X
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার তরুণী

আপডেট : ২৪ মে ২০২১, ১৭:১০

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বিনোদন কেন্দ্র ‘নদী বাড়ি’তে ঘুরতে এসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক তরুণী। এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী বাদী হয়ে সোমবার (২৪ মে) ৪ জনকে আসামি করে হাজীগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত ২ জনকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো উপজেলার ৬নং পূর্ব বড়কুল ইউনিয়নের নোয়াদ্দা গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে মহিনউদ্দিন (২৬), একই গ্রামের মাঝি বাড়ির দুলাল মিয়াজীর ছেলে শাকিল হোসেন (২৪)। এ ঘটনায় পলাতক রয়েছেন রান্ধুনীমুড়া গ্রামের ইউসুফের ছেলে অভিযুক্ত ইসমাইল (৩২) ও তার ছোট ভাই কালু (২১)।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হারুনুর রশিদ জানান, ওই তরুণী গত ২২ মে নদী বাড়ি নামক স্থানে ঘুরতে আসে। সেখানে শাকিল নামে এক যুবকের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরে রাতে ওই নারী বাড়ি যেতে চাইলে শাকিল ও তার সহযোগীরা কৌশলে নদী বাড়ী সংলগ্ন একটি বালুর মাঠে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করে। একই রাতে রান্ধুনীমুড়া বৈষ্ণব বাড়ী সংলগ্ন শাকিলের খালার বাড়িতে নিয়ে ইসমাইল ও তার ছোট ভাই কালু কয়েকবার ধর্ষণ করে।

তারা ওই তরুণীকে সকালে রাস্তার পাশে মাঠে ফেলে যায়। মেয়ের কান্নাকাটি দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে হাজীগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই তরুণী।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় রবিবার (২৩ মে) দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে দু’ আসামিকে আটক করা হয়েছে। অপর দু আসামি ইসমাইল ও তার ছোট ভাই কালুকে আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে। মামলাটি তদন্ত করছে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ ইব্রাহীম খলিল। সোমবার সকালে নির্যাতিত তরুণীকে মেডিক্যাল টেস্টের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

/এমআর/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৩:১১

নিম্ন চাপের প্রভাবে টানা তিন দিনের বৃষ্টিতে সাতক্ষীরার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বাঁধ ভাঙার আতঙ্কে রয়েছে উপকূলের বাসিন্দারা। রোপা আমনের বীজতলা পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে। ডুবে গেছে শতাধিক মাছের ঘের, পুকুর ও ঘরবাড়ি।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দুপুর ১২টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ৫২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এর আগে সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৭২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বিকাল থেকে বুধবার (২৮ জুলাই) পর্যন্ত ৮৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করে সাতক্ষীরা আবহাওয়া অফিস। 

টানা তিন দিনের ভারী বর্ষণে সাতক্ষীরার সাত উপজেলার অধিকাংশ অঞ্চল পানিতে ডুবে গেছে। এর মধ্যে আশাশুনি ও শ্যামনগর উপকূলীয় এলাকার বাঁধ ভাঙার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এতে আতংকে রয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা। এছাড়া তালা, কলারোয়া, আশাশুনি, দেবহাটা, কালিগঞ্জ, শ্যামনগর ও সাতক্ষীরা সদর উপজেলার নিম্নাঞ্চল পানিতে ভাসছে। সাতক্ষীরা পৌরসভার নিম্নাঞ্চলও পানিতে তলিয়ে গেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েক হাজার পরিবার। ভেসে গেছে জমির ফসল, মাছের ঘের ও পুকুর।

বাঁধ ভাঙার আতঙ্কে উপকূলের বাসিন্দারা

সাতক্ষীরার সদর উপজেলার ধুলিহর, ফিংড়ি, ব্রহ্মরাজপুর, লাবসা, বল্লী ও ঝাউডাঙা ইউনিয়নের বিলগুলোতে সদ্য রোপা আমন ও বীজতলা পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে। শতাধিক মাছের ঘের ও পুকুর ভেসে গেছে। নিম্নাঞ্চলের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ঘরবাড়িতে পানি উঠেছে। 

সাতক্ষীরা পৌরসভা রাজার বাগান এলাকার আব্দুল জলিল বলেন, ‘কয়েক দিন ধরে টানা বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টিতে ধানের বীজতলা, পুকুর, খাল-বিল তলিয়ে গেছে। আমার বড় একটি আম গাছ উপড়ে পড়েছে।’

প্রতাপনগরের সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের জীবনে শান্তি নেই। কয়দিন আগে ঘূর্ণিঝড়ের ইয়াসের পানি নেমে গেলো।  টানা বৃষ্টিতে পুরো এলাকা আবারও পানিতে একাকার হয়ে গেছে।’
 
প্রতাপনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বলেন, গত দুই দিনের ভারী বর্ষণে পুরো ইউনিয়নের মানুষ আবারও পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। আম্পানের নয় মাস পানিবন্দি ছিল পুরো ইউনিয়নের মানুষ। ইয়াসের পর এখনও কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি। এই বৃষ্টিতে আবারও ক্ষতি হয়ে গেলো। এই এলাকায় মৎস্য ঘের পুকুর ঘর তলিয়ে সব একাকার হয়ে গেছে।’

গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল আলম বলেন, বর্ষার পানি পুরো এলাকায় থই থই করছে। মাছের ঘের, পুকুর সব একাকার হয়ে গেছে। আমার ইউনিয়নের চারদিকে নদীতে ভাঙন আতংকে আছি। তিন নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় বাঁধ ঝুকিপূর্ণ। যেকোনও সময় বাঁধ ভেঙে খোলপেটুয়া নদীর পানি প্রবেশ করতে পারে।’

তালা উপজেলার আব্দুল জব্বার বলেন, ‘কপোতাক্ষের বাঁধসহ বিভিন্ন গ্রাম ও বিল পানিতে ডুবে হয়েছে। কাঁচা ঘরবাড়ি ধসে পড়ার উপক্রম হয়েছে। বাড়ি ছেড়ে উঁচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছে অনেকে। এসব এলাকার বিলগুলোতে সদ্য রোপা আপন ও বীজ তলার ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া পানের বরজেরও ক্ষতি হয়েছে।’

সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির যুগ্ম সদস্য সচিব আলী নূর খান বাবুল বলেন, পৌরসভার পানি নিষ্কাশন সুষ্ঠু ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতায় নাকাল হচ্ছে বছরের পর বছর। বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে সাতক্ষীরা শহরের পৌরসভার রসুলপুর, মেহেদিবাগ, মধুমল্লারডাঙ্গী, বকচরা, সরদারপাড়া, পলাশপোল, কামাননগর, কামাননগর, পুরাতন রাজারবাগান, বদ্দিপাড়া কলোনি, ঘুড্ডির ডাঙি, পুরাতন সাতক্ষীরা, কাটিয়া মাঠপাড়া, মাছখোলা, ডায়েরবিল ও রথখোলাসহ বিস্তীর্ণ এলাকা। প্লাবিত এলাকার কাঁচা ঘরবাড়ি ধসে পড়ার উপক্রম হয়েছে।

শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা, পদ্মপুকুর, কাশিমাড়ি, বুড়িগোয়ালিনী, কৈখালি ও রমজান নগরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। কালিগঞ্জ উপজেলার মৌতলা, মথুরেশপুর ও ভাড়াশিমলাসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের মাছের ঘের ও পুকুর পানিতে ডুবে গেছে।

ডুবে গেছে শতাধিক মাছের ঘের, পুকুর ও ঘরবাড়ি

সাতক্ষীরা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুলফিকার আলী রিপন জানান, মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে গত মঙ্গলবার বিকাল থেকে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। আগামী কয়েক দিন এভাবে বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা আছে বলে জানান তিনি। 

সাতক্ষীরা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্য কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান জানান, ভারী বর্ষণে জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে এক হাজার ১২০ হেক্টর জমিতে আউশ বীজ তলার ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় ৫০০ হেক্টর জমির সদ্য রোপা আমন ও সাড়ে ৩০০ হেক্টর সবজি। ক্ষতির পরিমাণ আরও বাড়তে পারে।

আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাজমুল হোসেন খান বলেন, টানা বৃষ্টিতে আশাশুনি সদর, প্রতাপনগর খাজরা ও আনুলিয়া বিস্তীর্ণ অঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। তলিয়ে গেছে কয়েক হাজার মাছের ঘের। এখনও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করা যায়নি।

শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আনম আবু জর গিফারী বলেন, উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়েছে পড়েছে। ইতোমধ্যে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের দুই লাখ ৬০ হাজার টাকা ও ২০ টন চাল দেওয়া হয়েছে। মৎস্য ও ফসলের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও নিরূপণ সম্ভব হয়নি।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

খুলনার হাসপাতালে মৃত্যু কমেছে

খুলনার হাসপাতালে মৃত্যু কমেছে

১০ মিনিটে ২ ডোজ টিকা নেওয়া ব্যক্তি পর্যবেক্ষণে

১০ মিনিটে ২ ডোজ টিকা নেওয়া ব্যক্তি পর্যবেক্ষণে

শিক্ষিকাকে যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসা সভাপতি গ্রেফতার

শিক্ষিকাকে যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসা সভাপতি গ্রেফতার

গৃহবধূর সঙ্গে পুলিশ সদস্যের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ, বাড়ি ঘেরাও 

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৩:০১

বগুড়ার শেরপুর থানার কনস্টেবল পারভেজ হোসেনের সঙ্গে এক গৃহবধূর অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ ওঠার পর তাকে পুলিশ লাইন্সে প্রত্যাহার করা হয়েছে। বুধবার (২৮ জুলাই) রাতে স্থানীয়রা উপজেলার গোসাইপাড়ার একটি বাড়িতে তাকে অবরুদ্ধ করেন। পরে থানা থেকে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। 

পুলিশ লাইন্সের স্পেশাল আর্মড ফোর্স (এসএএফ) থেকে পারভেজ দু’মাসের জন্য থানায় এসেছিলেন। 

তবে শেরপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলামের দাবি, অনৈতিক কোনও সম্পর্কের ঘটনা ঘটেনি। অভিযুক্ত কনস্টেবল এক এনজিও কর্মকর্তার বাড়িতে দাওয়াতে গিয়েছিলেন। স্থানীয়রা ভুল বুঝে বাড়ি ঘেরাও করেছিলেন। 

তবে বগুড়া পুলিশ লাইন্সের রিজার্ভ ইন্সপেক্টর (আরআই) আয়েন উদ্দিন জানান, তিনি অসুস্থ থাকায় এ বিষয়ে কিছু জানা নেই।

স্থানীয়রা জানান, পুলিশ সদস্য পারভেজ রুটিন মাফিক দুই মাস আগে শেরপুর থানায় বদলি হয়ে আসেন। সম্প্রতি সেখানে বেসরকারি সংস্থার এক কর্মকর্তার স্ত্রীর সঙ্গে পারভেজের সখ্যতা গড়ে উঠে। বুধবার রাত ৯টার দিকে তিনি ওই গৃহবধূর বাড়িতে যান। এসময় প্রতিবেশীদের সন্দেহ হলে তারা বাড়ি ঘেরাও করেন। পরে খবর পেয়ে শেরপুর থানার এসআই আনন্দ কুমার মোহন্ত ঘটনাস্থলে গিয়ে পারভেজকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন। 

অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ ওঠায় রাতেই তাকে পুলিশ লাইন্সে প্রত্যাহার করা হয়।

শেরপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম বলেন, ওই এনজিও কর্মকর্তার বাড়িতে পারভেজ দাওয়াতে যান। তার সঙ্গে স্থানীয় এক লন্ড্রির মালিকও দাওয়াতে গিয়েছিল। তবে স্থানীয়রা ভুল বুঝে বাড়ি ঘেরাও করে। এরপরও অভিযোগ ওঠায় পারভেজকে পুলিশ লাইন্সে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এ বিষয় নিয়ে খবর প্রকাশ হলে কেউ কোনোদিন আর কারও বাড়িতে দাওয়াতে যাবেন না বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৩ মৃত্যু 

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৩ মৃত্যু 

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু 

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু 

গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই বন্ধুর

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১২:১৯

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ফুল মিয়া (২৫) ও আবদুস ছালাম (২৪) নামে দুই যুবক নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে গোবিন্দগঞ্জ-রাজাবিরাট সড়কের সাপমারা ইউনিয়নের সারাই গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ফুল মিয়া গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাপমারা ইউনিয়নের খামারপাড়া গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে এবং আবদুস ছালাম একই ইউনিয়নের সারাই গ্রামের মো. ফেরদৌস মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মোটরসাইকেলে গোবিন্দগঞ্জের ইসলামপুর যাচ্ছিলেন ফুল মিয়া ও আবদুস সালাম। পথে সারাই গ্রামে রাস্তার মোড় ঘুরতে গিয়ে গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগে। এতে ছিটকে রাস্তায় পড়ে ঘটনাস্থলেই দুই বন্ধুর মৃত্যু হয়।

সাপমারা ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আইয়ুব হোসেন জানান, তারা দুই বন্ধু ইসলামপুর কলেজ মাঠে ফুটবল খেলতে বাড়ি থেকে বের হন। পথে মোটরসাইলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

বৈরাগীহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মিলন চ্যাটার্জি জানান, মোটরসাইকেলচালক নিয়ন্ত্রণ হারানোয় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে নিহতদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা হয়েছে। 

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১১:৫৮

খুলনায় ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ কনস্টেবল আল মামুনকে একদিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. বুলবুল আহমেদ এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

কয়রা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম শাহাদাত হোসেন জানান, বুধবার বিকাল সাড়ে চারটায় ইয়াবাসহ কয়রা থানার পুলিশ কনস্টেবল আল মামুনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব- ৬-এর সদস্যরা। গ্রেফতারের পর তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার পাঁচদিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে আদালত এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, পুলিশ কনেস্টবল মামুনকে ৭১৫ পিস ইয়াবাসহ কয়রা উপজেলার আমাদি ইউনিয়নের দশবাড়িয়া মসজিদের সামনে থেকে বুধবার গ্রেফতার করেন র‌্যাব সদস্যরা। পরে র‌্যাবের ডিএডি মো. জিয়াউল হক বাদী হয়ে কয়রা থানায় মাদক আইনে মামলা দায়ের করেন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

গৃহবধূর সঙ্গে পুলিশ সদস্যের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ, বাড়ি ঘেরাও 

গৃহবধূর সঙ্গে পুলিশ সদস্যের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ, বাড়ি ঘেরাও 

খুলনার হাসপাতালে মৃত্যু কমেছে

খুলনার হাসপাতালে মৃত্যু কমেছে

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

খুলনার হাসপাতালে মৃত্যু কমেছে

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৩:০৫

খুলনার সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে করোনায় মৃত্যু কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলার তিন হাসপাতালে আট জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তিন, শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতালে দুই ও গাজী মেডিক্যাল হাসপাতালে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। 

শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকালে খুলনা মেডিক্যালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত এখানে ১২৯ ভর্তি রয়েছেন। মারা গেছেন তিন জন। তারা হলেন—খুলনার আফসার (৬০), মারিয়াম (৭৪) ও চুয়াডাঙ্গার গিয়াস উদ্দিন (৯০)।

শেখ আবু নাসের হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চার জন ভর্তি হয়েছেন। ছাড়পত্র নিয়েছেন চার জন। মারা গেছেন দুই জন। তারা হলেন—বাগেরহাটের দেলোয়ার হোসেন (৭০) ও খুলনার মনোয়ারা বেগম (৬৭)। বর্তমানে ভর্তি রয়েছেন ৪১ জন।

গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৩ জন। ১৭ জন ছাড়পত্র নিয়েছেন। মারা গেছেন তিন জন। তারা হলেন—খুলনার আব্দুর সবুর (৭৫), ঝিনাইদহের লুতফুর রহমান (৯০) ও আনসার উদ্দিন (৮০)। বর্তমানে ভর্তি রয়েছেন ৬৮ জন। 

খুলনা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সাত জন ভর্তি হয়েছেন। ছাড়পত্র নিয়েছেন আট জন। তবে এই সময়ে করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি। বর্তমানে ভর্তি রয়েছেন ৩৯ জন। 

খুলনা সিটি মেড্যাকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চার জন ভর্তি হয়েছেন। ছাড়পত্র নিয়েছেন ১১ জন। ২৪ ঘণ্টায় কেউ মারা যায়নি। বর্তমানে ভর্তি রয়েছেন ৫৭ জন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৮ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৮ মৃত্যু

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১২ মৃত্যু

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১২ মৃত্যু

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

সর্বশেষ

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢিলেঢালা চেকপোস্ট

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

দেশে পৌঁছেছে সিনোফার্মের ৩০ লাখ ডোজ টিকা

দেশে পৌঁছেছে সিনোফার্মের ৩০ লাখ ডোজ টিকা

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন ৪ সেপ্টেম্বর

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন ৪ সেপ্টেম্বর

লকডাউনে বন্ধ মার্কেট ও দোকানে চলছে ‘বিকল্প’ লেনদেন

লকডাউনে বন্ধ মার্কেট ও দোকানে চলছে ‘বিকল্প’ লেনদেন

গৃহবধূর সঙ্গে পুলিশ সদস্যের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ, বাড়ি ঘেরাও 

গৃহবধূর সঙ্গে পুলিশ সদস্যের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ, বাড়ি ঘেরাও 

গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই বন্ধুর

গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই বন্ধুর

সাঁতারে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম সোনা

টোকিও অলিম্পিকসাঁতারে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম সোনা

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

করোনায় অসহায় মানুষের পাশে মৌসুমী ও সুমি  (ভিডিও)

করোনায় অসহায় মানুষের পাশে মৌসুমী ও সুমি  (ভিডিও)

খুলনার হাসপাতালে মৃত্যু কমেছে

খুলনার হাসপাতালে মৃত্যু কমেছে

বরগুনায় আগুনে পুড়েছে করোনা টিকা রাখার ফ্রিজ

বরগুনায় আগুনে পুড়েছে করোনা টিকা রাখার ফ্রিজ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

কুমিল্লায় লকডাউনের ছয় দিনে ১২ লাখ টাকা জরিমানা আদায় 

কুমিল্লায় লকডাউনের ছয় দিনে ১২ লাখ টাকা জরিমানা আদায় 

মোটরসাইকেল চালককে টেনে-হিঁচড়ে ৫ কিলোমিটার নিয়ে গেলো ট্রাকটি

মোটরসাইকেল চালককে টেনে-হিঁচড়ে ৫ কিলোমিটার নিয়ে গেলো ট্রাকটি

© 2021 Bangla Tribune