X
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

তালেবানের অংশগ্রহণে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার চাইছে যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ০৯ মার্চ ২০২১, ১৬:৫৬

ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে তালেবানের চুক্তি কার্যকরের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আফগানিস্তানে জোরালো কূটনৈতিক উদ্যোগ শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। নতুন উদ্যোগ অনুযায়ী, তালেবানের অংশগ্রহণে একটি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার প্রতিষ্ঠা এবং আফগানিস্তানের মাটিতে সব ধরনের সন্তাসী কর্মকাণ্ডের অবসান ঘটানোর কথা বলা হয়েছে। এ প্রচেষ্টার সাফল্যের ওপরই আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহারের বিষয়টি অনেকাংশে নির্ভর করছে।

তালেবানের সঙ্গে ট্রাম্প প্রশাসনের স্বাক্ষরিত চুক্তি ২০২১ সালের মে মাসে কার্যকর হওয়ার কথা ছিল। এর আওতায় আফগানিস্তান থেকে অবশিষ্ট আড়াই হাজার মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের কথা রয়েছে। তবে হোয়াইট হাউজে ক্ষমতার পালাবদলের পর বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সেই বোঝাপড়া মেনে নেবেন কিনা, তা নিয়ে জল্পনা চলছে। এরই মাঝে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেনের ফাঁস হয়ে যাওয়া একটি গোপন চিঠি আফগান সংবাদমাধ্যমে আলোড়ন তুলছে। ওই চিঠিতে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করলে তালেবান দ্রুত আরও এলাকা দখল করে নিতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

গত সপ্তাহান্তে লেখা ব্লিনকেনের চিঠি অনুযায়ী বাইডেন প্রশাসন আফগানিস্তানে আমূল পরিবর্তন এনে নতুন একটি অন্তর্বর্তীকালীন প্রশাসনে তালেবানের অংশগ্রহণ সম্পর্কে চিন্তাভাবনা করছে। তিনি আফগান নেতাদের বিষয়টি বিবেচনা করতে উৎসাহ দিয়েছেন। তারা রাজি হলে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তুরস্কে সব পক্ষের মধ্যে আলোচনা করে তালেবানসহ সব পক্ষের মধ্যে নতুন একটি শান্তি চুক্তির সম্ভাবনা তুলে ধরছে মার্কিন প্রশাসন। নেপথ্যে কূটনৈতিক উদ্যোগের মাধ্যমে আফগানিস্তানের রাজনৈতিক সদিচ্ছা যাচাই করে সেই পথে এগোনোর চেষ্টা শুরু হয়েছিল। তবে ওই চিঠি ফাঁস হয়ে যাওয়ায় বিভিন্ন পক্ষ চাপের মুখে পড়বে কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে বিশেষ মার্কিন দূত হিসেবে নিজের আগের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে লরেল মিলার সংবাদ সংস্থা এএফপি-কে বলেছেন, বাইডেন প্রশাসন সম্ভবত বিভিন্ন বিকল্প খতিয়ে দেখছে। ট্রাম্পের চুক্তি কার্যকর করা অথবা নতুন কোনও বোঝাপড়ার মধ্যে কোনটা বাস্তবসম্মত হবে, তা বিবেচনা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ব্লিনকেন আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির উদ্দেশ্যে সাবেক ট্রাম্প প্রশাসনে আফগানিস্তানের দায়িত্বপ্রাপ্ত অভিজ্ঞ দূত জালমাই খালিলজাদের প্রস্তাব দ্রুত বিবেচনার জন্য চাপ দিচ্ছেন।

সব পক্ষ বাইডেন প্রশাসনের প্রস্তাব মেনে নিলে ব্লিনকেন একাধিক পদক্ষেপ তরান্বিত করতে চান। প্রথমত তালেবানকে ৯০ দিনের জন্য বসন্তকালে বাৎসরিক সশস্ত্র অভিযান থেকে বিরত থাকতে হবে। আমেরিকার উদ্যোগে তুরস্কে সব পক্ষের মধ্যে আলোচনার পাশাপাশি ব্লিনকেন জাতিসংঘের উদ্যোগে আফগানিস্তানের সব প্রতিবেশী দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনের প্রস্তাব দিয়েছেন। বিশেষ করে পাকিস্তান ও ইরানের সমর্থন ছাড়া কোনও শান্তি চুক্তি কার্যকর করা কঠিন হবে বলে তিনি মনে করছেন।

১ মে-র মধ্যে চূড়ান্ত বোঝাপড়া সম্ভব না হলেও কূটনৈতিক প্রক্রিয়া শুরু হলেই ওয়াশিংটন সন্তুষ্ট হবে। কোনও বোঝাপড়া ছাড়া আচমকা সেনা প্রত্যাহার করতে চায় না বাইডেন প্রশাসন।

তালেবানের সঙ্গে আপোসের প্রশ্নে আফগানিস্তানের সরকার ট্রাম্প ও বাইডেন প্রশাসনের উদ্যোগ নিয়ে মোটেই উৎসাহ দেখাচ্ছে না। দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ বলেন, একটি ঘরে মাত্র ২০ জন মিলে দেশের ভবিষ্যৎ স্থির করা চলে না। তালেবান নির্বাচনে অংশ নিলে তার অবশ্য কোনও আপত্তি নেই।

আমরুল্লাহ সালেহ বলেন, বৈদেশিক শক্তির উপর নির্ভরতা সত্ত্বেও দেশের সাড়ে তিন কোটি মানুষের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের অধিকার অন্য কারও হাতে দেওয়া হবে না।

