X
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

দেশ ছেড়েছেন স্ত্রী-সন্তানরা, যেতে পারেননি সায়েম সোবহান

আপডেট : ৩০ এপ্রিল ২০২১, ০২:০১

একটি চার্টাড ফ্লাইট দেশ ছেড়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরের পরিবার। তবে চেষ্টা করেও দেশ ছাড়তে ব্যর্থ হয়েছেন সায়েম সোবহান আনভীর। বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টার দিকে আনভীরের স্ত্রী-সন্তানসহ ৮ জন দেশ ত্যাগ করেন। তাদের গন্তব্য দুবাই বলে জানা গেছে। বিমানবন্দর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, বিশেষ ফ্লাইটে সায়েম সোবহান আনভীরের স্ত্রী সাবরিনা সোবহানসহ মোট ৮ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের মধ্যে ছিলেন আনভীরের ‍দুই সন্তানও। ফ্লাইটে আরও ছিলেন আনভীরের ভাইয়ের স্ত্রী ইয়াশা সোবহান এবং তার কন্যা। এছাড়া তাদের সঙ্গে ছিলেন আরও ৩ জন। তারা হলেন দিয়ানা, মোহাম্মদ কাদের, হোসনে আরা খাতুন।

সূত্র জানায়, এই ফ্লাইটে সায়েম সোবহান আনভীর যাওয়ার জন্য তৎপরতা চালালোও আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় ব্যর্থ হন।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় গুলশানের ১২০ নম্বর সড়কের ১৯ নম্বর বাসার একটি ফ্ল্যাট থেকে মুনিয়ার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান তানিয়া বাদী হয়ে বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ এনে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, সায়েম সোবহানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল মুনিয়ার। প্রতিমাসে এক লাখ টাকা ভাড়ার বিনিময়ে সায়েম সোবহান মুনিয়াকে ওই ফ্ল্যাটে রেখেছিল। আনভীর নিয়মিত ওই বাসায় যাতায়াত করতো। তারা স্বামী-স্ত্রীর মতো করে থাকতো। মুনিয়ার বোন অভিযোগ করেছেন, তার বোনকে বিয়ের কথা বলে ওই ফ্ল্যাটে রেখেছিল। একটি ছবি ফেসবুকে দেওয়াকে কেন্দ্র করে সায়েম সোবহান তার বোনের ওপর ক্ষিপ্ত হয়। তাদের মনে হচ্ছে, মুনিয়া আত্মহত্যা করেনি। তাকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

/সিএ/এমআর/

সম্পর্কিত

মুনিয়া হত্যা মামলা: এজাহারে যা আছে

মুনিয়া হত্যা মামলা: এজাহারে যা আছে

মুনিয়ার আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলা: বসুন্ধরার এমডিকে পুলিশের অব্যাহতি

মুনিয়ার আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলা: বসুন্ধরার এমডিকে পুলিশের অব্যাহতি

মুনিয়া মৃত্যুর ঘটনায় বিচারের দাবির মানববন্ধন পণ্ড

মুনিয়া মৃত্যুর ঘটনায় বিচারের দাবির মানববন্ধন পণ্ড

মুনিয়ার মৃত্যু: দোষীদের বিচার দাবি

মুনিয়ার মৃত্যু: দোষীদের বিচার দাবি

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:২৩

গ্রাহকের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেফতার হয়ে রিমান্ডে থাকা ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রাসেল হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাত সোয়া ১২টার দিকে গুলশান থানায় আবারও নিয়ে আসা হয় তাকে।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার পর হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করলে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে তাকে মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়।

গুলশান থানার ডিউটি অফিসার অলিন্দ্র বিষয়টি শুক্রবার দিবাগত রাত বারোটার দিকে বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, রিমান্ডে থাকা রাসেলের শুক্রবার রাত ৯টা ২০ মিনিটে বুকে ব্যথা এবং চাপ অনুভব করার বিষয়টি গুলশান থানা কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলে রাতেই তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকরা প্রাথমিকভাবে তার শারীরিক অবস্থা চেকআপ করে তাকে মিটফোর্ড হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাসেলকে আবারও গুলশান থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

