X
বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ৯ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

জনগণের আস্থার প্রতিদান সেভাবে দিতে পারিনি: ইকবাল মাহমুদ

আপডেট : ০৮ মার্চ ২০২১, ১৭:০১

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বিদায়ী চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, ‘জনগণের আস্থার প্রতিদান সেভাবে দিতে পারিনি। আমি চেষ্টা করেছি। তিনি বলেন,  ‘তবে একটি বার্তা দিতে পেরেছি যে, কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়।’

সোমবার (৮ মার্চ) সকাল ১১টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

গত ৫ বছর দায়িত্ব পালন করে তেমন তৃপ্তি পাননি বলে জানান দুদকের বিদায়ী চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) তিনি বিদায় নিচ্ছেন দুদকের চেয়ারম্যান পদ থেকে। কৃষি মন্ত্রণালয়ের সাবেক সিনিয়র সচিব মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহকে নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে বিদায়ী মতবিনিময় সভায় ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘দুদকের সবচেয়ে বড় দুর্বলতা হচ্ছে দক্ষ জনবল না থাকা।’ দুদকের কাজ নিয়ে জনগণের আকাঙ্ক্ষা যেমন, দুদক সেভাবে কাজ করতে পারে না—যা সত্য নয় বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘দুদক এখন যথেষ্ট শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান। আগের মতো এটিকে আর নখদন্তহীন বাঘ বলা যাবে না।’ যতটুকু আইন রয়েছে, তার মধ্যে থেকেই দুদক অনেক কাজ করতে পারে বলে জানান তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘দুদকের ওপরে সরকারের কোনও চাপ নেই। তবে মাঝে মধ্যে রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হতে পারে, এমন দুই-একটি সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে হয়েছে।’

বিদায়ী চেয়ারম্যান বলেন, ‘গত ৫ বছরে দুর্নীতি প্রতিরোধ ও দমনে দুদক সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে। কারও ক্ষমতা ও প্রভাবের কাছে দুদক নতি স্বীকার করেনি।’

বেসিক ব্যাংকের তদন্ত শেষ করতে না পারা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনায় এ পর্যন্ত ৬৫টি মামলা হয়েছে। আরও মামলা হবে। কিন্তু লুট করা টাকাগুলো পাচার হয়ে কোথায় গিয়েছে, তা এখনও নির্ণয় করা যায়নি। এজন্য এই মামলার তদন্ত শেষ করা যায়নি।’

বিদায়ের আগে ব্যক্তিগত সম্পদের বিবরণ জমা দিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমার সম্পদের বিবরণী দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমি একা দিলে তো সেটা কেমন হয়। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আর কেউ তো দেয় না। তবে আমার ইচ্ছে ছিল সম্পদের বিবরণী দিয়ে যাবার।’

/এনএল/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক’ উৎপাদনের প্রস্তাব রাশিয়ার

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক’ উৎপাদনের প্রস্তাব রাশিয়ার

বাংলাদেশসহ ৩ দেশের যাত্রীদের ওমান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি

বাংলাদেশসহ ৩ দেশের যাত্রীদের ওমান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি

পুনরুদ্ধারের আহ্বানে পালিত হচ্ছে ধরিত্রী দিবস

পুনরুদ্ধারের আহ্বানে পালিত হচ্ছে ধরিত্রী দিবস

ছুটিতে পাঠিয়ে কলেজ শিক্ষককে বরখাস্ত, তদন্তের নির্দেশ

ছুটিতে পাঠিয়ে কলেজ শিক্ষককে বরখাস্ত, তদন্তের নির্দেশ

চেকপোস্টে স্থির-ভিডিও চিত্র ধারণ করতে পারবে পুলিশ?

চেকপোস্টে স্থির-ভিডিও চিত্র ধারণ করতে পারবে পুলিশ?

