X
সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

বাংলাদেশ থেকে প্রথমবারের মতো কর্মী গেল সার্বিয়ায়

আপডেট : ১২ জুন ২০২১, ২১:২১

বাংলাদেশ থেকে প্রথমবারের মতো প্রশিক্ষিত কর্মী গেল সার্বিয়ায়। শনিবার (১২ জুন) ভোরে টার্কিশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে প্রথম দফায় ৯ জনকে পাঠানো হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) মহাপরিচালক মো. শহীদুল আলম। 

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ১৭টি শর্তে নতুন এই দেশে ভিসা প্রাপ্তির প্রেক্ষিতে কর্মী নিয়োগের অনুমতি দেওয়া হয়। সার্বিয়ার বেডেম এনার্জি সলিউশন্স কোম্পানির জন্য ৩২ জন কর্মীর চাহিদাপত্র পায় 

রিক্রুটিং এজেন্সি লিংক-আপ ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ৩২ জন কর্মীর চাহিদাপত্রের বিপরীতে ভিসা প্রাপ্ত ১৩ জন কর্মীর নিয়োগ অনুমতি দেয় মন্ত্রণালয়। আর এর সঙ্গে স্মার্ট কার্ড ইস্যু সহ ১৭টি শর্ত জুড়ে দেয় মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে অন্যতম প্ৰধান শর্ত হচ্ছে- রিক্রুটিং এজেন্সির একজন প্রতিনিধি তাদের সঙ্গে যাবেন। 

সার্বিয়ান এই কোম্পানি ট্রাক ড্রাইভার, এক্সকাভেটর ড্রাইভার, টিম লিডার, সিএনজি কম্প্রেসার মেকানিক, ট্রাক মেকানিক, ট্রাক ওয়াসার, কুক এবং ক্লিনার পদে কর্মীর চাহিদা দিয়েছে। তাদের বেতন ৩০০ থেকে ৫৭০ ইউরো পর্যন্ত। অন্যান্য সুবিধার মধ্যে আছে খাবার, চিকিৎসা এবং বাসস্থান। যাতায়াত কোম্পানি বহন করবে, চাকুরির মেয়াদ হবে দুই বছর যা  নবায়নযোগ্য এবং ৮ কর্মঘণ্টা কাজ করতে হবে। এছাড়া বিমান ভাড়া যোগদানকালীন সময়ে কর্মী বহন করবে এবং অন্যান্য শর্তাবলী সার্বিয়ার শ্রম আইন অনুযায়ী প্রযোজ্য হবে।  

বিএমইটি মহাপরিচালক মো. শহীদুল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, নতুন এই বাজারে কীভাবে বেশি সংখ্যক দক্ষ কর্মী পাঠানো যায় সেই প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। প্রথম দফায় ৯ জন গেছেন, বাকিরাও দ্রুত যেতে পারবেন বলে আশা করছি। 

 

 

/এসও/এফএএন/

সম্পর্কিত

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

বিদেশে সামান্য ভুল নষ্ট করে রোজগার ও অবস্থান

বিদেশে সামান্য ভুল নষ্ট করে রোজগার ও অবস্থান

সৌদি থেকে দেশে ফিরলেন ১১ নারী গৃহকর্মী

সৌদি থেকে দেশে ফিরলেন ১১ নারী গৃহকর্মী

টিকা নিয়ে সংশয় না রাখার আহ্বান স্বাস্থ্য অধিদফতরের

টিকা নিয়ে সংশয় না রাখার আহ্বান স্বাস্থ্য অধিদফতরের

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২১, ০০:৫০

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মালিকানাধীন ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ৫০০টি বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন। বর্তমানে এই বেডগুলোতে সিলিন্ডারের মাধ্যমে অক্সিজেন সরবরাহ করে অপেক্ষাকৃত কম ঝুঁকিতে থাকা রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এধরনের রোগী কম থাকায় হাসপাতালটির বেডে সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ৪ আগস্টের মধ্যে এই কাজ শেষ হবে।

ডিএনসিসি হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য  জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে আইসিইউ’র চাহিদা বেড়েছে। আমাদের এসডিইউ যুক্ত বেডগুলোও ফাঁকা নেই। আইসিইউর প্রয়োজন এমন অনেক রোগী বেড খালি না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন। যদিও সিলিন্ডারযুক্ত ৫০০ বেডের অধিকাংশই খালি। সে জন্য আমরা সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরই মধ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে। আগামী ৪ আগস্টের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে। তখন কোনও রোগীকেই আর ফেরত দেওয়া লাগবে না।’

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, ডিএনসিসির এই হাসপাতালে  রয়েছে— ১১২টি আইসিইউ বেড, ২৫০ এইচডিইউ বেড। এ ছাড়াও ১৩৮টি আইসিইউ মানের বেড রয়েছে, যেগুলো কেন্দ্রীয় অক্সিজেন সিস্টেমের সঙ্গে যুক্ত। হাসপাতালটিতে জরুরি ওয়ার্ডে ৫০টি বেড রাখা হয়েছে। মোট ৫৫০টি বেডের বাইরে আরও  ৪৫০টি বেড থাকবে, সেখানে মারাত্মক আক্রান্ত নন— এমন রোগীদের রাখা হবে।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন হসপাতালের বর্তমান চিত্র তুলে ধরে বলেন, ‘আমাদের এখানে রবিবার সকালে ৫৬৪ জন রোগী ছিল। এখন (বিকালে) পর্যন্ত আরও রোগী ভর্তি হয়েছে। ২০৪ জন আইসিইউতে ছিল। ৪০ জনকে ছুটি দিয়েছি। আমাদের এখানে প্রতিদিনই রোগী ভর্তি হচ্ছে। কিছু রোগী মারাও যাচ্ছেন। আবার অনেকেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের যে এইচডিইউ বেড আছে, সেগুলো পুরণ হয়ে যাওয়ায় সিরিয়াস রোগীদের সিলেকশন করতে একটু বেগ পেতে হচ্ছে। আশা করছি, এই সমস্যা থেকে দ্রুত কেটে উঠতে পারবো। কারণ, আমাদের প্রায় ৫০০ বেডে নতুন করে সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন যুক্ত করছি। কাজ দ্রুত চলছে। এটা হাই কেয়ার এরিয়া হিসেবে তৈরি করা হবে। সেখানে আমরা হাই-ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা যুক্ত করতে পারবো। তখন যাদের আবস্থা সিরিয়াস তাদেরকে নিতে পারবো।’

ব্রিগেডিয়ার নাসির উদ্দিন বলেন, ‘এক হাজার বেডের মধ্যে সেন্ট্রাল অক্সিজেট যুক্ত থাকলে যে সুবিধা, সেটা হচ্ছে আমরা সিরিয়াস রোগীদের আলাদা আলাদা রুমে রেখে চিকিৎসা দিতে পারবো। তাতে আমাদের সক্ষমতা বাড়বে। আমরা ওই প্রক্রিয়াতেই আগাচ্ছি। এই মুহূর্তে অসুস্থ রোগী আসছে, আমরা চেষ্টা করছি তাদের সবাইকে গ্রহণ করতে। আমাদের এখান থেকে খুব কম রোগীই ফিরে যাচ্ছেন। দুই-চার জন রোগী চলে যাচ্ছেন, যাদের অবস্থা খুবই সিরিয়াস বা যাদের ইমিডিয়েট আইসিইউ দরকার, কিন্তু আমরা দিতে পারছি না। তারা অন্যত্র ট্রাই করছেন।’

ডিএনসিসির এই হাসপাতালে পানির সমস্যা রয়েছে। রোগীদের অভিযোগ, তারা পর্যাপ্ত পানি ও বাথরুম পাচ্ছেন না। এই অভিযোগের বিষয়ে  পরিচালক বলেন, ‘আসলে এই ভবনটি আগে  মার্কেট ছিল। সেখান থেকে হাসপাতালে রূপান্তর করা হয়েছে। তবে আমরা এই সমস্যা অনুভব করছি। আমাদের কাজ শুরু হয়েছে। আশা করছি, দ্রুত সমাধান হবে। আর পানির সমস্যা সমাধানেও কাজ শুরু হচ্ছে। আমরা নির্দেশনা পেয়েছি। যদিও এগুলো আমাদের হাতে নেই— এটা হাসপাতালের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ দেখাশুনা করছে। এখন পানি ও টয়লেটের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। মোটা পাইপ লাগানো হচ্ছে।’

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

রবিবার দেওয়া হয়েছে ৩ লাখ টিকা

রবিবার দেওয়া হয়েছে ৩ লাখ টিকা

করোনা: ৬ মাসেই গত বছরের দ্বিগুণ মৃত্যু

করোনা: ৬ মাসেই গত বছরের দ্বিগুণ মৃত্যু

৮ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ

৮ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ

পোশাক কারখানা খুলে দেওয়ায় সংক্রমণ বাড়বে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

