X
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

রাস্তায় চলাচলে ডিএমপির পরামর্শ

আপডেট : ১৬ মে ২০২১, ২১:১৪

লকডাউনের মধ্যে জরুরি কারণে বা বিভিন্ন জরুরি প্রয়োজনে যাদের ঘর থেকে বের হতে হবে তাদের জন্য কিছু পরামর্শ দিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, রাস্তায় চলতে গিয়ে ছিনতাইয়ের কবলে পড়ছেন অনেকে। কেউ কেউ রিকশা থেকে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হচ্ছেন। কখনও যাচ্ছে মহামূল্যবান প্রাণ। তাই নিজের জীবন বাঁচাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি প্রয়োজন নিজেদের সচেতনতা। এসব কারণেই মহানগরীতে ভ্রমণকালে নিজেকে অক্ষত ও নিরাপদ রাখতে সতর্কতার সঙ্গে কিছু বিষয়ে লক্ষ্য রাখার জন্য পরামর্শ দিয়েছে ডিএমপি।

নগরবাসীর প্রতি ডিএমপির দেওয়া পরামর্শগুলো হলো:

১. রিকশায় চড়ে কোথাও যাওয়ার সময় কোলে ব্যাগ রাখবেন না। মোটরসাইকেল কিংবা গাড়িতে ছিনতাইকারী এসে হ্যাঁচকা টান দিতে পারে। এতে করে আপনি রিকশা থেকে পড়ে গিয়ে শারীরিকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হতে পারেন। ব্যাগ থাকলে তা দুই যাত্রীর মধ্যখানে রাখবেন, যাত্রী একা থাকলে নিরাপদভাবে ব্যাগ রাখবেন। রিকশায় যাতায়াতের সময় হুড তুলে রাখবেন।

২. অনুমোদিত রাইড শেয়ারিংয়ের যানবাহনে যাতায়াত করুন। অনুমোদনবিহীন যানবাহনে যাতায়াত পরিহার করুন।

৩. মাইক্রোবাস কিংবা প্রাইভেট কারে অচেনা ও অপরিচিত ব্যক্তিদের সঙ্গে চলাচল থেকে বিরত থাকুন। সম্ভব হলে কোনও গাড়িতে উঠার আগে গাড়ির নাম্বার টুকে রাখুন এবং কাছের কাউকে সেই নাম্বার মেসেজ করে রাখুন।

৪. নির্জন রাস্তা বা গলিপথ দিয়ে একা চলাচল থেকে বিরত থাকুন। বিশেষ করে খুব ভোরে রাস্তায় চলাচল করা থেকে এড়িয়ে চলুন। বিশেষ প্রয়োজনে সতর্কতা অবলম্বন করে কাউকে সঙ্গে নিয়ে যাতায়াত করুন।

৫. রাতে আলোকিত পথে চলাচলের চেষ্টা করুন । অন্ধকারাচ্ছন্ন পথ থেকে আলোকিত পথ অধিকতর নিরাপদ ।

৬. শহরে চলাচলের সময়ে যানবাহনে উঠলে প্যান্টের পিছনের পকেটে ওয়ালেট বা মোবাইল ফোন রাখা নিরাপদ নয়। প্রয়োজনে ওয়ালেটটি সামনের পকেটে রাখুন। মোবাইলটি হাতে রাখতে পারেন। তাহলে ছিনতাইকারীরা সহজে ছিনিয়ে নিতে পারবে না।

৭. থানার মোবাইল নম্বর সর্বদা নিজের মোবাইল ফোনে এবং মানিব্যাগে সংরক্ষণ করুন যেন প্রয়োজনে দ্রুত পুলিশের সাহায্য পেতে পারেন ।

৮. থানার মোবাইল নম্বর না থাকলে ৯৯৯ জরুরি সেবায় ফোন করে প্রয়োজনীয় পুলিশ সেবা নিন।

ডিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) ইফতেখায়রুল ইসলাম জানান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতার পাশাপাশি প্রত্যেক নাগরিকের নিজের সচেতনতাই পারে যে কাউকে আসন্ন বিপদের হাত থেকে বাঁচাতে। মহানগরীকে নিরাপদ রাখতে ডিএমপি সবসময় নাগরিকদের পাশেই রয়েছে বলে জানান তিনি।

/এনএল/এমআর/

সম্পর্কিত

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ 

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:১০

দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৫ কোটি ৪৫ লাখ ৮৫ হাজার ৮০ ডোজ। এর মধ্যে ৩ কোটি ৯৬ লাখ ৫১ হাজার ৫৬৯ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই মুহূর্তে ১ কোটি ৪৯ লাখ ৩৩ হাজার ৫১১ ডোজ টিকা মজুত আছে। এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২ কোটি ৩৮ লাখ ৭০ হাজার ৩১৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৫৭ লাখ ৮১ হাজার ২৫২ জন। আর আজ দুই ডোজ মিলিয়ে দেওয়া হয়েছে ৬ লাখ ১৯ হাজার ৬৭৩ ডোজ টিকা।

এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্য মতে, আজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৫৬ হাজার ৩২২ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৮৯৬ জনকে। 

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১০ হাজার ৯৫৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৬৪৭ জনকে।

এছাড়া সিনোফার্মের টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ৮৮ হাজার ২৭৩ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২ লাখ ৫১ হাজার ৫৯৪ জন।  

মডার্নার টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১ হাজার ৪০৪ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৯ হাজার ৫৮১ জনকে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৪ কোটি ৩৭ লাখ ২৫ হাজার ৪৩৪ জন।

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

৫ দিনের মধ্যে বড় পরিসরে টিকাদান কর্মসূচি

৫ দিনের মধ্যে বড় পরিসরে টিকাদান কর্মসূচি

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

করোনায় মৃত ২৪ জনের ১৪ জন নারী

করোনায় মৃত ২৪ জনের ১৪ জন নারী

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

১৪ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:০৯

মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের ২০২১ সালের দাখিল পরীক্ষার সময়-সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে সারাদেশে একযোগে এই পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষার সময়-সূচি প্রকাশ করে।

পরীক্ষার সূচি

আগামী ১৪ নভেম্বর রবিবার থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত দেড় ঘণ্টার এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রথম দিন কুরআন মাজিদ ও তাজভিদ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত। পদার্থবিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে একই দিন একই সময়।

হাদিস শরিফ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৮ নভেম্বর। ইসলামের ইতিহাস ও রসায়ন (তত্ত্বীয়), তাজভিদ নসর ও নজম (মুজাব্বিদ গ্রুপ) এবং তাজভিদ (হিলফুল কুরআন) গ্রুপ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২১ নভেম্বর রবিবার।

পরীক্ষার বিশেষ নির্দেশনায় বলা হয়, কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনিুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে অবশ্যই পরীক্ষা কক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষার সময় এক ঘণ্টা ৩০ মিনিট।

এমসিকিউ ও সিকিউ পরীক্ষার মধ্যে কোনও বিরতি থাকবে না। সকাল ১০টা থেকে অনুষ্ঠেয় পরীক্ষার ক্ষেত্রে সকাল সাড়ে ৯টায় অলিখিত উত্তরপত্র ও বহুনির্বাচনি (ওএমআর) শিট বিতরণ করা হবে। সকাল ১০টা থেকে বহুনির্বাচনি প্রশ্নপত্র বিতরণ। সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে বহু নির্বাচনি উত্তরপত্র সংগ্রহ ও সৃজনশীল প্রশ্নপত্র বিতরণ। সকাল ১০টা থেকে পরীক্ষা শুরু।

প্রসঙ্গত, করোনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে এবার একজন শিক্ষার্থীকে নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হবে। আবশ্যিক পরীক্ষা এ বছর হবে না। সূচিতে প্রকাশিত বিষয়গুলোর মধ্যে যার যে নৈর্বাচনিক বিষয় রয়েছে, সে সেই বিষয়ের পরীক্ষা দেবে। তবে একজনকে নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ের পরীক্ষা দিতে হবে।

  

/এসএমএ/এপিএইচ/   

সম্পর্কিত

সরকারি কর্মচারীদের প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্য হচ্ছে দিবাযত্ন কেন্দ্র

সরকারি কর্মচারীদের প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্য হচ্ছে দিবাযত্ন কেন্দ্র

‘সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে’

‘সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে’

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

অনলাইনে কারিগরির অ্যাডভান্সড কোর্সে নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

অনলাইনে কারিগরির অ্যাডভান্সড কোর্সে নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

সরকারি কর্মচারীদের প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্য হচ্ছে দিবাযত্ন কেন্দ্র

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৮

রাজধানীসহ সারাদেশে দিবাযত্ন কেন্দ্র স্থাপনের লক্ষ্যে সরকারি চাকরিজীবীদের বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (প্রতিবন্ধী) সন্তানদের নিয়ে জরিপ করছে সরকার। প্রাথমিক পর্যায়ে রাজধানী ঢাকায় একটি দিবাযত্ন কেন্দ্র স্থাপন করতে ভবন ভাড়া করারও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। 

জানতে চাইলে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের পরিচালক (প্রশাসন) এ কে এম ফজলুজ্জোহা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে রাজধানী ঢাকায় একটি দিবাযত্ন কেন্দ্র স্থাপন করে পাইলটিং করা হবে। এ জন্য ভবন ভাড়া নেওয়ার বিজ্ঞপ্তিও দেওয়া হয়েছে। পাইলটিং শেষ হলে সারাদেশেই দিবাযত্ন কেন্দ্র স্থাপন করা সম্ভব হবে।’

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ১৭ জানুয়ারি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই সময় তিনি সরকারি কর্মচারীদের বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (প্রতিবন্ধী) সন্তানদের পুনর্বাসনের জন্য একটি সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব উপস্থাপনের নির্দেশ দেন।

প্রধানমন্ত্রীর ওই নির্দেশেনার পর ঢাকা মহানগরে কর্মরত, অবসরপ্রাপ্ত সকল সরকারি কর্মচারীর বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন সন্তানদের কিংবা তাদের ওপর নির্ভরশীলদের জন্য একটি জরিপ কার্যক্রম পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে এসব সন্তানের জন্য ঢাকা মহানগরে একটি দিবাযত্ন কেন্দ্র স্থাপন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর তথ্য সংগ্রহ করার উদ্যোগ নেয় সরকারি কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড।  গত ১৪ সেপ্টেম্বর একটি নির্দেশনা দিয়ে জরিপ ফরম বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে সংশ্লিষ্ট কর্মচারীদের ফরম পূরণের নির্দেশনা দেওয়া হয়। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে [email protected] ই-মেইলে সরাসরি তথ্য পাঠাতে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে অনুরোধ জানান সরকারি কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক (সচিব) ড. নাহিদ রশীদ।

তথ্য সংগ্রহ ফরমে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (প্রতিবন্ধী) ব্যক্তির নাম, মায়ের নাম, অথবা বৈধ অভিভাবকের নাম, পিতার নাম অথবা বৈধ অভিভাবকের নাম, পিতা বা মায়ের কর্মস্থলের পদবি ও ঠিকানা উল্লেখ করতে হবে।

বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (প্রতিবন্ধী) ব্যক্তির বর্তমান ও  স্থায়ী ঠিকানা, জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর (যদি থাকে), জন্মনিবন্ধন সনদ নম্বর, জন্ম তারিখ (খ্রিস্টব্দে), ২০২১ সালের ১ অক্টোবর তার বয়স কত, কোন লিঙ্গ, কোন ধর্ম তা উল্লেখ করার কথা বলা হয়েছে ফরমে।

এছাড়া অটিজম বা অটিজম স্পেকট্রাম ডিজঅর্ডারস বৈশিষ্ট্য, সেরিব্রাল পালসিজনিত প্রতিবন্ধী মাঝারি নাকি বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন, তার (প্রতিবন্ধী) ধরণ উল্লেখ করতে হবে। বিশেষ চাহিদা সম্পন্নতার (প্রতিবন্ধী) মাত্রা এবং কোন কোন ধরনের সহায়তা প্রয়োজন,  তা উল্লেখ করতে বলা হয়েছে।

ক্র্যাচ, শ্রবণযন্ত্র, সাদাছড়ি, ওয়াকার, আতশীকাঁচ, হুইল চেয়ার, বিশেষ জুতা, মানসিক অসুস্থতাজনিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী, ডাউন সিনড্রোমজনিত প্রতিবন্ধী, বহুমাত্রিক প্রতিবন্ধী কিনা, তারও তথ্য জানাতে হবে।

এছাড়া পিতামাতার ফোন নম্বর, ই-মেইল আইডি, মোবাইল নম্বর উল্লেখ করতে হবে নির্ধারিত ফরমে।

এর আগে দেশের বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (প্রতিবন্ধী) সকল ব্যক্তির সেবা ও শিক্ষা উন্নয়নে জরিপসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয় সরকার। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (প্রতিবন্ধী) ব্যক্তিদের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে। তবে সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য এবার আলাদা করে দিবাযত্ন কেন্দ্র স্থাপন করার উদ্যোগ নেওয়া  হলো।

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

‘সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে’

‘সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে’

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

রাজারবাগ দরবারের বিরুদ্ধে দুদক, সিটিটিসি ও সিআইডিকে তদন্তের নির্দেশ বহাল

রাজারবাগ দরবারের বিরুদ্ধে দুদক, সিটিটিসি ও সিআইডিকে তদন্তের নির্দেশ বহাল

রোহিঙ্গাদের জন্য ১৮ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের

রোহিঙ্গাদের জন্য ১৮ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের

নেদারল্যান্ডস ভ্রমণের শর্ত শিথিল

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:২৬

সম্পূর্ণভাবে টিকা গ্রহণকারী ভ্রমণকারীদের নেদারল্যান্ডসে আসার পর তাদের আর হোম কোয়ারেন্টিন করার প্রয়োজন পড়বে না। বাংলাদেশ থেকে নেদারল্যান্ডস ভ্রমণকারীদের জন্য এমন নির্দেশনা দিয়েছে ওই দেশের সরকার।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) নেদারল্যান্ডসে বাংলাদেশ দূতাবাসের ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানানো হয়।

সেখানে আরও বলা হয়, ‘কিন্তু, ভ্রমণকারীদের বাংলাদেশ থেকে যাত্রা শুরু করার পূর্বে অবশ্যই করোনা পরীক্ষা করাতে হবে (সম্পূর্ণভাবে টিকা গ্রহণ করা সত্ত্বেও)। তবে যারা টিকা গ্রহণ করেননি বা আংশিক গ্রহণ করেছেন, তাদের অবশ্যই কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।’

 

 

 

/এসএসজেড/আইএ/

সম্পর্কিত

অনলাইনে কারিগরির অ্যাডভান্সড কোর্সে নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

অনলাইনে কারিগরির অ্যাডভান্সড কোর্সে নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে টিউশন-ফি মওকুফের দাবি

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে টিউশন-ফি মওকুফের দাবি

অর্থমন্ত্রীর মন্তব্যের জবাব দিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রীর মন্তব্যের জবাব দিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী

সাবলেট বাসা থেকে নারীর লাশ উদ্ধার, পাওয়া যাচ্ছে না স্বামীকে

সাবলেট বাসা থেকে নারীর লাশ উদ্ধার, পাওয়া যাচ্ছে না স্বামীকে

৫ দিনের মধ্যে বড় পরিসরে টিকাদান কর্মসূচি

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১৯

আগামী চার থেকে পাঁচদিনের মধ্যে বড় পরিসরে টিকাদান কর্মসূচি পরিচালনা করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। ১ কোটির বেশি মানুষকে এসময়ে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন, ডিজিটাল মনিটরিং সিস্টেম উদ্বোধন ও পুষ্টির অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ ‑ জাতীয় পুষ্টি পরিষদ বিষয়ক প্রচারণা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ইতোমধ্যেই পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানিয়েছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মাধ্যমে কোভ্যাক্স সুবিধার আওতায় ফাইজার বায়োএনটেকের আরও ৭১ লাখ ডোজ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ।

আজ জাহিদ মালেকও বলেন, আমরা কোভ্যাক্স থেকে টিকা পাচ্ছি। এর মধ্যে বিভিন্ন টিকা পেয়েছি। ফাইজারের ৬০ লাখ ডোজের মধ্যে ইতোমধ্যে ১০ লাখ বাংলাদেশকে দেওয়া হয়েছে। ৬০ লাখের বাইরে ফাইজারের আরও ৭১ লাখ ডোজ টিকা পাব, এমন আশ্বাস পেয়েছি।

এর আগে, গত ১৯ সেপ্টেম্বর স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমও টিকাদান কর্মসূচি বড় পরিসরে হতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন।

সেদিন তিনি বলেন, ‘আমাদের হাতে পর্যাপ্ত টিকা মজুত রয়েছে। ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় টিকা পাওয়ার উৎস নিশ্চিত করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রতি মাসে ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে এক কোটিসহ প্রায় দুই কোটির মতো টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আর এ জন্য মাঠ পর্যায়ের টিকাদান কর্মসূচি আরও কীভাবে বাড়ানো যায় বা সম্প্রসারণ করা যায়, সে বিষয়ে সচেষ্ট রয়েছি।’

/জেএ/এমএস/

সম্পর্কিত

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

অনূর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী ডেঙ্গু রোগীই প্রায় ২৫ শতাংশ

করোনায় মৃত ২৪ জনের ১৪ জন নারী

করোনায় মৃত ২৪ জনের ১৪ জন নারী

বিমানবন্দরে ল্যাবের অবকাঠামোর কাজ শেষ হবে আজ

বিমানবন্দরে ল্যাবের অবকাঠামোর কাজ শেষ হবে আজ

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

আইনজীবী তালিকাভুক্তির চূড়ান্ত ফল ২৫ সেপ্টেম্বর

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভানার পাশে কেউ ছিল না

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

ইভ্যালির রাসেলের রিমান্ড ও জামিন শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতির নাম চেয়ে চিঠি

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

ইভ্যালির রাসেলকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

মাদক মামলায় হাইকোর্টে জামিন পেলেন মৌ 

মাদক মামলায় হাইকোর্টে জামিন পেলেন মৌ 

আরেক মামলায় রাসেলের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

আরেক মামলায় রাসেলের ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

স্বাস্থ্যের সেই ড্রাইভার মালেকের স্ত্রী কারাগারে

স্বাস্থ্যের সেই ড্রাইভার মালেকের স্ত্রী কারাগারে

রিমান্ড শেষে আদালতে রাসেল

রিমান্ড শেষে আদালতে রাসেল

কিশোর গ্যাং আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে চ্যালেঞ্জ তৈরি করেছে:  আইজিপি

কিশোর গ্যাং আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে চ্যালেঞ্জ তৈরি করেছে:  আইজিপি

সর্বশেষ

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ 

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ 

উপজেলা চেয়ারম্যানকে বরখাস্তের আদেশ অবৈধ ঘোষণা

উপজেলা চেয়ারম্যানকে বরখাস্তের আদেশ অবৈধ ঘোষণা

১৪ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু

১৪ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু

পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, গণপিটুনিতে নিহত

পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, গণপিটুনিতে নিহত

বাংলাদেশ দলের জার্সি পরেও আবেগাক্রান্ত নন কিংসলে!

বাংলাদেশ দলের জার্সি পরেও আবেগাক্রান্ত নন কিংসলে!

© 2021 Bangla Tribune