X
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

স্বাস্থ্যবিধি ও লকডাউন নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ ওয়ার্কার্স পার্টির

আপডেট : ১২ এপ্রিল ২০২১, ১৬:০৪

করোনাভাইরাস সংক্রমণের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে জনগণের উদাসীনতা যত দায়ী, তারচেয়ে বেশি দায়ী সরকারের অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতি। এই অভিযোগ করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের জোটসঙ্গী বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি।

সোমবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে পার্টির পলিটব্যুরো এই অভিযোগ তোলে। করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে প্রতিদিন শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে থাকা; হাসপাতালে শয্যা, অক্সিজেন ও আইসিইউ না পাওয়ায় চরম চিকিৎসা সংকট; শ্রমিক, শ্রমজীবী মানুষ, শহরে বসবাসরত গরিম মানুষদের সহায়তায় প্রচার বা সহায়তা দেওয়ার ব্যবস্থা না করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে দলটি।

ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয়, “করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ে সরকার যে লকডাউন-লকডাউন খেলা খেলছে তা সামগ্রিক পরিস্থিতি সম্পর্কে তাদের উপেক্ষার মনোভাবের পরিচয় বহন করে। এদিকে আগামী ১৪ তারিখ থেকে কঠোর লকডাউনের যে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে তাতে ওই সময়  ‘দিন এনে দিন খাওয়া’ মানুষগুলোর জন্য কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা বলা হচ্ছে না।”

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘শ্রমিকদের প্যাকেজের এক হাজার ৫০০ কোটি টাকার মধ্যে মাত্র পাঁচ কোটি টাকা বিতরণ করতে পেরেছে। এই অর্থ বিতরণে শহরে সিটি করপোরেশন ও গ্রামে ইউনিয়ন পরিষদকে তালিকা তৈরি করে খুবই স্বল্প সময়ের মধ্যে দিতে বলা হলেও, তার যাচাই বাছাই ও নিয়ন্ত্রণভার সম্পূর্ণটাই ছিল আমলাদের হাতে। আমলাতান্ত্রিক নীতিমালা ও তার বাস্তবায়নে ব্যর্থতা এই পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছিল। ফলে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া টাকা দুর্গত মানুষের কাছে পৌঁছায়নি। প্রধানমন্ত্রীকে কাগুজে হিসাব দেখানো হয়েছে।’

ওয়ার্কার্স পার্টির বিবৃতিতে বলা হয় তখনও তারা এ ধরনের সহায়তা প্রদানে জনপ্রতিনিধিদের মূল ভূমিকায় রাখার কথা উল্লেখ করেছিল। লকডাউন বাস্তবায়নে জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব প্রদানের কথা বলা হয়েছিল। সার্বিকভাবে জনপ্রতিনিধিদের বাদ দিয়ে গৃহীত ব্যবস্থার প্রথম কিছুদিন উচ্চ পদস্থ আমলাদের ফটো সেশন, নিজ নিজ বাহিনীর প্রচার ছাড়া কাজের কাজ কিছু হয়নি। এবার রোজাকে সামনে রেখে ওই সব ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে করোনায় মৃত্যুর পাশাপাশি জীবিকা হারিয়ে মানুষকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হবে বলে উল্লেখ করা হয় পার্টির বিবৃতিতে।

 

 

/এসটিএস/এফএস/

সম্পর্কিত

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

পাতার রসে সারবে করোনা!

পাতার রসে সারবে করোনা!

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

হেফাজতের তাণ্ডবে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

হেফাজতের তাণ্ডবে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

ভ্যাকসিন পেতে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভ্যাকসিন পেতে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্যবিধি মানাতে জনপ্রতিনিধিদের সক্রিয়তা চেয়েছে সরকার

স্বাস্থ্যবিধি মানাতে জনপ্রতিনিধিদের সক্রিয়তা চেয়েছে সরকার

পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু ৩৭ জন

পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু ৩৭ জন

দুই বছরের দণ্ড এড়াতে ১৪ বছর পলাতক!

দুই বছরের দণ্ড এড়াতে ১৪ বছর পলাতক!

