X
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

কানেকটিভিটির সুফল পেতে যা করতে হবে

আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০

আন্তঃআঞ্চলিক বাণিজ্যে দক্ষিণ এশিয়া এখনও বিশ্বের দুর্বলতম অঞ্চল। এই অঞ্চলে দেখা যায় পাশের দেশের সঙ্গে ব্যবসা করার খরচ বেশি, কিন্তু ইউরোপ-আমেরিকার সঙ্গে কম। ভঙ্গুর যোগাযোগ ব্যবস্থা, কাস্টমস ও বন্দর সমস্যা, লোডিং-আনলোডিং নিয়ে ঝামেলা, সময়ক্ষেপণ; এসব কারণেই খরচ বাড়ে। আর তাই এই অঞ্চলের দেশগুলোর সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য রাজনৈতিক যোগাযোগ করছে সরকার। মার্চে পাঁচটি দেশের সরকারপ্রধানের ঢাকা সফরের সময় তাদের সঙ্গে কানেকটিভিটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞদের মত হচ্ছে, বাণিজ্য সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিত না হলে কানেকটিভিটির সর্বোচ্চ সুবিধা পাওয়া যাবে না।

সাবেক অর্থ উপদেষ্টা মির্জা আজিজ বলেন, ‘কনেকটিভিটির দুটি মাত্রা। প্রথমটা হলো ভৌত। এর মধ্যে আছে রেলওয়ে, নদীপথ ও সড়কপথ। এগুলোর উন্নতির মাধ্যমেও কানেকটিভিটি বাড়ানো যায়। দ্বিতীয়টি হচ্ছে নমনীয় মাত্রা। এরমধ্যে সীমান্তে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন সুবিধা প্রদান এবং অন্যান্য অভৌত বিষয় রয়েছে।’

কানেকটিভিটির উদ্দেশ্য হচ্ছে আঞ্চলিক বাণিজ্য বৃদ্ধি। এমনটা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এই বাণিজ্য বৃদ্ধি করতে ভৌত কানেকটিভিটি জরুরি। তবে এটাই যথেষ্ট নয়।’

উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি (সাফটা) হয়েছে। কিন্তু অন্যান্য সুবিধা না থাকার কারণে বাণিজ্য বাড়ছে না।

সাফটায় যেসব পণ্য বাজার সুবিধার আওতায় রয়েছে সেগুলোর বাণিজ্যে বিভিন্ন জটিলতা দেখা দেয়। এর মধ্যে আছে রুলস অফ অরিজিন, পণ্যের মান বা কাস্টমস জটিলতা। এ সব দূর না করে ভৌত কানেকটিভিটি বাড়িয়েও কাজ হবে না বলে জানান সাবেক অর্থ উপদেষ্টা।

তিনি আরও বলেন, সুষ্ঠু কানেকটিভিটির জন্য ভৌত অবকাঠামো ও অন্যান্য সুবিধা যদি থাকে তবে আন্তঃআঞ্চলিক বিনিয়োগও বাড়বে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের ফেলো মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও ভুটানের মধ্যে বাণিজ্য হয় সড়ক বা রেলপথে। ভারতের সঙ্গে আমাদের বাণিজ্যের প্রায় ৯০ শতাংশ হয় সড়কপথে। কিন্তু পাশের আরেকটি দেশ যেমন নেপালে কোনও পণ্য পাঠানোর খরচ ব্রাজিলে পাঠানোর চেয়েও বেশি।’

সীমান্তে কাস্টমস জটিলতা, লোডিং ও আনলোডিং, লম্বা লাইন, ডকুমেন্টেশন, দীর্ঘ সময় এবং অন্যান্য সমস্যার কারণে খরচ বাড়লেও প্রতিযোগিতার সক্ষমতা কমে। এর ফলে ভোক্তা, দেশীয় উদ্যোক্তা- যারা কাঁচামাল আমদানি কিংবা পণ্য রফতানি করছেন, তাদের খরচটা বেড়ে যায় বলে তিনি জানান।

তার মতে, মাল্টি-মোডাল ব্যবস্থায় এ সমস্যা দূর করা যায়। কাস্টমস বন্দরগুলোতে সমন্বিত (ইন্টিগ্রেটেডে) চেকপোস্ট, সিঙ্গেল উইন্ডো ও আঞ্চলিক মোটর ভেহিক্যাল চুক্তি বাস্তবায়ন করে সব জায়গায় গাড়ি যাতায়াতের সুযোগ করে দিলেও খরচ অনেকটা কমে আসবে বলে তিনি জানান।

তবে তিনি বলেন, এই ট্রান্সপোর্ট করিডোরগুলোকে অর্থনৈতিক করিডোর বানাতে হবে। ট্রান্সপোর্ট করিডোরগুলো বাস্তবায়ন হলে খরচ কমানোর ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

 

 

 
 
/এফএ/

সম্পর্কিত

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

পাতার রসে সারবে করোনা!

পাতার রসে সারবে করোনা!

'আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যার রায় দ্রুত কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া হবে'

'আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যার রায় দ্রুত কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া হবে'

ডিএনসিসির অভিযানে অনিয়মের খেসারত দিলেন ব্যবসায়ীরা

ডিএনসিসির অভিযানে অনিয়মের খেসারত দিলেন ব্যবসায়ীরা

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দেবে নাগরিক সমাজ

প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দেবে নাগরিক সমাজ

দিনাজপুরে স্বস্তির বৃষ্টি

দিনাজপুরে স্বস্তির বৃষ্টি

সরকারের অনুমতির পরই বিদেশে যাওয়ার সিদ্ধান্ত: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক

সরকারের অনুমতির পরই বিদেশে যাওয়ার সিদ্ধান্ত: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

পদ্মা সেতুর প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানোর খবর সত্য নয়: কাদের

পদ্মা সেতুর প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানোর খবর সত্য নয়: কাদের

ভ্যাকসিন পেতে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভ্যাকসিন পেতে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সর্বশেষ

নারায়ণগ‌ঞ্জের মে‌রিনা লন্ড‌নের অ্যাসেম্বলি মেম্বার নির্বাচিত

নারায়ণগ‌ঞ্জের মে‌রিনা লন্ড‌নের অ্যাসেম্বলি মেম্বার নির্বাচিত

সকাল থেকে যাত্রীবাহী ফেরি বন্ধ

সকাল থেকে যাত্রীবাহী ফেরি বন্ধ

সুহিতা সুলতানা

সুহিতা সুলতানা

আপনার শুভেচ্ছা বার্তায় আমি আপ্লুত: প্রধানমন্ত্রীকে মমতা

আপনার শুভেচ্ছা বার্তায় আমি আপ্লুত: প্রধানমন্ত্রীকে মমতা

আজ বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস

আজ বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

থ্যালাসেমিয়া রোগনিয়ন্ত্রণে প্রতিরোধের কোনও বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

থ্যালাসেমিয়া রোগনিয়ন্ত্রণে প্রতিরোধের কোনও বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

মালদ্বীপ যাওয়ার আগে উজ্জীবিত বসুন্ধরা

মালদ্বীপ যাওয়ার আগে উজ্জীবিত বসুন্ধরা

বাড়ি দখলে মালিকের বিরুদ্ধে শকুনের 'যুদ্ধ ঘোষণা'

বাড়ি দখলে মালিকের বিরুদ্ধে শকুনের 'যুদ্ধ ঘোষণা'

যানজট ঠেলে শপিং মলে ক্রেতাদের ভিড়,  উপেক্ষিত বিধিনিষেধ

যানজট ঠেলে শপিং মলে ক্রেতাদের ভিড়, উপেক্ষিত বিধিনিষেধ

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

'আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যার রায় দ্রুত কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া হবে'

'আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যার রায় দ্রুত কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া হবে'

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

পদ্মা সেতুর প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানোর খবর সত্য নয়: কাদের

পদ্মা সেতুর প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানোর খবর সত্য নয়: কাদের

১৮ মে রোহিঙ্গাদের ‘জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যান’ ঘোষণা

১৮ মে রোহিঙ্গাদের ‘জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যান’ ঘোষণা

জীবন-জীবিকার মাঝে সমন্বয়ের কারণে করোনা কিছুটা নিয়ন্ত্রণে: কাদের

জীবন-জীবিকার মাঝে সমন্বয়ের কারণে করোনা কিছুটা নিয়ন্ত্রণে: কাদের

পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু ৩৭ জন

পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু ৩৭ জন

যত টিকা তত পরিকল্পনা

যত টিকা তত পরিকল্পনা

মাস্ক ব্যবহারে সরকারের ৮ নির্দেশনা

মাস্ক ব্যবহারে সরকারের ৮ নির্দেশনা

জনগণের পাশে থাকাই এখন আ.লীগের রাজনীতি: তথ্যমন্ত্রী

জনগণের পাশে থাকাই এখন আ.লীগের রাজনীতি: তথ্যমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune