X
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

প্রাথমিক তদন্তে কোয়ারেন্টিনে তরুণী ধর্ষণের সত্যতা মিলেছে

আপডেট : ১৮ মে ২০২১, ১১:১২

পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে খুলনায় কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারতফেরত তরুণীকে ধর্ষণের সত্যতা মিলেছে। প্রথম রাতে মুখ চেপে ঘুমন্ত তরুণীকে ধর্ষণের পরদিন রাতে আবারও ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়। এ রাতে তরুণী চিৎকার করলে ঘটনা পুলিশের নজরে আসে।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার মো. জাহাঙ্গীর আলম এক প্রেস বার্তায় এ তথ্য জানান।

কেএমপির মিডিয়া সেল থেকে প্রেরিত বার্তায় জানানো হয়, গত ১৩ মে দিনগত রাতে প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই) এর মহিলা হোস্টেলে ভারতফেরত তরুণীকে এএসআই মোকলেছুর রহমান মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। এরপর ১৫ মে দিনগত রাতে আসামি আবার ভিকটিমের রুমে এসে মেলামেশা করতে চায়। এ সময় ভিকটিম চিৎকার করে। এরপর বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। পরে অনুসন্ধানকালে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পরিলক্ষিত হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আবু সাঈদ বলেন, ‘এএসআই মোকলেছকে আদালতে হাজির করা হলে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তরিকুল ইসলাম তাকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। অভিযুক্ত মোখলেছুর কেএমপির কোর্ট সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি খুলনার প্রাইমারি টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের (পিটিআই) প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন সেন্টারে গত ১ মে থেকে দায়িত্ব পালন করছিলেন। অভিযুক্ত মোকলেছুর রহমান (৪৪) যশোর সদরের দৌলদিহি এলাকার মৃত মো. সেকেন্দার আলীর ছেলে।

এদিকে প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের (পিটিআই) তত্ত্বাবধায়ক ফেরদৌসী বেগম বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছুই জানি না। কোয়ারেন্টিনের জন্য প্রশাসনকে জায়গা দেওয়া হয়েছে। নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে পুলিশ। সেখানে আমার কোনও দেখাশুনা নেই।’

/আইএ/

সম্পর্কিত

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

সর্বশেষ

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

মাদকাসক্তদের ৮০ ভাগই কিশোর

মাদকাসক্তদের ৮০ ভাগই কিশোর

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

বলিউড তারকাদের ডাকনামগুলো শুনেছেন?

বলিউড তারকাদের ডাকনামগুলো শুনেছেন?

মুলতান পিএসএলের ‘সুলতান’

মুলতান পিএসএলের ‘সুলতান’

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

মনপুরায় জাতীয় গ্রিড থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহের দাবি

মনপুরায় জাতীয় গ্রিড থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহের দাবি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

রাজশাহী মেডিক্যালে একদিনে আরও ১৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে একদিনে আরও ১৪ মৃত্যু

© 2021 Bangla Tribune