তালেবানের একটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, যে সরাসরি অন্তর্বর্তীকালীন সরকারে অংশ না নিলেও তালেবান এমন সরকার গঠনের বিরোধিতা করবে না। সূত্র: ডিডব্লিউ, হিন্দুস্তান টাইমস, রয়টার্স।

/এমপি/

সম্পর্কিত

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

আসিয়ান সম্মেলনে মিয়ানমারের প্রতিনিধিত্ব করবেন জান্তা প্রধান: সেনাবাহিনী

আসিয়ান সম্মেলনে মিয়ানমারের প্রতিনিধিত্ব করবেন জান্তা প্রধান: সেনাবাহিনী

যুক্তরাষ্ট্রে এবার পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরী নিহত

যুক্তরাষ্ট্রে এবার পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরী নিহত

সীমান্তে সেনা সমাবেশ বাড়িয়ে যাচ্ছে রাশিয়া: অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের

সীমান্তে সেনা সমাবেশ বাড়িয়ে যাচ্ছে রাশিয়া: অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের

দৈনিক সংক্রমণে যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে গেলো ভারত

দৈনিক সংক্রমণে যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে গেলো ভারত

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

লকডাউন থেকে ভারতকে বাঁচাতে বললেন মোদি

লকডাউন থেকে ভারতকে বাঁচাতে বললেন মোদি

‘যেদিকেই তাকান, দেখবেন অ্যাম্বুলেন্স আর মরদেহ’

যোগী রাজ্যে করোনা সুনামি‘যেদিকেই তাকান, দেখবেন অ্যাম্বুলেন্স আর মরদেহ’

ভ্যাকসিনের প্রভাব, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ইউরো ও ডলার

ভ্যাকসিনের প্রভাব, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ইউরো ও ডলার

ষষ্ঠ দফায় সবচেয়ে বেশি কোটিপতি প্রার্থী তৃণমূলের

ষষ্ঠ দফায় সবচেয়ে বেশি কোটিপতি প্রার্থী তৃণমূলের

ফোর্বসের তালিকায় ৯ বাংলাদেশি তরুণ

ফোর্বসের তালিকায় ৯ বাংলাদেশি তরুণ

সর্বশেষ

রাস্তায় গাড়ির চাপ

রাস্তায় গাড়ির চাপ

মেডিক্যালে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী কোটায় সাধারণ শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের দাবি

মেডিক্যালে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী কোটায় সাধারণ শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের দাবি

হ্যাকারদের কবলে মেসেঞ্জার ব্যবহারকারীরা, সতর্ক থাকুন আপনিও

হ্যাকারদের কবলে মেসেঞ্জার ব্যবহারকারীরা, সতর্ক থাকুন আপনিও

বিড়ম্বনা যখন তেলতেলে নাক

বিড়ম্বনা যখন তেলতেলে নাক

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য তৈরি, চার প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য তৈরি, চার প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নিউমার্কেটে গৃহকর্মী হত্যা, সেই শিক্ষিকা কারাগারে

নিউমার্কেটে গৃহকর্মী হত্যা, সেই শিক্ষিকা কারাগারে

স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বেতার যোগাযোগ পুলিশের

স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বেতার যোগাযোগ পুলিশের

সঙ্গীর মৃত্যুতে আত্মহত্যা করেছিল স্ত্রী তিমি!

সঙ্গীর মৃত্যুতে আত্মহত্যা করেছিল স্ত্রী তিমি!

হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধাকে রেখে আসা হলো ভুল বাড়িতে অন্যের বিছানায়

হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধাকে রেখে আসা হলো ভুল বাড়িতে অন্যের বিছানায়

২ লাখ মিটার অবৈধ জালে অগ্নিসংযোগ

২ লাখ মিটার অবৈধ জালে অগ্নিসংযোগ

করোনায় খালেদা জিয়ার সময় কাটছে যেভাবে

করোনায় খালেদা জিয়ার সময় কাটছে যেভাবে

মৌমাছির কামড়ে প্রাণ গেলো কৃষকের

মৌমাছির কামড়ে প্রাণ গেলো কৃষকের

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

আসিয়ান সম্মেলনে মিয়ানমারের প্রতিনিধিত্ব করবেন জান্তা প্রধান: সেনাবাহিনী

আসিয়ান সম্মেলনে মিয়ানমারের প্রতিনিধিত্ব করবেন জান্তা প্রধান: সেনাবাহিনী

যুক্তরাষ্ট্রে এবার পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরী নিহত

যুক্তরাষ্ট্রে এবার পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরী নিহত

সীমান্তে সেনা সমাবেশ বাড়িয়ে যাচ্ছে রাশিয়া: অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের

সীমান্তে সেনা সমাবেশ বাড়িয়ে যাচ্ছে রাশিয়া: অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের

দৈনিক সংক্রমণে যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে গেলো ভারত

দৈনিক সংক্রমণে যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে গেলো ভারত

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

লকডাউন থেকে ভারতকে বাঁচাতে বললেন মোদি

লকডাউন থেকে ভারতকে বাঁচাতে বললেন মোদি

‘যেদিকেই তাকান, দেখবেন অ্যাম্বুলেন্স আর মরদেহ’

যোগী রাজ্যে করোনা সুনামি‘যেদিকেই তাকান, দেখবেন অ্যাম্বুলেন্স আর মরদেহ’

ভ্যাকসিনের প্রভাব, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ইউরো ও ডলার

ভ্যাকসিনের প্রভাব, ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ইউরো ও ডলার

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune