X
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

রিমান্ড শেষে কারাগারে মুফতি ফখরুল ইসলাম

আপডেট : ০৮ মে ২০২১, ১৭:০৫

৪ দিনের রিমান্ড শেষে হেফাজতে ইসলামের সাবেক প্রচার সম্পাদক মুফতি ফখরুল ইসলামকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শনিবার (৮ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ইয়াসমিন আরার আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামিকে চারদিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করেন। একইসঙ্গে মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান মো. নোমানের আদালত তার চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে গত ১৪ এপ্রিল সন্ধ্যায় মুফতি ফখরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধ করে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এ অবরোধ কর্মসূচির নামে লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে হেফাজতের কর্মীরা। এ ঘটনায় পল্টন ও মতিঝিল থানায় হেফাজত এ নেতাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা করা হয়।

/এমএইচজে/এমআর/

সম্পর্কিত

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৪৫

আইনজীবী তালিকাভুক্তির (এনরোলমেন্ট) মৌখিক পরীক্ষা শেষে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করবে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ও এনরোলমেন্ট কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়াম ও সুপ্রিম কোর্ট জাজেস স্পোর্টস কমপ্লেক্সে ধাপে ধাপে এ মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় প্রায় ৬ হাজারের মতো শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। এই ফলাফল ঘোষণার পর উত্তীর্ণরা সংশ্লিষ্ট জেলা আদালতে আইনজীবী হিসেবে প্রাকটিস করতে পারবেন।

তবে এর আগে গত ২৫ জুলাই থেকে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১৫ জুলাই এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে তা স্থগিত করা হয়েছিলো।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর ও চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি আইনজীবী অন্তর্ভুক্তির লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সেখান থেকে উত্তীর্ণ এবং বিগত দুই পরীক্ষার মৌখিক পর্যায়ে আটকে পড়ারা এবার মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। কেননা, তিন ধাপের নৈর্ব্যক্তিক, লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণরাই আইনজীবী হিসেবে প্রাকটিস করতে পারেন। একবার লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে তারা তিনবার সরাসরি মৌখিক পরীক্ষার জন্য বিবেচিত হন।

/বিআই/এমএস/

সম্পর্কিত

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:০৭

গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৫৪ জন। তাদের মধ্যে ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৯৭ জন এবং ঢাকার বাইরে ৫৭ জন। বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম এ তথ্য জানায়।

কন্ট্রোল রুম জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়াদের মধ্যে বয়স বিবেচনায় শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সীদের সংখ্যাই সর্বোচ্চ; ২৪ দশমিক ৭ শতাংশ। এরপর রয়েছে ১১ থেকে ২০ বছর। এই বয়সীরা ভর্তি হয়েছেন ২২ দশমিক এক শতাংশ। ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে রোগী ভর্তি হয়েছেন ১৮ দশমিক দুই শতাংশ, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ১৪ দশমিক ৯ শতাংশ, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে সাত দশমিক আট শতাংশ, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ছয় দশমিক পাঁচ শতাংশ, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে তিন দশমিক দুই শতাংশ এবং শূন্য থেকে এক বছরের মধ্যে দুই দশমিক ছয় শতাংশ।

কন্ট্রোল রুম জানাচ্ছে, দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে রোগী ভর্তি আছেন এক হাজার ৪৯ জন। তার মধ্যে ঢাকা বিভাগের ৪৫ হাসপাতালে ৮৩৬ জন এবং অন্যান্য বিভাগের হাসপাতালে ভর্তি আছেন ২১৩ জন।

এ বছরে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৬ হাজার ৭০৫ জন, তাদের মধ্যে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৫ হাজার ৫৯৭ জন।

চলতি বছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে বলেও জানিয়েছে কন্ট্রোল ‍রুম।

 

/জেএ/আইএ/

সম্পর্কিত

করোনায় মৃত ২৪ জনের ১৪ জন নারী

করোনায় মৃত ২৪ জনের ১৪ জন নারী

রাজারবাগ দরবারের বিরুদ্ধে দুদক, সিটিটিসি ও সিআইডিকে তদন্তের নির্দেশ বহাল

রাজারবাগ দরবারের বিরুদ্ধে দুদক, সিটিটিসি ও সিআইডিকে তদন্তের নির্দেশ বহাল

রোহিঙ্গাদের জন্য ১৮ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের

রোহিঙ্গাদের জন্য ১৮ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের

জীবন বীমার নিয়োগ পরীক্ষা বাতিলের দাবি

জীবন বীমার নিয়োগ পরীক্ষা বাতিলের দাবি

ই-কমার্স খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে ই-ক্যাবের ৬ প্রস্তাবনা

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৫৪

ই-কমার্স খাতে শৃঙ্খলা ও গ্রাহকের আস্থা ফেরাতে সরকারকে ৬টি প্রস্তাবনা দিয়েছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। প্রস্তাবনাগুলো বাস্তবায়ন করা গেলে বিদ্যমান সমস্যা কাটিয়ে ওঠতে পারবে বলে মনে করে ই-ক্যাব।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) আমরা বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাবনা জমা দিয়েছি। আমরা আশা করছি, মন্ত্রণালয় প্রস্তাবনাগুলো বিবেচনা করবে।

প্রস্তাবনা ৬টি হলো ‑ ডিজিটাল কমার্স সেল কার্যকর ও এর সক্ষমতা বাড়ানো (প্রয়োজনে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ব্যবহার), ডিজিটাল কমার্স পলিসি-২০১৮ মোতাবেক কমিটি গঠন (রিস্ক ফ্যাক্টর ম্যানেজমেন্ট কমিটি, কারিগরি কমিটি, উপদেষ্টা কমিটি) বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে এসক্রো সেবা চালু, ডাক বিভাগকে সংযুক্ত করে ডেলিভারি বা লজিস্টিক এগ্রিগেটর প্ল্যাটফর্ম, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মাধ্যমে সেন্ট্রাল ডিজিটাল কমপ্লেইন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম তৈরি, এবং সমস্যা প্রতিকারে আইন প্রয়োগ।

/এইচএএইচ/এমএস/

সম্পর্কিত

সরকার পদক্ষেপ নেয় জনগণ নিঃস্ব হওয়ার পর: হাইকোর্ট

সরকার পদক্ষেপ নেয় জনগণ নিঃস্ব হওয়ার পর: হাইকোর্ট

ই-কমার্সে প্রতারণা: দেখে-শুনে বিনিয়োগের পরামর্শ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

ই-কমার্সে প্রতারণা: দেখে-শুনে বিনিয়োগের পরামর্শ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

অনলাইনে কারিগরির অ্যাডভান্সড কোর্সে নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪৩

২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর একবছর মেয়াদি অ্যাডভান্সড সার্টিফিকেট কোর্স কারিকুলামে অনলাইনে নিবন্ধনের (রেজিস্ট্রেশন) বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত এই বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, নিবন্ধন ফি ২০০ টাকা, রোভার স্কাউট ফি ১৫ টাকাসহ সর্বমোট ২১৫ টাকা দিতে হবে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে।

অনলাইনে ডাটা এন্ট্রি করতে হবে আগামী ২ অক্টোবর থেকে ১১ অক্টোবরের মধ্যে। ফাইনাল কপি (হার্ড কপি) প্রিন্ট করতে হবে ১৩ অক্টোবর থেকে ১৬ অক্টোবরের মধ্যে। সোনালী সেবার মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন ফি জমা দেওয়া যাবে ১৩ অক্টোবর থেকে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত।

রেজিস্ট্রেশন কার্ড নেওয়ার সময় নিবন্ধন ফি জমা দেওয়ার রশিদ অবশ্যই প্রদর্শন করতে হবে।

২০২০-২১ অর্থবছর পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানের অ্যাফিলিয়েশন ফি পরিশোধের প্রমাণপত্রের ফটোকপি জমা দিতে হবে।

নির্ধারিত তারিখের মধ্যে নিবন্ধন কার্য সম্পন্ন করতে না পারলে সমুদয় দায় প্রতিষ্ঠান প্রধানের ওপর বর্তাবে।

প্রতি ট্রেডে সর্বনিম্ন পাঁচ জন এবং সর্বোচ্চ ৪০ জন শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।

রেজিস্ট্রেশন প্রিন্ট আউট কপি জমা ও নিবন্ধন কার্ড উত্তোলনের শিডিউল পরবর্তীতে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হবে।

 

/এসএমএ/আইএ/

সম্পর্কিত

ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে শিক্ষাবোর্ডের নির্দেশনা

ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে শিক্ষাবোর্ডের নির্দেশনা

অনুদান নিয়ে প্রতারণা: শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সতর্কবার্তা

অনুদান নিয়ে প্রতারণা: শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সতর্কবার্তা

ডাবল শিফট পিটিআইয়ের ১২ মাসের অর্থ মঞ্জুরি

ডাবল শিফট পিটিআইয়ের ১২ মাসের অর্থ মঞ্জুরি

ব্লেন্ডেড লার্নিংয়ের অবকাঠামো গড়তে হবে: ইউজিসি

ব্লেন্ডেড লার্নিংয়ের অবকাঠামো গড়তে হবে: ইউজিসি

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৩৩

ছয়-সাত বছর ধরে দাম্পত্য জীবনে অসুখী ছিলেন রাজধানীর স্কলাসটিকা স্কুলের ক্যারিয়ার গাইডেন্স কাউন্সেলর ইভানা লায়লা চৌধুরী (৩২)। সেই ‘অসুখ’ নিয়ে দুনিয়া থেকেই চলে গেছেন তিনি। বেঁচে থাকতে নিগৃহীত জীবন থেকে মুক্তির পথ খুঁজছিলেন ইভানা। তবে কাউকে কাছে পাননি। দশ বছরের দাম্পত্যের আট বছরই ইভানা স্বামীর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন সহ্য করেছেন বলে বিভিন্নজনের সঙ্গে কথোপকথনে ফুটে উঠেছে। শিক্ষক, সহকর্মী ও সবশেষ পরিবারের কাছেও ইভানা নিজের কষ্টের কথা বলেছিলেন। কিন্তু কেউ তাকে কষ্ট থেকে মুক্তি দিতে পারেনি। ইভানার পরিবার, বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

২০১১ সালে ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ মাহমুদ হাসান রুম্মানের সঙ্গে ইভানার বিয়ে হয়। তাদের দুই সন্তান। দুই ছেলের মধ্যে একটির বয়স আট বছর, আরেকটি ছয় বছরের। ছোটটি বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (অটিস্টিক) শিশু। শিশু দুটি এখন ইভানার বোন প্রকৌশলী ফারহানা চৌধুরী তিথির তত্ত্বাবধানে আছে।

১৫ সেপ্টেম্বর বুধবার শাহবাগের পাশে পরীবাগের দুটি নয়তলা ভবনের মাঝ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় শাহবাগ থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়। মৃত্যুর ঘটনা ‍সুষ্ঠুভাবে তদন্তের দাবি জানিয়ে কয়েকজন আইনজীবী শাহবাগ থানায় লিখিত আবেদনও করেছেন। আবেদনে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আসিফ বিন আনওয়ার সবার পক্ষে স্বাক্ষর করেছেন। তিনি লন্ডন কলেজ অব লিগ্যাল স্টাডিজ সাউথে (এলসিএলএস) শিক্ষকতা করতেন। সেখানে ২০০৮ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত তার ছাত্রী ছিলেন ইভানা।

এ ছাড়া এলসিএলএস ডিবেট অ্যান্ড মুটিং ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে ইভানা দায়িত্ব পালনের সময় ব্যারিস্টার আসিফ ওই ক্লাবের এক্সিকিউটিভ মডারেটর ছিলেন।

লিখিত আবেদনে তিনি উল্লেখ করেছেন, ‘২০১৩ ও ২০১৫ সালে দুবার ইভানা তার পারিবারিক সমস্যার বিষয়ে আমার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিল। পরে আর আমার সঙ্গে তার কথা হয়নি। ২০১৬ সালের ৩ মে ইভানা আবার তার পারিবারিক সমস্যার কথা জানিয়ে আমাকে মেইল করেন।’

ইভানাকে ঘুমের ওষুধ খাওয়াতেন রুম্মান

শিক্ষকের কাছে দেওয়া মেইলে ইভানা উল্লেখ করেন, বিয়ের শুরু থেকেই তার স্বামী ব্যারিস্টার রুম্মান তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছেন। তাদের বড় ছেলে আরমান অচিরেই স্কুল শুরু করছে এবং সে কারণে তার স্বামী রুম্মান তাকে চাকরি ছেড়ে দিতেও চাপ দিচ্ছেন। চাকরি না ছাড়লে রুম্মান তাকে তালাক দেওয়ার হুমকিও দিচ্ছেন। বিয়ের শুরুতে এমন নিগ্রহের শিকার হলেও এবার তিনি এগিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ওই মেইলে বিচ্ছেদের পর পরিবারের সুনাম ক্ষুন্ন হবে বলে আশঙ্কাও করেছিলেন ইভানা। তিনি লেখেন, তালাক হলে যদিও তার পরিবারের সুনাম ক্ষুন্ন হবে, তবু তিনি আর সহ্য করতে পারছেন না।

বিচ্ছেদের পর দুই সন্তান নিয়ে নিজের বেতনে সংসার চালাতে টানাপড়েনে পড়তে পারেন বলেও মেইলে জানান ইভানা। ২০১৬ সালের ওই মেইলে ব্যারিস্টার আসিফ বিন আনওয়ারের সঙ্গে যেকোনও শনিবার দেখা করার ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন। তবে তিনি আর দেখা করতে যাননি।

২০১৮ সালে আসিফ বিন আনওয়ারের সঙ্গে এক অনুষ্ঠানে আবার দেখা হয় ইভানার। তখন দেখা না করতে পারার বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন। পুনরায় তিনি আসিফের সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছার কথা জানান।

এ বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর ইভানা ব্যারিস্টার আসিফকে পুনরায় ফেসবুকে নক করেন। ফেসবুকে ইভানা তার শিক্ষক আসিফকে জানান, ব্যারিস্টার রুম্মান অপর এক আইনজীবী নারীর সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়েছেন। ওই নারীর সঙ্গে রুম্মানের হোয়াটসআপে ব্যক্তিগত কথোপকথনের কিছু স্কিনশটও পাঠান ইভানা।

ইভানা ওই সময় অভিযোগ করেন, ব্যারিস্টার রুম্মান বেশ কিছু দিন ধরে তাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে আসছেন। ইভানা ঘুমানোর পর ওই নারী আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলতেন রুম্মান।

ইভানা হাত কেটে কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এমনকি হাত কাটার ছবিও আসিফকে পাঠান। সেই ছবি দেখে ব্যারিস্টার আসিফ তাকে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করেন এবং শিগগিরই দেখা করতে বলেন। ১৩ সেপ্টেম্বর বিকালেই ইভানাকে ব্যারিস্টার আসিফ দেখা করার অনুরোধ করেন। তবে ইভানা আর দেখা করতে যাননি। ১৫ ফেব্রুয়ারি ইভানার মৃত্যু সংবাদ পান ব্যারিস্টার আসিফ।

ইভানার বাবার পরিবারের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ ছিল না ব্যারিস্টার আসিফের। ৭-৮ বছর ধরে ইভানা তার কাছে যা বলেছেন, তা ব্যারিস্টার আসিফ ইভানার পরিবারকে জানাননি। না জানানোর বিষয়ে ব্যারিস্টার আসিফ বিন আনওয়ার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘না বলাটাই স্বাভাবিক। ইভানা আমার কাছে ব্যক্তিগতভাবে সমস্যার জন্য পরামর্শ চেয়েছে, আমি তাকে ব্যক্তিগতভাবে পরামর্শ দিয়েছি। সুতরাং সেখানে তার পরিবারের সঙ্গে আমার যোগাযোগের কারণ ছিল না।’

তিনি বলেন, ‘ইভানার মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আমি তার পরিবারকে কিছুই জানাইনি। মৃত্যুর পর জানিয়েছি। আমার সঙ্গে তাদের সামাজিক যোগাযোগ ছিল না।’

১৩ সেপ্টেম্বর শিক্ষক আসিফের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি বড়বোন ফারহানা চৌধুরীর সঙ্গেও ভিডিও কল করে কান্নাকাটি করেছিলেন ইভানা। স্বামীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের কথা জানিয়েছিলেন বোনকে। বোন তাকে সান্ত্বনা দিয়েছিলেন।

বিবাদ মেটাতে গিয়ে দেখেন লাশ

ইভানার দাম্পত্য জীবনে এত অশান্তির কথা এর আগে কখনও শোনেননি বলে জানিয়েছেন তার বাবা প্রকৌশলী আমান উল্লাহ চৌধুরী। তিনি বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি যদি কোনোভাবে জানতাম আমার মেয়ে অশান্তিতে রয়েছে, তাহলে আমি কি তাকে সেখানে রাখতাম! আমি কোনও দিনই কিছু শুনিনি।’

এই প্রকৌশলী বর্তমানে অবসরে রয়েছেন। বনানীতে তিনি ও তার স্ত্রী একটি ফ্ল্যাটে থাকেন। তিন মেয়ের মধ্যে ইভানা সবার ছোট। ১৫ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টার দিকে ইভানার শ্বশুর মোহাম্মদ ইসমাঈল তাকে ফোন করেন। ফোনে ইভানা ও রুম্মনের মধ্যে ঝগড়া চলছে বলে জানান। বিষয়টি সুরাহার জন্য তিনি তাদের যেতে বলেন। তারা দুপুরে পরীবাগের বাসায় যান। সেখানে গিয়ে মেয়ের লাশ দেখতে পান তারা।

আত্মহত্যায় বাধ্য করা হয়েছে

ইভানা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তার হতাশা ও দাম্পত্য সংকটের কথা লিখে আসছিলেন। সেটিও শাহবাগ থানায় জমা দিয়েছেন ব্যারিস্টার আসিফ। ইভানার বিভিন্ন কথোপকথনে ফুটে উঠেছে স্বামী রুম্মানের মাধ্যমে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতনের বিষয়টি। স্বজনদের মতে, ঘটনা আত্মহত্যা হলেও তাকে সেটি করতে বাধ্য করা হয়েছে। মামলার তদন্তে এসব বিষয় আসবে বলে দাবি করেছেন স্বজনরা।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদুদ হাওলাদার বলেন, ‘ইভানার মৃত্যুতে একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। আমরা সবকিছু মাথায় রেখেই মামলাটি তদন্ত করছি। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট এলে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করবো।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, ‘এই মৃত্যুর পেছনে কেউ দায়ী থাকলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে।’

এদিকে আসিফ বিন আনওয়ার শাহবাগ থানায় দেওয়া অভিযোগের বিষয়ে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা যে অভিযোগটি দিয়েছি, সেটি পুলিশ সম্পূরক অভিযোগপত্র অথবা নতুন মামলা অথবা এভিডেন্স হিসেবেও নিতে পারে। পুলিশ যেভাবে নিতে চায় আমরা সেভাবেই গুছিয়ে দেবো।’

/এফএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

মাদক মামলায় হাইকোর্টে জামিন পেলেন মৌ 

মাদক মামলায় হাইকোর্টে জামিন পেলেন মৌ 

আরেক মামলায় রাসেলের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

আরেক মামলায় রাসেলের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

স্বাস্থ্যের সেই ড্রাইভার মালেকের স্ত্রী কারাগারে

স্বাস্থ্যের সেই ড্রাইভার মালেকের স্ত্রী কারাগারে

রিমান্ড শেষে আদালতে রাসেল

রিমান্ড শেষে আদালতে রাসেল

অর্থপাচার মামলা: ফরিদপুরের আশিকের ঠিকাদারি লাইসেন্স দাখিলের নির্দেশ

অর্থপাচার মামলা: ফরিদপুরের আশিকের ঠিকাদারি লাইসেন্স দাখিলের নির্দেশ

সর্বশেষ

‘সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার কমায় আয় সংকটে পড়বে মানুষ’

‘সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার কমায় আয় সংকটে পড়বে মানুষ’

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির ৩ শীর্ষ নেতার আত্মসমর্পণ

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির ৩ শীর্ষ নেতার আত্মসমর্পণ

১২ তলা থেকে ঝাঁপ, তারপর...

১২ তলা থেকে ঝাঁপ, তারপর...

‘দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে করোনার মধ্যে অর্থনীতির চাকা সচল’

‘দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে করোনার মধ্যে অর্থনীতির চাকা সচল’

ব্রুজন যা চায় সেটার সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে: জামাল ভূঁইয়া

ব্রুজন যা চায় সেটার সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে: জামাল ভূঁইয়া

© 2021 Bangla Tribune