X
শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

বাড়ি ঘিরে ক্যাকটাসের প্রাচীর

আপডেট : ০৬ মার্চ ২০২১, ১৭:২৪

বাঁশ-কাঠ নয়, ইট-পাথরও নয়। ক্যাকটাস গাছ দিয়ে বাড়ির চারপাশে তৈরি করা হয়েছে প্রাচীর। এমন খবরে হয়তো অবাক হবেন অনেকেই। তবে প্রাকৃতিক এই দেয়াল তৈরি করে হইচই ফেলে দিয়েছেন খাগড়াছড়ির এক পাহাড়ি কৃষক।

খাগড়াছড়ি জেলা শহর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে মহালছড়ি উপজেলার প্রত্যন্ত মুবাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের কাপ্তাই পাড়া এলাকায় বাবুরাম মারমার বাড়ি। তার বাড়ির চারপাশের প্রাকৃতিক দেয়াল দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন প্রকৃতিপ্রেমীরা। ক্যাকটাসের প্রাচীর

বাবুরাম মারমা জানান, ছোটবেলা থেকে ক্যাকটাস গাছের প্রতি অন্যরকম টান ছিল। ২০০২-২০০৩ সালে নতুন  বাড়ি করার পরে বাড়ির চারপাশে বাউন্ডারি ওয়াল হিসেবে ক্যাকটাস গাছ লাগিয়েছেন। গত ১৯/২০ বছরে এগুলো এখন অনেক বড় হয়েছে। এ গাছের কারণে এখন তার বাড়িতে ক্যাকটাস গাছের প্রাকৃতিক প্রাচীর তৈরি হয়ে গেছে। গাছগুলো অনেক বড় হয়েছে, দিন দিন আরও বাড়ছে। যার ফলে বাড়ির বাইরে থেকে ভেতরে কিছু দেখা যায় না। এতে করে বাড়ির সৌন্দর্য বাড়ছে এবং নিরাপত্তার কাজেও লাগছে। ক্যাকটাসের প্রাচীর

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের কৃষি কর্মকর্তা প্রণব বড়ুয়া জানান, ক্যাকটাস চাষের জন্য মাটি খুব গুরুত্বপূর্ণ, যা অন্যান্য গাছের তুলনায় একেবারেই আলাদা। পারলাইট মাটি বা দোআঁশ মাটির মিশ্রণ এক্ষেত্রে ভালো। ক্যাকটাসের চারা বা বীজ বপনের কোনও নির্দিষ্ট সময় নেই। তবে এপ্রিল-মে মাসে বীজ বপন করলে ভালো।

তিনি আরও জানান, ক্যাকটাস চাষের জন্য সঠিক পরিমাণ পানি সময়মতো দেওয়া খুবই দরকারি। কম পানি দিলে ক্যাকটাসের বৃদ্ধি ব্যাহত হতে পারে। আবার বেশি পানি দিলে মূল পচে গাছ মারা যেতে পারে। পানির পরিমাণ ও প্রয়োগ বছরের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন হয়। তাছাড়া এটি ক্যাকটাস জাতের ওপরও নির্ভর করে। ক্যাকটাসে শীতকালে পানি দেওয়ার তেমন দরকার হয় না। তবে যদি মূল শুকিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে তবে মাসে এক বা দুই বার পানি দেওয়া যেতে পারে। অতিরিক্ত পানি দিলে ছত্রাকের আক্রমণ হতে পারে। ফলে গাছটি পচে মারা যেতে পারে। এজন্য গাছে বেশি পরিমাণ পানি দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। ক্যাকটাসের প্রাচীর

ক্যাকটাস গাছের তেমন কোনও রোগ-বালাই হয় না। ছত্রাকের আক্রমণ থেকে গাছকে রক্ষা করতে সামান্য পরিমাণে ছত্রাকনাশক গুলে সমস্ত গাছে স্প্রে করা যেতে পারে।

বাবুরামের স্ত্রী রামবাই মারমা বলেন, তার বিয়ের পর এই বাড়ি বানানো হয়েছে। এরপর ক্যাকটাস গাছ এনে বাড়ির চারপাশে লাগানো হয়েছে। এখন গাছগুলো অনেক বড় হয়েছে। বাড়ির চারপাশ ঢেকে গেছে ক্যাকটাস গাছে। এখন বাড়ির যেদিকে তাকাই গাছগুলো দেখতে পাই। অনেক সুন্দর লাগে চারপাশ।

বাবুরাম-রামবাই দম্পতির সন্তান থৈয়ংরী মারমা বলেন, আমি ছোটবেলা থেকেই দেখছি এই ক্যাকটাস গাছগুলো। আস্তে আস্তে এগুলো অনেক বড় হচ্ছে। তার বাবা-মা এই গাছগুলো অনেক আগে লাগিয়েছিলেন। এখন এই ক্যাকটাস তাদের বাড়ির চারপাশের সৌন্দর্য রক্ষার পাশাপাশি নিরাপত্তা দেয়ালের কাজ করছে। গাছগুলো মূল সড়কের পাশে হওয়ায় মানুষ যাতায়াতের সময় এগুলোর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারে। ক্যাকটাসের প্রাচীর

ক্যাকটাস গাছ দিয়ে বাউন্ডারি ওয়াল- বিষয়টি শুনে অবাক হয়ে খাগড়াছড়ি শহর থেকে বাড়িটি দেখতে  যাওয়া জাফর সবুজ, আল-আমিন ও রফিকুল ইসলাম জানান, তারা এই ক্যাকটাসের দেয়াল দেখে অভিভূত। তারা মনে করেন, দেশে এমন বড় ক্যাকটাস গাছ আর কোথাও নাই। এগুলো যে দেখবে তারই মন কেড়ে নেবে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. মুর্তজ আলী বলেন ক্যাকটাস গাছ দিয়ে সীমানা প্রাচীর তৈরি খুবই ভালো উদ্যোগ। খরচ কম, পাশাপাশি প্রাকৃতিক পরিবেশে বসবাসে অন্যরকম আনন্দ আছে। বাবুরাম মারমার বাড়ির এরকম দেয়াল জেলায় এই প্রথম বলে উল্লেখ করেন তিনি।

 

/এফএস/

সম্পর্কিত

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে  ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

দরজায় ও কাঁথায় রক্তের দাগ, লাশ পুকুরের কাদায়

দরজায় ও কাঁথায় রক্তের দাগ, লাশ পুকুরের কাদায়

লকডাউনে আটক ২ শতাধিক গাড়ি ছাড়িয়ে নিতে চালকদের অবস্থান

লকডাউনে আটক ২ শতাধিক গাড়ি ছাড়িয়ে নিতে চালকদের অবস্থান

বাসায় ডেকে নিয়ে ২ যুবকের নগ্ন ভিডিও ধারণ, দুই নারীসহ গ্রেফতার ৩

বাসায় ডেকে নিয়ে ২ যুবকের নগ্ন ভিডিও ধারণ, দুই নারীসহ গ্রেফতার ৩

শান্তির প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রশাসন: কাদের মির্জা

শান্তির প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রশাসন: কাদের মির্জা

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

দুই টন গাঁজাসহ প্রায় ৫ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য উদ্ধার

কুমিল্লায় ৩ মাস ২১ দিনের অভিযানদুই টন গাঁজাসহ প্রায় ৫ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য উদ্ধার

পিকআপের ধাক্কায় পল্লী বিদ্যুৎকর্মী নিহত

পিকআপের ধাক্কায় পল্লী বিদ্যুৎকর্মী নিহত

কক্সবাজারে ভিপি নুরের বিরুদ্ধে মামলা

কক্সবাজারে ভিপি নুরের বিরুদ্ধে মামলা

লকডাউন তুলে নিলে জেলে চলে যাবো: বাবুনগরী

লকডাউন তুলে নিলে জেলে চলে যাবো: বাবুনগরী

বাঁশখালীতে শ্রমিকদের প্রাণহানি: বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট

বাঁশখালীতে শ্রমিকদের প্রাণহানি: বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট

‘ভ্যাকসিনের জন্য বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কে ভাটা পড়বে না’

‘ভ্যাকসিনের জন্য বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কে ভাটা পড়বে না’

সর্বশেষ

সাংবাদিক পরিচয়ে গাড়ি থামিয়ে চাঁদা দাবি, গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

সাংবাদিক পরিচয়ে গাড়ি থামিয়ে চাঁদা দাবি, গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

এসিআই হাইব্রিড ধানে হেক্টর প্রতি লক্ষ্য ১৫ টন

এসিআই হাইব্রিড ধানে হেক্টর প্রতি লক্ষ্য ১৫ টন

যেভাবে কমবে তামাকের ব্যবহার

যেভাবে কমবে তামাকের ব্যবহার

বরগুনায় এক যুগে সর্বোচ্চ ডায়রিয়ার রোগী, মৃত্যু ৮

বরগুনায় এক যুগে সর্বোচ্চ ডায়রিয়ার রোগী, মৃত্যু ৮

খালে ভাসছিল লাশ

খালে ভাসছিল লাশ

হাসপাতালে ঠাঁই নেই, তাঁবু খাটিয়ে চলে ডায়রিয়া রোগীদের চিকিৎসা

হাসপাতালে ঠাঁই নেই, তাঁবু খাটিয়ে চলে ডায়রিয়া রোগীদের চিকিৎসা

মোস্তাফিজদের নখদন্তহীন বোলিং, জয়ে শীর্ষে কোহলিরা

মোস্তাফিজদের নখদন্তহীন বোলিং, জয়ে শীর্ষে কোহলিরা

ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট, যুবদল নেতা আটক

ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট, যুবদল নেতা আটক

অ্যাস্ট্রাজেনেকার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

অ্যাস্ট্রাজেনেকার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে  ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

প্রেমের ফাঁদে ফেলে ছিনতাই, গ্রেফতার ৩

প্রেমের ফাঁদে ফেলে ছিনতাই, গ্রেফতার ৩

দরজায় ও কাঁথায় রক্তের দাগ, লাশ পুকুরের কাদায়

দরজায় ও কাঁথায় রক্তের দাগ, লাশ পুকুরের কাদায়

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে  ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডাকাতের গুলিতে নিহত ১, আহত ২

দরজায় ও কাঁথায় রক্তের দাগ, লাশ পুকুরের কাদায়

দরজায় ও কাঁথায় রক্তের দাগ, লাশ পুকুরের কাদায়

লকডাউনে আটক ২ শতাধিক গাড়ি ছাড়িয়ে নিতে চালকদের অবস্থান

লকডাউনে আটক ২ শতাধিক গাড়ি ছাড়িয়ে নিতে চালকদের অবস্থান

বাসায় ডেকে নিয়ে ২ যুবকের নগ্ন ভিডিও ধারণ, দুই নারীসহ গ্রেফতার ৩

বাসায় ডেকে নিয়ে ২ যুবকের নগ্ন ভিডিও ধারণ, দুই নারীসহ গ্রেফতার ৩

শান্তির প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রশাসন: কাদের মির্জা

শান্তির প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রশাসন: কাদের মির্জা

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

দুই টন গাঁজাসহ প্রায় ৫ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য উদ্ধার

কুমিল্লায় ৩ মাস ২১ দিনের অভিযানদুই টন গাঁজাসহ প্রায় ৫ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য উদ্ধার

পিকআপের ধাক্কায় পল্লী বিদ্যুৎকর্মী নিহত

পিকআপের ধাক্কায় পল্লী বিদ্যুৎকর্মী নিহত

কক্সবাজারে ভিপি নুরের বিরুদ্ধে মামলা

কক্সবাজারে ভিপি নুরের বিরুদ্ধে মামলা

লকডাউন তুলে নিলে জেলে চলে যাবো: বাবুনগরী

লকডাউন তুলে নিলে জেলে চলে যাবো: বাবুনগরী

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune