X
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

কারও থুতনিতে, কেউবা নিশ্বাস নিতে খুলছেন মাস্ক

আপডেট : ০৬ মে ২০২১, ২১:০৭

করোনা সংক্রমণ ঝুঁকি এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে রাজধানীর বিভিন্ন শপিং মলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। বৃহস্পতিবার (৬ মে) দুপুরে বেইলি রোড এলাকার বেশ কয়েকটি শপিং মল ও রেস্টুরেন্টে অভিযানে গিয়ে দেখা যায়, অনেকে মাস্ক মুখ থেকে নামিয়ে থুতনিতে লাগিয়ে রেখেছেন; কেউবা একটু নিশ্বাস নেওয়ার কথা বলে খুলে রেখেছেন। এ সময় বেশ কয়েকজন ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানার মুখে পড়েন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন ডিএমপির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সঞ্জীব দাস।

মার্কেটের প্রতিটি ফ্লোর ঘুরে দেখেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। তিনি প্রতিটি দোকানের ব্যবসায়ী-কর্মচারীদের নির্দেশনা দেন, যতটুকু সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য। শপিং মল ছাড়াও রাস্তার আশপাশে বেশ কয়েকটি খাবার দোকানেও অভিযান পরিচালনা করেন তাঁর নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ সময় নাভানা বেইলি স্টার শপিং মলের ইনফান্সি শপের কর্মচারী দিদারকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। তিনি মাস্ক খুলে দোকানের ভেতরে অবস্থান করছিলেন। 

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান সিরাজ ক্যাপিটাল সেন্টারে মান্নাত কালেকশনের এক কর্মচারী রুবিকে ৪০০ টাকা জরিমানা করা হয়। তিনি মাস্ক খুলে দোকানের ভেতর দাঁড়িয়ে ছিলেন এবং কথা বলছিলেন। জরিমানা দিয়ে রুবি বলেন, ‘নিশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল, সেজন্যই মাস্কটি খুলেছিলাম। তবে আমাদের সচেতন থাকা প্রয়োজন।’

অভিযানের সময় ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয় ম্যাকয় শপের কর্মচারী তানজিল আহমেদকে। তিনিও মাস্ক ছাড়া দোকানের ভেতরে অবস্থান করছিলেন।

আরেক দোকানের কর্মচারী সোহেল রানা মাস্ক পরে ছিলেন না। তাকেও ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

মাস্ক থুতনিতে থাকায় তোইয়োবা বেগম নামে একজন ক্রেতাকে ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানা দিয়ে তিনি বলেন, ‘কাপড়গুলো দেখছিলাম। একটু আগেই মাস্কটা খুলেছিলাম। এরমধ্যেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের নজরে এসেছি।’

মাস্ক না পরে ঘোরাফেরা করায় রাসেল আহমেদ ও সানজিদা খানমকে জরিমানা করা হয়। ৩০০ টাকা করে মোট ৬০০ টাকা জরিমানা গুনতে হয় তাদের।

সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখেই একটি দোকানে চলছে বেচাকেনা ডিএমপির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সঞ্জীব দাস বলেন, ‘অধিকাংশ মানুষই মাস্ক পরছে। যারা পরছেন না তাদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। জরিমানা করা হচ্ছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতি টের পেলে অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি কিংবা মাস্ক পরতে সচেতন হয়ে ওঠে। ভ্রাম্যমাণ আদালত চলে গেলে এ বিষয়ে তারা অনেকটাই অবহেলা করে। জনগণ নিজে থেকে সচেতন না হলে সংক্রমণ ঝুঁকি কমানো সম্ভব নয়। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে আমরা মাঠে থাকবো। অভিযানে সাত জনকে দুই হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’ ভবিষ্যতে স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে কোনও গাফিলতি পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

এ সময় নিম্ন আয়ের মানুষ, রিকশাচালক, ফুটপাতের ভাসমান মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয় ডিএমপির পক্ষ থেকে।

 

 

/আরটি/আইএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ভারতে আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ

ভারতে আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ

‘পুঁজিবাজারে আস্থা ফিরেছে বিনিয়োগকারীদের’

‘পুঁজিবাজারে আস্থা ফিরেছে বিনিয়োগকারীদের’

এবার চাকরি হারানোর আতঙ্কে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্সের শিক্ষকরা

এবার চাকরি হারানোর আতঙ্কে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্সের শিক্ষকরা

আমরা এখন অন্যদের ঋণ দিচ্ছি: তথ্যমন্ত্রী

আমরা এখন অন্যদের ঋণ দিচ্ছি: তথ্যমন্ত্রী

দেশের উন্নয়ন-অর্জনই বিএনপির গাত্রদাহের কারণ: ওবায়দুল কাদের

দেশের উন্নয়ন-অর্জনই বিএনপির গাত্রদাহের কারণ: ওবায়দুল কাদের

সিনোফার্মের টিকা প্রয়োগ শুরু

সিনোফার্মের টিকা প্রয়োগ শুরু

ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা

ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা

সারাদেশে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া শুরু হচ্ছে আজ

সারাদেশে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া শুরু হচ্ছে আজ

নারীদের চাকরিতে সমান সুযোগ দিতে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ

নারীদের চাকরিতে সমান সুযোগ দিতে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ

গার্ড অব অনারে নারী ইউএনও, সংবিধান কী বলে?

গার্ড অব অনারে নারী ইউএনও, সংবিধান কী বলে?

‘তাইনর বাপে দিচে টিনের ঘর, তাইনে দিচে পাকা ঘর'

‘তাইনর বাপে দিচে টিনের ঘর, তাইনে দিচে পাকা ঘর'

বাংলাদেশকে ২ হাজার কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবি

বাংলাদেশকে ২ হাজার কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবি

সর্বশেষ

ফিরোজায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া

ফিরোজায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া

শার্শায় ৪৩ নমুনা পরীক্ষায় ৩২ জনই আক্রান্ত

শার্শায় ৪৩ নমুনা পরীক্ষায় ৩২ জনই আক্রান্ত

কাবুলে মার্কিন দূতাবাসে করোনার তাণ্ডব: আক্রান্ত ১১৪

কাবুলে মার্কিন দূতাবাসে করোনার তাণ্ডব: আক্রান্ত ১১৪

মায়ের পর দগ্ধ মেয়েরও মৃত্যু

মায়ের পর দগ্ধ মেয়েরও মৃত্যু

ভারতে আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ

ভারতে আসছে করোনার তৃতীয় ঢেউ

ধোনিকে ছাড়িয়ে অধিনায়ক কোহলির রেকর্ড

ধোনিকে ছাড়িয়ে অধিনায়ক কোহলির রেকর্ড

গ্রুপ অ্যাডমিনদের জন্য নতুন ফিচার আনলো ফেসবুক

গ্রুপ অ্যাডমিনদের জন্য নতুন ফিচার আনলো ফেসবুক

বাগেরহাটের রেজাউল হত্যা মামলার দুই আসামি গ্রেফতার

বাগেরহাটের রেজাউল হত্যা মামলার দুই আসামি গ্রেফতার

বাসায় আগুন লেগে মায়ের মৃত্যু, শিশু আইসিইউতে

বাসায় আগুন লেগে মায়ের মৃত্যু, শিশু আইসিইউতে

অ্যান্টিবডি পাশ কাটিয়ে সংক্রমণ ছড়াতে পারে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: গবেষণা

অ্যান্টিবডি পাশ কাটিয়ে সংক্রমণ ছড়াতে পারে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: গবেষণা

রোনালদোর চাপ কমানোর চেষ্টা পর্তুগাল কোচের

রোনালদোর চাপ কমানোর চেষ্টা পর্তুগাল কোচের

মেহেন্দীগঞ্জ ও হিজলায় নদী ভাঙন রোধ ও পুনর্বাসনের দাবি

মেহেন্দীগঞ্জ ও হিজলায় নদী ভাঙন রোধ ও পুনর্বাসনের দাবি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

এবার চাকরি হারানোর আতঙ্কে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্সের শিক্ষকরা

এবার চাকরি হারানোর আতঙ্কে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্সের শিক্ষকরা

ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা

ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা

প্রযুক্তির পথে এগোচ্ছে হাইআতুল উলয়া

প্রযুক্তির পথে এগোচ্ছে হাইআতুল উলয়া

‘সুস্থ সাইবার সংস্কৃতির জন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে’

‘সুস্থ সাইবার সংস্কৃতির জন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে’

ভল্টের টাকা আত্মসাৎ: ঢাকা ব্যাংকের ২ কর্মকর্তা কারাগারে

ভল্টের টাকা আত্মসাৎ: ঢাকা ব্যাংকের ২ কর্মকর্তা কারাগারে

আগামী মার্চে শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রোরেলের কাজ

আগামী মার্চে শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রোরেলের কাজ

‘যাত্রীদের ধারণা সিএনজি চালকরা জুলুম করে, কিন্তু মূলকথা কেউ জানে না’

‘যাত্রীদের ধারণা সিএনজি চালকরা জুলুম করে, কিন্তু মূলকথা কেউ জানে না’

২১ জুন থেকে ঢাবিতে ভর্তি ও ফরম ফিল-আপ করা যাবে অনলাইনে

২১ জুন থেকে ঢাবিতে ভর্তি ও ফরম ফিল-আপ করা যাবে অনলাইনে

প্রাথমিকে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণে কঠোর নির্দেশ

প্রাথমিকে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণে কঠোর নির্দেশ

তবুও সিআইডি প্রধানের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের সুপারিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের

তবুও সিআইডি প্রধানের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের সুপারিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের

© 2021 Bangla Tribune