X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

এনএসআই ছেড়ে প্রাথমিকে যোগ দেওয়া দেশ সেরা শিক্ষক লিপির গল্প

আপডেট : ০২ জুন ২০২১, ১২:০১

ভালো চাকরির সুযোগ ছেড়ে পরিবারের ইচ্ছের বাইরে ২০০০ সালের ৪ এপ্রিল সহকারী প্রাথমিক শিক্ষক হিসেবে আত্মনিয়োগ করেন পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা সদরের মেয়ে খায়রুন নাহার লিপি। পারিবারিক অসম্মতির পরও মানুষ গড়ার ব্রত নিয়ে শুরু করেন তার পেশাগত জীবন। শেষ পর্যন্ত নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে আদর্শ শিক্ষক হিসেবে জেলা ও বিভাগে শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের মর্যাদা লাভ করেন। ২০১৯ সালে জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষকের পদকের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন লিপি।

রাজধানীর মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক খায়রুন নাহার লিপি বলেন, ‘প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকতা ছোট নয় তা প্রমাণ করতে পেরেছি আমার পরিবারের কাছে। মানুষ গড়ার প্রত্যয়ে নিজেকে প্রস্তুত করেছি। কিন্তু আমার লড়াই এখনও শেষ হয়নি। যেদিন আমার ছাত্রছাত্রীরা মানবিক মানুষ হিসেবে সমাজে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে, সেদিন আমার এ লড়াই শেষ হবে।’

সম্প্রতি জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হওয়ার বিষয় নিয়ে কথা হয় রাজধানীর মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক খায়রুন নাহার লিপির সঙ্গে।  লিপি জানান, ২০০০ সালে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থায় (এনএসআই) উপ-পরিদর্শক হিসেবে চাকরি পেলেও তা না করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন তিনি।  শিক্ষকতাকে ব্রত হিসেবে নিতেই ২০০০ সালের ৪ এপ্রিল গলাচিপা উপজেলার ছৈলা বানিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চাকরি জীবন শুরু হয় তার। তবে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করা পছন্দ করেননি তার বাবা গলাচিপা উপজেলার তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক মিয়া।

লিপি বলেন, ‘চাকরিতে যোগ দেওয়ার সময় আমার বাবা ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান। তিনি চাননি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে ছোট চাকরি করি। তাই চাকরি যাতে ছেড়ে দেই সে কারণে পটুয়াখালী সদরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আমাকে পদায়নের সুযোগ থাকলেও সদর থেকে দূরে ছৈলা বানিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদান করতে হয়। কিন্তু আমি চাকরি ছাড়িনি।’

খায়রুন নাহার লিপি জানান, তার বাবা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক মিয়া ২০০২ সালে মারা যান। তবে মৃত্যুর আগেই মেয়ের শিক্ষকতাকে গুরুত্ব দেন। লিপি বলেন, ‘শিক্ষকতায় বেশি মনোযোগ দেখে এবং আমি শিক্ষকতা চাকরি ছাড়বো বুঝে অবশ্য আমার বাবা বিষয়টি পরে মেনে নিয়েছিলেন।’

নানা প্রতিবন্ধকতা থাকলেও নিজেকে আদর্শ শিক্ষক হিসেবে প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে শামিল হন লিপি।  দীর্ঘ ২০ বছরে নিজেকে আদর্শ শিক্ষক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন। বর্তমানে মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন তিনি।

রাজনীতি করে কিংবা সমাজ সেবায় সরাসরি যুক্ত হলে মানুষের কল্যাণ করা যায় সহজে। তাহলে কেনও শিক্ষকতায় এলেন জানতে চাইলে বলেন, তখন আমার চাকরির প্রয়োজন ছিল যেমন, তেমনি শিক্ষক হবো এটি ছিল আমার সবচেয়ে ভালো লাগার বিষয়।

শিক্ষক হয়ে ওঠার গল্প শুনতে চাইলে লিপি বলেন, ‘আমি আদর্শ শিক্ষক হয়ে ওঠার এখনও চেষ্টা করছি। আমার বাবা সুদীর্ঘ ২৫ বছর চেয়ারম্যান ছিলেন। ছোটবেলা থেকে পরিবার থেকে বিশেষ করে বাবাকে দেখেছি মানুষের সেবা করতে। আমার মা পৌর কাউন্সিলর। পারিবারিক বলয় থেকেই মানুষের সেবা করা দেখেছি।  রাজনীতি করার সুযোগও ছিল আমার। তা আমি করিনি। তবে মানুষের সেবা করার জন্য বাবা-মায়ের যে প্রতিশ্রুত দেখেছি। তা থেকে মনে হয়েছে। মানুষের উপকার করা হচ্ছে সুন্দর সমাজ গড়ার জন্য।  আর সে কারণেই মনে হয়েছে সমাজ গড়তে হলে মানুষ গড়া আগে দরকার। তাই রাজনীতি না করে, কিংবা অন্য কোনও ভালো চাকরি না করে শিক্ষকতা করাটা আমার কাছে বেশি ভালো মনে হয়েছে।

জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষক হওয়ার বিষয়ে তার প্রতিক্রিয়ায় লিপি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের প্রতি আমার ভালোলাগা থেকেই আজকের এ স্বীকৃতি। আমার এ অর্জনের পেছনে আমার কোমলমতি শিক্ষার্থী, আমার পরিবার, সহকর্মী এবং বিভিন্ন জেলার অগণিত শিক্ষক ও শুভাকাঙ্ক্ষীর প্রচেষ্টা রয়েছে। আমি পেশাগত জীবনে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে শিশুদের মধ্যে নিজের স্বপ্ন বোনার চেষ্টা করেছি। একজন শিক্ষার্থীর মধ্যে মানবিক মূল্যবোধ তৈরির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে চেয়েছি। পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের পাঠে মনোযোগী হওয়ার জন্য বাড়তি সময় ব্যয় করেছি। ’

ইডেন কলেজ থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স-মাস্টার্স করেন খায়রুন নাহার লিপি।  ২০০০ সালে শিক্ষকতা শুরুর পর ২০১৭ সালে ঢাকা জেলায় শ্রেষ্ঠ এবং ২০১৮ সালে ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে স্বীকৃতি পান। এরপর ২০১৯ সালে দেশসেরা সহকারী শিক্ষক হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন। করোনার কারণে পদক প্রদান বন্ধ রয়েছে। ‘করোনাকালীন শিক্ষা, প্রতিযোগিতা ও আনন্দে’ শীর্ষক আইডিয়ার জন্য লিপি সেরা উদ্ভাবক হিসেবেও নির্বাচিত হয়েছেন।

খায়রুন নাহার লিপি জানান, পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নের জন্য তিনি এমএড ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। শিক্ষকতা পেশায় এসে মাস্টার ট্রেইনার হিসেবে প্রশিক্ষণ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। আন্তর্জাতিক সংস্থা লায়ন্সের একজন কর্মী হিসেবে কাজ করছেন তিনি।

/এসএমএ/এমআর/

সম্পর্কিত

নতুন শিক্ষাক্রমে হিজড়াদের জন্য যা থাকছে

নতুন শিক্ষাক্রমে হিজড়াদের জন্য যা থাকছে

প্রাথমিকে জরুরি নির্দেশনা

প্রাথমিকে জরুরি নির্দেশনা

রবিবার থেকে মাধ্যমিকে নতুন রুটিন

রবিবার থেকে মাধ্যমিকে নতুন রুটিন

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৪২

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের তালতলা এলাকায় ছয়তলা ভবনের ছাদ থেকে নিচে পড়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মো. আরিফুল ইসলাম শান্ত (২৩) নামের ওই যুবক মেট্রোরেলের ক্রেনের রেজারম্যান (শ্রমিক) ছিলেন।

নিহতের চাচা আব্দুল হান্নান জানান, শান্তর রাতে মেট্রোরেলে ডিউটি ছিল। বিকালে তালতলার ভাড়া বাসার ছয় তলার ছাদ থেকে পড়ে যায় সে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল এবং পরে সন্ধ্যা ৭টায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক)ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে সে মারা যায়।

আব্দুল হান্নান আরও  জানান, শান্তর রুমমেটদের থেকে যতটুকু জেনেছি, বিকালে খাওয়া-দাওয়া করে রুম থেকে মোবাইলে কথা বলতে বলতে ছাদে উঠে সে। পরে সেখান থেকে অসাবধানতাবসত নিচে পড়ে যায়।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

মৃত শান্ত হবিগঞ্জ সদরের শংকরপাশা গ্রামের মো. সালেক মিয়ার ছেলে। তিনি আগারগাঁও তালতলার একটি ভবনে ম্যাসে থাকতেন । 

 

 

 

/এআইবি/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

বুড়িগঙ্গা রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান 

বুড়িগঙ্গা রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান 

সিআরবি রক্ষায় সাংস্কৃতিক প্রতিবাদে মুখর শাহবাগ

সিআরবি রক্ষায় সাংস্কৃতিক প্রতিবাদে মুখর শাহবাগ

‘ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের টাকা ফেরতের ব্যবস্থা নিতে হবে’

‘ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের টাকা ফেরতের ব্যবস্থা নিতে হবে’

ডিজিটাল নিরাপত্তায় ৯৯৯ সংযুক্তির দাবি

ডিজিটাল নিরাপত্তায় ৯৯৯ সংযুক্তির দাবি

অতিরিক্ত ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জনকে বদলি

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:৪০

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জন কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ পদায়ন করা হয়। পরে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের এক প্রজ্ঞাপনে এ বিষয়ে জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে ১৩ জন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সাত জন সহকারী পুলিশ সুপারকে বাংলাদেশ পুলিশের অন্যান্য ইউনিটে বদলি করা হয়।

এর মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শারমিন জাহানকে এসবি, ঢাকায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাদাত হোসাইন রাসেলকে সিএমপিতে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূর মোহাম্মদ আলী চিশতীকে এন্টি টেরোরিজম ইউনিটে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শংকর কুমার দাসকে ঝালকাঠি সদর সার্কেলে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামসুল হককে ১১ এপিবিএন ঢাকায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসেন সুমনকে জামালপুর সদর সার্কেলে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামানকে চুয়াডাঙ্গা সদর সার্কেলে,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাইনুল ইসলামকে আরএমপিতে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দেলোয়ার হোসেনকে ফেনীতে বদলি করা হয়েছে।

এছাড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইসরাত জাহানকে পুলিশ সদর দফতরে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলামকে পুলিশ সদর দফতর টিআই, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরানী ফেরদৌস দিশাকে পুলিশ সদর দফতর টিআর, আব্দুল মালিককে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসবিতে, সহকারী পুলিশ সুপার এএইচএম আসাদ হোসেনকে এসবি ঢাকায়, সহকারী পুলিশ সুপার আবু তাহের ফারুকীকে ডিএসবি ফেনীতে, সহকারী পুলিশ সুপার হরেশ্বর রায়কে হাইওয়ে পুলিশে, সহকারী পুলিশ সুপার ফারুক হোসেনকে ০৮ এপিবিএন কক্সবাজারে, সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলামকে ঢাকার দোহার সার্কেলে এবং সহকারী পুলিশ সুপার মনজুর আলম খানকে পুলিশ টেলিকম ঢাকায় বদলি করা হয়।

 

 

/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২৩

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সরকারি সফর শেষে শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দেশে ফিরেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। সফরকালে তিনি মার্কিন সেনাবাহিনী এবং পাপুয়া নিউ গিনি ডিফেন্স ফোর্স কর্তৃক যৌথভাবে আয়োজিত ইন্দো-প্যাসিফিক আর্মি চিফস কনফারেন্সে অংশ নেন।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম খান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩ দিনব্যাপী আয়োজিত এই কনফারেন্সের অংশ হিসেবে প্রথম দিনে তিনি মার্কিন সেনাবাহিনীর ২৫তম ইনফ্যান্ট্রি ডিভিশনের সক্ষমতা এবং মার্কিন আর্মি প্যাসিফিক কমান্ড কর্তৃক পরিচালিত একটি লাইভ ফায়ার মহড়া অবলোকন করেন । 

আর্মি চিফস কনফারেন্সের দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ‘দ্যা চেঞ্জিং ফিজিক্যাল এনভায়রনমেন্ট অফ ল্যান্ড অপারেশন’ এবং ‘দ্যা ইভলবিং হিউম্যান এনভায়রনমেন্ট অফ ল্যান্ড অপারেশন’ বিষয়বস্তু দুটির ওপর অনুষ্ঠিত প্লেনারিতে অংশ নেন। 

কনফারেন্সের শেষ দিনে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ মার্কিন আর্মি প্যাসিফিক কমান্ডের কমান্ডিং জেনারেল, জেনারেল চার্লস্ এ. ফ্লিনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। এছাড়াও ইন্দোনেশিয়ান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আন্দিকা পেরকাসা; দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল নাম ইয়ং শিনসহ বেশ কয়েকটি দেশের উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

মেক্সিকোর স্বাধীনতার ২০০ বছর উদযাপনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্যারেড

মেক্সিকোর স্বাধীনতার ২০০ বছর উদযাপনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্যারেড

পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন সেনাপ্রধান

পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন সেনাপ্রধান

কঙ্গোলিজ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিলো বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা

কঙ্গোলিজ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিলো বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা

সেনাবাহিনী-সন্ত্রাসী গুলিবিনিময়, আটক ৪

সেনাবাহিনী-সন্ত্রাসী গুলিবিনিময়, আটক ৪

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২০

দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৪ কোটি ৯৫ লাখ ৮৫ হাজার ৮০ ডোজ। এর মধ্যে ৩ কোটি ৬৭ লাখ ৪ হাজার ৩২ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই মুহূর্তে ১ কোটি ২৮ লাখ ৪১ হাজার ২৪ ডোজ টিকা মজুত  আছে। এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২ কোটি ২১ লাখ ৫১ হাজার ৬০৫ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৪৫ লাখ ৯৫ হাজার ৪২৭ জন। আজ মোট দেওয়া হয়েছে ৫ লাখ ১ হাজার ৪১ ডোজ টিকা। 

এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্য মতে, আজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ২২৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ২২০ জনকে। 

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ এবং দ্বিতীয় ডোজ কাউকে দেওয়া হয়নি।

এছাড়া সিনোফার্মের টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ৮৬ হাজার ৫৪২ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৯০ হাজার ৫১৬ জন।  

মডার্নার টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৪ হাজার ২৪৮ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১২ হাজার ২৮৮ জনকে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৪ কোটি ২৩ লাখ ৭১ হাজার ৫৪১ জন। 

 

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৬

রাজধানীর দারুস সালাম থানা এলাকা থেকে সিআইডির ভুয়া ইন্সপেক্টর পরিচয় দেওয়া একজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) দারুস সালাম থানা পুলিশ। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতারকৃতের নাম মো. হাবিবুল্লাহ তালুকদার অভি। তার বাড়ি ঢাকার সাভারে।

এ সময় তার কাছ থেকে স্পেশাল ডিশন সিবি হরনেট-১৬০আর মোটরবাইক, একটি ওয়াকিটকি, একটি পাসপোর্ট একটি পোকো মোবাইল সেট জব্দ করা হয়।

দারুস সালাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জামাল হোসেন বলেন, শুক্রবার দারুস সালাম থানার গাবতলি তিন রাস্তার মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ বক্সের পাশে পুলিশ সার্জেন্ট ও টহল পুলিশের সমন্বিত তল্লাশি চৌকিতে একজন মোটর আরোহীকে থামার সিগন্যাল দেওয়া হয়। চালক মোটরবাইক থামালে কর্তব্যরত অফিসার গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাইলে সে নিজেকে সিআইডির পুলিশ ইন্সপেক্টর হিসেবে পরিচয় দেন। তখন পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে বাইক নিয়ে দ্রুত চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

নতুন শিক্ষাক্রমে হিজড়াদের জন্য যা থাকছে

নতুন শিক্ষাক্রমে হিজড়াদের জন্য যা থাকছে

প্রাথমিকে জরুরি নির্দেশনা

প্রাথমিকে জরুরি নির্দেশনা

রবিবার থেকে মাধ্যমিকে নতুন রুটিন

রবিবার থেকে মাধ্যমিকে নতুন রুটিন

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে

৪৭১ জন ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর নিয়োগের সুপারিশ

৪৭১ জন ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর নিয়োগের সুপারিশ

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সারপ্রাইজ ভিজিট শুরু আগামী সপ্তাহে

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সারপ্রাইজ ভিজিট শুরু আগামী সপ্তাহে

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

স্কুল গেটে অভিভাবকদের জটলা, স্বাস্থ্যবিধিতে অনীহা!

স্কুল গেটে অভিভাবকদের জটলা, স্বাস্থ্যবিধিতে অনীহা!

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল  খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

সর্বশেষ

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র মিথ্যাচার করেছে:  ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র মিথ্যাচার করেছে:  ফ্রান্স

ক্যাপিটল প্রাঙ্গণে ট্রাম সমর্থকদের মিছিল

ক্যাপিটল প্রাঙ্গণে ট্রাম সমর্থকদের মিছিল

‘শুধু ক্ষমা চাইলেই হবে না যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে’   

‘শুধু ক্ষমা চাইলেই হবে না যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে’   

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে সৌদি আরব গুরুত্ব দিয়ে আসছে: সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী

শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে সৌদি আরব গুরুত্ব দিয়ে আসছে: সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune