X
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মিয়ানমারে সহিংসতায় উদ্বেগ থাইল্যান্ডের

আপডেট : ০৬ জুন ২০২১, ১৮:৩৩

মিয়ানমারের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতার ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে থাইল্যান্ড। একইসঙ্গে ১ ফেব্রুয়ারির অভ্যুত্থানের পর থেকে বার্মায় ছড়িয়ে পড়া সহিংসতার ইতি টানতে দেশটির জান্তা সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ব্যাংকক। রবিবার থাই পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে আছে মিয়ানমার। বিক্ষোভকারীদের ওপর নিরাপত্তা বাহিনীর তাণ্ডবে নিহত হয়েছে অন্তত ৮৪৫ জন। সম্প্রতি রাজপথে বিক্ষোভ শিথিল হয়ে আসলেও সশস্ত্র প্রতিরোধ বাড়ছে। বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, গৃহযুদ্ধের দিকে ধাবিত হচ্ছে মিয়ানমার।

আসিয়ান সম্মেলনে অংশ নিতে গত এপ্রিলে ইন্দোনেশিয়া যান মিয়ানমারের জান্তা সরকারের প্রধান মিন অং হ্লাইং। ক্ষমতা দখলের পর এটিই তার প্রথম কোনও প্রকাশ্য বিদেশ সফর। আসিয়ানের ওই সম্মেলনে পাঁচটি বিষয়ে একমত জোটের অন্য নেতাদের সঙ্গে একমত হন বর্মি জান্তা প্রধান। এর মধ্যে অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধ, মিয়ানমারে আসিয়ানের দূত পাঠানো, আসিয়ান প্রতিনিধির উপস্থিতিতে সামরিক ও বেসামরিক নেতাদের মধ্যে সংলাপ এবং দেশটিকে মানবিক সহযোগিতা দেওয়ার মতো বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত ছিল।

রবিবার থাই পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরা ব্যাপক উদ্বেগের সঙ্গে মিয়ানমার পরিস্থিতির দিকে খুব গভীরভাবে নজর রাখছি। বিশেষ করে দেশটির বিভিন্ন জায়গায় সহিংসতার ঘটনাগুলোর প্রতি নজর রাখা হচ্ছে।

বিবৃতিতে সহিংসতার ইতি টানতে বর্মি জান্তা সরকারের প্রতি আহ্বান জানান থাই পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়েল মুখপাত্র তানি সানগ্রাত। এছাড়া বন্দিদের মুক্তি এবং আসিয়ান সম্মেলনে গৃহীত পাঁচ দফা যত দ্রুত সম্ভব বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে গত শনিবারও (৫ জুন) মিয়ানমারের এইয়ারওয়াদি নদী এলাকায় সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছে। সেনাবাহিনী অস্ত্র উদ্ধারের নামে অভিযান চালালে গ্রামবাসী তীর ধনুক ও গুলতি নিয়ে প্রতিরোধ শুরু করলে সংঘর্ষ শুরু হয়। প্রায় দুই মাসের মধ্যে এটাই দেশটিতে সহিংসতায় একদিনে সর্বোচ্চ প্রাণহানির ঘটনা।

শনিবার ভোরে মিয়ানমারের মূল শহর ইয়াঙ্গুন থেকে প্রায় দেড়শ’ কিলোমিটার দূরে হ্লাসোয়ে গ্রামে সেনাবাহিনী ও গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। স্থানীয় চারটি সংবাদমাধ্যম ও একজন স্থানীয় বাসিন্দার বরাতে সংঘর্ষের খবর দিয়েছে রয়টার্স। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বাসিন্দা বলেন, গ্রামবাসীর কাছে শুধু গুলতি আর তীর-ধনুক ছিলো, সেই কারণে তারাই বেশি হতাহত হয়েছে।

খিট থিট মিডিয়া এবং ডেল্টা নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন বেসামরিক নিহত এবং আরও অনেকে আহত হয়েছে। সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, সেনাবাহিনী অস্ত্র উদ্ধারের নামে অভিযান শুরু করলে প্রতিরোধ করে গ্রামবাসী।

মিয়ানমারে ধান উৎপাদনের জন্য বিখ্যাত এইয়ারওয়াদি নদী এলাকা। এই অঞ্চলে নৃতাত্তিক জনগোষ্ঠীর মানুষেরাই সংখ্যাগরিষ্ঠ। এছাড়া সেখানে কারেন সংখ্যালঘুদেরও বসবাস রয়েছে। এইয়ারওয়াদি নদী এলাকায় ২০ জন নিহতদের পরদিনই মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে নিজেদের উদ্বেগের কথা জানালো প্রতিবেশী থাইল্যান্ড। সূত্র: আল জাজিরা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক আফগান প্রধানমন্ত্রীর

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক আফগান প্রধানমন্ত্রীর

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আহ্বান দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫৪

১৯৫০-৫৩ সালের কোরীয় যুদ্ধ আনুষ্ঠানিকভাবে অবসানে একটি ঘোষণার আহ্বান জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন। নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিয়ে মুন বলেন, কোরীয় যুদ্ধের সমাপ্তির জন্য আমি আবারও বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহযোগিতার জোর আহ্বান জানাচ্ছি।

এই সংকট চিরতরে নিরসনে একটি প্রস্তাব দিয়ে তিনি বলেন, কোরিয়ার তিনটি দল অথবা দুই কোরিয়ার চারটি দলের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র এবং চীন মিলে ঘোষণা দেবে যে কোরীয়  যুদ্ধ সমাপ্তি হয়েছে।

উত্তর কোরিয়াও এই উপদ্বীপের যুদ্ধ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা চেয়েছিল। এ বিষয়ে পিয়ইংয়ং-এর তৎপরতাও দেখা যায়। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ত্বাধীন জাতিসংঘের কমান্ড কৌশলগত ভূমিকার কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না।

মুন এর আগেও যুদ্ধ বন্ধের ঘোষণা নিয়ে চেষ্টা চালান। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যুদ্ধ বন্ধের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে করতে সহায়তা করবে। কিন্তু ওয়াশিংটন জানিয়েছে, আগে পিয়ংইয়ং-কে অবশ্যই পরমাণু অস্ত্র ছাড়তে হবে।  

১৯৫০ সালের ২৫ জুন শুরু হয় কোরীয় যুদ্ধ। ওই সময় দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধে উত্তর কোরীয় ট্যাংক ও সেনারা সীমান্ত অতিক্রম করে। যুদ্ধে দক্ষিণ কোরিয়ার হয়ে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশ নেয় যুক্তরাষ্ট্র। সত্তর বছর আগের ওই যুদ্ধে উত্তর কোরিয়ায় নিহত হন কয়েক হাজার মার্কিন সেনা। এর তিন বছরের মাথায় একটি চুক্তি সইয়ের মধ্যে দিয়ে যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছায় দুই দেশ। কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে কোরীয় যুদ্ধের এখনও ইতি টানা হয়নি।

/এলকে/

সম্পর্কিত

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

২-৬ মাসের ব্যবধানে বুস্টার ডোজে বাড়ে কার্যকারিতা: জনসন অ্যান্ড জনসন

২-৬ মাসের ব্যবধানে বুস্টার ডোজে বাড়ে কার্যকারিতা: জনসন অ্যান্ড জনসন

পৃথিবী এখন আরও বিভক্ত: জাতিসংঘ মহাসচিব

পৃথিবী এখন আরও বিভক্ত: জাতিসংঘ মহাসচিব

যুক্তরাষ্ট্র ‘নতুন শীতল যুদ্ধ’ চায় না: চীনকে ইঙ্গিত করে বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্র ‘নতুন শীতল যুদ্ধ’ চায় না: চীনকে ইঙ্গিত করে বাইডেন

তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩৪

তালেবানকে বয়কট না করতে বিশ্ব নেতাদের প্রতি জোর আহ্বান জানিয়েছেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিয়ে বিশ্ব নেতাদের সামনে তিনি আফগানিস্তানের পরিস্থিতি তুলে ধরেন।

মঞ্চে দাঁড়িয়ে কাতারের আমির উদ্বেগ জানিয়ে বলেন, ‘তালেবানকে প্রত্যাখান করা মানে সংকট আরও তীব্রতর হওয়া। এজন্য সবার উচিত তালেবান গোষ্ঠীর সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাওয়া। কারণ আলোচনার মাধ্যমেই ইতিবাচক ফলাফল বয়ে আনতে পারে’।  

তালেবান রাজধানী কাবুল দখলের পর বিদেশি সেনা প্রত্যাহার এবং দেশটি থেকে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলো মুখ ফিরিয়ে নেয়। তবে সংকটময় পরিস্থিতিতেও পাশে দাঁড়িয়েছে কাতার। ইতোমধ্যে আফগান জনগণের জন্য ত্রাণ সহায়তাও পাঠিয়েছে দেশটি।

তালেবান সরকার ক্ষমতায় আসায় বিদেশি সহায়তার ওপর নির্ভরশীল আফগানিস্তানে ত্রাণ সহায়তা বন্ধ করে দিয়েছে পশ্চিমা দেশগুলো। এতে দুর্ভিক্ষের মুখোমুখি আফগানরা। এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ব সম্প্রদায়কে তালেবান সরকারের পাশে থাকতে আহ্বান জানান আমির শেখ তামিম।

/এলকে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:২৮
তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২৫
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৫৮

গত ২০ বছরে আফগানিস্তানের সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই ‘বৃথা যায়নি’ বলে দাবি করেছেন ন্যাটো মহাসচিব জেন্স স্টোলটেনবার্গ। তবে দীর্ঘ দুই দশকের লড়াইয়ে ন্যাটোর মিত্রদেরকে উচ্চ মূল্য দিতে হয়েছে বলে জানান তিনি। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘের বাইরে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে এক সাক্ষাৎকারে আফগানিস্তানের প্রসঙ্গে এ কথা বলেন ন্যাটো মহাসচিব।

আফগান যুদ্ধে ৩৬০০ মার্কিন ও ন্যাটো সেনা নিহতের বিষয়ে স্টোলটেনবার্গকে প্রশ্ন করা হলে জবাবে বলেন, ‘দীর্ঘ সময়ের যুদ্ধের কারণে আমাদের মিত্রদের চড়া মূল্য দিতে হয়েছে। কিন্তু আমাদের প্রচেষ্টা বিফল ছিল না’।

সন্ত্রাস নির্মুলের যুদ্ধে গত বিশ বছর আফগানিস্তানের মাটিতে কাটাতে হয়েছে ন্যাটোর সেনাদের। এত কিছুর পরও গত ১৫ আগস্ট রাজধানী কাবুল দখলে করে নেয় তালেবান গোষ্ঠী। এ প্রসঙ্গে আল-জাজিরাকে তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে আমরা আফগানিস্তানে গিয়েছিলাম। আমাদের মিত্রদের বিরুদ্ধে হামলা বন্ধ করতে। গত ২০ বছরে আফগানিস্তান থেকে কোনও সন্ত্রাসী হামলা সংগঠিত হয়নি। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, আফগানদের সামজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে সাহায্য করেছি’।  

তবে, আফগানিস্তান এখন তালেবানের অধীনে চলে যাওয়াকে আফগানদের জন্য ট্রাজেডি এবং হৃদয়বিদারক বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

/এলকে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:২৩
‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২৫
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আহ্বান দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আহ্বান দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের

তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির

তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক আফগান প্রধানমন্ত্রীর

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০২

আফগানিস্তানে নিযুক্ত চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন দেশটির তালেবান সরকারের প্রধানমন্ত্রী মোল্লা মুহাম্মাদ হাসসান আখুন্দ। ২১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার টুইটারে দেওয়া পোস্টে তালেবান কর্মকর্তা আহমাদুল্লাহ মুত্তাকি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম রেডিও ফ্রি ইউরোপ।

রুশ প্রেসিডেন্টের আফগানিস্তান বিষয়ক বিশেষ দূত জামির কাবুলোভ, পাকিস্তানের বিশেষ প্রতিনিধি মোহাম্মদ সাদিক খান এবং চীনের প্রতিনিধি ইউ জিয়াওয়ং বৈঠকে নিজ নিজ দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

তালেবান প্রতিনিধি দলে প্রধানমন্ত্রী মোল্লা মুহাম্মাদ হাসসান আখুন্দ ছাড়াও ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি এবং ভারপ্রাপ্ত অর্থমন্ত্রী হেদায়েতুল্লাহ বদরি উপস্থিত ছিলেন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে বিস্তারিত জানা যায়নি।

যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার পর রাশিয়া, চীন ও পাকিস্তান অঞ্চলটিতে গুরুত্বপূর্ণ শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, মস্কো ও বেইজিংয়ের নেতৃত্বাধীন জোটের উচিত তালেবানকে প্রভাবিত করা। যাতে করে তারা সন্ত্রাসবাদ ও মাদকপাচার বন্ধের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে পারে। দেশের মানুষের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরানো এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারে।

অন্যদিকে এ মাসের গোড়ার দিকেই আফগানিস্তানে প্রায় তিন কোটি ১০ লাখ ডলারের জরুরি সহায়তার ঘোষণা দেয় চীন। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ ২৬৪ কোটি ১৮ লাখ টাকারও বেশি। পাকিস্তানও দেশটিতে বিমানভর্তি ত্রাণসামগ্রী পাঠিয়েছে। তালেবান সরকারের স্বীকৃতি আদায়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশটি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫৮

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে তালেবানের সঙ্গে বৈঠক করেছে রাশিয়া। তালেবান প্রতিনিধিদের সঙ্গে এ বৈঠকে অংশ নেন রুশ প্রেসিডেন্টের আফগানিস্তান বিষয়ক বিশেষ দূত জমির কাবুলোভ। স্পুটনিক নিউজের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেনে এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এএনআই।

তালেবানের অন্যতম মুখপাত্র মোহাম্মদ নাঈম বলেন, বৈঠকে আফগানিস্তানের বিদ্যমান পরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়েছে। অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়ে আলাপ হয়েছে। দেশের ভবিষ্যৎ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। এছাড়া দুই দেশের সম্পর্ক নিয়েও বৈঠকে কথা হয়েছে।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা-ও তালেবানের সঙ্গে জমির কাবুলোভের বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সম্প্রতি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও তালেবানকে প্রভাবিত করার ওপর জোর দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মস্কো ও বেইজিংয়ের নেতৃত্বাধীন জোটের উচিত তালেবানকে প্রভাবিত করা। যাতে করে তারা সন্ত্রাসবাদ ও মাদকপাচার বন্ধের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে পারে।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন (এসসিও)-এর উচিত আফগানিস্তানের নতুন কর্তৃপক্ষকে প্রভাবিত করার সম্ভাব্যতাকে কাজে লাগানো। যাতে করে তারা দেশের মানুষের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরানো এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার পর রাশিয়া ও চীন অঞ্চলটিতে গুরুত্বপূর্ণ শক্তি হিসেবে হাজির হয়েছে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির

তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক আফগান প্রধানমন্ত্রীর

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক আফগান প্রধানমন্ত্রীর

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক আফগান প্রধানমন্ত্রীর

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক আফগান প্রধানমন্ত্রীর

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

আফগান মেয়েদের স্কুল নিষিদ্ধ করা হবে অনৈসলামিক: ইমরান খান

কাবুলের বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম বদলে দিলো তালেবান

কাবুলের বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম বদলে দিলো তালেবান

আফগান স্কুলে নতুন এক কঠোর বাস্তবতার মুখে মেয়ে ও নারীরা

আফগান স্কুলে নতুন এক কঠোর বাস্তবতার মুখে মেয়ে ও নারীরা

তালেবানে গৃহবিবাদ, পাকিস্তানকে নিয়ে মতপার্থক্য

তালেবানে গৃহবিবাদ, পাকিস্তানকে নিয়ে মতপার্থক্য

মোল্লা বারাদারকে ভিডিও বার্তা দিতে বাধ্য করা হয়েছে: রিপোর্ট

মোল্লা বারাদারকে ভিডিও বার্তা দিতে বাধ্য করা হয়েছে: রিপোর্ট

পাপেই জন্ম ইসরায়েলের: সাবেক প্রধানমন্ত্রীর ছেলে

পাপেই জন্ম ইসরায়েলের: সাবেক প্রধানমন্ত্রীর ছেলে

শিগগিরই স্কুলে ফিরবে ছাত্রীরা: তালেবান

শিগগিরই স্কুলে ফিরবে ছাত্রীরা: তালেবান

সর্বশেষ

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আহ্বান দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আহ্বান দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের

তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির

তালেবানকে বয়কট করবেন না: জাতিসংঘে কাতারের আমির

লিঙ্গ সমতার জন্য নারী নেতৃবৃন্দের নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

লিঙ্গ সমতার জন্য নারী নেতৃবৃন্দের নেটওয়ার্ক গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

‘তালেবানের বিরুদ্ধে দুই দশকের লড়াই বৃথা যায়নি’

৭১ লাখ ফাইজার টিকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

৭১ লাখ ফাইজার টিকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

© 2021 Bangla Tribune