X
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিলেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা

আপডেট : ১০ মে ২০২১, ১৬:২৩
image

ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। ১৩ সদস্যের মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিয়ে সোমবার তিনি গভর্নর জগদীশ মুখির কাছে শপথ নেন। অনুষ্ঠানে বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডাসহ বিভিন্ন রাজ্যনৈতিক দলের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

বাংলাদেশ নিয়ে নানা বিতর্কিত মন্তব্য করে ইতোপূর্বে একাধিক বার শিরোনাম হয়েছিলেন হিমন্ত। আসামের তথাকথিত অবৈধ অভিবাসীদের (মুসলিম) বাংলাদেশে পাঠানোর জন্য যে নামের তালিকা করা হয়, সেটির নেতৃত্বে ছিলেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি দাবি করেন, ‘বাংলাদেশ থেকে সেখানে যাওয়া অভিবাসী মুসলিম জনগোষ্ঠী’র একটি অংশ সাম্প্রদায়িক। তারা স্থানীয় ভাষা ও সংস্কৃতি বিনষ্টকারী কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত।

বিজেপি নেতা সর্বানন্দ সানোয়ালকে সরিয়ে আসামের ১৫তম মুখ্যমন্ত্রী হলেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। তাকে অভিনন্দন জানিয়ে এক টুইট বার্তায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, ‘আসামের উন্নয়ন যাত্রায় গতি যোগাবে তার টিম।’

আরেক টুইট বার্তায় আসামের উন্নতি এবং সেখানে দলকে শক্তিশালী করায় সর্বানন্দ সানোয়ালকে ধন্যবাদ জানান মোদি। তিনি বলেন, ‘বিগত পাঁচ বছর ধরে জনগণ এবং উন্নয়নের জন্য প্রশাসন চালিয়েছেন সর্বানন্দ সানোয়াল।’

রবিবার গুয়াহাটিতে অনুষ্ঠিত বিজেপির এক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে হিমন্ত বিশ্ব শর্মার নাম প্রস্তাব করেন সর্বানন্দ সানোয়াল।

/জেজে/বিএ/

সম্পর্কিত

‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

ভারতে বিক্ষোভস্থলে ৩ নারীকে পিষে দিলো ট্রাক

ভারতে বিক্ষোভস্থলে ৩ নারীকে পিষে দিলো ট্রাক

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৪:০৯

টি২০ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন করা তিন কাশ্মিরি শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। উত্তর প্রদেশের আগ্রা থেকে বুধবার তাদের আটক করা হয়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কার্যালয়ের এক টুইট বার্তায় বৃহস্পতিবার সকালে বলা হয়েছে, যারা পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন করেছে তারা রাষ্ট্রদ্রোহিতায় অভিযুক্ত হবে।

আটক তিন জনই আগ্রার রাজা বলবন্ত সিং কলেজের প্রকৌশল বিদ্যার শিক্ষার্থী। আরশিদ ইউসুফ এবং ইনায়াত আলতাফ শেখ কলেজের তৃতীয় বর্ষের এবং শওকত আহমেদ গানাই চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।

তাদের বিরুদ্ধে ধর্মের ভিত্তিতে মাঠ পর্যায়ে শত্রুতায় উস্কানি দেওয়া এবং সাইবার সন্ত্রাসের অভিযোগ আনা হয়েছে। এছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ আনা হতে পারে বলে মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের টুইট বার্তায় ইঙ্গিত মিলেছে।

গত সোমবার ওই শিক্ষার্থীদের কলেজ থেকেই বহিষ্কার করা হয়েছে। কলেজ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ‘পাকিস্তানের পক্ষে স্টাটাস পোস্ট করে শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডে যুক্ত থাকার’ প্রমাণ মিলেছে। একই ধরণের অভিযোগে উত্তর প্রদেশে আরও চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনজনকে বারেইলি থেকে আর অপর একজনকে লখনৌ থেকে আটক করা হয়েছে।

আগ্রার পুলিশ সুপার বিকাশ কুমার বলেন, ‘ম্যাচের পরই বিষয়টি সামনে আসে, দেশবিরোধী মন্তব্য করা হয়েছে। আমরা অভিযোগ পেয়েছি আর একটি মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্তের পর তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।’

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, কলেজ থেকে পাকিস্তানের পক্ষে স্লোগান শুনে সেখানে পৌঁছান বিজেপির যুব শাখা ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার নেতা গৌরব রাজাওয়াতের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন অ্যাক্টিভিস্ট। তারা পাকিস্তানবিরোধী স্লোগান দিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ আনে। বিজেপি যুব মোর্চার নেতাদের দায়ের করা মামলার ভিত্তিতেই কাশ্মিরি শিক্ষার্থীদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

ভারতে বিক্ষোভস্থলে ৩ নারীকে পিষে দিলো ট্রাক

ভারতে বিক্ষোভস্থলে ৩ নারীকে পিষে দিলো ট্রাক

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

বিমার অর্থ হাতিয়ে নিতে নিজেকেই মৃত দেখালেন তিনি

বিমার অর্থ হাতিয়ে নিতে নিজেকেই মৃত দেখালেন তিনি

বনাঞ্চলকেই কার্বন নিঃসরণকারী বানিয়ে ফেলেছে মানুষ: জরিপ

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩:০৪

বিশ্বের সবচেয়ে সংরক্ষিত ১০টি বনাঞ্চল কার্বন নিঃসরণের উৎস হয়ে উঠেছে। এসব বনাঞ্চলে মানুষের কর্মকাণ্ড এবং জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্য ঘোষিত বনাঞ্চলের কার্বন শোষণ পরিস্থিতি নিয়ে পরিচালিত এক জরিপে উঠে এসেছে এই তথ্য।

ওই জরিপে দেখা গেছে, ১০টি সংরক্ষিত বনাঞ্চল গত ২০ বছরে যে পরিমাণ কার্বণ শোষণ করেছে তার চেয়ে বেশি নিঃসরণ করেছে। বিশ্ব ঐতিহ্য ঘোষিত এসব বনাঞ্চলের আকার জার্মানির আয়তনের দ্বিগুণ।

ওই একই জরিপে দেখা গেছে বিশ্বজুড়ে ২৫৭টি বিশ্ব ঐতিহ্যের বনাঞ্চল প্রতিবছর বায়ুমণ্ডল থেকে ১৯ কোটি টন কার্বন শোষণ করছে। এটি যুক্তরাজ্য প্রতিবছর  জীবাশ্ম জ্বালানি থেকে যে পরিমাণ কার্বন নিঃসরণ করে প্রায় তার সমান,’ বলেন ড. টেলস কারবালহো রেসেন্ডে। ইউনেস্কোর এই কর্মকর্তা জরিপ প্রতিবেদনটির অন্যতম লেখক।

স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া তথ্য এবং স্থানীয় পর্যায়ের পর্যবেক্ষণ তথ্য বিশ্লেষণ করে গবেষকেরা ২০০১ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত বিশ্ব ঐতিহ্যের বনাঞ্চলের কার্বণ শোষণ ও নিঃসরণের তথ্য খতিয়ে দেখেছেন।

গবেষণায় দেখা গেছে, বিশ্ব ঐতিহ্যের বনাঞ্চল নিবিড় এবং ক্রমাগতভাবে পর্যবেক্ষণে থাকে। তারপরও এগুলো মারাত্মক চাপে রয়েছে। ড. টেলস কারবালহো রেসেন্ডে বলেন, ‘মূল চাপ হলো কৃষি জমির সম্প্রসারণ, অবৈধ কাঠ সংগ্রহসহ মানুষের সৃষ্টি করা চাপ। তবে জলবায়ু সংশ্লিষ্ট হুমকিও পাওয়া গেছে- যা মূলত দাবানল।’

/জেজে/

সম্পর্কিত

শুধু সম্মেলন নয়, আমাদের প্রয়োজন জনগণের চাপ: গ্রেটা থুনবার্গ

শুধু সম্মেলন নয়, আমাদের প্রয়োজন জনগণের চাপ: গ্রেটা থুনবার্গ

নথি ফাঁস, জলবায়ু প্রতিবেদন বদলাতে চলছে লবিং

নথি ফাঁস, জলবায়ু প্রতিবেদন বদলাতে চলছে লবিং

সশরীরে জলবায়ু সম্মেলনে থাকছেন না চীনা প্রেসিডেন্ট

সশরীরে জলবায়ু সম্মেলনে থাকছেন না চীনা প্রেসিডেন্ট

চাপে পড়ে জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

চাপে পড়ে জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

করোনা রোগীর ‘অস্বাভাবিক’ বৃদ্ধি তদন্ত করবে সিঙ্গাপুর

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৯

সিঙ্গাপুরে বুধবার নতুন করে ৫ হাজার ৩২৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। মহামারি শুরুর পর এটাই একদিনে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত। এই বৃদ্ধিকে অস্বাভাবিক মনে করে এর কারণ খতিয়ে দেখার কথা জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

বুধবার সিঙ্গাপুরে নতুন ১০ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৪৯ জনে।

বুধবার রাতে সিঙ্গাপুরের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আজ সংক্রমণের সংখ্যা অস্বাভাবিক বেশি, এর বেশিরভাগই বিকেলে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পরীক্ষাগারে শনাক্ত হয়েছে।’ এর কারণ অনুসন্ধান করা হবে জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয় আগামী কয়েক দিন ধরে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হবে।

বুধবার পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে মোট ২০ হাজার ৮৯৫ জন রোগী কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

কিছু বিধিনিষেধ শিথিলের পর সম্প্রতি সংক্রমণ বাড়ায় সিঙ্গাপুর আবারও সবকিছু খুলে দেওয়া স্থগিত করেছে। সিঙ্গাপুরের ৮০ শতাংশের বেশি জনগোষ্ঠী টিকা নিয়ে ফেলেছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

চীনের হুমকি প্রতিদিনই বাড়ছে: তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

চীনের হুমকি প্রতিদিনই বাড়ছে: তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

ইউক্রেনে তুরস্কের ড্রোন সরবরাহে উদ্বেগ রাশিয়ার

নতুন আকাশচুম্বী ভবন নিয়ন্ত্রণ করবে চীন

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৫

অপেক্ষাকৃত ছোট শহরগুলোতে আকাশচুম্বী ভবন নির্মাণ সীমিত করে দিয়েছে চীন। নতুন নিয়ম অনুযায়ী ত্রিশ লাখের কম বাসিন্দার শহরগুলো ১৫০ মিটারের চেয়ে বেশি উঁচু ভবন তৈরি করতে পারবে না। এর চেয়ে বেশি বাসিন্দার শহরগুলো ২৫০ মিটারের উঁচু ভবন বানাতে পারবে না। চীনে ইতোমধ্যেই ৫০০ মিটারের বেশি উঁচু ভবন নির্মাণ নিষিদ্ধ।

বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু বেশ কয়েকটি ভবন চীনে অবস্থিত। এর মধ্যে রয়েছে ৬৩২ মিটারের সাংহাই টাওয়ার এবং ৫৯৯.১ মিটারের শেনজেনে অবস্থিত পিন আন ফিনান্স সেন্টার।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, সাংহাই ও শেনজেনের মতো জনাকীর্ণ শহরগুলোতে আকাশচুম্বী ভবনের দরকার থাকলেও অন্য শহরগুলোতে জায়গার অভাব নেই। মূলত আত্ম-অহমিকা প্রকাশ করতেই আকাশচুম্বী ভবন নির্মাণ করা হয়।

এ বছরের শুরুতে শেনজেন শহরে ৩৫০ মিটারের এসইজি প্লাজা দুলতে শুরু করলে শত শত মানুষ ভবনটি ছেড়ে পালিয়ে যায়।

চীন ক্রমেই ব্যয়বহুল আত্ম-অহমিকার প্রকল্পগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান জোরালো করছে। স্থানীয় ডেভেলপাররা নজরকাড়া ভবন তৈরির ঘোরে রয়েছে বলে সমালোচনা করছে বেইজিং। এ বছরের শুরুতে দেশটি ‘বিশ্রী স্থাপত্য’ নিষিদ্ধ করে।

টনজি ইউনিভার্সিটির কলেজ অব আর্কিটেকচার অ্যান্ড আরবান প্লানিংয়ের উপপ্রধান ঝাং শাংগু বলেন, ‘আমরা এমন একটি পর্যায়ে আছি যেখানে মানুষ এমন কিছু বানাতে দুর্বার ও অধীর যা ইতিহাস হয়ে যাবে।’ তিনি বলেন, ‘প্রতিটি ভবনই ল্যান্ডমার্ক হয়ে উঠতে চায় আর ডেভেলপার এবং নগর পরিকল্পনাবিদরা এই লক্ষ্য অর্জনে অভিনবত্বের চূড়ায় যেতে চায়।’

মঙ্গলবার চীনের আবাসন এবং শহর-গ্রাম উন্নয়ন মন্ত্রণালয় ও জরুরি ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ত্রিশ লাখের কম বাসিন্দার কোনও শহর যদি ১৫০ মিটারের বেশি উঁচু ভবন বানাতে চায় তাহলে বিশেষ অনুমতির প্রয়োজন হবে। তবে কোনওভাবেই ২৫০ মিটারের বেশি উঁচু ভবন বানাতে দেওয়া হবে না।

একইভাবে ত্রিশ লাখের বেশি বাসিন্দার শহর ২৫০ মিটারের বেশি উঁচু ভবন বানাতে চাইলে বিশেষ অনুমতির দরকার পড়বে। তবে কোনওভাবেই ৫০০ মিটারের উঁচু ভবন বানাতে দেওয়া হবে না।

/জেজে/

সম্পর্কিত

চীনের হুমকি প্রতিদিনই বাড়ছে: তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

চীনের হুমকি প্রতিদিনই বাড়ছে: তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের হাইপারসোনিক অস্ত্রের পরীক্ষা উদ্বেগজনক: যুক্তরাষ্ট্র

চীনের হাইপারসোনিক অস্ত্রের পরীক্ষা উদ্বেগজনক: যুক্তরাষ্ট্র

আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

ভারতে বিক্ষোভস্থলে ৩ নারীকে পিষে দিলো ট্রাক

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:০৩

ভারতের দিল্লি-হরিয়ানা সীমান্তে কৃষক বিক্ষোভস্থলের কাছে একটি ট্রাক তিন নারীকে পিষে দিয়েছে। দ্রুত গতির ট্রাকটি রোড ডিভাইডারের উপর উঠে গেলে দুই নারী ঘটনাস্থলে এবং অপর একজনকে হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যায়।

ভারতীয় সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, অটো রিকশার অপেক্ষায় রোড ডিভাইডারের উপর বসে ছিলেন ওই তিন নারী। সেই সময় ট্রাক তাদের চাপা দেয়।

পুলিশ জানিয়েছে, দুর্ঘটনার পর ট্রাক চালক পালিয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে নিহত তিন নারী পাঞ্জাবের মানসা জেলার বাসিন্দা।

দুর্ঘটনাটি ঘটেছে তিকরি সীমান্তের কাছে। সেখানে প্রায় ১১ মাস ধরে ভারতের নতুন তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে পাঞ্জাব, হরিয়ানাসহ বিভিন্ন রাজ্যের কৃষকেরা।

/জেজে/

সম্পর্কিত

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

বিমার অর্থ হাতিয়ে নিতে নিজেকেই মৃত দেখালেন তিনি

বিমার অর্থ হাতিয়ে নিতে নিজেকেই মৃত দেখালেন তিনি

নতুন দল গড়বেন অমরিন্দর সিং

নতুন দল গড়বেন অমরিন্দর সিং

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

ভারতে বিক্ষোভস্থলে ৩ নারীকে পিষে দিলো ট্রাক

ভারতে বিক্ষোভস্থলে ৩ নারীকে পিষে দিলো ট্রাক

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

চীনের নতুন সীমান্ত আইন নিয়ে ভারতের উদ্বেগ

বিমার অর্থ হাতিয়ে নিতে নিজেকেই মৃত দেখালেন তিনি

বিমার অর্থ হাতিয়ে নিতে নিজেকেই মৃত দেখালেন তিনি

নতুন দল গড়বেন অমরিন্দর সিং

নতুন দল গড়বেন অমরিন্দর সিং

ক্ষেপণাস্ত্র ইস্যুতে ভারতের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা এড়ানোর আহ্বান মার্কিন সিনেটরের

ক্ষেপণাস্ত্র ইস্যুতে ভারতের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা এড়ানোর আহ্বান মার্কিন সিনেটরের

ভারতে আতশবাজির দোকানে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ৫

ভারতে আতশবাজির দোকানে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ৫

ডব্লিউএইচও’র অনুমোদনের অপেক্ষায় কোভ্যাক্সিন নেওয়া ভারতীয়রা

ডব্লিউএইচও’র অনুমোদনের অপেক্ষায় কোভ্যাক্সিন নেওয়া ভারতীয়রা

‘ফেক নিউজ’ ভারতে বেশি

‘ফেক নিউজ’ ভারতে বেশি

সর্বশেষ

কুমিল্লার ঘটনায় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

কুমিল্লার ঘটনায় ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

‘পাকিস্তানের বিজয় উদযাপন রাষ্ট্রদ্রোহিতা’

স্কুল শিক্ষার্থীদের ১ নভেম্বর থেকে টিকা দেওয়া শুরু: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্কুল শিক্ষার্থীদের ১ নভেম্বর থেকে টিকা দেওয়া শুরু: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

খুলনায় হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

খুলনায় হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

আবারও এক নম্বর সাকিব

আবারও এক নম্বর সাকিব

© 2021 Bangla Tribune