মরণ করেন এবং এ গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনার জন্য ইউনেস্কোতে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনের এ উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

 

/এসএসজেড/এমএএ/

সম্পর্কিত

কওমি মাদ্রাসায় সরকারি প্রণোদনা দেওয়ার দাবি

কওমি মাদ্রাসায় সরকারি প্রণোদনা দেওয়ার দাবি

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

কাল থেকে নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানও খোলা

কাল থেকে নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানও খোলা

অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট শুরু, ব্যস্ততা বেড়েছে বিমানবন্দরে

অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট শুরু, ব্যস্ততা বেড়েছে বিমানবন্দরে

জনপ্রতি ফিতরা সর্বনিম্ন ৭০ ও সর্বোচ্চ ২৩১০ টাকা

জনপ্রতি ফিতরা সর্বনিম্ন ৭০ ও সর্বোচ্চ ২৩১০ টাকা

বিআরটিএ’র দালালচক্র ভাঙতে হবে: কাদের

বিআরটিএ’র দালালচক্র ভাঙতে হবে: কাদের

ব্যাংকের চেক নিষ্পত্তির নতুন সময় নির্ধারণ

ব্যাংকের চেক নিষ্পত্তির নতুন সময় নির্ধারণ

শেয়ার বাজারে টানা ৫ দিন ধরে উত্থান

শেয়ার বাজারে টানা ৫ দিন ধরে উত্থান

খালেদা জিয়ার সঙ্গে বাবুুনগরীর কখনও সাক্ষাৎ হয়নি: হেফাজত

খালেদা জিয়ার সঙ্গে বাবুুনগরীর কখনও সাক্ষাৎ হয়নি: হেফাজত

লিপ সার্ভিস না দিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়ান: বিএনপিকে কাদের

লিপ সার্ভিস না দিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়ান: বিএনপিকে কাদের

লকডাউনে ৬ বেঞ্চে চলবে হাইকোর্টের বিচারিক কাজ: সুপ্রিম কোর্ট

লকডাউনে ৬ বেঞ্চে চলবে হাইকোর্টের বিচারিক কাজ: সুপ্রিম কোর্ট

রফিকুল ইসলাম মাদানীর ফের ৪ দিনের রিমান্ড

রফিকুল ইসলাম মাদানীর ফের ৪ দিনের রিমান্ড

সর্বশেষ

হেফাজতের আরও দুই নেতা গ্রেফতার

হেফাজতের আরও দুই নেতা গ্রেফতার

খুলে দেওয়া হলো সরকারি অ্যাকাউন্টস অফিস

খুলে দেওয়া হলো সরকারি অ্যাকাউন্টস অফিস

কওমি মাদ্রাসায় সরকারি প্রণোদনা দেওয়ার দাবি

কওমি মাদ্রাসায় সরকারি প্রণোদনা দেওয়ার দাবি

হেফাজত নেতা মুফতি সাখাওয়াতসহ দুজন ২১ দিনের রিমান্ডে

হেফাজত নেতা মুফতি সাখাওয়াতসহ দুজন ২১ দিনের রিমান্ডে

খিলক্ষেতে এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ

খিলক্ষেতে এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ

৫৮ লাখ টাকার কোকেনসহ চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

৫৮ লাখ টাকার কোকেনসহ চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

করোনায় মারা গেলে বীমা কর্মকর্তার পরিবার কত টাকা পাবে?

করোনায় মারা গেলে বীমা কর্মকর্তার পরিবার কত টাকা পাবে?

লোকসানের শঙ্কায় পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

লোকসানের শঙ্কায় পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

এপ্রিলে ভ্যাট রিটার্ন দেননি প্রায় দেড় লাখ ব্যবসায়ী

এপ্রিলে ভ্যাট রিটার্ন দেননি প্রায় দেড় লাখ ব্যবসায়ী

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

‘আ.লীগের সকল নেতাকর্মীর মূল্যবোধে আঘাত করেনি নূর’

‘আ.লীগের সকল নেতাকর্মীর মূল্যবোধে আঘাত করেনি নূর’

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

জনপ্রতি ফিতরা সর্বনিম্ন ৭০ ও সর্বোচ্চ ২৩১০ টাকা

জনপ্রতি ফিতরা সর্বনিম্ন ৭০ ও সর্বোচ্চ ২৩১০ টাকা

বিআরটিএ’র দালালচক্র ভাঙতে হবে: কাদের

বিআরটিএ’র দালালচক্র ভাঙতে হবে: কাদের

লিপ সার্ভিস না দিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়ান: বিএনপিকে কাদের

লিপ সার্ভিস না দিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়ান: বিএনপিকে কাদের

ছাড় হয়েছে স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রণোদনার টাকা

ছাড় হয়েছে স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রণোদনার টাকা

জলবায়ু সম্মেলনে ক্ষতিগ্রস্তদের কথা বলবে বাংলাদেশ

জলবায়ু সম্মেলনে ক্ষতিগ্রস্তদের কথা বলবে বাংলাদেশ

জাতিসংঘের তিন নির্বাচনে বাংলাদেশের জয়

জাতিসংঘের তিন নির্বাচনে বাংলাদেশের জয়

মূল্য বৃদ্ধির জন্য দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ

মূল্য বৃদ্ধির জন্য দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ

৭৪ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

৭৪ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

সরকার আলেমদের নয়, অপরাধীদের গ্রেফতার করেছে: তথ্যমন্ত্রী

সরকার আলেমদের নয়, অপরাধীদের গ্রেফতার করেছে: তথ্যমন্ত্রী

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune