X
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে ফখরুলের আহ্বান

আপডেট : ০৬ মে ২০২১, ১৪:৪৮

ঢাকার এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার পোস্ট-কোভিড নানা জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় ‘মানবিক’ কারণে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বৃহস্পতিবার (৬ এপ্রিল) এক অনুষ্ঠানে তিনি এই আহ্বান জানান।

রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দলটির উদ্যোগে সারাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রামণে নিহত দলীয় নেতাকর্মীদের পরিবারকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ঈদ উপহার প্রদান উপলক্ষে এই অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে মহানগর বিএনপির ১০ জন নেতাকর্মীর পরিবারকে ঈদ উপহার তুলে দেন বিএনপি মহাসচিব।

অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘কোভিডোত্তর যে পোস্ট-কোভিড জটিলতা হয়, সেই জটিলতা কিন্তু মাঝে মাঝে টার্ন নেয় বিভিন্ন দিকে। উনার (খালেদা জিয়ার) যে বয়স, বিভিন্ন রোগ আছে, এর আগে প্রায় তিন বছর কারাগারে ছিলেন, এখনও তিনি অন্তরীণই আছেন। এই অবস্থার প্রেক্ষিতেই তার জটিলতা সৃষ্টি।’

তিনি বলেন, ‘এ জন্য আমাদের দেশের প্রায় বেশির ভাগ মানুষের  ইচ্ছা যে, তাঁর চিকিৎসাটা উন্নত কোনও হাসপাতালে হওয়া উচিত। বাংলাদেশে উন্নত হাসপাতালেই তিনি চিকিৎসা নিচ্ছেন। আরও উন্নত বিদেশের হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া সম্ভব কিনা। আপনারা  জানেন যে, গতকাল তার পরিবার থেকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়েছে। আমরা আশা করি, সরকার মানবিক কারণে তার বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন এবং এই দেশের ১৮ কোটি মানুষের সবচেয়ে প্রিয় নেতার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিতি দলের নেতাকর্মী ও সাংবাদিকবৃন্দ খালেদা জিয়ার চিকিৎসার অবস্থা তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আপনারা জানেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে বেগম খালেদা জিয়া গত ২৭ এপ্রিল থেকে এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন র‌য়েছেন। তাঁকে এখানে সব ধরনের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে এবং আমাদের চিকিৎসকরা অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে তাঁর চিকিৎসা করছেন।’ তিনি বলেন, ‘নিজেদের নেতাকে সুস্থ দেখতে চাওয়া বাংলাদেশের মানুষের মৌলিক অধিকার।’

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাতে পরিবারের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়াকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসা জন্য পাঠাতে অনুমতি চেয়ে আবেদনপত্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে পৌঁছে দেন খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার।

কর্মসূচি

খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনায় শুক্রবার বাদ জুমা সারাদেশে মসজিদে দোয়া মাহফিল ও বিভিন্ন উপাসনালয়ে প্রার্থনা সভার কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আগামীকাল শুক্রবার পবিত্র জামাতুল বিদা দিন আছে। সারাদেশের মসজিদ ও বিভিন্ন ধর্মের প্রার্থনালয় যেগুলো আছে, সেগুলোতে আমাদের ইউনিটগুলো খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তির জন্য দোয়া অনুষ্ঠান করবে, প্রার্থনা সভা করবে। আমি সব ইউনিটের নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ করছি, তারা যেন জনগণকে নিয়ে দেশনেত্রীর রোগমুক্তির জন্য দোয়া চাইতে পারে।’

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রামণ মোকাবিলায় ‘সরকারের ব্যর্থতা, অযোগ্যতা এবং ভ্যাকসিন সংগ্রহ নিয়ে দুর্নীতি’র কঠোর সমালোচনা করেন মির্জা ফখরুল।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত সারাদেশে ৪২৫ জন নেতাকর্মীরা মারা গেছেন বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

কেন্দ্রীয় দফতরে দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বক্তব্য রাখেন। এছাড়া বিএনপির হাবিব উন নবী খান সোহেল, মুন্সি বজলুল বাসিত আনজু, স্বেচ্ছাসেবক দলের আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, যুব দলের এসএম জাহাঙ্গীর, ছাত্র দলের ফজলুর রহমান খোকন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর উদযাপন উপকমিটির নেতা আতিকুর রহমান রুমন, বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী অ্যাডভোকেট শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

 

 

/এসটিএস/আইএ/

সম্পর্কিত

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’: সহমর্মিতা জানাতে ও তদন্তে বিএনপির দুই কমিটি

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’: সহমর্মিতা জানাতে ও তদন্তে বিএনপির দুই কমিটি

দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান বিএনপির

দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান বিএনপির

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

আ.লীগ থেকে বাঁচতে বিএনপিকে ভোট দেবে জনগণ: ফখরুল

আ.লীগ থেকে বাঁচতে বিএনপিকে ভোট দেবে জনগণ: ফখরুল

‘প্রতিবাদ’ শব্দটিকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে: রিজভী

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৩৪

দ্রব্যমূল্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিতে কে প্রতিবাদ করবে? প্রতিবাদ করলে আপনাকে যেতে হবে শ্রীঘরে না হয় লাল ঘরে। প্রতিবাদ বলে গণতন্ত্রে যে শব্দটি স্বীকৃত, সেই শব্দটিকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে এই সরবার। এইটাই হলো বাস্তবতা।’

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে শ্রমিক দলের মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘এই সরকারের আমলে জুট মিলের শ্রমিকরা আন্দোলনে করে। বিভিন্ন মিল-ফ্যাক্টরি-কারখানা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে একের পর এক। এটাতো অত্যন্ত স্বাভাবিক ঘটনা। কারণ পেঁয়াজ, মরিচ বা সোয়াবিন তেলের দাম বাড়লে এই সরকারের তাতে কিছু যায় আসে না।’

মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন, দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেনসহ অনেকে।

 

/জেডএ/আইএ/

সম্পর্কিত

‘বছরে ৩৫ বার দ্রব্যের দাম বাড়লেও ৭ বছরে শ্রমিকের বেতন বাড়ে না’

‘বছরে ৩৫ বার দ্রব্যের দাম বাড়লেও ৭ বছরে শ্রমিকের বেতন বাড়ে না’

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

‘বছরে ৩৫ বার দ্রব্যের দাম বাড়লেও ৭ বছরে শ্রমিকের বেতন বাড়ে না’

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৪:২৪

এক বছরে ৩৫ বার দ্রব্যের দাম বাড়লেও সাত বছরে একবারও শ্রমিকের বেতন বাড়ে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের লোকসান কমাতে তেলের দাম বাড়ালো। সরকার কিন্তু শ্রমিকদের কষ্ট লাঘবে তাদের বেতন বাড়ালো না। কেন?’ 

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে শ্রমিক দলের মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘সয়াবিন তেলের দাম প্রতিলিটারে একেবারে ৭ টাকা বাড়ানো হয়েছে। ফেব্রুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত সাতবার দাম বাড়ানো হয়েছে। এই পর্যায়ে এসে প্রতিলিটার সয়াবিনের দাম বেড়েছে ৪৫ টাকা। ব্যবসায়ীরা যুক্তি দেখিয়েছেন, করোনার কারণে তাদের অনেক লোকসান হয়েছে বলে তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। অথচ যে পরিমাণ তেল এখনও মজুত রয়েছে সেটা দিয়ে আরও তিন মাস চলার কথা।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, ‘এই সরকার যদি আরও ক্ষমতায় থাকে তাহলে দ্রব্যের দাম আরও বৃদ্ধি পাবে। কমবে না। কারণ এটা বিনা ভোটের সরকার। বিনা ভোটের সরকার কারও কাছে দায়বদ্ধ না। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হলে তারা জনগণের কথা ভাবতো। জনগণের সরকারের জন্য গণতান্ত্রিক ও গণআন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে হটাতে হবে। আগামী দিনে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন হবে এবং সেটা বিএনপির নেতৃত্বে।’

মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন, দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেনসহ অনেকে।

 

/জেডএ/আইএ/

সম্পর্কিত

‘প্রতিবাদ’ শব্দটিকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে: রিজভী

‘প্রতিবাদ’ শব্দটিকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে: রিজভী

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৪১

নির্বাচনে জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় বিএনপি অভ্যস্ত বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা সরকার কখনও খালি মাঠে গোল দিতে চায় না। সরকার চায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন। আর খালি মাঠে গোল দিতে আওয়ামী লীগ অভ্যস্তও নয়। বিএনপিই জন্মলগ্ন থেকে এ চর্চা করে আসছে।’

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সকালে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘১৫ ফেব্রুয়ারির খালি মাঠে নির্বাচনে কথা বিএনপি ভুলে গেলেও জনগণ এখনও ভোলেনি।’

বিএনপি নেতারা তাদের ব্যর্থতা আড়াল করতে ও কর্মী সমর্থকদের রোষানল থেকে বাঁচার জন্য এসব বক্তব্য দিচ্ছেন বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবারও বলেন, ‘নির্বাচন আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নয়, নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে।’

বিএনপির কর্মসূচি দিলেই জনগণের মনে আতঙ্ক সৃষ্টি হয় বলে মন্তব্য করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বিএনপি কর্মসূচির নামে কোনোরূপ সন্ত্রাস ও জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে আওয়ামী লীগ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কঠোরভাবে প্রতিহত করবে।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সভা-সমাবেশ সবার সাংবিধানিক অধিকার, কিন্তু সমাবেশের অনুমতি না দিলে বিএনপি বলতো সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না; আর অনুমতি দিলে হামলা, সন্ত্রাস সৃষ্টি করে জনগণের সম্পদ বিনষ্ট করে।’

পূজামণ্ডপের ঘটনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সরকারের মামলা দেওয়ার অভিযোগ সত্য নয় জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘কে কোন দল করে সেটা দেখে নয়, ভিডিও ফুটেজ দেখেই চিহ্নিতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার মাধ্যমে বিএনপি পরিস্থিতি ঘোলাটে করতে চেয়েছিল, কিন্তু সরকার তা শক্ত হাতে দমন করেছে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি জাতিকে বিভ্রান্ত করছে এবং বিভেদ তৈরি করছে।’ তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করছে দেশকে উন্নয়নের সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিতে, আর এটাই বিএনপি’র গাত্রদাহের কারণ।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘গত মঙ্গলবার নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা এবং সন্ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে বিএনপি প্রমাণ করেছে, তারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে সক্ষম নয়। তাদের কর্মসূচি মানে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা।’

ওই দিনের কথিত সম্প্রীতি সমাবেশের আড়ালে বিএনপির ভিন্ন কোনও এজেন্ডা ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার বলে মনে করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘তবে কি অপরাধীদের বাঁচানোর জন্যই সম্প্রীতি সমাবেশের নামে বিএনপির এ সন্ত্রাস?’

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আসলে হামলা, সংঘর্ষ, ষড়যন্ত্র আর সন্ত্রাসী বিএনপির রাজনীতি। সেটা পূজামণ্ডপে হোক আর নয়াপল্টনে হোক। বিএনপি এই বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না।’

স্থানীয় সরকার নির্বাচনের পরবর্তী ধাপে যে সব এলাকায নির্বাচন হবে সে সব এলাকার আওয়ামী লীগের প্রতিটি সাংগঠনিক ইউনিটকে এখন থেকেই প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ইউনিট সমূহকে এখন থেকেই মিটিং করে রেজুলেশন প্রস্তুত করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘যখন যে এলাকার জন্য নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে তার পরপরই ইউনিয়ন থেকে উপজেলা এবং জেলা হয়ে রেজুলেশন কেন্দ্রে জমা দিতে হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকার রেজুলেশন জমা দেওয়া নিশ্চিত করতে এখন থেকে সভা করে আগেই রেজুলেশন তৈরির কাজ করার নির্দেশনা দেন।

 

/পিএইচসি/আইএ/

সম্পর্কিত

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৩১

বিএনপির কর্মসূচি দিলেই জনগণের মনে আতঙ্ক সৃষ্টি হয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘বিএনপি কর্মসূচির নামে কোনোরূপ সন্ত্রাস ও জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে আওয়ামী লীগ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কঠোরভাবে প্রতিহত করবে।’

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সকালে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংয়ে বিএনপিকে সতর্ক করে দিয়ে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সভা-সমাবেশ সবার সাংবিধানিক অধিকার, কিন্তু সমাবেশের অনুমতি না দিলে বিএনপি বলতো সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না; আর অনুমতি দিলে হামলা, সন্ত্রাস সৃষ্টি করে জনগণের সম্পদ বিনষ্ট করে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনা সরকার কখনও খালি মাঠে গোল দিতে চায় না। সরকার চায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন। আর খালি মাঠে গোল দিতে আওয়ামী লীগ অভ্যস্তও নয়।’ তিনি বলেন, ‘বিএনপিই জন্মলগ্ন থেকে এ চর্চা করে আসছে।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘১৫ ফেব্রুয়ারির খালি মাঠে নির্বাচনে কথা বিএনপি ভুলে গেলেও জনগণ এখনও ভোলেনি।’

বিএনপি নেতারা তাদের ব্যর্থতা আড়াল করতে ও কর্মী সমর্থকদের রোষানল থেকে বাঁচার জন্য এসব বক্তব্য দিচ্ছেন বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবারও বলেন, ‘নির্বাচন আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নয়, নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে।’

পূজামণ্ডপের ঘটনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সরকারের মামলা দেওয়ার অভিযোগ সত্য নয় জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘কে কোন দল করে সেটা দেখে নয়, ভিডিও ফুটেজ দেখেই চিহ্নিতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার মাধ্যমে বিএনপি পরিস্থিতি ঘোলাটে করতে চেয়েছিল, কিন্তু সরকার তা শক্ত হাতে দমন করেছে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি জাতিকে বিভ্রান্ত করছে এবং বিভেদ তৈরি করছে।’ তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করছে দেশকে উন্নয়নের সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিতে, আর এটাই বিএনপি’র গাত্রদাহের কারণ।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘গত মঙ্গলবার নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা এবং সন্ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে বিএনপি প্রমাণ করেছে, তারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে সক্ষম নয়। তাদের কর্মসূচি মানে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা।’

ওই দিনের কথিত সম্প্রীতি সমাবেশের আড়ালে বিএনপির ভিন্ন কোনও এজেন্ডা ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার বলে মনে করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘তবে কি অপরাধীদের বাঁচানোর জন্যই সম্প্রীতি সমাবেশের নামে বিএনপির এ সন্ত্রাস?’

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আসলে হামলা, সংঘর্ষ, ষড়যন্ত্র আর সন্ত্রাসী বিএনপির রাজনীতি। সেটা পূজামণ্ডপে হোক আর নয়াপল্টনে হোক। বিএনপি এই বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না।’

স্থানীয় সরকার নির্বাচনের পরবর্তী ধাপে যে সব এলাকায় নির্বাচন হবে সে সব এলাকার আওয়ামী লীগের প্রতিটি সাংগঠনিক ইউনিটকে এখন থেকেই প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ইউনিট সমূহকে এখন থেকেই মিটিং করে রেজুলেশন প্রস্তুত করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘যখন যে এলাকার জন্য নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে তার পরপরই ইউনিয়ন থেকে উপজেলা এবং জেলা হয়ে রেজুলেশন কেন্দ্রে জমা দিতে হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকার রেজুলেশন জমা দেওয়া নিশ্চিত করতে এখন থেকে সভা করে আগেই রেজুলেশন তৈরির কাজ করার নির্দেশনা দেন।

 

/পিএইচসি/আইএ/

সম্পর্কিত

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

দেশকে অস্থিতিশীল করতে মন্দিরে হামলা: চরমোনাই পীর

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২০:২০

দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্যে পরিকল্পিতভাবে সারাদেশে মন্দির ও  হিন্দুদের বাড়িতে  হামলার  ঘটনাগুলো ঘটানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলনের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম। বুধবার (২৭ অক্টোবর)  পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দেশের চলমান সংকট উত্তরণের লক্ষ্যে করণীয় নির্ধারণে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

চরমোনাই পীর বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক রঙ লাগিয়ে বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিকভাবে চাপে ফেলতে পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা ও পরবর্তীতে সারাদেশে হামলা-অগ্নিসংযোগ ঘটনার অবতারণা করা হয়েছে। একথা স্পষ্ট যে, এসকল ঘটনায় ধর্মভিত্তিক কোনও দল, সংগঠন বা ধর্মপ্রাণ নাগিরক জড়িত নয়।  কুমিল্লায় মন্দিরে পবিত্র কোরআন অবমাননাকে কেন্দ্র করে দেশে নতুন করে সংকটের শুরু। চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বিক্ষুব্ধ জনতার ওপর পুলিশের গুলিতে ৫ জন নিহত, নোয়াখালী, ফেনী ও চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় হিন্দুদের মন্দিরে আক্রমণ এবং রংপুরের মাঝি পল্লিতে অগ্নিসংযোগকে কেন্দ্র করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারে একটি মহল তৎপর।’

দেশবিরোধী চক্রান্ত মোকাবিলা ও চলমান সংকট উত্তরণে  চরমোনাই পীর আগামী ১৭ নভেম্বর ঢাকায় জাতীয় সেমিনারের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

বায়তুল মোকাররম মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মুহিব্বুল্লাহিল বাকী নদভী বলেন, ‘দেশে যেসব ঘটনার অবতারণা তা সাম্প্রদায়িক নয়, সাম্প্রদায়িক বলে রঙ দেওয়া হয়েছে। এর সঙ্গে ধর্মপ্রাণ মানুষ জড়িত নয়।’

ইসলামী আন্দেআলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী বলেন, ‘বাংলাদেশের ওপর কালো মেঘের ঘনঘটা শুরু হয়েছে। কুমিল্লার ঘটনা একটি ষড়যন্ত্র।’

বেফাকুল মাদারিসে দ্বীনিয়ার মহাসচিব মুফতি মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘রাষ্ট্রধর্ম ইসলামের সঙ্গে কুমিল্লার ঘটনার কোনও সম্পর্ক নেই।’

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন— ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব  মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, দৈনিক ইনকিলাবের সহকারী সম্পাদক মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী,  জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের সভাপতি আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী, বগুড়া জামিল মাদরাসার মুহাদ্দিস  আব্দুল হক আজাদ, প্রখ্যাত গবেষক ড. মাওলানা মুশতাক আহমদ, গবেষক-রাজনীতিক অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন প্রমুখ।

/সিএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

‘জন্মলগ্ন থেকে খালি মাঠে গোল দেওয়ায় অভ্যস্ত বিএনপি’

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

কর্মসূচির নামে জনভোগান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’: সহমর্মিতা জানাতে ও তদন্তে বিএনপির দুই কমিটি

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’: সহমর্মিতা জানাতে ও তদন্তে বিএনপির দুই কমিটি

দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান বিএনপির

দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান বিএনপির

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

আ.লীগ থেকে বাঁচতে বিএনপিকে ভোট দেবে জনগণ: ফখরুল

আ.লীগ থেকে বাঁচতে বিএনপিকে ভোট দেবে জনগণ: ফখরুল

বিএনপির সভা রূপ নিয়েছে ‘সমাবেশে’, মির্জা ফখরুলের ধমক

বিএনপির সভা রূপ নিয়েছে ‘সমাবেশে’, মির্জা ফখরুলের ধমক

জনসম্পৃক্তদের দায়িত্বে চান বিএনপির মধ্যম সারির নেতারা

পেশাজীবী সংগঠনের সঙ্গে বৈঠকজনসম্পৃক্তদের দায়িত্বে চান বিএনপির মধ্যম সারির নেতারা

বাজেটকে অর্থনীতির যাত্রাবিন্দু হিসেবে দেখতে চায় বিএনপি

বাজেটকে অর্থনীতির যাত্রাবিন্দু হিসেবে দেখতে চায় বিএনপি

‘দুর্নীতির কারণে টিকা সংগ্রহে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি সরকার’

‘দুর্নীতির কারণে টিকা সংগ্রহে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি সরকার’

‘সরকারের মদতে জিয়া পরিবার ও আমার নামে ফেসবুকে ভুয়া অ্যাকাউন্ট’

‘সরকারের মদতে জিয়া পরিবার ও আমার নামে ফেসবুকে ভুয়া অ্যাকাউন্ট’

ব্যর্থতা আড়াল করতেই গ্রেফতার: মির্জা ফখরুল

ব্যর্থতা আড়াল করতেই গ্রেফতার: মির্জা ফখরুল

সর্বশেষ

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে দুই মাসের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন নেওয়ার নির্দেশনা

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে দুই মাসের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন নেওয়ার নির্দেশনা

ডিএমপিতে এক বছরের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেলেন বর্তমান কমিশনার

ডিএমপিতে এক বছরের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেলেন বর্তমান কমিশনার

কালো ঝলমলে

কালো ঝলমলে

সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় রাষ্ট্র নিশ্চুপ নেই: হাইকোর্ট

সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় রাষ্ট্র নিশ্চুপ নেই: হাইকোর্ট

মাকে হত্যায় ছেলের মৃত্যুদণ্ড

মাকে হত্যায় ছেলের মৃত্যুদণ্ড

© 2021 Bangla Tribune