X
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সেকশনস

শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সামাজিক সংগঠনগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান

আপডেট : ০৮ জুন ২০২১, ২০:৪৫

নগর জীবনে স্বাস্থ্য ঝুঁকির একটি অন্যতম কারণ হলো শব্দদূষণ। নির্মাণকাজ, যানবাহনের সংখ্যা বৃদ্ধি ইত্যাদি কারণে এ সমস্যা আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এতে একদিকে জনগণ যেমন শ্রবণক্ষমতা হারিয়ে ফেলার ঝুঁকিতে রয়েছেন, সেইসঙ্গে মানসিক স্বাস্থ্যের ওপরও নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। শব্দদূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা-২০০৬ অনুযায়ী, শব্দের সহনশীল মাত্রা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হলেও আমরা তা অনুসরণ করতে পারছি না। শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে আইন প্রয়োগের পাশাপাশি জনসচেতনতা বৃদ্ধি অত্যন্ত জরুরি। এ লক্ষ্যে বেসরকারি সংস্থাগুলোকে সক্রিয় অংশগ্রহণ প্রয়োজন।

মঙ্গলবার (৮ জুন) পরিবেশ অধিদফতরের বাস্তবায়নাধীন শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত ও অংশীদারিত্বমূলক প্রকল্পের আওতায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) প্রতিনিধিদের সঙ্গে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের আলোচনায় এসব বক্তব্য উঠে আসে। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন এনজিও-বিষয়ক ব্যুরো ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. শাহাদাৎ হোসাইন। অন্যদের মধ্যে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সাইফুল ইসলাম, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক আশরাফউদ্দিন, পরিবেশ অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক হুমায়ুন কবীরসহ অনেকে বক্তব্য রাখেন।

হুমায়ুন কবীর বলেন, ‘আমাদের সম্মিলিত প্রয়াসের মাধ্যমেই শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সফলতা আনা সম্ভব। মাটি, পানি, বায়ুদূষণের পাশাপাশি শব্দদূষণের ভয়াবহতা বিবেচনায় নিয়ে পরিবেশ অধিদফতর ২০২০-২০২২ মেয়াদে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত ও অংশীদারিত্বমূলক প্রকল্প হাতে নিয়ে তা বাস্তবায়ন করছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং শব্দদূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা-২০০৬ অনুযায়ী, শব্দের সহনশীল মাত্রা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হলেও আমরা তা অনুসরণ করতে পারছি না। শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে আইন প্রয়োগের পাশাপাশি জনসচেতনতা বৃদ্ধি অত্যন্ত জরুরি। এ লক্ষ্যে বেসরকারি সংস্থাগুলোকে সক্রিয় অংশগ্রহণ প্রয়োজন।’

আয়োজনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পরিবেশ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক খন্দকার মাহমুদ পাশা। তিনি বলেন, ‘শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে বেসরকারি সংস্থাগুলো বিভিন্ন ভূমিকা রাখতে পারে। যেমন: পরিবেশ ও প্রতিবেশ রক্ষার্থে সরকারি বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া এবং এ বিষয়ে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন আয়োজন করা, নীরব ও আবাসিক এলাকায় শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শব্দদূষণ বিষয়ে সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা ইত্যাদি।’

বিশেষ অতিথি জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর মেখলা সরকার বলেন, ‘শব্দদূষণের ফলে শ্রবণক্ষমতা নষ্ট হয় তা আমরা সবাই জানি। কিন্তু এর মানসিক প্রভাব নিয়ে আমরা যথেষ্ট সচেতন নই। শব্দদূষণের ফলে মানুষের মধ্যে উদ্বিগ্নতা তৈরি হয়। যা ধীরে ধীরে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা তৈরি করে। আমরা যদি শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ভূমিকা রাখতে না পারি তাহলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য অনেক বড় ঝুঁকি তৈরি হবে।’

বিশেষ অতিথি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইএনটি বিভাগের প্রধান প্রফেসর শেখ নুরুল ফাত্তাহ রুমি বলেন, ‘অতিরিক্ত হেডফোনের ব্যবহার, গাড়ির অনাকাঙ্ক্ষিত হর্ন, নির্মাণকাজের শব্দ ইত্যাদি তাদের ধীরে ধীরে বধিরতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আমাদের প্রচারণার ক্ষেত্রে আরও শক্তিশালী ভূমিকা রাখতে হবে।

আয়োজনে বেসরকারি সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিরা বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন, যেমন: তৃণমূল পর্যায়ে শব্দদূষণ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি, যুবসমাজকে এ কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত করা, লিফলেট বিতরণ, বিভিন্ন সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ, নিয়মিত মনিটরিং, লঞ্চের ইঞ্জিনে সাইলেন্সারের ব্যবহার নিশ্চিত, মাইকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ, আবাসিক এলাকা থেকে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান সরিয়ে ফেলা, মিডিয়ায় প্রচারের জন্য সাংবাদিকদের উদ্বুদ্ধ করা, নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করা ইত্যাদি। অনুষ্ঠানে ২৪টি জেলার প্রায় ৬০টি বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

 

 

/এসএনএস/আইএ/

সর্বশেষ

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত কানাডার সেই হামলাকারী

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত কানাডার সেই হামলাকারী

গোল মিসের মহড়ায় পয়েন্ট হারালো স্পেন

গোল মিসের মহড়ায় পয়েন্ট হারালো স্পেন

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি,  যুক্তরাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার হবে দেরিতে

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি, যুক্তরাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার হবে দেরিতে

অবশেষে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন’

পরীমণিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টাঅবশেষে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন’

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

বায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

অপার সম্ভাবনায় গুরুত্ব কমবায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

ইউরোর ৬১ বছরের ইতিহাস পাল্টে দিলেন পোলিশ গোলকিপার

ইউরোর ৬১ বছরের ইতিহাস পাল্টে দিলেন পোলিশ গোলকিপার

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের কাজী এন্টারপ্রাইজ’র সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

করোনা মোকাবিলাসম্মুখ সারির যোদ্ধাদের কাজী এন্টারপ্রাইজ’র সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

একসঙ্গে চার মেয়ে সন্তানের জন্ম

একসঙ্গে চার মেয়ে সন্তানের জন্ম

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

অপার সম্ভাবনায় গুরুত্ব কমবায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

মাস্ক না পরায় ২০ ব্যক্তিকে জরিমানা

মাস্ক না পরায় ২০ ব্যক্তিকে জরিমানা

দুই বাসের প্রতিযোগিতা, মাথা থেঁতলে প্রাণ গেলো তরুণের

দুই বাসের প্রতিযোগিতা, মাথা থেঁতলে প্রাণ গেলো তরুণের

নিরপরাধ আরমানের কারাভোগ: ৭ পুলিশের দায়িত্বে অবহেলা পেয়েছে পিবিআই

নিরপরাধ আরমানের কারাভোগ: ৭ পুলিশের দায়িত্বে অবহেলা পেয়েছে পিবিআই

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে যা বললো টিআইবি

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে যা বললো টিআইবি

গুলশানে ব্যবসায়ীর বহুতল ভবনের নিচে পড়েছিল স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

গুলশানে ব্যবসায়ীর বহুতল ভবনের নিচে পড়েছিল স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

বোট ক্লাব থেকে নাসিরকে বহিষ্কার, তদন্তে কমিটি

বোট ক্লাব থেকে নাসিরকে বহিষ্কার, তদন্তে কমিটি

নারীপাচার চক্রের সদস্য আমিরুলের স্বীকারোক্তি

নারীপাচার চক্রের সদস্য আমিরুলের স্বীকারোক্তি

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র পল্লী উদ্যোক্তাদের ঋণ দিচ্ছে বিআরডিবি

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র পল্লী উদ্যোক্তাদের ঋণ দিচ্ছে বিআরডিবি

© 2021 Bangla Tribune