X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

এই সরকারের আমলে কেউ না খে‌য়ে মরবে না: বীর বাহাদুর

আপডেট : ২০ মে ২০২১, ১৬:৪৬

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অক্লান্ত পরিশ্রমে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণাল‌য়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উ‌শৈ‌সিং এম‌পি। তিনি ব‌লে‌ন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে কেউ না খে‌য়ে মরেনি। আগামীতেও দে‌শের মানুষ না খে‌য়ে মরবে না।’

বৃহস্প‌তিবার (২০ মে) সকা‌লে বান্দরবানের রোয়াংছড়ির তারাছা ইউনিয়নের তালুকদার পাড়ায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মা‌ঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করার সময় মন্ত্রী একথা ব‌লেন।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন, ‘বর্তমান সরকারর প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অক্লান্ত পরিশ্রসে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, আর গরিব মেহনতি মানুষ স্বাচ্ছ‌ন্দ্যে তাদের জীবন জীবিকা নির্বাহ করছে। ঝড় তুফান আর বন্যার মতো মহামারি  এলে মানুষের কষ্ট হয়, তবুও তারা ঘুরে দাঁড়া‌তে পা‌রে।’

তিনি বলেন, ‘বাড়িতে আগুন লাগলে মানুষের জীবনে কিছুই থাকে না, তাই আমাদের আগুন নিয়ন্ত্র‌ণের জন্য পূর্ব প্রস্তু‌তি রাখা দরকার।’ এ সময় তি‌নি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণাল‌য়ের পাশাপাশি পার্বত্য জেলা পরিষদ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনগুলোকে এই দুঃসময়ে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

এ সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থে‌কে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৭০টি পরিবারকে পরিবারপ্রতি নগদ ২৫ হাজার টাকা ও ৫০ কেজি করে চাল দেওয়া হয়। জেলা দুর্যোগ ও ত্রাণ শাখার পক্ষ থে‌কে প্রতিটি পরিবারকে ২ বান্ডিল টিন, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্যদের পক্ষ থে‌কে একটি করে বালতি, পানির জগসহ বিভিন্ন সমাজসেবার পক্ষ থে‌কে গৃহস্থালিসামগ্রী প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজা সরোয়ার, রোয়াংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল জাবেদ, রোয়াংছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান চহাইমং মারমা, জেলা দুর্যোগ ও ত্রাণ কর্মকর্তা মো. নুরুল ইসলাম, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষ্মীপদ দাশ, সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, সদস্য কাঞ্চনজয় তঞ্চঙ্গ্যা, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি, বান্দরবান ইউনিটের সেক্রেটারি অমল কা‌ন্তি দাশ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বো‌র্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মোহাম্মদ ইয়াছির আরাফাতসহ সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তা ও অগিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্য এবং পাড়াবাসীরা উপস্থিত ছিলেন।

গত ১৭ মে রাত ১টায় ভয়াবহ আগুনে বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার তারাছা ইউনিয়নের তালুকদার পাড়ায় ৭০টি বসতবাড়ি পুড়ে যায় এবং এতে সব হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে জীবনযাপন করছে অসংখ্য মানুষ।

/আইএ/

সম্পর্কিত

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ  

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ  

কাপড়ের ঘোষণায় এলো ৭ কোটি টাকার সিগারেট 

কাপড়ের ঘোষণায় এলো ৭ কোটি টাকার সিগারেট 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:১১

দুই টেস্ট ও ১০টি ওয়ানডে ম্যাচসহ প্রিমিয়ার লীগের অসংখ্য খেলা গড়িয়েছে যে মাঠে সেটি এখন পড়ে আছে নিতান্ত অবহেলায়। অনেকটাই পরিত্যক্ত অবস্থায় গত ছয় বছর ধরে পানির নিচে তলিয়ে আছে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের মাঠ। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের মালিকানাধীন আর্ন্তজাতিক মানের এ মাঠটির সংস্কারে কোনও উদ্যোগ নেই বলে অভিযোগ খেলোয়াড় ও সংগঠকদের। তাদের মতে অযত্ন-অবহেলার এক অনন্য নিদর্শন খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে দ্রুতই মাঠের সংস্কার করে খেলার উপযোগী করতে কাজ চলছে।  

সংশ্লিষ্টরা জানান, ২০০০ সালের ১০ সেপ্টেম্বর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম উদ্বোধন করেন। ২০০৬ সালে বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ম্যাচ দিয়ে আর্ন্তজাতিক ভেনু হিসেবে যাত্রা শুরু করে স্টেডিয়ামটি। দুই টেস্ট এবং ১০টি ওয়ানডেসহ প্রিমিয়ারলীগের অসংখ্য ম্যাচে রঙ ছড়িয়েছেন ক্রিকেটাররা। সর্বশেষ ২০১৫ সালে বাংলাদেশ ও ওয়েস্টইন্ডিজ টেস্ট ম্যাচের পর আর কোনও আর্ন্তজাতিক ম্যাচ মাঠটিতে গড়ায়নি। 

