X
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

আমদানি কমিয়ে নিজস্ব জ্বালানির অনুসন্ধান ও ব্যবহার বাড়াতে হবে

আপডেট : ০৬ মার্চ ২০২১, ২১:২৮

নিজস্ব জ্বালানির অনুসন্ধান ও ব্যবহার না বাড়িয়ে জ্বালানি আমদানির বর্তমান ধারা অব্যাহত রাখলে ২০৩০ সালে আমদানি ব্যয় দাঁড়াবে ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আর ওই জ্বালানি বিক্রি করে কী পরিমাণ অর্থ কোথা থেকে আসবে তা এখনও নিশ্চিত নয়। তাই সার্বিক বিষয় নিয়ে একটি সমীক্ষা জরুরি। শনিবার (৬ মার্চ) এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার ম্যাগাজিন আয়োজিত বাংলাদেশের জ্বালানি খাতের ৫০ বছর শীর্ষক এক ওয়েবিনারে বক্তারা এই অভিমত প্রকাশ করেন।

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ  ড. ম. তামিম বলেন, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করেও তা অনুসরণ করা যাচ্ছে না। বরং সঠিকভাবে জ্বালানি ও  বিদ্যুৎ চাহিদা প্রাক্কলন করে  ১০ বছর  সময়কালকে বিবেচনায় রেখে ৫ বছর মেয়াদী পরিকল্পনা করা উচিত, যার বাস্তবায়ন প্রতি বছর পর্যালোচনা করে পরের বছরের কর্মসূচি চূড়ান্ত করা যাবে।

ম্যাগাজিনের সম্পাদক মোল্লাহ আমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জ্বালানি বিশেষজ্ঞ আবদুস সালেক। তিনি বলেন, জ্বালানি খাতে বাংলাদেশ সবচেয়ে বড় দুটি সম্ভাবনা নষ্ট করেছে। প্রথমটি হচ্ছে মিয়ানমার থেকে গ্যাস রফতানির ত্রিদেশীয় পাইপলাইন না করা এবং উত্তরাঞ্চলের কয়লা ক্ষেত্র উন্নয়নে যথাসময়ে সিদ্ধান্ত নিতে না পারা। অন্যদিকে ২০০০ সালের পর থেকে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে জল ও স্থলে কার্যকর কোনও সাফল্য আসেনি। ফলে দেশকে পর্যায়ক্রমে আমদানি নির্ভর হয়ে পড়তে হয়েছে। যা বঙ্গবন্ধুর জ্বালানি উন্নয়ন দর্শনের পরিপন্থী।

বিজনেস ইনিশিয়েটিভ লিডিং ডেভেলপমেন্ট (বিল্ড)  এর চেয়ারপারসন আবুল কাসেম খান বলেন,  লক্ষ্য অর্জনের জন্য আমদানি কমিয়ে নিজস্ব জ্বালানি সম্পদ ব্যবহারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। এটার জন্য নিজস্ব কয়লা ব্যবহারে কাজ শুরু করে এবং ব্যাপকভিত্তিক তেল গ্যাস অনুসন্ধানের কোনও বিকল্প নেই।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ব বিভাগের অনারারি  প্রফেসর ড.  বদরুল ইমাম বলেন, বাংলাদেশের ভূ-গঠনের কারণে এখানে গ্যাস সংকট থাকার কোনও কারণ নেই। বরং গোষ্ঠী স্বার্থকে বেশি গুরুত্ব দিতে গিয়ে জনগণের স্বার্থ উপেক্ষিত হয়েছে বলেই গ্যাস অনুসন্ধান করা যায়নি। বাপেক্স, আন্তর্জাতিক তেল কোম্পানি, দেশি-বিদেশি সকল উদ্যোগকে নিয়ে ব্যাপক অনুসন্ধান ছাড়া আমদানি নির্ভরতা থেকে বেরিয়ে আসার কোনও উপায় নেই।

 

/এসএনএস/এমআর/

সর্বশেষ

৫৮ লাখ টাকার কোকেনসহ চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

৫৮ লাখ টাকার কোকেনসহ চার মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

করোনায় মারা গেলে বীমা কর্মকর্তার পরিবার কত টাকা পাবে?

করোনায় মারা গেলে বীমা কর্মকর্তার পরিবার কত টাকা পাবে?

লোকসানের শঙ্কায় পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

লোকসানের শঙ্কায় পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

এপ্রিলে ভ্যাট রিটার্ন দেননি প্রায় দেড় লাখ ব্যবসায়ী

এপ্রিলে ভ্যাট রিটার্ন দেননি প্রায় দেড় লাখ ব্যবসায়ী

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

‘আ.লীগের সকল নেতাকর্মীর মূল্যবোধে আঘাত করেনি নূর’

‘আ.লীগের সকল নেতাকর্মীর মূল্যবোধে আঘাত করেনি নূর’

আগামী বাজেট দরিদ্র মানুষের জন্য: অর্থমন্ত্রী

আগামী বাজেট দরিদ্র মানুষের জন্য: অর্থমন্ত্রী

‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ অগ্রাধিকার’

‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ অগ্রাধিকার’

কাল থেকে নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানও খোলা

কাল থেকে নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানও খোলা

মহাসড়কে বসবে এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র

মহাসড়কে বসবে এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র

হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলার দাবি ইনুর

হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলার দাবি ইনুর

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বাঁশখালীর ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি স্কপ’র

বাঁশখালীর ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি স্কপ’র

অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট শুরু, ব্যস্ততা বেড়েছে বিমানবন্দরে

অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট শুরু, ব্যস্ততা বেড়েছে বিমানবন্দরে

বঙ্গবন্ধুকে সম্মান জানালো ফিলিপিন্সের রিজাল যাদুঘর

বঙ্গবন্ধুকে সম্মান জানালো ফিলিপিন্সের রিজাল যাদুঘর

করোনায় আরও ৯৫ মৃত্যু

করোনায় আরও ৯৫ মৃত্যু

মেট্রো রেলের প্রথম কোচ ঢাকায়

মেট্রো রেলের প্রথম কোচ ঢাকায়

স্বাস্থ্যকর্মী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশে স্বাস্থ্য অধিদফতরের বার্তা

স্বাস্থ্যকর্মী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশে স্বাস্থ্য অধিদফতরের বার্তা

হেফাজত নেতা মাওলানা কোরবান আলী রিমান্ডে

হেফাজত নেতা মাওলানা কোরবান আলী রিমান্ডে

লকডাউনে ৬ বেঞ্চে চলবে হাইকোর্টের বিচারিক কাজ: সুপ্রিম কোর্ট

লকডাউনে ৬ বেঞ্চে চলবে হাইকোর্টের বিচারিক কাজ: সুপ্রিম কোর্ট

রফিকুল ইসলাম মাদানীর ফের ৪ দিনের রিমান্ড

রফিকুল ইসলাম মাদানীর ফের ৪ দিনের রিমান্ড

ভারত থেকে মোবাইল পাচার করে ঢাকায় এনে বিক্রি করতো মিঠু

ভারত থেকে মোবাইল পাচার করে ঢাকায় এনে বিক্রি করতো মিঠু

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune