X
শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮
Bangla Tribune Eid

সেকশনস

বর্জ্য মিশ্রিত পানিতে বিষাক্ত নদী, মরছে মাছ-জলজ প্রাণী

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২১, ১৬:৫৬

পানি বিষাক্ত হয়ে মাছসহ জলজ প্রাণী নদীকূলে আধমরা হয়ে ভেসে ওঠেছে। ভেসে ওঠা মাছ ও নদীর পানি খেয়ে গৃহস্থালি হাঁস মারা গেছে কমপক্ষে ৩০টি। চর্মরোগ দেখা দিয়েছে গ্রামবাসীদের মধ্যে। বিগত দিনে নদী থেকে যে মাছ ধরা পড়েনি, গত রোববার (১১ এপ্রিল) রাত থেকে সোমবার (১২ এপ্রিল) পর্যন্ত একদিনেই একেকজন গ্রামবাসী কমপক্ষে ১০ কেজি পরিমাণ মাছ ধরেছে নিশ্চিত করেছেন স্থানীয়রা।

গাজীপুরের কাপাসিয়া, শ্রীপুর ও পার্শ্ববর্তী ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলাকে বিভক্ত করেছে বানার ও শীতলক্ষ্যা নদী। তিন উপজেলার সংযোগস্থল ত্রিমোহনী ও আশপাশের এলাকায় গত চারদিন আগে ওই দুটি নদীর পানির রঙ পরিবর্তন হয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার বিভিন্ন এলাকার শিল্প-কারখানা থেকে বিষাক্ত পানি নদীতে ছেড়ে দেওয়ায় নদীর পানির রঙ পরিবর্তন ও বিষাক্ত হয়েছে।

শ্রীপুরের কাওরাইদ ইউনিয়নের নান্দিয়াসাঙ্গুণ দক্ষিণপাড়া গ্রামের উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার্থী মারুফ বলেন, রোববার (১১ এপ্রিল) হঠাৎ করেই বানার ও শীতলক্ষ্যা নদীর পানির রঙ কালচে রঙিন হয়ে ওঠছে। মাছসহ জলজ প্রাণীগুলো নদীকূলে আধমরা অবস্থায় ভেসে ওঠেছে। শত শত মানুষ ওই রাতেই মাছ ধরতে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন।

একই এলাকার স্কুল পড়ুয়া ওমর ফারুক বলেন, পানিতে নামার পর হাত-পা জ্বালাপোড়া, চুলকানি, চামড়ায় লাল ক্ষতসহ নানা ধরনের চর্মরোগ দেখা দিয়েছে।

গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে আবুল কাশেম তার বাঁ পায়ে লাল বর্ণের ঘন ক্ষত দেখিয়ে বলেন, হঠাৎ করে নদীর পানি বিষাক্ত হয়ে ওঠেছে। ওই পানিতে সোমবার মাছ ধরতে গেলে তার শরীরে ক্ষত হয়।

মাইক্রোবাস চালক মোশারফ হোসেন বলেন, রোববার (১১ এপ্রিল) সন্ধ্যায় শোনেছি নদীর মাছ আধমরা হয়ে কূলে ভেসে ওঠছে। খবর শোনে রাত ৮টার দিকে মাছ ধরতে নেমে যাই। রাত ১০টা পর্যন্ত ও পরদিন সোমবার ভোর থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত কমপক্ষে ১২ কেজি মাছ ধরেছি। ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার বিভিন্ন এলাকার শিল্প-কারখানা থেকে বিষাক্ত পানি নদীতে ছেড়ে দেওয়ায় মাছগুলো নদীর কূলে আধমরা হয়ে পানিতে ভেসে ওঠেছে। আমার মতো অনেকেই এ মাছ ধরেছে। যে ব্যক্তি কোনোদিন ৫ কেজি মাছও ধরতে পারেনি সেও কয়েক ঘণ্টায় কমপক্ষে ১০ কেজি মাছ ধরতে সক্ষম হয়েছে। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) থেকে নদীতে আর মাছ পাওয়া যাচ্ছে না। বিশেষ করে ত্রিমোহনী, নান্দিয়াসাঙ্গুণ এলাকায় মাছের আকাল পড়েছে। আমরা পরে কিছু মাছ জেলেদের কাছে বিক্রি করেছি।

কৃষক আব্দুল জব্বার বলেন, তার ৩৫টি হাঁস ছিল। প্রতিদিন সকালে হাঁস দল বেঁধে নদীতে নামতো সাঁতার কাটতে। গত দুই দিন যাবত হাঁসগুলোকে নদীতে নামানো যাচ্ছে না। তারও তিনটি হাঁস মারা গেছে।

একই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী ফাতেমা খাতুন বলেন, তার ১টি রাজহাঁসসহ মোট পাঁচটি হাঁস ছিল। চারটি মঙ্গলবার ও একটি বুধবার মারা গেছে। নদীতে আধামরা মাছ ও পানি খেয়ে এগুলো মারা গেছে বলে দাবি করেন তিনি।

একই দাবি করেন প্রতিবেশী নুরুন্নাহার। তিনি বলেন, সোমবার নদীর আধমরা জলজ প্রাণি ও পানি খেয়ে তার ৯টি হাঁস মারা গেছে। তাদের প্রত্যেকটি হাঁস প্রতিদিন ডিম দিত।

বানার নদীতে প্রতিদিন ডিঙি নৌকা দিয়ে মাছ ধরেন নান্দিয়াসাঙ্গুন গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে জেলে ফারুক হোসেন। তিনি বলেন, ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার বিভিন্ন কল-কারখানার বিষাক্ত বর্জ্য মিশ্রিত পানি ক্ষীরু, সুতিয়া ও ধাত্রী নদী দিয়ে গাজীপুরের বানার ও শীতলক্ষ্যা নদীতে ঢুকছে। প্রতি বছরের চৈত্র মাসে শুষ্ক মৌসুমে এ পানি আসলেও তা একেবারেই কম। এবার অতিরিক্ত পানি গাজীপুরের বানার ও শীতলক্ষ্যা নদীর পানির রঙ পরিবর্তন করে দিয়েছে। পানি বিষাক্ত হওয়ায় মাছ আধমরা হয়ে ভেসে ওঠেছে। বুধবার নদীতে কোনো মাছ পাওয়া যায়নি। এ নদীর মাছ ধরে বিক্রি করে আমরা জীবিকা নির্বাহ করতাম। এবার এ পথটি বন্ধ হয়ে গেল।

আব্দুল আউয়ালের ছেলে কৃষক হাদিকুল ইসলাম বলেন, রোববার থেকে নদীর পাড়ে বসে থাকা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। মাঝে মধ্যে ঝাঁঝালো গন্ধে দম বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়।

গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারীজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আব্দুস ছালাম জানান, পরিশোধিত পানি ছাড়া কল-কারখানার নিষ্কাশিত বর্জ্য মিশ্রিত পানিগুলো অধিক পরিমাণে টক্সিন। এসব পানি নদী-নালা, খাল-বিলে গিয়ে পড়লে মাছসহ জলজ প্রাণির শ্বসন প্রক্রিয়ায় বিঘ্ন ঘটে। ফলে সে প্রাণিগুলো আধমরা বা মারা যেতে পারে। এসব মাছ খাওয়া মানবদেহের জন্যও ক্ষতিকর। এতে কিডনি, লিভারসহ মানবদেহের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ বিনষ্ট হয়ে থাকে। সাধারণত কিডনি বা লিভার ক্যান্সারের বেশিরভাগ এসব কারণেই হয়ে থাকে।

ময়মনসিংহ বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক ফরিদ আহমদ জানান, তিনি গাজীপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের মাধ্যমে বিষয়টি শোনেছেন। ভালুকা উপজেলার কারখানাগুলো নিষ্কাশন করা পানি বছরে তিনবার ল্যাব টেস্ট করে অধিদপ্তরে জমা দেন। ইতিবাচক প্রতিবেদনের ক্ষেত্রেই কেবল কারখানাগুলোর পরিবেশ ছাড়পত্র নবায়ন করা হয়। বেশিরভাগ কারখানার ইটিপি ভাল। আমাদের অগোচরে কোনো কারখানা ইটিপি ব্যবহার না করে থাকলে সমস্যা হতে পারে। চলতি করোনা লকডাউনের মধ্যেও আমরা খোঁজখবর রাখছি। কারখানাগুলোর প্রতি নতুন নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। তারা যেন নিজেদের পানি নিষ্কাশন না করে নিজেরাই ব্যবহার করে।