আউটার স্টেডিয়ামে জলাবদ্ধতা সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় আউটার স্টেডিয়াম থেকে শুরু করে মূল স্টেডিয়াম ভরা থৈ থৈ পানি আর কচুরিপানা। মাঠটি ডিএনডি প্রজেক্টের ভেতের থাকায় এবং ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে অনেক নিচু হওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায়। পাশের আউটার স্টেডিয়াম বর্তমানের হাটু পানির নিচে তলিয়ে আছে। কচুরিপানা আর কালো নোংরা পানিতে সৃষ্ট উৎকট দুর্গন্ধে টেকা দায়। আউটার স্টেডিয়ামের জলাবদ্ধতার আটকে থাকা পানি চুইয়ে মূল স্টেডিয়ামের ভেতের ঢুকে পড়ায় মাঠ পানির নিচে রয়েছে। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে পানির নিচে থাকায় এবং সংস্কার না হওয়ায় মাঠে জন্মেছে বড় বড় ঘাস। 

স্টেডিয়ামের দর্শক চেয়ারগুলো এখন বিবর্ণ ও নষ্ট হওয়ার পথে ২৫ হাজার দর্শকের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন গ্যালারিতে বসার চেয়ার, ইলেকট্রনিক স্কোরবোর্ড, ভিআইপি গ্যালারি, সাংবাদিকদের বসার স্থান (প্রেস বক্স) ক্রিকেটারদের ড্রেসিং ও ওয়েটিংরুমসহ বাথরুম সবই এখন ব্যবহারের অনুপযোগী হওয়ার পথে। হঠাৎ করে মূল রাস্তা থেকে দেখলে আর্স্তজাতিক স্টেডিয়াম না ভেবে বড় ধরনের জলাশয় ভেবে বসতে পারেন যে কেউ। 

স্টেডিয়ামের মূল মাঠে যেন ঘাসের চাষ করা হয়েছে স্থানীয় ক্রিকেটার মোহাম্মদ আহমেদ হোসেন বলেন, নারায়ণগঞ্জ থেকে ফুটবল ও ক্রিকেটের অনেক খেলোয়াড় জাতীয় পর্যায়ে খেলে সুমান অর্জন করেছেন। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য নারায়ণগঞ্জে একটি আর্ন্তজাতিক মানের স্টেডিয়াম থাকার পরেও শুধু সংস্কারের অভাবে আমরা পিছিয়ে পড়ছি। এই স্টেডিয়ামের আর্ন্তজাতিক মানের খেলা অনুষ্ঠিত হলে, অনেকেই উৎসাহ পেতো। স্থানয়িভাবে আরও খেলোয়াড় তৈরি হতো। 

তিনি আক্ষেপ নিয়ে আরও বলেন, দীর্ঘ ছয় বছর ধরে মাঠটি পানির নিচে, আউটার স্টেডিয়াম পানির নিচে থাকায় আমরা খেলাধুলা এবং প্র্যাকটিস পর্যন্ত করতে পারছি না। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যেন কোনও মাথাব্যথা নেই। 

মূল মাঠে পানি জমে থাকায় জন্মেছে বড় বড় ঘাস সাবেক ক্রিকেটার আল মামুন বলেন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ শুধু নতুন স্টেডিয়াম বানানোর প্রকল্প নিয়ে ব্যস্ত। কিন্তু এই স্টেডিয়ামটি সংস্কার করলে যে টাকা খরচ হবে, নতুন একটি স্টেডিয়াম তৈরি করলে তার থেকে দশগুণ বেশি খরচ পড়বে। কিন্তু তারা নতুন স্টেডিয়াম বানাতেই বেশি আগ্রহী। যে কারণে গত ছয় বছর ধরে পানির নিচে থাকলেও নারায়ণগঞ্জের স্টেডিয়ামটির কোনও সংস্কার হচ্ছে না। 

স্থানীয় ক্রিকেটার নাহিয়ান বলেন, ফতুল্লা খান সাহেব ওসামান আলী স্টেডিয়ামের পূর্বপাশের আউটার স্টেডিয়ামে ২০১২, ১৩ ও ১৪ সালে একাধারে প্র্যাকটিস করেছি। সে সময় আমার মতো অসংখ্য ছেলে সেখানে প্র্যাকটিস করেছে। কিন্তু মাঠটি রাস্তা থেকে নিচু হওয়ায় এবং সামান্য বৃষ্টি হলে পানি জমে  জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে। পানি নিষ্কাশনের কোনও ব্যবস্থা নেই। যে কারণে মাঠটি দীর্ঘদিন ধরেই পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে। 

তিনি আরও বলেন, একটি মাঠের অভাবে আমাদের খেলাধুলা ও প্র্যাকটিস ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, ঝরে পড়ছে উঠতি বয়সের খেলোয়াড়রা।


নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ টিটু বলেন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ চাইলে আগামী সাত দিনের মধ্যে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজ শুরু করে দিতে পারে। একজন খেলোয়াড় বা সংগঠক হিসেবে স্টেডিয়ামের দ্রুত সংস্কার শুরু করার দাবি জানাচ্ছি। 
তিনি আরও বলেন, এই মাঠে যদি একটি আর্ন্তজাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয় তবে বাংলাদেশের সব মানুষ কিন্তু নিজের দেশে খেলা হচ্ছে বলেই খেলা দেখবে। এই জন্য বলছি এটি নারায়ণগঞ্জবাসীর নয়, দেশের সম্পদ।

তবে স্টেডিয়াম সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে। সেখানে জলাবদ্ধতার পানি আটকে থাকে। স্টেডিয়ামের প্রকৃত মালিক হচ্ছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। পরিষদ ক্রিকেট বোর্ডকে মাঠটি ব্যবহারের জন্য দিয়েছিল। স্টেডিয়ামের সংস্কারের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ যৌথভাবে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মাধ্যমে একটি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। ইতোমধ্যে ফিজিবিলিটি স্টাডি হয়েছে। শুনেছি খুব দ্রুতই সংস্কার কাজ শুরু হবে। এটি ভেঙে নতুন করে উঁচু করে স্টেডিয়ামের আনুসাঙ্গিক কাজ করা হবে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক এবং সিনিয়র মাঠ ব্যবস্থাপক সৈয়দ আব্দুল বাতেন বলেন,  জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ও সিবিসি যৌথভাবে খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে। এরই মধ্যে বুয়েট ড্রয়িং ডিজাইনের কাজ শেষ করেছে। এখন বিল অব কনট্রাক্টের কাজ চলছে। বুয়েটের সমীক্ষা শেষে আগামী ২০ বা ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কত টাকা ব্যয় হবে সেই প্রস্তাবনা দেওয়া হবে। পরে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিয়ে সংস্কার কাজ শুরু করা হবে বলে জানান তিনি।

 

/টিটি/ 

সম্পর্কিত

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:২১

দিনাজপুরের সদর ও বিরলে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অভিযানে জঙ্গি সন্দেহে প্রায় ৪৫ জনকে আটক করা হয়েছে। কয়েকটি মসজিদে অভিযান চালানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজন সরকার। তবে নির্দিষ্ট কত জনকে আটক করা হয়েছে তা তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি।

কথা হলে তিনি জানান, ঢাকা থেকে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা কয়েকটি মসজিদে অভিযান চালিয়েছেন। তারা আমাদের সহযোগিতা চেয়েছিল, এই হিসেবে তাদের সহায়তার জন্য দিনাজপুর থেকে পুলিশ সদস্যদের দেওয়া হয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত (১৭ সেপ্টেম্বর) ১২টার দিকে ঢাকার কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট দিনাজপুর সদর উপজেলার মহারাজা মোড়ের পূর্ব দিকে বাইতুল ফালাহ জামে মসজিদে অভিযান চালায়। এ সময় সেখান থেকে ১২ জনকে আটক করা হয়। একইসময়ে বিরল উপজেলার বিরল বাজার জামে মসজিদে অভিযান চালিয়ে ১৭ জনকে আটক করে ইউনিটের সদস্যরা। এছাড়া উপজেলা আরও দুটি মসজিদ থেকে প্রায় ১৫ জনকে আটক করা হয়। 

দুটি উপজেলার অভিযানেই স্থানীয় পুলিশ সদস্যরা সহযোগিতা করেন। 

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, তাবলিগ জামায়াতের একটি দল দিনাজপুর সদর ও বিরল উপজেলায় বিভক্ত হয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করছে, এমন তথ্যের ভিত্তিতে রাতে দিনাজপুরে আসে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা। পরে তারা স্থানীয় পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে।

বাইতুল ফালাহ জামে মসজিদের খাদেম আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বৃহস্পতিবার ২২ জন মানুষ ঢাকা থেকে আসেন। তাদের মধ্যে ১২ জন এখানে অবস্থান করে বাকিরা অন্য মসজিদে থাকার কথা বলে চলে যান। রাতে এশার নামাজের পরে আমরা বাসায় চলে গেলে তারা এই মসজিদেই অবস্থান করছিল। পরে রাতে শুনতে পারি তাদেরকে পুলিশ ধরে নিয়ে গেছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪৩

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একদিনে আরও পাঁচ জন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টার মধ্যে তারা মারা যান। এ নিয়ে চলতি সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনে রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ১০৮ জনের মৃত্যু হলো। 