রাজধানীতে কালবৈশাখী ঝড়

রাজধানীতে কালবৈশাখী ঝড়

মার্কিন দূতাবাসের সতর্কবার্তা

মার্কিন দূতাবাসের সতর্কবার্তা

সরকারি জায়গা দখলের অভিযোগ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে

সরকারি জায়গা দখলের অভিযোগ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে

ডিএনসিসি’র নতুন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ৩০০ জন

ডিএনসিসি’র নতুন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ৩০০ জন

ফেনসিডিল বিক্রি: ২ পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার, এএসপি’কে বদলি

ফেনসিডিল বিক্রি: ২ পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার, এএসপি’কে বদলি

পুরনো ভিডিও ফেসবুকে লাইভ করে বিভ্রান্তি, নজরদারিতে অনেকে

পুরনো ভিডিও ফেসবুকে লাইভ করে বিভ্রান্তি, নজরদারিতে অনেকে

সর্বশেষ

বাংলাদেশসহ ৩ দেশের যাত্রীদের ওমান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি

বাংলাদেশসহ ৩ দেশের যাত্রীদের ওমান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি

পুনরুদ্ধারের আহ্বানে পালিত হচ্ছে ধরিত্রী দিবস

পুনরুদ্ধারের আহ্বানে পালিত হচ্ছে ধরিত্রী দিবস

ঝড়ে বিধ্বস্ত দেশ, খাদ্য সংকট চরমে

ঝড়ে বিধ্বস্ত দেশ, খাদ্য সংকট চরমে

যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, স্বামী গ্রেফতার

যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, স্বামী গ্রেফতার

বেনজেমার নৈপুণ্যে রিয়ালের দুর্দান্ত জয়

বেনজেমার নৈপুণ্যে রিয়ালের দুর্দান্ত জয়

রাজধানীতে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

রাজধানীতে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

টাইমস হায়ার এডুকেশন র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশে চতুর্থ ইউল্যাব

টাইমস হায়ার এডুকেশন র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশে চতুর্থ ইউল্যাব

যশোরে মার্কেটে ভয়াবহ আগুন, প্রায় ১ কোটির টাকার ক্ষতি

যশোরে মার্কেটে ভয়াবহ আগুন, প্রায় ১ কোটির টাকার ক্ষতি

‘দুর্বলতা ছাড়া খালেদা জিয়া ভালো আছেন’

‘দুর্বলতা ছাড়া খালেদা জিয়া ভালো আছেন’

ওরা আদেশ অমান্য করে রাতে কী করে?

ওরা আদেশ অমান্য করে রাতে কী করে?

সাকিববিহীন কলকাতা ম্যাচ জমিয়ে দিয়েছিল

সাকিববিহীন কলকাতা ম্যাচ জমিয়ে দিয়েছিল

সিঙ্গুরে ১৮ ঘণ্টা উঠোনে পড়ে রইলো করোনায় মৃতের দেহ

সিঙ্গুরে ১৮ ঘণ্টা উঠোনে পড়ে রইলো করোনায় মৃতের দেহ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ছুটিতে পাঠিয়ে কলেজ শিক্ষককে বরখাস্ত, তদন্তের নির্দেশ

ছুটিতে পাঠিয়ে কলেজ শিক্ষককে বরখাস্ত, তদন্তের নির্দেশ

চেকপোস্টে স্থির-ভিডিও চিত্র ধারণ করতে পারবে পুলিশ?

চেকপোস্টে স্থির-ভিডিও চিত্র ধারণ করতে পারবে পুলিশ?

রাজধানীতে কালবৈশাখী ঝড়

রাজধানীতে কালবৈশাখী ঝড়

মার্কিন দূতাবাসের সতর্কবার্তা

মার্কিন দূতাবাসের সতর্কবার্তা

ডিএনসিসি’র নতুন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ৩০০ জন

ডিএনসিসি’র নতুন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ৩০০ জন

পুরনো ভিডিও ফেসবুকে লাইভ করে বিভ্রান্তি, নজরদারিতে অনেকে

পুরনো ভিডিও ফেসবুকে লাইভ করে বিভ্রান্তি, নজরদারিতে অনেকে

রাস্তায় যানবাহনের চাপ, দুর্বল চেকপোস্ট

রাস্তায় যানবাহনের চাপ, দুর্বল চেকপোস্ট

স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বেতার যোগাযোগ পুলিশের

স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বেতার যোগাযোগ পুলিশের

স্ত্রীকে হত্যার পর বাসার আশেপাশেই ঘুরছিল টিটু

স্ত্রীকে হত্যার পর বাসার আশেপাশেই ঘুরছিল টিটু

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune