X
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

পদক পাচ্ছেন সংসদ নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী পুলিশ

আপডেট : ১০ জুন ২০২১, ১৯:৪৭

সংসদ নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী পুলিশ সদস্যদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে। নবম, দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যেসব পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করেছেন তাদের পদক ও রিবন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে।

গত ৩ জুন প্রকাশিত গেজেটে (২০২১ সালের ২২ নম্বর গেজেট) এটি প্রকাশ করা হয়। জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে গত ৮ মার্চ ২০২১ তারিখে জারি হয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন।

প্রজ্ঞাপন থেকে জানা গেছে, নির্বাচনের সাল ভিত্তিতে পদকের নামকরণ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে নবম সংসদ নির্বাচনের ক্ষেত্রে পদকের নাম দেওয়া হয়েছে ‘সংসদীয় নির্বাচন ডিসেম্বর ২০০৮’, দশম সংসদ নির্বাচনের ক্ষেত্রে ‘সংসদীয় নির্বাচন জানুয়ারি ২০১৪’ এবং একাদশ সংসদ নির্বাচনের ক্ষেত্রে পদকের নাম ‘সংসদীয় নির্বাচন ডিসেম্বর ২০১৮’ নামকরণ করা হয়েছে।

ওই তিনটি নির্বাচনে যেসব পুলিশ সদস্য নির্বাচন কাজে তালিকাভুক্ত ছিলেন তারা সংশ্লিষ্ট সালের পদকের জন্য বিবেচিত হবেন বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী তিনটি পদকই একই ধরনের হবে। রিবনের আকারও এক হবে। তবে রঙে ভিন্নতা থাকবে।

পদক হবে সাদা সংকর ধাতুতে তৈরি। আকৃতি হবে ষড়ভুজ। দুই বিপরীত কোণের মধ্যবর্তী দূরত্ব হবে ৩৫ মিলিমিটার। পদকের সামনের দিকে বর্গাকৃতি ব্যালট বাক্সের ছিদ্রে ভাঁজ করা ব্যালট পেপার অর্ধাংশ উৎকীর্ণ থাকবে। তিনটি পদকের ওপরে সংসদীয় নির্বাচন এবং নিচে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট মাস ও সালের নাম লেখা থাকবে। পদকের পেছনের দিকে মধ্যভাগে সংসদ ভবন ও ওপরে বাংলাদেশ উৎকীর্ণ থাকবে।

পদকের নীতিমালায় বলা হয়েছে, এই পদক সংবিধান পদকের থেকে ছোট হবে। পোশাকে সংবিধান পদকের পরবর্তী কনিষ্ঠ স্থানে পরতে হবে। রিবন পরার ক্ষেত্রেও এই জ্যেষ্ঠতা বজায় থাকবে।

এদিকে রিবনগুলোর মাপ এক হলেও রঙে ভিন্নতা থাকবে। ২০০৮ সালের পদকের রিবনের মধ্যভাগ হবে সাদা। উভয় পাশে সবুজ গাঢ় খয়েরি এবং ‍দুপাশে অর্থাৎ খয়েরি রঙের উভয় পাশে লাল রঙ থাকবে। প্রস্থ হবে ৬ মিলিমিটার।

২০১৪ সালের পদকের রিবনের মধ্যভাগ সাদা, উভয় পাশে লাইট গ্রে এবং দুই পাশ গাঢ় লাল হবে। ২০১৮ সালের পদকের রিবনের মধ্যভাগ সাদা, উভয় পাশে হালকা গোলাপি এবং দুই পাশ গাঢ় লাল হবে।

পুলিশ সদস্যরা নিজ নিজ পদক সংগ্রহ করবেন বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পুলিশ সদর দফতরের ডিআইজি (মিডিয়া) হায়দার আলী খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী পুলিশ সদস্যদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে এমন খবর তার জানা নেই। পরে অবশ্য এই পুলিশ কর্মকর্তা এ প্রতিবেদকের কাছ থেকে গ্যাজেটের অনুলিপি সংগ্রহ করেন।

ঢাকায় কর্মরত পুলিশের এসআই পদমর্যাদার কর্মকর্তা জাকির হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, তিনি ২০১৪ ও ২০১৮ সালে নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে এর জন্য পদক পাবেন এমন তথ্য তার জানা নেই।

রাজশাহী রেঞ্জের পুলিশ সদস্য শামীম আহমেদও এ বিষয়ে কিছু জানেন না। তিনি বলেন, তার কাছে এ খবর এখনও পৌঁছায়নি। তবে এটা সত্য হলে তা হবে সুখবর। তারা অনেক ঝুঁকি নিয়েই নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করেছেন। পুরস্কৃত করা হলে তারা উৎসাহিত হবেন। অবশ্য পদকের পাশাপাশি আর্থিক প্রণোদনাও দেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান ও দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে এ ধরনের পদক ও রিবন দিয়ে তাদের সম্মানিত করা হয়। কোনও পুলিশ সদস্য বিদেশে শান্তি মিশনে দায়িত্ব পালন করলেও পদক ও রিবন পান। আবার পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে দায়িত্ব পালনেও পান পৃথক রিবন। কঠিন ও ঝুঁকিপূর্ণ অপারেশনের ক্ষেত্রেও এ ধরনের পদক বা রিবন দেওয়া হয়।

