X
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

কর্মহীন প্রতি পরিবার পাবে ৫০০ টাকা, দেওয়া হবে খাবারও

আপডেট : ১২ এপ্রিল ২০২১, ১৯:৩৬

লকডাউন চলাকালীন কর্মহীন প্রতিটি পরিবার পাবে নগদ ৫০০ টাকা। লডাউন বাড়লে কর্মহীন প্রতিটি পরিবার পাবে চাল, ডাল, তেলসহ নিত্যপণ্যের পাকেট। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে এই সহায়তা পাবে তারা। মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, সাত দিনের লকডাউনের কারণে যারা কর্মহীন হয়ে পড়বেন, দেশের এই সব কর্মহীন মানুষের সহায়তায় সরকার ইতোধ্যে ৫৭২ কোটি ৯ লাখ ২৭ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। যা এরই মধ্যে প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ ও সিটি কপোরেশনের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে পৌঁছে গেছে। দেশের প্রায় এক কোটি ২৪ লাখ ৪১ হাজার ৯০০ পরিবারকে ভিজিএফ (ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং) কর্মসূচির আওতায় এ আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে।

তবে, কঠোর লকডাউন সাত দিনের বেশি বাড়লে প্রতিটি কর্মহীন পরিবারকে দেওয়া হবে খাবারের প্যাকেট। এর মধ্যে থাকবে ১০ কেজি চাল, এক কেজি তেল, এক কেজি ডাল, চার কেজি আলু, এক কেজি লবণ। সহায়তার এই সব পণ্যপ্যাকেট জনপ্রতিনিধিরা পৌঁছে দেবেন নিজ নিজ এলাকার তালিকাভুক্ত কর্মহীন পরিবারে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, পরিবারপ্রতি ৪৫ টাকা কেজি দরে ১০ কেজি চালের সমমূল্য, অর্থাৎ কার্ডপ্রতি ৪৫০ টাকা হলেও ৫০ টাকা বাড়িয়ে দেওয়া হবে ৫০০ টাকা হারে। যা পাবে কর্মহীন প্রতিটি পরিবার। এটি করোনাকালীন প্রথম উদ্যোগ।

জানা গেছে, দেশের ৬৪টি জেলার ৪৯২টি উপজেলার জন্য ৮৭ লাখ ৭৯ হাজার ২০৩টি কার্ড এবং ৩২৮টি পৌরসভার জন্য ১২ লাখ ৩০ হাজার ৭৪৬টি কার্ডসহ মোট এক কোটি ৯ হাজার ৯৪৯টি ভিজিএফ কার্ডের বিপরীতে ৪৫০ কোটি ৪৪ লাখ ৭৭ হাজার ৫০ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

পরিবারপ্রতি ১০ কেজি চালের সমমূল্য, অর্থাৎ কার্ডপ্রতি ৪৫০ টাকার সঙ্গে ৫০ টাকা বাড়িয়ে ৫০০ টাকা হারে আর্থিক সহায়তা দিতে উপজেলাগুলোর জন্য ৩৯৫ কোটি ৬ লাখ ৪১ হাজার ৩৫০ টাকা এবং পৌরসভাগুলোর জন্য ৫৫ কোটি ৩৮ লাখ ৩৫ হাজার ৭০০ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। যা এরইমধ্যে পৌঁছে গেছে।

একইসঙ্গে কোভিড পরিস্থিতিসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারকে তাৎক্ষণিকভাবে খাদ্য সহায়তার জন্য ১২১ কোটি ৬৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। ৬৪টি জেলার ৪ হাজার ৫৬৮টি ইউনিয়নের প্রতিটিতে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা হারে মোট ১১৪ কোটি ২০ লাখ টাকা মানবিক সহায়তাও দেওয়া হবে।

সারাদেশের ৩২৮টি পৌরসভার অনুকূলে মোট ৫ কোটি ৬৭ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরির প্রতিটি পৌরসভার জন্য ২ লাখ টাকা, ‘বি’ ক্যাটাগরির প্রতিটি পৌরসভার জন্য এক লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং ‘সি’ ক্যাটাগরির প্রতিটি পৌরসভার জন্য এক লাখ টাকা হারে বরাদ্দ দেওয়া হয়। ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর, গাজীপুর এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের জন্য ৭ লাখ টাকা হারে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।  ময়মনসিংহ, নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল এবং সিলেট সিটি করপোরেশনের জন্য ৫ লাখ টাকা হারে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে দেশের ৬৪টি জেলার জেলাপ্রশাসনের অনুকূলে ‘এ’ ক্যাটাগরির জন্য ২ লাখ টাকা ‘বি’ ক্যাটাগরির জন্য এক লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং ‘সি’ ক্যাটাগরির জন্য এক লাখ টাকা হারে মোট এক কোটি ৭৭ লাখ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, এ ধরনের নিষেধাজ্ঞায় অনেককিছু বন্ধ বা সীমিত পরিসরে চালু থাকলে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েন নিম্ন আয়ের মানুষ, দিন এনে দিন খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ, বস্তিবাসী। তাদের তাৎক্ষণিক সহায়তা, খাদ্যের যোগান বিষয়ে ঘোষণায় তেমন কিছুই উল্লেখ থাকে না।