যত টিকা তত পরিকল্পনা

যত টিকা তত পরিকল্পনা

একদিকে রেকর্ড সংক্রমণ আর অক্সিজেনের হাহাকার, অন্যদিকে চলছে মোদির বাড়ি নির্মাণ

একদিকে রেকর্ড সংক্রমণ আর অক্সিজেনের হাহাকার, অন্যদিকে চলছে মোদির বাড়ি নির্মাণ

আরও ১৯১৭ হাজতির জামিন

আরও ১৯১৭ হাজতির জামিন

সর্বশেষ

নারায়ণগ‌ঞ্জের মে‌রিনা লন্ড‌নের অ্যাসেম্বলি মেম্বার নির্বাচিত

নারায়ণগ‌ঞ্জের মে‌রিনা লন্ড‌নের অ্যাসেম্বলি মেম্বার নির্বাচিত

সকাল থেকে যাত্রীবাহী ফেরি বন্ধ

সকাল থেকে যাত্রীবাহী ফেরি বন্ধ

সুহিতা সুলতানা

সুহিতা সুলতানা

আপনার শুভেচ্ছা বার্তায় আমি আপ্লুত: প্রধানমন্ত্রীকে মমতা

আপনার শুভেচ্ছা বার্তায় আমি আপ্লুত: প্রধানমন্ত্রীকে মমতা

আজ বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস

আজ বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

থ্যালাসেমিয়া রোগনিয়ন্ত্রণে প্রতিরোধের কোনও বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

থ্যালাসেমিয়া রোগনিয়ন্ত্রণে প্রতিরোধের কোনও বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

মালদ্বীপ যাওয়ার আগে উজ্জীবিত বসুন্ধরা

মালদ্বীপ যাওয়ার আগে উজ্জীবিত বসুন্ধরা

বাড়ি দখলে মালিকের বিরুদ্ধে শকুনের 'যুদ্ধ ঘোষণা'

বাড়ি দখলে মালিকের বিরুদ্ধে শকুনের 'যুদ্ধ ঘোষণা'

যানজট ঠেলে শপিং মলে ক্রেতাদের ভিড়,  উপেক্ষিত বিধিনিষেধ

যানজট ঠেলে শপিং মলে ক্রেতাদের ভিড়, উপেক্ষিত বিধিনিষেধ

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খালেদা জিয়ার বাসার সব স্টাফ করোনামুক্ত

খালেদা জিয়ার বাসার সব স্টাফ করোনামুক্ত

আরও এক-দুইদিন হাসপাতালে থাকবেন খালেদা জিয়া

আরও এক-দুইদিন হাসপাতালে থাকবেন খালেদা জিয়া

‘ভারত থেকে টিকা না আসলে আইনের আশ্রয় নিতে হবে’

‘ভারত থেকে টিকা না আসলে আইনের আশ্রয় নিতে হবে’

ভারতের সঙ্গে স্থল পথের সব সীমান্ত বন্ধ করুন:  ফখরুল

ভারতের সঙ্গে স্থল পথের সব সীমান্ত বন্ধ করুন:  ফখরুল

গরিবদের ১৫ হাজার টাকা দেওয়ার দাবি বিএনপির

গরিবদের ১৫ হাজার টাকা দেওয়ার দাবি বিএনপির

ত্রাসের রাজত্বের অবসান ঘটাতে হবে: মির্জা ফখরুল

ত্রাসের রাজত্বের অবসান ঘটাতে হবে: মির্জা ফখরুল

হেফাজতের প্রতি দুর্বলতা দেখানোর সুযোগ নেই: নানক

হেফাজতের প্রতি দুর্বলতা দেখানোর সুযোগ নেই: নানক

‘স্থিতিশীল পর্যায়ে খালেদা জিয়া’

‘স্থিতিশীল পর্যায়ে খালেদা জিয়া’

সরকারের পদত্যাগ চায় বিএনপি

সরকারের পদত্যাগ চায় বিএনপি

আলহামদুলিল্লাহ সব ঠিকঠাক আছে: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক এফ এম সিদ্দিকী

আলহামদুলিল্লাহ সব ঠিকঠাক আছে: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক এফ এম সিদ্দিকী

© 2021 Bangla Tribune