X
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ২৫ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

শতভাগ বোনাস পেতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান বেসরকারি শিক্ষকরা

আপডেট : ২২ এপ্রিল ২০২১, ১৬:৫৪

মুজিববর্ষে এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের শতভাগ বোনাস দাবি করে শিক্ষা ক্ষেত্রে বৈষম্য নিরসনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস)। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কাছে ইমেইলে পাঠানো লিখিত আবেদনে এই দাবি করা হয়।

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াজোঁ ফোরামের মুখপাত্র নজরুল ইসলাম রনি বলেন, ‘সংশোধিত নতুন নীতিমালায় বোনাসের প্রসঙ্গটি আনা হলেও শতভাগ বোনাস দেওয়ার ক্ষেত্রে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নেওয়া হয়নি। এখন শতভাগ বোনাস দিতে হলে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নিয়ে নতুন নির্দেশনা জারি করতে হবে। অথচ সামনেই ঈদ। এই পরিস্থিতিতে শিক্ষক-কর্মচারীদের মধ্যে বিদ্যমান বোনাস বৈষম্য নিরসন করা জরুরি।’

তিনি বলেন, ‘বিদ্যমান ব্যবস্থায় কর্মচারীরা ৫০ শতাংশ আর শিক্ষকরা পান ২৫ শতাংশ। এছাড়া সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যেসব মৌলিক বৈষম্য রয়েছে, তার নিরসনের ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ইমেইলের মাধ্যমে আবেদন জানিয়েছি। এর আগে শিক্ষামন্ত্রীর কাছেও আমরা লিখিত আবেদন করেছি।’   

প্রধানমন্ত্রীর কাছে লিখিত আবেদনে বলা হয়, শিক্ষায় অবকাঠামোগত প্রভূত উন্নয়ন ঘটেছে, কিন্তু বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থা এখনও চরম বৈষম্যমূলক, গতানুগতিক নানা ধারায় বিভাজিত। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে হয়তো আরও অনেক আগেই মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ হতো। বর্তমানে সরকার হাজার হাজার রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করেছে। মাধ্যমিক ও কলেজ পর্যায়েও কিছু কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সরকারি করেছে। কিন্তু একসঙ্গে জাতীয়করণ না করার কারণে শিক্ষাক্ষেত্রে বৈষম্য দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শিক্ষক-কর্মচারী, শিক্ষার্থী ও অভিভাবক তথা পুরো দেশবাসী।’

শতভাগ বোনাস দাবি করে আবেদনে বলা হয়, এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ২৫ শতাংশ ঈদ বোনাস দীর্ঘ ১৭ বছরেও পরিবর্তন হয়নি। দীর্ঘ ২৮ বছরেও এমপিওভুক্ত হতে না পেরে চরম অর্থ সংকটে দিনযাপন করছেন অনার্স-মাস্টার্সের শিক্ষকরা। বেতন বৈষম্য থাকায় শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়ন হচ্ছে না। শিক্ষক-কর্মচারীদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়নসহ বিশ্বমানের শিক্ষাব্যবস্থা বাস্তবায়নে শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ ঘোষণা অতীব জরুরি।

বৈষম্য তুলে ধরে আবেদনে ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী, সকল সুযোগ- সুবিধা দাবি করা হয়। এতে বলা হয়, স্কেলভিত্তিক পূর্ণ বাড়ি ভাড়া, দেড় হাজার টাকা চিকিৎসা ভাতা, স্কেলভিত্তিক উৎসব বোনাস, স্কেলভিত্তিক বেতন নির্ধারণ, ধারাবাহিক পদোন্নতি ও বদলির ব্যবস্থা, প্রধান শিক্ষকদের ষষ্ঠ গ্রেডে বেতন নির্ধারণ, বিভাগীয় ভাতা ব্যবস্থা, পুর্ণ অবসর ভাতাসহ মাসিক পেনশন, শিক্ষার্থীদের স্বল্প খরচের সুযোগ, শিক্ষকদের সন্তানদের জন্য শিক্ষা ভাতা চালু করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো আবেদনে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়সকরণসহ ১১ দফা দাবি তুলে ধরা হয়।

/এসএমএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

পাতার রসে সারবে করোনা!

পাতার রসে সারবে করোনা!

'আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যার রায় দ্রুত কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া হবে'

'আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যার রায় দ্রুত কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া হবে'

ডিএনসিসির অভিযানে অনিয়মের খেসারত দিলেন ব্যবসায়ীরা

ডিএনসিসির অভিযানে অনিয়মের খেসারত দিলেন ব্যবসায়ীরা

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

যে পদ্ধতিতে দেশের ৩ কোম্পানি টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা যাচাইয়ের তালিকায়

প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দেবে নাগরিক সমাজ

প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দেবে নাগরিক সমাজ

দিনাজপুরে স্বস্তির বৃষ্টি

দিনাজপুরে স্বস্তির বৃষ্টি

সরকারের অনুমতির পরই বিদেশে যাওয়ার সিদ্ধান্ত: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক

সরকারের অনুমতির পরই বিদেশে যাওয়ার সিদ্ধান্ত: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

দেশেই হবে ভ্যাকসিন, এগিয়ে ইনসেপটা ও পপুলার

পদ্মা সেতুর প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানোর খবর সত্য নয়: কাদের

পদ্মা সেতুর প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানোর খবর সত্য নয়: কাদের

ভ্যাকসিন পেতে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভ্যাকসিন পেতে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সর্বশেষ

নারায়ণগ‌ঞ্জের মে‌রিনা লন্ড‌নের অ্যাসেম্বলি মেম্বার নির্বাচিত

নারায়ণগ‌ঞ্জের মে‌রিনা লন্ড‌নের অ্যাসেম্বলি মেম্বার নির্বাচিত

সকাল থেকে যাত্রীবাহী ফেরি বন্ধ

সকাল থেকে যাত্রীবাহী ফেরি বন্ধ

সুহিতা সুলতানা

সুহিতা সুলতানা

আপনার শুভেচ্ছা বার্তায় আমি আপ্লুত: প্রধানমন্ত্রীকে মমতা

আপনার শুভেচ্ছা বার্তায় আমি আপ্লুত: প্রধানমন্ত্রীকে মমতা

আজ বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস

আজ বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

হাতিয়ায় ইউপি সদস্য প্রার্থীকে হত্যার ঘটনায় আটক ৭

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

খাকদোনের দূষণে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে স্থানীয়রা

থ্যালাসেমিয়া রোগনিয়ন্ত্রণে প্রতিরোধের কোনও বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

থ্যালাসেমিয়া রোগনিয়ন্ত্রণে প্রতিরোধের কোনও বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী

মালদ্বীপ যাওয়ার আগে উজ্জীবিত বসুন্ধরা

মালদ্বীপ যাওয়ার আগে উজ্জীবিত বসুন্ধরা

বাড়ি দখলে মালিকের বিরুদ্ধে শকুনের 'যুদ্ধ ঘোষণা'

বাড়ি দখলে মালিকের বিরুদ্ধে শকুনের 'যুদ্ধ ঘোষণা'

যানজট ঠেলে শপিং মলে ক্রেতাদের ভিড়,  উপেক্ষিত বিধিনিষেধ

যানজট ঠেলে শপিং মলে ক্রেতাদের ভিড়, উপেক্ষিত বিধিনিষেধ

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

কেন এত বজ্রপাত? সাবধানে থাকতে যা করতে হবে

পাতার রসে সারবে করোনা!

পাতার রসে সারবে করোনা!

ডিএনসিসির অভিযানে অনিয়মের খেসারত দিলেন ব্যবসায়ীরা

ডিএনসিসির অভিযানে অনিয়মের খেসারত দিলেন ব্যবসায়ীরা

প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দেবে নাগরিক সমাজ

প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দেবে নাগরিক সমাজ

স্বাস্থ্যবিধি মানাতে জনপ্রতিনিধিদের সক্রিয়তা চেয়েছে সরকার

স্বাস্থ্যবিধি মানাতে জনপ্রতিনিধিদের সক্রিয়তা চেয়েছে সরকার

‘বাস ছেড়ে কী করলেন?’

‘বাস ছেড়ে কী করলেন?’

জুমাতুল বিদা’য় করোনা থেকে মুক্তির মোনাজাত

জুমাতুল বিদা’য় করোনা থেকে মুক্তির মোনাজাত

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কাটা বন্ধে আরও ৭ আইনি নোটিশ

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কাটা বন্ধে আরও ৭ আইনি নোটিশ

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে ভারতীয় ট্রাকের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে ভারতীয় ট্রাকের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা

মানবপাচারকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার

মানবপাচারকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার

© 2021 Bangla Tribune