X
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো পুলিশ সদস্যের

আপডেট : ২৫ মার্চ ২০২১, ২৩:০৮

নেত্রকোনা-ময়মনসিংহ সড়কে পিকআপ মোটরসাইকেল সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্য (ক-৮১৪) নিহত হয়েছে। আজ দুপুরে এ মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম সাইফুল ইসলাম, তিনি নেত্রকোনা সদর কোর্টে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলায়।

নেত্রকোনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওসি জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর আনুমানিক দুটার দিকে শ্যামগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেলযোগে নেত্রকোনার দিকে পুলিশ সদস্য সাইফুল আসছিলেন। পরে নেত্রকোনা ময়মনসিংহ সড়কের বাগড়া পশ্চিম ব্রিজের কাছাকাছি এলাকায় পৌঁছতেই বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বেপরোয়া পিকআপ তাকে ধাক্কা দেয়। এতে সড়কে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন তিনি। এ ঘটনায় পিকআপটিকে আটক করা গেলেও চালক পালিয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন ফখরুজ্জামান জুয়েল জানান, লাশ প্রাথমিক সুরত হাল শেষে ময়না তদন্তের পর নিহতের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। ঘাতক পিকআপ চালককে আটকের চেষ্টা অব্যাহত আছে। নিহত পুলিশ সদস্যের পরিবারের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন জেলা পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সি।

 

/টিএন/

সম্পর্কিত

পুলিশ সুপারকে ডিআইজি পরিচয়ে ফোন দিয়ে ধরা

পুলিশ সুপারকে ডিআইজি পরিচয়ে ফোন দিয়ে ধরা

জামালপুরে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সমাবেশ

জামালপুরে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সমাবেশ

খুঁটির বদলে গাছ ও বাঁশে বিদ্যুতের লাইন

খুঁটির বদলে গাছ ও বাঁশে বিদ্যুতের লাইন

ডোবার পানিতে বাবার মরদেহ, ২ ছেলে আহত

ডোবার পানিতে বাবার মরদেহ, ২ ছেলে আহত

মাকে হত্যায় ছেলের মৃত্যুদণ্ড

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৩৭

গাইবান্ধা সদর উপজেলায় ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে হত্যার দায়ে জিয়াউল হককে (৪৪) মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এই রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণাকালে আসামি জিয়াউল হক আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি সদর উপজেলার শিবপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. ফারুক আহম্মেদ প্রিন্স জানান, ২০১৮ সালের ১৩ জুন জিয়াউল হক তার ছোট ভাইয়ের জুবায়ের খন্দকারের কাছে কিছু টাকা চান। কিন্তু জুবায়ের তাকে টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে হাতে থাকা ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে তাকে মারধর করে জিয়া। এ সময় মা জহুরা বেগম বাঁধা দিলে তার মাথায় ব্যাট দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করেন। জহুরা বেগমকে গুরুতর আহোবস্থায় সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকৎসক মৃত ঘোষণা করেন। 

ঘটনার পরদিন নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে ছেলে জিয়াউল হককে একমাত্র আসামি করে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এরপর জিয়াউল হককে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

তিনি আরও জানান, আদালতে মামলা চলাকালে সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বিচারক রায়ের দিন ধার্য করেন। এরপর ধার্য তারিখে শুনানি শেষে আজ বিচারক জিয়াউল হককে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। 

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

স্কুলছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা: আহত কিশোরের মৃত্যু

স্কুলছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা: আহত কিশোরের মৃত্যু

বেগমগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

বেগমগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

সন্ধ্যা হলেই শীত নামছে উত্তরে, বসছে পিঠার দোকান

সন্ধ্যা হলেই শীত নামছে উত্তরে, বসছে পিঠার দোকান

কুমিল্লার ঘটনায় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৪:২৩

কুমিল্লায় সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট দেওয়ায় উত্তম মজুমদার (৩১) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাতে খুলনার লবণচরার বোখারীয়া জামে মসজিদের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব-৬ এর পরিচালক লেফট্যানেন্ট কর্নেল মোস্তাক আহমেদ বলেন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উত্তপ্ত করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের উদ্দেশ্যে ফেসবুকে নিজ আইডিতে বিভ্রান্তিকর পোস্ট দেয় ওই যুবক।

র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাত সোয়া ৯টায় খুলনার একটি আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে লবণচরার খুলনা-সাতক্ষীরা হাইওয়ে সড়ক এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় পাশের বোখারীয়া জামে মসজিদের সামনে থেকে উত্তমকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সাইবার অপরাধের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছেন উত্তম। তিনি বরিশাল বিএম কলেজ থেকে এমএ সম্পন্ন করে খুলনায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। 

গত ১৩ অক্টোবর থেকে উত্তম মজুমদার তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে বিভিন্ন উসকানিমূলক বক্তব্য পোস্ট করে আসছিলেন বলে জানায় র‌্যাব।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

খুলনায় হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

খুলনায় হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার

টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার

অপশক্তি যে দলেরই হোক প্রতিহত করা হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

অপশক্তি যে দলেরই হোক প্রতিহত করা হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

বছরে খরচ ৬০ কোটি, তবু হুমকির মুখে মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌপথ

বছরে খরচ ৬০ কোটি, তবু হুমকির মুখে মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌপথ

খুলনায় হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৫৯

খুলনার রূপসা উপ‌জেলায় হত্যা মামলায় মো. জম‌শেদ ওর‌ফে জা‌বেদ মল্লিক জম‌শেদ (৩৩) নামে একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দি‌য়ে‌ছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৮ অ‌ক্টোবর) খুলনা জেলা ও দায়রা জজ মো. ম‌শিউর রহমান চৌধুরী এ রায় ঘোষণা ক‌রে‌ন।

জম‌শেদ রূপসার র‌হিমনগর এলাকার মো. মান্নান ওর‌ফে মুরাদ ম‌ল্লি‌কের ছেলে। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি তাকে ২৫ হাজার টাকা জ‌রিমানা, অনাদা‌য়ে তিন মাস বিনাশ্রম এবং ২০১ ধারায় ৭ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দি‌য়ে‌ছেন।

অপর আসা‌মি একই এলাকার মৃত বাবু খার ছে‌লে মো. মিজান খা’র (৪৫) বিরু‌দ্ধে অপরাধ প্রমা‌ণিত না হওয়ায় খালাস প্রদান করা হ‌য়ে‌ছে। মামলায় রাষ্ট্রপ‌ক্ষে ছি‌লেন জেলা পিপি অ্যাডভোকেট শেখ এনামুল হক, এ‌পি‌পি এম ই‌লিয়াছ খান ও এ‌পি‌পি শাম্মী আক্তার।  

মামলার বিররণে জানা গে‌ছে, ২০১৭ সা‌লের ১ জুন রূপসা উপ‌জেলার নৈহাটি ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের আমির আলীর পুত্র রাজ খানকে (১৯) হত্যা করা হয়। হত্যার পর তার মস্তকবি‌হীন লাশ বস্তায় ভ‌রে নদী‌তে ফে‌লে দেয় হত্যাকারীরা।পু‌লিশ আঠা‌রো‌বে‌কি নদীর চর থে‌কে ১ জুন সকা‌লে বস্তাব‌ন্দি লাশ উদ্ধার ক‌রে। 

এ ঘটনায় সে‌দিনই পু‌লিশ বা‌দী হ‌য়ে রূপসা থানায় হত্যা মামলা ক‌রেন। লাশ উদ্ধারের পর বেওয়ারিশ হিসেবে দাফন করা হয়। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া আসামি জম‌শেদ আদালতে এ ঘটনায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. হারুন অর র‌শিদ ২০১৯ সা‌লের ২৯ অ‌ক্টোবর আদালতে অভিযোগপত্র দা‌খিল ক‌রেন। শুনানি চলাকালে এই মামলায় ২৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ ক‌রে‌ন আদালত।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

কুমিল্লার ঘটনায় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

কুমিল্লার ঘটনায় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

স্কুলছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা: আহত কিশোরের মৃত্যু

স্কুলছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা: আহত কিশোরের মৃত্যু

বছরে খরচ ৬০ কোটি, তবু হুমকির মুখে মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌপথ

বছরে খরচ ৬০ কোটি, তবু হুমকির মুখে মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌপথ

শপথ নিলেন বাগেরহাটের নবনির্বাচিত ৬৬ ইউপি চেয়ারম্যান

শপথ নিলেন বাগেরহাটের নবনির্বাচিত ৬৬ ইউপি চেয়ারম্যান

পাটুরিয়ায় ফেরিডুবি: আরও দুই কাভার্ডভ্যান উদ্ধার

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৪:১৮

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় শাহ আমানত ফেরিডুবির ঘটনায় দ্বিতীয় দিনের উদ্ধার অভিযান চলছে। বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হওয়া অভিযানে এখন পর্যন্ত দুটি কাভার্ডভ্যান উদ্ধার করেছে উদ্ধারকারী জাহাজ ‘হামজা’। 

‌‘হামজা’র কমান্ডার এস এম ছানোয়ার হোসেন জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে একটি কাভার্ডভ্যান উদ্ধার করা হয়। এরপর দুপুর দেড়টার দিকে আরেকটি কাভার্ডভ্যান উদ্ধার করা হয়েছে। 

চাঁদপুর থেকে রওনা দেওয়া আরেকটি উদ্ধারকারী জাহাজ ‘প্রত্যয়’ এখনও পাটুরিয়া ঘাটে এসে পৌঁছায়নি বলে জানান তিনি। এখনও ফেরির নিচে ও এর আশপাশে আরও কয়েকটি ট্রাক ডুবে আছে।

দুপুর দেড়টায় আরেকটি কাভার্ডভ্যান উদ্ধার করে ‌‘হামজা’

বুধবার (২৭ অক্টোবর) সকাল সোয়া ১০টার দিকে ১৭টি পণ্যবাহী ট্রাক ও ১৬টি মোটরসাইকেল নিয়ে ডুবে যায় ফেরিটি। এরপর উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। সাড়ে ১০ ঘণ্টা উদ্ধার অভিযান চালিয়ে দুর্ঘটনাকবলিত ফেরি থেকে চারটি পণ্যবাহী ট্রাক উদ্ধার করে ‘হামজা’। পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে প্রথম দিনের মতো উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) নৌ-সংরক্ষণ ও পরিচালন বিভাগের পরিচালক মো. শাজাহান বলেন, চাঁদপুর থেকে উদ্ধারকারী জাহাজ ‘প্রত্যয়’ পাটুরিয়া ফেরিঘাটের পথে। এটি ১৪১ মিটার নদীপথ পেরিয়ে চাঁদপুর থেকে গতকাল রওনা দিলেও, কখন পাটুরিয়া পৌঁছাবে তা বলা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত ফেরি শাহ আমানতের যে ওজন তাতে দুটি জাহাজ চেষ্টা করেও সফল হবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে। ‘প্রত্যয়’ পাটুরিয়ায় আসার পর পরই দুর্ঘটনাকবলিত ফেরিটি উদ্ধারে কাজ শুরু করা যাবে। ‘হামজা’ শুধু ফেরির ভেতরে আটকে থাকা ট্রাকগুলো উদ্ধারে কাজ করছে।

/এসএইচ/
টাইমলাইন: পাটুরিয়ায় ফেরিডুুবি
২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৪২
পাটুরিয়ায় ফেরিডুবি: আরও দুই কাভার্ডভ্যান উদ্ধার

সম্পর্কিত

স্কুলছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা: আহত কিশোরের মৃত্যু

স্কুলছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা: আহত কিশোরের মৃত্যু

অপশক্তি যে দলেরই হোক প্রতিহত করা হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

অপশক্তি যে দলেরই হোক প্রতিহত করা হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

বহদ্দারহাট ফ্লাইওভারের গার্ডার ধসে ১৩ মৃত্যু: ৮ বছরেও শেষ হয়নি বিচার

বহদ্দারহাট ফ্লাইওভারের গার্ডার ধসে ১৩ মৃত্যু: ৮ বছরেও শেষ হয়নি বিচার

ফেরি উদ্ধারে দ্বিতীয় দিনের অভিযান শুরু, এখনও পৌঁছায়নি ‘প্রত্যয়’

ফেরি উদ্ধারে দ্বিতীয় দিনের অভিযান শুরু, এখনও পৌঁছায়নি ‘প্রত্যয়’

টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩:২২

কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ফয়জুল ইসলাম (২১) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটলিয়ন (এপিবিএন)। পুলিশ বলছে, তিনি ‘সালমান শাহ’ সন্ত্রাসী গ্রুপের সেকেন্ড ইন কমান্ড।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) টেকনাফের নয়াপাড়া নিবন্ধিত ক্যাম্প থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কক্সবাজার ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক (এসপি) তারিকুল ইসলাম তারিক জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নয়াপাড়া এপিবিএন ক্যাম্পের অফিসার ও ফোর্স বিশেষ অভিযানের মাধ্যমে বুধবার দুপুরে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ফয়জুলকে গ্রেফতার করে।

তার সম্পর্কে যাচাই-বাছাই করে জানা যায়, শুরু থেকে রোহিঙ্গা ডাকাত ‘সালমান শাহ’ গ্রুপের একজন সক্রিয় সদস্য এবং অপহরণ, চাঁদাবাজি, ছিনতাই ও মারামারিসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িত তিনি। এ ছাড়া তিনি ২০১৯ সালের টেকনাফ থানার একটি হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামি।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

কুমিল্লার ঘটনায় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

কুমিল্লার ঘটনায় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

‘সিনহা হত্যা মামলার আসামিরা স্বেচ্ছায় জবানবন্দি দিয়েছিল’

‘সিনহা হত্যা মামলার আসামিরা স্বেচ্ছায় জবানবন্দি দিয়েছিল’

অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে নিহত ৬ রোহিঙ্গার পরিবারকে

অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে নিহত ৬ রোহিঙ্গার পরিবারকে

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পুলিশ সুপারকে ডিআইজি পরিচয়ে ফোন দিয়ে ধরা

পুলিশ সুপারকে ডিআইজি পরিচয়ে ফোন দিয়ে ধরা

জামালপুরে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সমাবেশ

জামালপুরে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সমাবেশ

খুঁটির বদলে গাছ ও বাঁশে বিদ্যুতের লাইন

খুঁটির বদলে গাছ ও বাঁশে বিদ্যুতের লাইন

ডোবার পানিতে বাবার মরদেহ, ২ ছেলে আহত

ডোবার পানিতে বাবার মরদেহ, ২ ছেলে আহত

বুয়েটে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

বুয়েটে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

একটি সেতুর জন্য পাঁচ গ্রামের মানুষের দুর্ভোগ

একটি সেতুর জন্য পাঁচ গ্রামের মানুষের দুর্ভোগ

ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা: বড় ভাইয়ের ফাঁসি, ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন

ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা: বড় ভাইয়ের ফাঁসি, ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন

যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা সেজে কোটিপতি, নিয়েছেন সরকারি ফ্ল্যাট

যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা সেজে কোটিপতি, নিয়েছেন সরকারি ফ্ল্যাট

কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে একজন গ্রেফতার

কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে একজন গ্রেফতার

সিনহা হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন আরও ১৪ জন

সিনহা হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন আরও ১৪ জন

সর্বশেষ

সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় রাষ্ট্র নিশ্চুপ নেই: হাইকোর্ট

সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় রাষ্ট্র নিশ্চুপ নেই: হাইকোর্ট

মাকে হত্যায় ছেলের মৃত্যুদণ্ড

মাকে হত্যায় ছেলের মৃত্যুদণ্ড

‘প্রতিবাদ’ শব্দটিকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে: রিজভী

‘প্রতিবাদ’ শব্দটিকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে: রিজভী

‘বছরে ৩৫ বার দ্রব্যের দাম বাড়লেও ৭ বছরে শ্রমিকের বেতন বাড়ে না’

‘বছরে ৩৫ বার দ্রব্যের দাম বাড়লেও ৭ বছরে শ্রমিকের বেতন বাড়ে না’

ফিলিস্তিনে এক হাজার হাফেজকে সম্মাননা

ফিলিস্তিনে এক হাজার হাফেজকে সম্মাননা

© 2021 Bangla Tribune