X
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

বিকাশ নগদ রকেটে থাকা গ্রাহকের টাকায় হাত দেওয়া যাবে না

আপডেট : ০৭ মে ২০২১, ১৮:২৮

এখন থেকে বিকাশ, নগদ ও রকেটে থাকা গ্রাহকের টাকায় হাত দেওয়া যাবে না। অর্থাৎ গ্রাহকের হিসাবে জমা থাকা অর্থ ব্যবহার করতে পারবে না মোবাইল ফোনের আর্থিক সেবাদাতা (এমএফএস) প্রতিষ্ঠানগুলো।

বৃহস্পতিবার (৬ মে)  বাংলাদেশ ব্যাংকের ‘ট্রাস্ট ফান্ড ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক  নীতিমালায় এ কথা বলা হয়েছে। নীতিমালা অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠানগুলোকে গ্রাহকের জমা টাকার পুরোটাই ব্যাংকে ‘ট্রাস্ট ফান্ড’ হিসাবে জমা রাখতে হবে। এ ফান্ডে জমা টাকা কোনোভাবেই গ্রাহকের এমএফএস হিসাবে জমা থাকা টাকার চেয়ে কম হতে পারবে না। আর এমএফএস প্রতিষ্ঠানগুলো গ্রাহকের জমা টাকার বিপরীতে যে ই-মানি ইস্যু করে, তার পরিমাণও কোনোভাবেই জমা টাকার বেশি হতে পারবে না।

‘গাইডলাইনস ফর ট্রাস্ট ফান্ড ম্যানেজমেন্ট ইন পেমেন্ট অ্যান্ড সেটেলমেন্ট সার্ভিসেস’ শীর্ষক নীতিমালার আলোকে এখন থেকে এমএফএস প্রতিষ্ঠান, আইপে, ডি মানি, এসএসএল কমার্সের মতো আর্থিক লেনদেনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানকে এই নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। ইলেকট্রনিক প্ল্যাটফর্মে গ্রাহকের জমা টাকার নিরাপত্তা নিশ্চিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক এই ব্যবস্থা নিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ব্যাংকের বাইরে এমন প্ল্যাটফর্মে দিন শেষে প্রায় সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকা জমা থাকে গ্রাহকের। এর বিপরীতে কেউ কেউ গ্রাহকদের সুদ দিচ্ছে। আর প্রতিষ্ঠানগুলো এই টাকা উচ্চ সুদে কেউ ব্যাংকে আবার কেউ অন্যত্র রাখছে।

নীতিমালা অনুযায়ী, প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করতে হবে। এ জন্য তফসিলি যেকোনও ব্যাংকে ট্রাস্ট কাম সেটেলমেন্ট হিসাব খুলতে হবে। এই হিসাবে গ্রাহকের জমা করা পুরো টাকা থাকতে হবে। এই টাকা থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকে অনুমোদিত একটি অংশ সরকারি বিল-বন্ড, স্থায়ী আমানতে রাখা যাবে। এই বিনিয়োগ থেকে যে সুদ আসবে, তা প্রতিষ্ঠানগুলো দৈনন্দিন খরচ, সরকারি মাশুল, গ্রাহক সচেতনতা খাতে ব্যবহার করতে পারবে। এই সুদ আয় থেকে গ্রাহকদেরও ভাগ দিতে হবে। ট্রাস্ট ফান্ডের বিপরীতে কেউ সরাসরি ঋণ বা ঋণসুবিধা নিতে পারবে না।

/জিএম/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

করোনার প্রভাব পড়েনি অর্থনীতির যে খাতে

করোনার প্রভাব পড়েনি অর্থনীতির যে খাতে

টানা ৪ দিন ধরে খুলনা বিভাগে মৃতের সংখ্যা বেশি

টানা ৪ দিন ধরে খুলনা বিভাগে মৃতের সংখ্যা বেশি

২০ কোটি টাকার জাল স্ট্যাম্পসহ গ্রেফতার ৪ জন রিমান্ডে

২০ কোটি টাকার জাল স্ট্যাম্পসহ গ্রেফতার ৪ জন রিমান্ডে

মাওলানা ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ

মাওলানা ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১০৮ জনের

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১০৮ জনের

এইচএসসির ফরম পূরণ ২৯ জুন থেকে শুরু

এইচএসসির ফরম পূরণ ২৯ জুন থেকে শুরু

স্থিতিশীল বঙ্গোপসাগর-ভারত মহাসাগর দেখতে চায় বাংলাদেশ

স্থিতিশীল বঙ্গোপসাগর-ভারত মহাসাগর দেখতে চায় বাংলাদেশ

গোষ্ঠীতান্ত্রিক শাসকগোষ্ঠী দেশ পরিচালনা করছে: আমীর খসরু

গোষ্ঠীতান্ত্রিক শাসকগোষ্ঠী দেশ পরিচালনা করছে: আমীর খসরু

সর্বশেষ

‘গ্রিন ফাঙ্গাস’ করোনা রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ায় তিন গুণ: বিশেষজ্ঞদের সতর্কতা

‘গ্রিন ফাঙ্গাস’ করোনা রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ায় তিন গুণ: বিশেষজ্ঞদের সতর্কতা

করোনার প্রভাব পড়েনি অর্থনীতির যে খাতে

করোনার প্রভাব পড়েনি অর্থনীতির যে খাতে

পল্লবীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে লিফট মিস্ত্রীর মৃত্যু

পল্লবীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে লিফট মিস্ত্রীর মৃত্যু

পুলিশের সহায়তায় এসএসসি পরীক্ষার্থী’র ফরম ফিলাপ

পুলিশের সহায়তায় এসএসসি পরীক্ষার্থী’র ফরম ফিলাপ

টানা ৪ দিন ধরে খুলনা বিভাগে মৃতের সংখ্যা বেশি

টানা ৪ দিন ধরে খুলনা বিভাগে মৃতের সংখ্যা বেশি

তিব্বতে প্রথম বুলেট ট্রেন চালু করলো চীন

তিব্বতে প্রথম বুলেট ট্রেন চালু করলো চীন

২০ কোটি টাকার জাল স্ট্যাম্পসহ গ্রেফতার ৪ জন রিমান্ডে

২০ কোটি টাকার জাল স্ট্যাম্পসহ গ্রেফতার ৪ জন রিমান্ডে

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নকেই পাচ্ছে না উইম্বলডন

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নকেই পাচ্ছে না উইম্বলডন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনার প্রভাব পড়েনি অর্থনীতির যে খাতে

করোনার প্রভাব পড়েনি অর্থনীতির যে খাতে

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় চায় নগদ

ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় চায় নগদ

বাংলাদেশ হালাল খাদ্য উৎপাদনে সক্ষম: বাণিজ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ হালাল খাদ্য উৎপাদনে সক্ষম: বাণিজ্যমন্ত্রী

এনবিআরের কাছে ভ্যাট-আয়কর সংক্রান্ত নীতি সহায়তা চায় বিজিএমইএ

এনবিআরের কাছে ভ্যাট-আয়কর সংক্রান্ত নীতি সহায়তা চায় বিজিএমইএ

© 2021 Bangla Tribune