 
/এফএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ আগামী ২৯ জুন

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ আগামী ২৯ জুন

কিশোরের পিতৃপরিচয় নিশ্চিত করলো পুলিশ

কিশোরের পিতৃপরিচয় নিশ্চিত করলো পুলিশ

যশোরে আরও ৮ মৃত্যু, বেড়েছে লকডাউনের মেয়াদ

যশোরে আরও ৮ মৃত্যু, বেড়েছে লকডাউনের মেয়াদ

ডিউটিভ্যানেই মারা গেলেন পুলিশ কনস্টেবল

ডিউটিভ্যানেই মারা গেলেন পুলিশ কনস্টেবল

খুলনা বিভাগে রেকর্ড ৩২ জনের মৃত্যু

খুলনা বিভাগে রেকর্ড ৩২ জনের মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে করোনায় আরও ১৬ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে করোনায় আরও ১৬ মৃত্যু

বিভাগের তিন হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু, ৮ জনই খুলনার

বিভাগের তিন হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু, ৮ জনই খুলনার

‘কবে একটা সেতু হবে, ঘুষ ছাড়া ভাতা পাবো?’

গ্রামবাসীর প্রশ্ন প্রশাসনের উত্তর‘কবে একটা সেতু হবে, ঘুষ ছাড়া ভাতা পাবো?’

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

এলএনজি আমদানিতে তিন বছরে সর্বোচ্চ ভর্তুকি

এলএনজি আমদানিতে তিন বছরে সর্বোচ্চ ভর্তুকি

সর্বশেষ

সমালোচক হয়েও বোর্ডের দায়িত্বে ড্যারেন স্যামি!

সমালোচক হয়েও বোর্ডের দায়িত্বে ড্যারেন স্যামি!

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ আগামী ২৯ জুন

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ আগামী ২৯ জুন

ভ্যাকসিন কিনতে ৯৪ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

ভ্যাকসিন কিনতে ৯৪ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

সৃজিতের ছবিতে তাপসী পান্নু

সৃজিতের ছবিতে তাপসী পান্নু

হিলিতে ফের বাড়লো পেঁয়াজের দাম

হিলিতে ফের বাড়লো পেঁয়াজের দাম

কিশোরের পিতৃপরিচয় নিশ্চিত করলো পুলিশ

কিশোরের পিতৃপরিচয় নিশ্চিত করলো পুলিশ

ফেঁসে যাচ্ছেন পরীমণি?

ফেঁসে যাচ্ছেন পরীমণি?

শিরোপা লড়াই থেকে ছিটকে গেলো সাকিবের মোহামেডান

শিরোপা লড়াই থেকে ছিটকে গেলো সাকিবের মোহামেডান

যশোরে আরও ৮ মৃত্যু, বেড়েছে লকডাউনের মেয়াদ

যশোরে আরও ৮ মৃত্যু, বেড়েছে লকডাউনের মেয়াদ

ডিউটিভ্যানেই মারা গেলেন পুলিশ কনস্টেবল

ডিউটিভ্যানেই মারা গেলেন পুলিশ কনস্টেবল

ফ্রান্স-পর্তুগাল ম্যাচ কখন, দেখবেন কোথায়  

ফ্রান্স-পর্তুগাল ম্যাচ কখন, দেখবেন কোথায়  

১২ বছর পর তাদের জন্মঘরে ফেরা

১২ বছর পর তাদের জন্মঘরে ফেরা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

করোনার টিকাকে বিশ্বব্যাপী জনগণের পণ্য হিসেবে ঘোষণা করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

করোনার টিকাকে বিশ্বব্যাপী জনগণের পণ্য হিসেবে ঘোষণা করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

কোভিশিল্ডের টিকা ১ কোটি ৯৬ হাজার ডোজ শেষ

কোভিশিল্ডের টিকা ১ কোটি ৯৬ হাজার ডোজ শেষ

সর্বোচ্চ শনাক্ত ঢাকায়, মৃত্যু বেশি খুলনায়

সর্বোচ্চ শনাক্ত ঢাকায়, মৃত্যু বেশি খুলনায়

রেল স্টেশনে দ্রুত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপনের তাগাদা সংসদীয় কমিটির

রেল স্টেশনে দ্রুত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপনের তাগাদা সংসদীয় কমিটির

আমি অভ্যন্তরীণ রাজনীতির মাঝে পড়ে গেছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আমি অভ্যন্তরীণ রাজনীতির মাঝে পড়ে গেছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

একদিনে আরও ৭৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪৮৪৬

একদিনে আরও ৭৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪৮৪৬

ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে কঠোর হওয়ার আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের

ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে কঠোর হওয়ার আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের

এমডিজি বাস্তবায়নে যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

এমডিজি বাস্তবায়নে যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

ঢাকার বস্তি এলাকার ৭১ ভাগ মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডি : গবেষণা

ঢাকার বস্তি এলাকার ৭১ ভাগ মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডি : গবেষণা

© 2021 Bangla Tribune