X
বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেতিবাচক: বিশেষজ্ঞ

আপডেট : ১৬ মার্চ ২০২১, ১৯:৩৫
image

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহণের পর হাতে গোনা কয়েকজন রোগীর শরীরে রক্ত জমাট বাঁধার অভিযোগ ওঠাকে কেন্দ্র করে টিকাদান স্থগিত ঘোষণাকারী দেশের সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে। এ দেশগুলোর বেশিরভাগই ইউরোপীয়। তারা স্বীকার করেছে যে এ ভ্যাকসিনই যে সমস্যার কারণ তার কোনও প্রমাণ নেই। বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, কেবল তত্ত্বগত উদ্বেগ থেকে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া যথাযথ হয়নি। এই সিদ্ধান্তের কারণে ভালোর চেয়ে অনেক বেশি খারাপ হতে পারে।

টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে খুবই অল্প কিছু মানুষের রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়ার মতো কিছু সমস্যা দেখা গেলেও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা স্থগিতকারী দেশের সংখ্যা বাড়ছে। মঙ্গলবার সবশেষ সুইডেন করোনাভাইরাসের টিকা কর্মসূচি স্থগিত করেছে। এর আগে জার্মানি, ইতালি, ফ্রান্স ও স্পেন, আয়ারল্যান্ড, ডেনমার্ক, নরওয়ে, বুলগেরিয়া ও আইসল্যান্ড আগেই ভ্যাকসিনটির প্রয়োগ স্থগিত করে। এদিকে কর্মসূচি শুরুর আগেই তা স্থগিত করেছে ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গো ও ইন্দোনেশিয়া। থাইল্যান্ডেও টিকা কর্মসূচি স্থগিত ছিল, মঙ্গলবার তা আবার তা শুরু হয়েছে।

সোমবার (১৫ মার্চ) জার্মান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেন্স স্পাহন বলেন, ‌‘একেবারে পূর্বসতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আজ এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ কেবল জার্মানি নয়, টিকা স্থগিতকারী দেশগুলোর কেউই ভ্যাকসিনের সঙ্গে রক্ত জমাট বাঁধা কিংবা অন্য কোনও সমস্যার সম্পর্কের প্রমাণ দিতে পারেনি।  

ফিলাডেলফিয়ার শিশু হাসপাতালের ভ্যাকসিন বিশেষজ্ঞ পল অফিট ভয়েস অব আমেরিকাকে বলেন, তত্ত্বগত উদ্বেগ থেকে মহামারির মাঝখানে কার্যকর ভ্যাকসিন বন্ধ করে দেওয়াটা বাজে সিদ্ধান্ত। তিনি বলেন, ‘যে ভাইরাসের কারণে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে, তা নিয়ে তত্ত্ব ফলানোর সুযোগ নেই।’ হুট করে ভ্যাকসিন স্থগিতের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আদতে ভ্যাকসিন নেওয়ার ব্যাপারটা রক্ষণশীল কোনও পছন্দ না, এটা র‍্যাডিক্যাল পছন্দেরই প্রশ্ন।

বিশ্বে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত ভ্যাকসিনগুলোর অন্যতম অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বে কোভ্যাক্স জোট যেসব ভ্যাকসিন ব্যবহার করছে তার একাংশ অ্যাস্ট্রাজেনেকা সরবরাহ করছে। ভ্যাকসিন প্রাপ্তির ক্ষেত্রে উচ্চ ও নিম্ন আয়ের দেশের মধ্যে অসমতা দূর করাই এ জোটের লক্ষ্য। ৪০টিরও বেশি দেশ ভ্যাকসিনটির অনুমোদন দিয়েছে। স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, তাদের লক্ষ্য হলো, মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য ভ্যাকসিনের গুরুত্ব ও ঝুঁকির মধ্যে ভারসাম্য নিয়ে আসা। সামান্য হলেও এর বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে।

ডেনমার্কই প্রথম দেশ হিসেবে গত সপ্তাহে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন স্থগিত করেছে। অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন গ্রহণের পর রক্ত জমাট বেঁধে ৬০ বছরের এক নারীর মৃত্যুর অভিযোগ ওঠার পর এ সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ড্যানিশ স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ভ্যাকসিন ও রক্ত জমাট বাঁধার মধ্যে কোনও সম্পর্ক আছে কিনা তা এখনই চূড়ান্তভাবে বলা যাচ্ছে না।

ড্যানিশ স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের প্রধান সোরেন ব্রোস্টম বলেন, ‘ভ্যাকসিনটি যে নিরাপদ ও কার্যকর তার ভালো প্রমাণ রয়েছে। তবে সম্ভাব্য গুরুতর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে আমরা এবং ড্যানিশ মেডিসিন্স এজেন্সি উভয়কেই প্রতিক্রিয়া জানাতে হয়েছে।’

ভ্যাকসিন নেওয়ার ১০ দিন পর রক্ত জমাট বেঁধে আরেক রোগীর মৃত্যুর পর ভ্যাকসিনটির একটি চালান স্থগিত করেছে অস্ট্রিয়া। আরও কয়েকটি দেশে এ ধরনের হাতে গোনা কিছু ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে।

জার্মানি, ফ্রান্স ও ইতালিসহ কয়েকটি দেশ অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন স্থগিত করেছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওষুধ নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স এজেন্সি (ইএমএ)-এর পর্যালোচনার অপেক্ষায় আছে তারা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথান সোমবার (১৫ মার্চ) সাংবাদিকদের বলেন, ভ্যাকসিন নেননি এমন মানুষদের তুলনায় ভ্যাকসিন গ্রহণকারী মানুষদের মধ্যে যে রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা বেশি ঘটছে এমনটা নয়। মানুষের শরীরে রক্ত জমাট বাঁধে এবং এ ধরনের ঘটনায় প্রতিদিনই মানুষ মারা যাচ্ছে। প্রশ্নটা হলো, ভ্যাকসিনের সঙ্গে আসলে এ ধরনের মৃত্যুর সংযোগ আছে কিনা তা দেখা।’

অ্যাস্ট্রাজেনেকার এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইউরোপ ও ব্রিটেনে যে ১ কোটি ৭০ লাখ মানুষ টিকা নিয়েছেন, তাদের মধ্যে রক্ত জমাট বাঁধার হার কম।

লন্ডন স্কুল অব হাইজিন এন্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিনের অধ্যাপক স্টিফেন ইভান্স বলেন, খোদ করোনাভাইরাসের কারণেই রক্ত জমাট বাঁধা কিংবা এ সংক্রান্ত জটিলতা হতে পারে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বামীনাথান বলেন, বিশ্বজুড়ে ২৬ লাখেরও বেশি মানুষ কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এর মধ্যে যে ৩০ কোটি মানুষ অন্তত এক ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েছেন, তাদের কেউ ভ্যাকসিন গ্রহণের কারণে মারা যাননি। তিনি বলেন, ‘যে রোগটির কারণে লাখ লাখ মানুষ মারা যাচ্ছে, যে ঝুঁকি তৈরি হয়েছে, তার বিপরীতে মানুষকে কতটা সুরক্ষা দেওয়া যাচ্ছে তার তুলনা করা।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ভ্যাকসিনটির পক্ষে সুপারিশ করে আসছে। ইএমএ-ও তাই করেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ইএমএ মঙ্গলবার আলামতগুলো বিবেচনা করতে বৈঠক করবে এবং সিদ্ধান্ত নেবে যে তাদের সুপারিশগুলো পরিবর্তন করার প্রয়োজন আছে কিনা। অফিট মনে করেন, তারা যদি এটা পুনরায় নিশ্চিতও করে যে ভ্যাকসিন নিরাপদ, তারপরো এর মধ্যে যতখানি ক্ষতি হয়ে গেছে তা পূরণ করা কঠিন। ‌‘আপনারা লোকজনকে আতঙ্কিত করেছেন। তাদের ভীতি দূর করাটা কঠিন হবে। কোনো তথ্য জনগণের মাঝে ছড়িয়ে যাওয়ার পর তা প্রত্যাহার করে নেওয়া কঠিন।’ বলেন অফিট।

/এফইউ/বিএ/

সম্পর্কিত

বুস্টার ডোজ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা ফ্রান্স ও জার্মানির

বুস্টার ডোজ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা ফ্রান্স ও জার্মানির

করোনা টিকার বুস্টার ডোজ বন্ধের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

করোনা টিকার বুস্টার ডোজ বন্ধের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

এক সপ্তাহে ৯০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ককে টিকা দিয়েছে ভুটান

এক সপ্তাহে ৯০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ককে টিকা দিয়েছে ভুটান

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

মিয়ানমারে গণহত্যা চলছে, জাতিসংঘকে সতর্ক করলেন রাষ্ট্রদূত

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৭:১৬

জান্তা সরকার মিয়ানমারে গণহত্যা চালাচ্ছে উল্লেখ করে জাতিসংঘকে সতর্ক করেছেন সংস্থাটিতে নিয়োজিত রাষ্ট্রদূত কিওয়া মোয়ে তুন। এক চিঠিতে তিনি বলেন, অবৈধ সরকার দেশটিতে গণহত্যা মেতে ওঠেছে। জান্তা তাকে রাষ্ট্রদূতের পদ থেকে বহিষ্কার করলেও দায়িত্ব থেকে সরে যেতে অস্বীকৃতি জানান তিনি।

অবৈধ উপায়ে ক্ষমতা গ্রহণের পর ৬ মাস পার করলো মিয়ানমারের জান্তা সরকার। ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পড়লেও ক্ষমতা না ছাড়তে নারাজ। এই সরকারের বিরুদ্ধে এবার জাতিসংঘে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত নিজেই গুরুতর অভিযোগ এনেছেন।

সংস্থাটির মহাসচিব আন্থোনিও গুতেরেসকে এক চিঠিতে জানান, গত জুলাইয়ে মিয়ানমারের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের সাগাইং রাজ্যের কানি শহরে ৪০ জনের লাশ পাওয়া গেছে। আর এই হত্যাকাণ্ডের পেছনে জান্তা সরকারের হাত রয়েছে বলে নালিশ করেছেন তিনি। বুধবার ফরাসি নিউজ এজেন্সি এএফপির প্রতিবেদনে এ তথ্য এসেছে।

সামরিক বাহিনী ও সাধারণ মানুষের সংঘর্ষ

যদিও মিয়ানমারের জেনারেলরা এমন অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে। তবে এএফপি বলছে, সাগাইং অঞ্চলে জান্তা সরকার মোবাইল নেটওয়ার্ক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ায় তারা স্বাধীনভাবে এই প্রতিবেদনগুলোর সত্যতা যাচাই করতে পারছে না।

গুতেরেসকে লেখা চিঠিতে মোয়ে তুন অভিযোগ করেন, সেখানকার একটি গ্রামে সৈন্যদের অমানবিক নির্যাতনে গত ৯ থেকে ১০ জুলাইয়ের মৃত্যু হয়। এরপরেই ওই এলাকা থেকে ১০ হাজার নাগরিক পালিয়ে যেতে বাধ্য হন।

চিঠিতে তিনিও আরও জানান, গত ২৬ জুলাই কানিতে স্থানীয় যোদ্ধা ও নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে তুমুল লড়াইয়ের পর আরও ১৩ জনের মরদেহ পাওয়া যায়। আর ২৮ জুলাই কানির কটি গ্রামে শিশুসহ ১১ জনকে হত্যা করে সেনারা। শুধু তাই নয়, গ্রামটিতে আগুন ধরিয়ে দিলে ভয়াবহ পরিস্থিতি দেখা দেয়।

এমন পরিস্থিতি বর্ণনা দিয়ে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার আহ্বান জানান এই রাষ্ট্রদূত। নৃশংস পরিস্থিতি মিয়ানমারে চলতে দেওয়া যায় না বলেও উদ্বেগ জানান তিনি। এই সংকটে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশটিতে মানবিক সহায়তার জন্য বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

গত ১ ফেব্রয়ারি মিয়ানমারের সু চি সরকারকে অবৈধভাবে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতা দখলে নেয় জান্তা সরকার। এই সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে দেশটির নাগরিকরা। সাধারণ মানুষের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত হাজারো মানুষ নিহত হয়েছেন।

/এলকে/

সম্পর্কিত

মিয়ানমারের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং

মিয়ানমারের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং

মানবতাবিরোধী অপরাধ করছে মিয়ানমার জান্তা

মানবতাবিরোধী অপরাধ করছে মিয়ানমার জান্তা

করোনার 'সুপার স্প্রেডার' রাষ্ট্র হওয়ার পথে মিয়ানমার

করোনার 'সুপার স্প্রেডার' রাষ্ট্র হওয়ার পথে মিয়ানমার

ইরানে হামলা চালাতে প্রস্তুত ইসরায়েল: গান্তজ

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৭:০৯

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গান্তজ বলেছেন, ইরানে হামলা চালাতে তার দেশ প্রস্তুত রয়েছে। উপসাগরে একটি বেসামরিক বাণিজ্যিক জাহাজে ড্রোন হামলার ঘটনায় সৃষ্ট উত্তেজনার প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার তিনি এই মন্তব্য করেছেন। ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যম জেরুজালেম পোস্ট এখবর জানিয়েছে।

ইরানে হামলা চালাতে ইসরায়েল প্রস্তুত কিনা এমন এক প্রশ্নের জবাবে গান্তজ বলেন, ‘হ্যা’।

তিনি বলেছেণ, ইসরায়েল, মধ্যপ্রাচ্য ও সারাবিশ্বের জন্য হুমকি ইরান।

ইরানের পরামণবিক কর্মসূচি ইসরায়েলের সবচেয়ে বড় উদ্বেগের কারণ। তেহরান সব সময় পারমাণবিক অস্ত্র উৎপাদনের কথা অস্বীকার করে আসছে। তবু ইসরায়েলের ধারণা, ইরান পারমাণবিক অস্ত্র তৈরির সক্ষমতা অর্জনের পথে রয়েছে এবং পারমাণবিক ওয়্যারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে।

ড্রোন হামলার কথা তুলে ধরে গান্তজ বলেন, ইরান আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সমস্যা। শুক্রবার এই হুমকির উদাহরণ দেখেছে বিশ্ব। এমনটি যে কারও ক্ষেত্রে ঘটতে পারে।

বৃহস্পতিবার ইরানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে কট্টরপন্থী ইব্রাহিম রাইসি দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। গান্তজ মনে করেন, এতে করে ইরান আঞ্চলিক ও নিরাপত্তা নীতির আরও বেশি আগ্রাসী হয়ে উঠতে পারে। তার কথায়, আমি বিশ্বকে বলছি, মনযোগ দিন। হুমকি আসছে।

ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ইসরায়েলের ইরান বহুমাত্রিক হুমকি। তারা লেবানন ও গাজা এবং সিরিয়া ও ইরাকে উপস্থিতি বাড়াচ্ছে। ইয়েমেনে সমর্থন অব্যাহত রেখেছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে হামলা শুরু করেছে ইসরায়েলের যুদ্ধবিমান। দেশটির দাবি, বৃহস্পতিবার প্রতিবেশী দেশটি থেকে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো রকেট হামলার প্রতিক্রিয়ায় এই অভিযান শুরু করা হয়েছে। যেসব স্থান থেকে রকেট হামলা হয়েছে এবং সন্ত্রাসীদের অবকাঠামো রয়েছে, সেসব স্থানে বিমান হামলা চালানো হচ্ছে।

/এএ/

সম্পর্কিত

লেবাননে বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল

লেবাননে বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল

পাল্টাপাল্টি হামলায় ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে উত্তেজনা

পাল্টাপাল্টি হামলায় ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে উত্তেজনা

চীনা টিকা গ্রহণকারীদের শর্ত সাপেক্ষে প্রবেশ করতে দেবে সৌদি আরব

চীনা টিকা গ্রহণকারীদের শর্ত সাপেক্ষে প্রবেশ করতে দেবে সৌদি আরব

লেবাননে বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৭:০১
image

লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে হামলা শুরু করেছে ইসরায়েলের যুদ্ধবিমান। ইসরায়েলের দাবি, বৃহস্পতিবার প্রতিবেশী দেশটি থেকে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো রকেট হামলার প্রতিক্রিয়ায় এই অভিযান শুরু করা হয়েছে। যেসব স্থান থেকে রকেট হামলা হয়েছে এবং সন্ত্রাসীদের অবকাঠামো রয়েছে, সেসব স্থানে বিমান হামলা চালানো হচ্ছে বলে দাবি করেছে ইসরায়েল। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান নিয়মিত গাজায় ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠীর ওপর এবং সিরিয়ায় সন্দেহভাজন হিজবুল্লাহ কিংবা ইরানি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালিয়ে থাকে। কিন্তু ২০১৪ সালের পর এবারই প্রথম দেশটি লেবাননে বিমান হামলা চালালো। এর আগে বিভিন্ন সময়ে কামানের গোলাবর্ষণের কথা স্বীকার করেছে ইসরায়েল।

২০০৬ সালে ইরান সমর্থিত হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে ইসরায়েল। লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে আধিপত্য রয়েছে হিজবুল্লাহর। ২০০৬ সালের যুদ্ধের পর থেকে বেশিরভাগ সময় নীরবই থেকেছে লেবানন-ইসরায়েল সীমান্ত।

হিজবুল্লাহ পরিচালিত লেবাননের আল-মানার টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় রাত ১২টা ৪০ মিনিটে ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান মাহমুদিয়া শহরের বাইরে দুটি অভিযান চালিয়েছে। সীমান্ত থেকে এই শহরটি প্রায় ১১ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

লেবাননের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমও ইসরায়েলি বিমান হামলার কথা নিশ্চিত করেছে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি।

এর আগে বুধবার লেবানন থেকে ছোড়া তিনটি রকেটের জবাবে দেশটিতে গোলাবর্ষণ করে ইসরায়েল। এ ঘটনায় দু’দেশের সীমান্তে কড়া নজরদারি শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী।

/জেজে/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ইরানে হামলা চালাতে প্রস্তুত ইসরায়েল: গান্তজ

ইরানে হামলা চালাতে প্রস্তুত ইসরায়েল: গান্তজ

পাল্টাপাল্টি হামলায় ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে উত্তেজনা

পাল্টাপাল্টি হামলায় ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে উত্তেজনা

চীনা টিকা গ্রহণকারীদের শর্ত সাপেক্ষে প্রবেশ করতে দেবে সৌদি আরব

চীনা টিকা গ্রহণকারীদের শর্ত সাপেক্ষে প্রবেশ করতে দেবে সৌদি আরব

বুস্টার ডোজ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা ফ্রান্স ও জার্মানির

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:২৭

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)-এর আহ্বান উপেক্ষা করে করোনা টিকার বুস্টার ডোজ প্রয়োগ জারি রাখবে জার্মানি ও ফ্রান্স। সেপ্টেম্বর থেকে এই দুটি দেশ বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু করবে। বিশ্বের সব মানুষ টিকার আওতার আসার আগ পর্যন্ত বুস্টার ডোজ না দিতে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা করেই এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করবে দেশ দুটি। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

বুধবার ডব্লিউএইচও’র  প্রধান টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস বলেছেন, ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে টিকাদানের ব্যবধান ক্রমেই বাড়ছে। আর তা কমিয়ে আনতেই বুস্টার ডোজের প্রয়োগ বন্ধ রাখার তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট মোকাবিলায় টিকার বুস্টার ডোজ প্রয়োগের উপর জোর দিচ্ছে বিভিন্ন দেশ। আর সেই সময়েই তা প্রয়োগ বন্ধ রাখার তাগিদ দিলো ডব্লিউএইচও।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ জানান, বয়স্ক ও ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের জন্য সেপ্টেম্বর থেকে বুস্টার ডোজ প্রয়োগের জন্য কাজ করছে ফ্রান্স।

তিনি বলেন, তৃতীয় একটি ডোজ হয়ত প্রয়োজনীয়। কিন্তু তা সবার জন্য না। সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা ও বয়স্কদের জন্য।

জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশটি রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে পড়া খুব বয়স্ক ও নার্সিং হোমের বাসিন্দাদের বুস্টার ডোজ দেওয়ার পরিকল্পনা করছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, মে মাসে বিশ্বের ধনী দেশগুলো প্রতি ১০০ জন মানুষের জন্য প্রায় ৫০ ডোজ টিকা প্রয়োগ করেছে। এরপর এই সংখ্যা আরও বেড়েছে। কিন্তু নিম্ন আয়ের দেশগুলো সরবরাহ ঘাটতির কারণে প্রতি ১০০ জনের জন্য মাত্র ১.৫ ডোজ টিকা দিতে সক্ষম হয়েছে।

/এএ/

সম্পর্কিত

করোনা টিকার বুস্টার ডোজ বন্ধের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

করোনা টিকার বুস্টার ডোজ বন্ধের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

চেক রিপাবলিকে দুই ট্রেনের ভয়াবহ সংঘর্ষ, দুই চালকই নিহত

চেক রিপাবলিকে দুই ট্রেনের ভয়াবহ সংঘর্ষ, দুই চালকই নিহত

বিক্ষোভে উত্তাল জার্মানি, আটক অর্ধসহস্রাধিক

বিক্ষোভে উত্তাল জার্মানি, আটক অর্ধসহস্রাধিক

জাপানে জরুরি অবস্থা জারির পরামর্শ

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ০৭:৪১

জাপানের করোনা পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটেছে। বুধবার রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যমে এনএইচকে নতুন করে আরও ১৪ হাজার ২০৭ জনের কোভিড শনাক্তের খবর দিয়েছে। এদিন দেশটির করোনাভাইরাস বিষয়ক উপদেষ্টা প্যানেলের প্রধান পরিস্থিতি মোকাবিলায় বর্তমানে বিভিন্ন স্থানে জারি থাকা জরুরি অবস্থা সারাদেশে কার্যকরের আহ্বান জানিয়েছেন।

অতি সংক্রামক ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে জাপানের বিভিন্ন স্থানে করোনা পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটে। বুধবার সংক্রমণের বাড়বাড়ন্তের জন্য এই ভ্যারিয়েন্টকে দায়ী করছে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ইনফেকশাস ডিজিজেস। সংস্থাটি বলছে, এ মাসের গোড়ার দিকে ক্যান্টো অঞ্চলে প্রায় ৯০ শতাংশ এবং কানসাই অঞ্চলে প্রায় ৬০ শতাংশ নতুন সংক্রমণের জন্য দায়ী এই ভ্যারিয়েন্ট।

করোনাভাইরাস বিষয়ক উপদেষ্টা প্যানেলের প্রধান ওমি শিগেরু বুধবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে এক বৈঠকে এ নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, চলমান সংক্রমণ বৃদ্ধির পেছনে একটি নিশ্চিত উপাদান হচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট।

তিনি বলেন, কয়েক মাস ধরে বলবৎ থাকা নিয়ন্ত্রণের পর করোনাভাইরাস এবং জরুরি অবস্থায় মানুষ অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে।

টোকিও এবং পাঁচটি জেলা বর্তমানে জরুরি অবস্থার আওতায় রয়েছে। ওমি বলেন, সারা দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হবে কি না এবং তা করা হলে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে, সরকারের উচিত হবে তা নিয়ে আলোচনা করা।

প্রধানমন্ত্রী সুগা ইয়োশিহিদে সোমবার সরকারের নতুন নীতি ঘোষণা করেছেন। এতে বলা হয়েছে, মারাত্মক উপসর্গ যাদের নেই এমন রোগীদের বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিতে বলা হবে। মঙ্গলবার সুগা চিকিৎসা সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তিনি করোনা রোগীদের চিকিৎসার বিষয়ে কথা বলেন।

বাড়ি কিংবা হাসপাতালের বাইরে রোগীদের জন্য বিকল্প খোলা রাখারও পরামর্শ দেন উপদেষ্টা প্যানেলের প্রধান ওমি শিগেরু। সূত্র: এনএইচকে, জাপান টাইমস।

/এমপি/

সম্পর্কিত

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ২০ কোটি ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ২০ কোটি ছাড়িয়েছে

পদত্যাগের দাবি নাকচ মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর

পদত্যাগের দাবি নাকচ মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর

সর্বশেষ

টিকা ছাড়া শরীরে খালি সিরিঞ্জ পুশ, ২ নার্সকে প্রত্যাহার

টিকা ছাড়া শরীরে খালি সিরিঞ্জ পুশ, ২ নার্সকে প্রত্যাহার

বসুন্ধরা কিংস-মোহনবাগান লড়াই ২৪ আগস্ট

বসুন্ধরা কিংস-মোহনবাগান লড়াই ২৪ আগস্ট

মিয়ানমারে গণহত্যা চলছে, জাতিসংঘকে সতর্ক করলেন রাষ্ট্রদূত

মিয়ানমারে গণহত্যা চলছে, জাতিসংঘকে সতর্ক করলেন রাষ্ট্রদূত

‘কিশোর গ্যাং’ কালচার বন্ধে শিক্ষার্থীদের সাংস্কৃতিক চর্চায় যুক্ত করার উদ্যোগ

‘কিশোর গ্যাং’ কালচার বন্ধে শিক্ষার্থীদের সাংস্কৃতিক চর্চায় যুক্ত করার উদ্যোগ

ক্ষমতা নয় জাতি গঠনে নিবেদিত ছিলেন শেখ কামাল: মেয়র তাপস

ক্ষমতা নয় জাতি গঠনে নিবেদিত ছিলেন শেখ কামাল: মেয়র তাপস

ইরানে হামলা চালাতে প্রস্তুত ইসরায়েল: গান্তজ

ইরানে হামলা চালাতে প্রস্তুত ইসরায়েল: গান্তজ

রাজধানীতে প্রতারক চক্রের চার সদস্য গ্রেফতার

রাজধানীতে প্রতারক চক্রের চার সদস্য গ্রেফতার

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

লেবাননে বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল

লেবাননে বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

মতিঝিল আইডিয়ালের আতিককে গ্রেফতারের দাবি

মতিঝিল আইডিয়ালের আতিককে গ্রেফতারের দাবি

নির্মাণশৈলীতে ভিন্নতা আনতে 'ভাস্কর্যে বিকৃতি'

নির্মাণশৈলীতে ভিন্নতা আনতে 'ভাস্কর্যে বিকৃতি'

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বুস্টার ডোজ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা ফ্রান্স ও জার্মানির

বুস্টার ডোজ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা ফ্রান্স ও জার্মানির

করোনা টিকার বুস্টার ডোজ বন্ধের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

করোনা টিকার বুস্টার ডোজ বন্ধের আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

এক সপ্তাহে ৯০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ককে টিকা দিয়েছে ভুটান

এক সপ্তাহে ৯০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ককে টিকা দিয়েছে ভুটান

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

সংক্রমণ ঠেকাতে ফাইজারের কার্যকারিতা কমছে: ইসরায়েলের গবেষণা

সংক্রমণ ঠেকাতে ফাইজারের কার্যকারিতা কমছে: ইসরায়েলের গবেষণা

কোভিশিল্ড গ্রাহকদের জন্য দরজা খুললো ইউরোপের ১৬ দেশ

কোভিশিল্ড গ্রাহকদের জন্য দরজা খুললো ইউরোপের ১৬ দেশ

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশকে এক কোটি ১০ লাখ টিকা দেবে জাপান

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশকে এক কোটি ১০ লাখ টিকা দেবে জাপান

সেপ্টেম্বর থেকে স্পুটনিক ভি উৎপাদনে যাচ্ছে সেরাম

সেপ্টেম্বর থেকে স্পুটনিক ভি উৎপাদনে যাচ্ছে সেরাম

প্রথম দেশ হিসেবে দুটি ভিন্ন টিকার ডোজ প্রয়োগের ঘোষণা থাইল্যান্ডের

প্রথম দেশ হিসেবে দুটি ভিন্ন টিকার ডোজ প্রয়োগের ঘোষণা থাইল্যান্ডের

টিকা দিতে নদী পাড়ি!

টিকা দিতে নদী পাড়ি!

© 2021 Bangla Tribune