পোশাক কারখানা খুলে দেওয়ায় সংক্রমণ বাড়বে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সেই পিয়াসা আটক 

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২১, ০০:১৫

বনানীর রেইনট্রিতে ধর্ষণকাণ্ড ও গুলশানের মুনিয়া আত্মহত্যাকাণ্ডে আলোচনায় আসা সেই ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসাকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ- ডিবি। 

রবিবার (১ আগস্ট) রাতে বারিধারার বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়। 

ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। 

পিয়াসা

ডিবি পুলিশ জানায়, পিয়াসার বিরুদ্ধে ব্ল্যাকমেইল করে অর্থ আদায়ের অভিযোগে আটক করা হয়েছে। পিয়াসা ছাড়াও ডিবি পুলিশ মোহাম্মদপুরে আরেক মডেলকে আটকের জন্য অভিযান চালাচ্ছে। 

আরও পড়ুন: আবারও আলোচনায় সেই পিয়াসা

/এনএল/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ডা. ঈশিতার আকাশচুম্বী সাফল্য, ডিগ্রি, পুরস্কার ও খ্যাতি সবই ভুয়া

ডা. ঈশিতার আকাশচুম্বী সাফল্য, ডিগ্রি, পুরস্কার ও খ্যাতি সবই ভুয়া

মাদক মামলায় হেলেনার ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

মাদক মামলায় হেলেনার ৫ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

দুই মামলায় চিত্রনায়িকা একা কারাগারে

দুই মামলায় চিত্রনায়িকা একা কারাগারে

বহু ভুয়া পরিচয়ে পরিচিত সেই ইশরাত গ্রেফতার

বহু ভুয়া পরিচয়ে পরিচিত সেই ইশরাত গ্রেফতার

রবিবার দেওয়া হয়েছে ৩ লাখ টিকা

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ২৩:১১

দেশে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি শুরুর পর এখন পর্যন্ত ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে ১ কোটি ৩৪ লাখ ৫৯ হাজার ৮১১ ডোজ। এর মধ্যে এক ডোজ নিয়েছেন ৯০ লাখ ৩৫ হাজার ৬০২ জন এবং টিকার দুই ডোজ নিয়েছেন ৪৩ লাখ ৫১ হাজার ৬৬৭ জন। এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকার ফর্মুলায় ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটের তৈরি কোভিশিল্ড, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। 

রবিবার (১ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়। এদিন মোট টিকা দেওয়া হয়েছে ৩ লাখ ১৪ হাজার ৩৫০ ডোজ।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, রবিবার অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে এক হাজার ৭৭৩ জনকে।  এখন পর্যন্ত কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৫৮ লাখ ২০ হাজার ৩৩ জন। আর  দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৪২ লাখ ৯৯ হাজার ৮৫৯ জন। 

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়নি কাউকে এবং  দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৭৮৬ জন। আর এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে ৫২ হাজার ৫০৫ ডোজ ।

এছাড়া ২৫ লাখ ২৩ হাজার ১৮৯ ডোজ সিনোফার্মের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে এখন পর্যন্ত। এর মধ্যে  প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২৪ লাখ ৭৩ হাজার ৬৩১ জনকে আর দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৪৯ হাজার ৫৫৮ জনকে। 

মডার্নার টিকা এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে ৭ লাখ ৬৪ হাজার ২২৫ ডোজ, আর আজকে দেওয়া হয়েছে ৭৬ হাজার ৫৪৪ ডোজ।

আর এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছে  ১ কোটি ৫৫ লাখ ৪ হাজার ১৫ জন।

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

করোনা: ৬ মাসেই গত বছরের দ্বিগুণ মৃত্যু

করোনা: ৬ মাসেই গত বছরের দ্বিগুণ মৃত্যু

৮ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ

৮ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ

পোশাক কারখানা খুলে দেওয়ায় সংক্রমণ বাড়বে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

পোশাক কারখানা খুলে দেওয়ায় সংক্রমণ বাড়বে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনা থেকে মুক্তি: আনন্দে কাঁদলেন তিনি

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ২৩:০০

ঈদের ঠিক আগের দিন রাজধানীর মহাখালীতে অবস্থিত ‘ডিএনসিসি ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে’ ভর্তি হয়েছেন ঝিনাইদহের বৃদ্ধা সামছুন্নাহার। হাসপাতালে বেদনার সঙ্গেই কেটেছে ঈদ আনন্দ। মহামারি করোনার সঙ্গে দীর্ঘ ১৩ দিন যুদ্ধ করে রবিবার সুস্থ্য হয়েছেন সত্তোরোর্ধ এই বৃদ্ধি।

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর স্বজনরা তাকে হুইল চেয়ারে করে বের করে গ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। এসময় এই প্রতিবেদকের সঙ্গে সামান্য সময় কথা হয় তার। কেমন আছেন জনতে চাইলেই কেঁদে ফেলেন তিনি। বলেন, এখন ‍সুস্থ্য আছি। আল্লাহ ভালো করে দিয়েছেন। বাড়ি ফিরেছি। দোয়া করবেন। আর বেশি কথা বলতে পারবো না। এসময় তার চোখ থেকে অঝোরে পানি পড়েছে।

এসময় সামছুন্নাহারের আত্মীয়-স্বজনদের মুখও হাসি-খুশি দেখা গেছে। বাড়ি যাওয়ার তাড়ার কারণে বেশি কিছু না বললেও জানিয়েছেন তারা ‘ভাগ্যবান’। কারণ স্বজনের যে পরিস্থিতি ছিল তাতে তিনি তাদের মাঝে ফিরে নাও আসতে পারতেন। এসময় তাদেরকে বারবার সৃষ্টিকর্তার নাম স্মরণ করতে দেখা গেছে। স্বাস্থ্যবিধির দিকেও ছিল তাদের যথেষ্ট সচেতনতা।

সামছুন্নহারের মতো এমন আরও যারা করোনা থেকে মুক্তি পেয়ে বের হচ্ছেন তারাও সবাই ছিলেন হাসি-খুশি। তবে বেদনার কথা হচ্ছে এই সময়ের মধ্যেই বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স যোগে বেশ কিছু মুমূর্ষ রোগী এসেছে হাসপাতালে। অক্সিজেনের জন্য যারা খুব কষ্ট পাচ্ছেন। ডাক্তার ও নার্স ও হাসপাতালের কর্মীরাও তাদের নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। অ্যাম্বুলেন্সের শব্দই পরিস্থিতি কতটা ‘ভয়াবহ’ তার স্মরণ করিয়ে দেয় উপস্থিত মানুষকে।

হাসপাতালের বাহিরে বিপুল সংখ্যক অ্যাম্ব্যুলেন্স দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। অ্যাম্বুলেন্সের চালকরা জানান, প্রতিদিন ৮-১০ জন করে মারা যাচ্ছে। তাদেরকে দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যেতে হয়। তাছাড়া যারা সুস্থ্য হয়ে ছুটি নেন তারাও অ্যাম্বুলেন্স যোগে বাড়ি ফিরেন। কারণ গণপরিবহন বন্ধ থাকায় তাদের জন্য বিকল্প কোনও বাহন নেই।

জানতে চাইলে ডিএনসিসি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা কোনও রোগীকে অবহেলা করিনা। কোনও রোগী মারা গেলে আমাদের ডাক্তার ও নার্সরাও কষ্ট পায়। আর কোনও রোগী সুস্থ্য হয়ে উঠলে তারাও খুশি হন। অনেক রোগী জড়িয়ে ধরেন। আমরাও চাই সবাই সুস্থ হয়ে উঠুক।

/এফএএন/

সম্পর্কিত

মহামারিতে কী করছে ঢাবির সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো?

মহামারিতে কী করছে ঢাবির সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো?

কেন বারবার একই ভুল

কেন বারবার একই ভুল

‘দূরপাল্লার বাসে শ্রমিকরা আসতে চাইলে, সেই বাস পুলিশ ধরবে না’

‘দূরপাল্লার বাসে শ্রমিকরা আসতে চাইলে, সেই বাস পুলিশ ধরবে না’

৫৫ বছর পর চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চালু রবিবার

৫৫ বছর পর চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চালু রবিবার

করোনা: ৬ মাসেই গত বছরের দ্বিগুণ মৃত্যু

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ২২:৪৬

গত একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৩১ জন। তাদের নিয়ে এই মহামারিতে দেশে এখন পর্যন্ত সরকারি হিসেবে মোট মারা গেলেন ২০ হাজার ৯১৬ জন।

রবিবার (১ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, করোনাতে ৩১ জুলাই (শনিবার) পর্যন্ত মোট মারা গেছেন ২০ হাজার ৬৮৫ জন। 

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় বলে জানায় অধিদফতর। তার ঠিক ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর কথাও জানায় তারা।

স্বাস্থ্য অধিদফতর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, গত বছরের মার্চে মারা যান পাঁচজন, এপ্রিলে ১৬৩ জন, মে মাসে ৪৮২ জন, জুন মাসে এক হাজার ১৯৭ জন, জুলাই মাসে এক হাজার ২৬৪ জন, আগস্টে এক হাজার ১৭০ জন, সেপ্টেম্বরে ৯৭০ জন, অক্টোবরে ৬৭২ জন, নভেম্বরে ৭২১ জন আর ডিসেম্বর মাসে মারা যান ৯১৫ জন।

সে হিসেবে গত বছর করোনা মহামারিতে মোট মারা যান সাত হাজার ৫৫৯ জন।

এদিকে চলতি বছরের জানুয়ারিতে মারা যান ৫৬৮ জন, ফেব্রুয়ারিতে ২৮১ জন, মার্চে ৬৩৮ জন, এপ্রিলে সেটা গিয়ে দাঁড়ায় দুই হাজার ৪০৪ জনে, মে মাসে এক হাজার ১৬৯ জন, জুনে এক হাজার ৮৮৪ জন আর কেবলমাত্র গেল জুলাই মাসে মারা গেছেন ছয় হাজার ১৮২ জন। আর চলতি বছরের ছয় মাসেই করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৩ হাজার ১২৬ জন, যা গত বছরের প্রায় দ্বিগুণ।

 

 

/জেএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

রবিবার দেওয়া হয়েছে ৩ লাখ টিকা

রবিবার দেওয়া হয়েছে ৩ লাখ টিকা

৮ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ

৮ সরকারি হাসপাতালে ফাঁকা নেই আইসিইউ

পোশাক কারখানা খুলে দেওয়ায় সংক্রমণ বাড়বে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

পোশাক কারখানা খুলে দেওয়ায় সংক্রমণ বাড়বে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সর্বশেষ

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যা

ব্রাজিলের নির্বাচন ব্যবস্থা বদলের দাবি বলসোনারো সমর্থকদের

ব্রাজিলের নির্বাচন ব্যবস্থা বদলের দাবি বলসোনারো সমর্থকদের

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

ভোলার ঢাকাগামী নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী

ভোলার ঢাকাগামী নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

বিদেশে সামান্য ভুল নষ্ট করে রোজগার ও অবস্থান

বিদেশে সামান্য ভুল নষ্ট করে রোজগার ও অবস্থান

সৌদি থেকে দেশে ফিরলেন ১১ নারী গৃহকর্মী

সৌদি থেকে দেশে ফিরলেন ১১ নারী গৃহকর্মী

টিকা নিয়ে সংশয় না রাখার আহ্বান স্বাস্থ্য অধিদফতরের

টিকা নিয়ে সংশয় না রাখার আহ্বান স্বাস্থ্য অধিদফতরের

যেভাবে ‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপে পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনে সময় কম লাগবে

যেভাবে ‘আমি প্রবাসী’ অ্যাপে পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনে সময় কম লাগবে

বিদেশগামী কর্মীদের টিকার জন্য নিবন্ধন শুরু 

বিদেশগামী কর্মীদের টিকার জন্য নিবন্ধন শুরু 

টিকার নিবন্ধন নিয়ে ভোগান্তির শেষ নেই প্রবাসীদের

টিকার নিবন্ধন নিয়ে ভোগান্তির শেষ নেই প্রবাসীদের

দুই দফা নিবন্ধনে টিকা পাবেন প্রবাসীকর্মীরা: স্বাস্থ্য অধিদফতর

দুই দফা নিবন্ধনে টিকা পাবেন প্রবাসীকর্মীরা: স্বাস্থ্য অধিদফতর

টিকা না পেয়ে প্রবাসী কর্মীদের বিক্ষোভ

টিকা না পেয়ে প্রবাসী কর্মীদের বিক্ষোভ

সৌদিতে হোটেল বুকিং করতে পারবে তিন শতাধিক ট্রাভেল এজেন্ট

সৌদিতে হোটেল বুকিং করতে পারবে তিন শতাধিক ট্রাভেল এজেন্ট

© 2021 Bangla Tribune