এ প্রসঙ্গে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান জানিয়েছেন, কঠিন লকডাউনের কথা বিবেচনা করেই সরকার এরই মধ্যে ৫৭২ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে, যা ইতোমধ্যেই পৌঁছে গেছে। মাত্র একসপ্তাহের লকডাউন। তেমন সমস্যা হওয়ার কথা নয়। হবেও না। এই বরাদ্দ থেকে প্রতিটি কর্মহীন পরিবার হাতে নগদ ৫০০ টাকা পেয়ে যাবেন। তবে করোনা সংক্রামণ রোধ পরিস্থিতি উন্নত না হলে লকডাউন দীর্ঘায়িত হলে সরকারের তরফ থেকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হবে আগের মতোই।  

 

/এসআই/আইএ/

সম্পর্কিত

দুর্গত এলাকায় সফরে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু

দুর্গত এলাকায় সফরে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু

বৃদ্ধ দম্পতিকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, হামলাকারী গ্রেফতার

বৃদ্ধ দম্পতিকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, হামলাকারী গ্রেফতার

বাঘ হত্যাকারী ধরিয়ে দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

বাঘ হত্যাকারী ধরিয়ে দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

৯৭ শতাংশ অভিভাবক স্কুল খোলার পক্ষে: জরিপ

৯৭ শতাংশ অভিভাবক স্কুল খোলার পক্ষে: জরিপ

ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে?

ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে?

ভ্রাম্যমাণ ছিনতাইকারীদের ‘গাড়ি গ্রুপ’

ভ্রাম্যমাণ ছিনতাইকারীদের ‘গাড়ি গ্রুপ’

কোথাও নেই যেন স্বাস্থ্যবিধি! (ফটোস্টোরি)

কোথাও নেই যেন স্বাস্থ্যবিধি! (ফটোস্টোরি)

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিক্রি: ভূমি অফিসের দুই কর্মকর্তাকে বদলি

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিক্রি: ভূমি অফিসের দুই কর্মকর্তাকে বদলি

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ

নীলক্ষেতে জাল সনদসহ গ্রেফতার ২

নীলক্ষেতে জাল সনদসহ গ্রেফতার ২

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

গা ঘেঁষে চলছে শপিং

গা ঘেঁষে চলছে শপিং

সর্বশেষ

বাংলাদেশে ফিরেই ৫ দিনের কোয়ারেন্টিনে ইংলিশ কোচ

বাংলাদেশে ফিরেই ৫ দিনের কোয়ারেন্টিনে ইংলিশ কোচ

ঈদের পরে উচ্চ সংক্রমণের শঙ্কা!

ঈদের পরে উচ্চ সংক্রমণের শঙ্কা!

শিমুলিয়া ঘাটে ঘরমুখো যাত্রীর ভিড় কমেছে

শিমুলিয়া ঘাটে ঘরমুখো যাত্রীর ভিড় কমেছে

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

সারাদিন চলবে বৃষ্টিরও গান...

সারাদিন চলবে বৃষ্টিরও গান...

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টকে উদ্বেগজনক ঘোষণা দিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টকে উদ্বেগজনক ঘোষণা দিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

নেশাগ্রস্ত ব্যক্তিকে কি জাকাত দেওয়া যাবে?

নেশাগ্রস্ত ব্যক্তিকে কি জাকাত দেওয়া যাবে?

অক্সিজেন সংকটে ভারতের এক হাসপাতালে ১১ করোনা রোগীর মৃত্যু

অক্সিজেন সংকটে ভারতের এক হাসপাতালে ১১ করোনা রোগীর মৃত্যু

কাপ্তাই হ্রদে পানি কম, বিদ্যুৎকেন্দ্রে মাত্র একটি ইউনিট সচল

কাপ্তাই হ্রদে পানি কম, বিদ্যুৎকেন্দ্রে মাত্র একটি ইউনিট সচল

যুক্তরাষ্ট্রে কিশোরদের জন্য ফাইজারের টিকা অনুমোদন

যুক্তরাষ্ট্রে কিশোরদের জন্য ফাইজারের টিকা অনুমোদন

পাঁচ বছরের টার্গেট, তিন বছরেই বাস্তবায়ন

পাঁচ বছরের টার্গেট, তিন বছরেই বাস্তবায়ন

শায়েস্তা খাঁর সাত গম্বুজ মসজিদ

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদশায়েস্তা খাঁর সাত গম্বুজ মসজিদ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দুর্গত এলাকায় সফরে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু

দুর্গত এলাকায় সফরে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

ঈদের পর ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

ঈদের পর ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ

সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ

গাছ কাটার বিষয়ে জানাতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন!

গাছ কাটার বিষয়ে জানাতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন!

'যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের কোয়াডে থাকলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে'

'যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের কোয়াডে থাকলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে'

দুর্যোগের কবলে দেশ, বঙ্গবন্ধুর জরুরি নির্দেশ

দুর্যোগের কবলে দেশ, বঙ্গবন্ধুর জরুরি নির্দেশ

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

৯৩ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

৯৩ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

করোনার টিকা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের: ডব্লিউটিও  

করোনার টিকা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের: ডব্লিউটিও  

© 2021 Bangla Tribune