/আরটি/এমএস/

সম্পর্কিত

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৩৮

এখন দেশের ৬৮টি কারাগারের প্রায় ৮৫ হাজার বন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এদের মধ্যে প্রথমে টিকা পাবেন সাজাপ্রাপ্ত বন্দিরা। পর্যায়ক্রমে বাকিদেরও দেওয়া হবে।

কারাবন্দিদের করোনার টিকা দেওয়ার প্রস্তাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। শিগগিরই টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে বলে আশা করছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক কর্নেল আবরার হোসেন বলেন, ‘অধিদফতর থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কয়েদিদের টিকা দেওয়ার প্রস্তাব স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে দিয়েছিলাম। এটি যাতে দ্রুত প্রক্রিয়া করা হয়, সেজন্য অনুরোধ করে যাচ্ছি। আশা করি দ্রুতই অনুমোদন পাবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনার বিস্তার রোধে আমরা যথেষ্ট ব্যবস্থা নিয়েছি। অনেক সাজাপ্রাপ্ত বন্দি ও কয়েদিকে সংশ্লিষ্ট জেলার সিভিল সার্জনের উদ্যোগে টিকা দেওয়া হয়েছে। টিকার কার্যক্রম বাস্তবায়নে আমাদের সব প্রস্তুতি রয়েছে।’

দেশে করোনাভাইরাসের বিস্তার শুরুর পর থেকেই কারাগারগুলোকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছিল। কারণ প্রত্যেক কারাগারেই ধারণক্ষমতার বেশি বন্দি। এতে সংক্রমণ মারাত্মক আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা ছিল।

এই প্রেক্ষাপটে দেশের ৬৮টি কারাগারকে ঝুঁকিমুক্ত রাখতে আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের পাশাপাশি আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যবস্থাও নেয় কারা অধিদফতর। চলতি বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি দেশে জাতীয়ভাবে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরুর পর কারাবন্দিদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে অধিদফতর থেকে বন্দিদের টিকা দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়।

বর্তমানে দেশের সকল কারাগারে প্রায় ৮৫ হাজার বন্দি রয়েছে। এদের মধ্যে ১৫ হাজার সাজাপ্রাপ্ত বন্দি। তবে কারাগারগুলোর ধারণক্ষমতা ৩০ হাজারের কিছু বেশি।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) জেলার মাহবুবুল ইসলাম বলেন, ‘কারাগারে যাতে করোনার সংক্রমণ না হয়, সেজন্য কারা অধিদফতরের নির্দেশে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কারও উপসর্গ দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে আলাদা করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’

অন্যদিকে, হাজতিদের কারাগারে আসা-যাওয়া থাকে বলে ঝুঁকি থেকেই যায়। এজন্য অন্তত কয়েদিদের আগে টিকা দেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

/এফএ/আপ-এনএইচ/

সম্পর্কিত

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:১৩

রাজধানীর কূটনৈতিক এলাকায় পেট্রোলবোমা হামলার ঘটনায় এক জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (এআইইউবি) একটি গাড়িতে হামলার পর ওই জঙ্গিকে গ্রেফতার করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট-সিটিটিসি। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর পৌনে একটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই পুলিশ দেলোয়ার নামের ওই জঙ্গিকে গ্রেফতারের পর শুক্রবার আদালতে সোপর্দ করে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিটে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি গুলশানের থাইল্যান্ড অ্যাম্বাসি সংলগ্ন সড়কে একটি মাইক্রোবাসে হামলা চালায়। ওই মাইক্রোবাসটি (ঢাকা মেট্রো চ-৫৬-৫৪২৪) ছিল আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এআইইউবি’র। গাড়িতে এ সময় এআইইউবির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ নজরুল ইসলাম ও জুনিয়র এক্সিকিউটিভ নাজমুল হাসান ছিলেন। সামান্য আহত হলেও তাৎক্ষণিক তারা স্থানীয় পথচারীদের সহায়তায় সেই জঙ্গিকে আটক করেন। পরে গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক নুরুজ্জামান তাকে হেফাজতে নিয়ে তার ব্যাগ তল্লাশি করে। পুলিশ তার ব্যাগ থেকে তাৎক্ষণিক দেড় লিটার তরল পদার্থ, দুটি লোহার তৈরি ছুরি ও জাপানি নাগরিকত্বের একটি কার্ড উদ্ধার করে।

যোগাযোগ করা হলে গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক নুরুজ্জামান বলেন, গাড়িতে পেট্রোলসহ একটি বোতল ঢিল মেরেছিল। পরে গাড়িতে থাকা লোকজনই তাকে আটক করে। খবর পেয়ে আমি সেখানে যাই। পুরো বিষয়টি এখন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট হ্যান্ডেল করছে। তবে ঘটনার সময় গাড়িতে থাকা এআইইউবির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ নজরুল ইসলাম এ বিষয়ে কোনও কথা বলতে চাননি। তিনি জানান, এ বিষয়ে কথা বলতে পুলিশ তাদের নিষেধ করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, খবর পেয়ে জঙ্গি প্রতিরোধে গঠিত বিশেষায়িত ইউনিট সিটিটিসির একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে দেলোয়ারকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দেলোয়ার জানিয়েছে, তার বাড়ি মানিকগঞ্জের সিংগাইর থানাধীন জার্মিত্তা এলাকায়। তার বাবার নাম শাহাজুদ্দিন। সে দীর্ঘদিন জাপানে ছিল। বছর খানেক আগে সে দেশে ফিরে এসে মানিকগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছিল। আটকের পর দেলোয়ারকে নিয়ে তার গ্রামের বাড়িতেও অভিযান চালায় পুলিশ। তার বাসা থেকে একাধিক ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস ও কিছু নথিপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

আদালতে দেওয়া নথিপত্র ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দেলোয়ার জানিয়েছে, সে আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য। অনলাইনে বিভিন্ন অডিও-ভিডিও দেখে এবং শুনে সে জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হয়েছিল। পরে সাংগঠনিক সিদ্ধান্তে সে একজন বিদেশি নাগরিকের ওপর হামলার জন্য গুলশানের কূটনৈতিক এলাকায় গিয়েছিল। তার টার্গেট ছিল মার্কিন নাগরিক। এজন্য এআইইউবির গাড়ি দেখে এটাকে আমেরিকান মনে করে সে পেট্রোলবোমা হামলা চালিয়েছিল।

জিজ্ঞাসাবাদে জঙ্গি দেলোয়ার জানিয়েছে, সারা বিশ্বে মুসলমানদের ওপর নির্যাতন-নিপীড়ন করার পরও বাংলাদেশের সরকার কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না, এজন্য সে সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে হামলার পরিকল্পনা করেছিল।

জানা গেছে, আটকের পর দেলোয়ারের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা (নং ২০) দায়ের করা হয়েছে। মামলার বাদী হয়েছেন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের এস আই আমির হোসেন। মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে জঙ্গি দেলোয়ার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক-স্টাফদের ওপর বড় পরিসরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক প্রাণহানির মাধ্যমে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করেছিল।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক কর্মকর্তা জানান, জঙ্গি দেলোয়ার এলোমেলো তথ্য দিয়েছে। তার মানসিক সমস্যা রয়েছে বলেও মনে হয়েছে। তবে সে গ্রেফতারের পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি এড়াতে এসব অভিনয় করছে কিনা তা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এ কারণে সতর্কতার সঙ্গে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তার সহযোগীদের শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

/এফএএন/এমওএফ/

সম্পর্কিত

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

চার জনের পেটে ৮৪০০ ইয়াবা

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

ইভ্যালির রাসেল ও তার স্ত্রীর রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা 

প্রাথমিকে জরুরি নির্দেশনা

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৪২

দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি পূরণে নির্দিষ্ট পরিকল্পনা বাস্তবায়নে জরুরি নির্দেশ দিয়েছে সরকার। বিভাগীয় উপপরিচালক, জেলা শিক্ষা, পিটিআইয়ের সুপারিনটেডেন্ট, উপজেলা ও থানা শিক্ষা অফিসারসহ সংশ্লিষ্টদের এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে বলেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর।  

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে অনুমোদিত মেন্টরিং গাইডলাইন অনুযায়ী করে মেন্টরিং টুলস ব্যবহার করে প্রতিদিন পাঁচটি বিদ্যালয়ের তথ্য সংগ্রহ ও তথ্য অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

এর আগে গত ১৩ সেপ্টেম্বর জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) প্রণীত শিখন ঘাটতি চিহ্নিত ও নিরাময়যোগ্য পাঠ পরিকল্পনা (Accelerated Remedial Learning Plan)  অনুসারে শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

অফিস আদেশে জানানো হয়, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও স্বাস্থ্যবিধি, শিক্ষার্থী উপস্থিতির তথ্য এবং শিখন ঘাটতি পূরণে গ্রহণ সম্পর্কিত মেন্টরিং টুলস প্রস্তুত করা হয়েছে এবং পাঠানো হয়েছে। মাঠ পর্যায়ের মেন্টর বিদ্যালয় পরীবিক্ষণের পাশাপাশি সংযুক্ত টুলস ব্যবহার করতে হবে। মেন্টরগণ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় অনুমোদিত মেন্টরিং গাইডলাইন অনুযায়ী মেন্টরিং টুলস ব্যবহার করে প্রতিদিন ৫টি বিদ্যালয়ের তথ্য সংগ্রহ করাসহ তথ্য অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। 

মেন্টরদের মধ্যে রয়েছেন প্রধান শিক্ষক, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার, থানা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, থানা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা রিসার্চ সেন্টার (ইউআরসি) ও থানা রিসার্চ সেন্টারের (টিআরসি) ইনস্ট্রাক্টর, সহকারী ইউআরসি ও টিআরসি ইনস্ট্রাক্টর।

/এসএমএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

রবিবার থেকে মাধ্যমিকে নতুন রুটিন

রবিবার থেকে মাধ্যমিকে নতুন রুটিন

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

৪৭১ জন ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর নিয়োগের সুপারিশ

৪৭১ জন ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর নিয়োগের সুপারিশ

রবিবার থেকে মাধ্যমিকে নতুন রুটিন

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:০৮

দেশের মাধ্যমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য নতুন শ্রেণি কার্যক্রম (ক্লাস রুটিন) প্রকাশ করা হয়েছে। এতে অষ্টম ও নবম শ্রেণির শ্রেণি কার্যক্রম একদিন করে বাড়ানো হয়েছে। এই শ্রেণি কার্যক্রম আগামী রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) থেকে চালু করতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর জরুরি অফিস আদেশ জারি করে।   

দেড় বছর বন্ধ থাকার পর গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরাসরি শ্রেণি কার্যক্রম চালু হয়েছে। ওইদিন থেকে প্রতিদিন এসএসএস-এইচএসসি সমমান পরীক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। আর সপ্তাহে একদিন করে অন্যান্য শ্রেণির পাঠদান চলছে।  তবে করোনা সংক্রমণ নেমে আসায় এই সূচিতে পরিবর্তন আনা হয়।   

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে জানানো হয়, কোভিড-১৯ অতিমারি কমে আসায় সরকারি সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মতো সারাদেশে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শ্রেণি কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমান পরিস্থিতিতে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর থেকে সারা দেশের মাধ্যমিক স্তরের সকল সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেণি কার্যক্রম নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী পরিচালনা করার জন্য অনুরোধ করা হয়। 

নির্ধারিত সূচি

প্রত্যেক সপ্তাহের শনিবার নবম শ্রেণি ও ২০২১ সালের এসএসসি এবং ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম চলবে।

রবিবার অষ্টম শ্রেণি ও ২০২১ সালের এসএসসি এবং ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম চলবে।

সোমবার সপ্তম শ্রেণি ও ২০২১ সালের এসএসসি এবং ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম চলবে।

মঙ্গলবার ষষ্ঠ শ্রেণি ও ২০২১ সালের এসএসসি এবং ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম। চলবে।

বুধবার নবম শ্রেণি ও ২০২১ সালের এসএসসি এবং ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম চলবে।

বৃহস্পতিবার অষ্টম শ্রেণি ও ২০২১ সালের এসএসসি এবং ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম চলবে।

/এসএমএ/এনএইচ/ 

সম্পর্কিত

প্রাথমিকে জরুরি নির্দেশনা

প্রাথমিকে জরুরি নির্দেশনা

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

৪৭১ জন ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর নিয়োগের সুপারিশ

৪৭১ জন ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর নিয়োগের সুপারিশ

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সারপ্রাইজ ভিজিট শুরু আগামী সপ্তাহে

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সারপ্রাইজ ভিজিট শুরু আগামী সপ্তাহে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মুনিয়া হত্যা মামলা: এজাহারে যা আছে

মুনিয়া হত্যা মামলা: এজাহারে যা আছে

মুনিয়ার আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলা: বসুন্ধরার এমডিকে পুলিশের অব্যাহতি

মুনিয়ার আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলা: বসুন্ধরার এমডিকে পুলিশের অব্যাহতি

মুনিয়া মৃত্যুর ঘটনায় বিচারের দাবির মানববন্ধন পণ্ড

মুনিয়া মৃত্যুর ঘটনায় বিচারের দাবির মানববন্ধন পণ্ড

মুনিয়ার মৃত্যু: দোষীদের বিচার দাবি

মুনিয়ার মৃত্যু: দোষীদের বিচার দাবি

‘আত্মহত্যা’র দিন সকালে যশোর যেতে চেয়েছিলেন মুনিয়া

‘আত্মহত্যা’র দিন সকালে যশোর যেতে চেয়েছিলেন মুনিয়া

মুনিয়ার মৃত্যু: নিরপেক্ষ তদন্ত চায় মহিলা আইনজীবী সমিতি

মুনিয়ার মৃত্যু: নিরপেক্ষ তদন্ত চায় মহিলা আইনজীবী সমিতি

মুনিয়া-আনভীরের কল রেকর্ডের ফরেনসিক চেয়ে আইনি নোটিশ

মুনিয়া-আনভীরের কল রেকর্ডের ফরেনসিক চেয়ে আইনি নোটিশ

হত্যা মামলার আবেদন নিয়ে মুনিয়ার ভাই-বোনের ভিন্ন অবস্থান

হত্যা মামলার আবেদন নিয়ে মুনিয়ার ভাই-বোনের ভিন্ন অবস্থান

মুনিয়ার বাসায় আনভীরের যাতায়াতের তথ্য পেয়েছে পুলিশ

সিসিটিভির ফুটেজ বিশ্লেষণমুনিয়ার বাসায় আনভীরের যাতায়াতের তথ্য পেয়েছে পুলিশ

হুইপপুত্র শারুনের বিরুদ্ধে মুনিয়ার ভাইয়ের মামলার আবেদন

হুইপপুত্র শারুনের বিরুদ্ধে মুনিয়ার ভাইয়ের মামলার আবেদন

সর্বশেষ

আবারও আইসিইউতে পেলে

আবারও আইসিইউতে পেলে

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

অভিনেত্রী রিমি করিমের কণ্ঠ পুরুষের মতো!

অভিনেত্রী রিমি করিমের কণ্ঠ পুরুষের মতো!

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

© 2021 Bangla Tribune