/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

ঈদের দিনেও বাড়ি ফেরা

ঈদের দিনেও বাড়ি ফেরা

হাতের ছুরি বিঁধলো বুকে

হাতের ছুরি বিঁধলো বুকে

কাপড় ইস্ত্রি করতে গিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

কাপড় ইস্ত্রি করতে গিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

নিষেধাজ্ঞা না মেনে স্পিডবোট চালালেন আ. লীগ নেতারা

বিআইডব্লিউটিএ কর্মকর্তা লাঞ্ছিত, ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলানিষেধাজ্ঞা না মেনে স্পিডবোট চালালেন আ. লীগ নেতারা

গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্বামী ও সতীন পলাতক

গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্বামী ও সতীন পলাতক

মহাসড়কে বাস আছে, যাত্রী নেই!

মহাসড়কে বাস আছে, যাত্রী নেই!

সর্বশেষ

ঈদের দ্বিতীয় দিন: গান শোনাবেন তারা...

ঈদের দ্বিতীয় দিন: গান শোনাবেন তারা...

অক্সিজেন লাগবে, অক্সিজেন?

অক্সিজেন লাগবে, অক্সিজেন?

শনিবার সারপ্রাইজ: মুখোমুখি বসছেন তাহসান-মিথিলা!

শনিবার সারপ্রাইজ: মুখোমুখি বসছেন তাহসান-মিথিলা!

ইন্টারনেটের আওতায় মহেশখালীর ৫০ হাজার মানুষ

ডিজিটাল উপকূল-৫ইন্টারনেটের আওতায় মহেশখালীর ৫০ হাজার মানুষ

ঈদের দ্বিতীয় দিন: ভিন্ন আয়োজনে ‘ইত্যাদি’ ও অন্যান্য

ঈদের দ্বিতীয় দিন: ভিন্ন আয়োজনে ‘ইত্যাদি’ ও অন্যান্য

রংপুর মেডিক্যালে ঈদে রোগীদের চিকিৎসাসেবা না পাওয়ার অভিযোগ

রংপুর মেডিক্যালে ঈদে রোগীদের চিকিৎসাসেবা না পাওয়ার অভিযোগ

ঈদের দ্বিতীয় দিন: যত নাটক টেলিছবি ও স্বল্পদৈর্ঘ্য

ঈদের দ্বিতীয় দিন: যত নাটক টেলিছবি ও স্বল্পদৈর্ঘ্য

আসামের হিমন্তকে অভিনন্দনে শেখ হাসিনার কুশলী কূটনীতি

আসামের হিমন্তকে অভিনন্দনে শেখ হাসিনার কুশলী কূটনীতি

গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতা (ফটো স্টোরি)

গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতা (ফটো স্টোরি)

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

কর্মচারীদের গাফিলতিতে হাসপাতাল থেকে পালায় করোনা রোগীরা

কর্মচারীদের গাফিলতিতে হাসপাতাল থেকে পালায় করোনা রোগীরা

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

ঘরে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে রেখে পালালো শ্বশুরবাড়ির লোকজন

ঈদের দিনেও বাড়ি ফেরা

ঈদের দিনেও বাড়ি ফেরা

হাতের ছুরি বিঁধলো বুকে

হাতের ছুরি বিঁধলো বুকে

কাপড় ইস্ত্রি করতে গিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

কাপড় ইস্ত্রি করতে গিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

নিষেধাজ্ঞা না মেনে স্পিডবোট চালালেন আ. লীগ নেতারা

বিআইডব্লিউটিএ কর্মকর্তা লাঞ্ছিত, ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলানিষেধাজ্ঞা না মেনে স্পিডবোট চালালেন আ. লীগ নেতারা

গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্বামী ও সতীন পলাতক

গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্বামী ও সতীন পলাতক

© 2021 Bangla Tribune