এর মধ্যে করোনায় ৩৬ জন, করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে ৬০ জন এবং করোনা নেগেটিভ সত্ত্বেও অন্যান্য শারীরিক জটিলতায় সাত জনের মৃত্যু হয়।

এর আগে গত আগস্ট মাসে রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেছেন ৩৭৪ জন। এর মধ্যে করোনায় ১৫৪ জন, করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে ১৮৬ জন এবং করোনা নেগেটিভ সত্ত্বেও অন্যান্য শারীরিক জটিলতায় ৩৪ জনের মৃত্যু হয়।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। 

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে দুই জন করোনা পজিটিভ ছিলেন। এছাড়া করোনা উপসর্গ নিয়ে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে রাজশাহীর তিন জন, নওগাঁ ও নাটোরের একজন করে রোগী মারা গেছেন।

হাসপাতালের পরিচালক আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ১৪ জন। এ নিয়ে ২৪০ বেডের বিপরীতে মোট ভর্তি রোগী আছেন ১১৩ জন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৯

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালানোর সময় স্থানীয় এলাকাবাসীর হাতে ১৮ জন রোহিঙ্গা আটক হয়েছেন। আটকদের মধ্যে ১০ জন শিশু ও ৮ জন প্রাপ্তবয়স্ক সদস্য রয়েছেন। তবে তাৎক্ষণিক পুলিশ তাদের নাম ও পরিচয় জানাতে পারেনি।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে (১৭ সেপ্টেম্বর) উপজেলার চেয়ারম্যানঘাট এলাকা থেকে তাদের আটক করে স্থানীয়রা। পরে রাত আড়াইটার দিকে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়।  

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামের পাঠানো বার্তায় জানানো হয়, ভাসানচর আশ্রয়ণ কেন্দ্র থেকে নৌকাযোগে পালানোর সময় চেয়ারম্যানঘাট এলাকায় স্থানীয় এলাকাবাসী ১৮ রোহিঙ্গাকে আটক করে। আটক রোহিঙ্গাদের চেয়ারম্যানঘাট পুলিশ ক্যাম্পে এনে রাখা হয়েছে। তিনি আরও জানান, আটকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪২

দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা শূন্যতে নেমে এলেও ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তা কমছে না। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ছয় জন মারা গেছেন। এরমধ্যে করোনায় একজন ও উপসর্গ নিয়ে পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তি ময়মনসিংহ জেলার বাসিন্দা। আর করোনা উপসর্গ নিয়ে নেত্রকোনার দুই জন এবং ময়মনসিংহ-গাজীপুর ও টাঙ্গাইলের একজন করে রোগীর মৃত্যু হয়। 

হাসপাতালের করোনা ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি আরও জানান, নতুন করে ১০ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। বর্তমানে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৯২ জন এবং আইসিইউতে ৮ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়া ২৮ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। 

এদিকে জেলা সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩২৩টি নমুনা পরীক্ষায় ২৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার শতকরা ৭.১২ শতাংশ। জেলায় করোনা শনাক্ত ব্যক্তির সংখ্যা ২১ হাজার ৬৯৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২০ হাজার ৩১২ জন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

দিনাজপুরে মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ১৭ দিনে ১০৮ মৃত্যু

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

তিন মাস পর ফের মৃত্যুহীন চট্টগ্রাম 

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ  

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ  

কাপড়ের ঘোষণায় এলো ৭ কোটি টাকার সিগারেট 

কাপড়ের ঘোষণায় এলো ৭ কোটি টাকার সিগারেট 

প্যারাসেইলিং থেকে পড়ে পর্যটক আহত

প্যারাসেইলিং থেকে পড়ে পর্যটক আহত

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

শুভ্রার ঘরে এলো নতুন অতিথি

শুভ্রার ঘরে এলো নতুন অতিথি

ফেনীর দাদনার খালের দখল-দূষণ তদন্তের নির্দেশ 

ফেনীর দাদনার খালের দখল-দূষণ তদন্তের নির্দেশ 

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

সর্বশেষ

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ছয় বছর ধরে পানিবন্দি ফতুল্লার ওসমান আলী স্টেডিয়াম 

ইভ্যালি বিক্রির পরিকল্পনা ছিল রাসেলের

ইভ্যালি বিক্রির পরিকল্পনা ছিল রাসেলের

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

জেনে-শুনেই নেতিবাচক স্ট্র্যাটেজি নিয়েছিলেন ইভ্যালির রাসেল

জেনে-শুনেই নেতিবাচক স্ট্র্যাটেজি নিয়েছিলেন ইভ্যালির রাসেল

ময়মনসিংহ থেকে ‘আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের দুই সদস্য’ গ্রেফতার

ময়মনসিংহ থেকে ‘আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের দুই সদস্য’ গ্রেফতার

© 2021 Bangla Tribune