X
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

আলু চাষিদের বিক্ষোভের মুখে হিমাগারের অতিরিক্ত ভাড়া প্রত্যাহার

আপডেট : ১৩ জুন ২০২১, ১২:৪৩

আলু চাষিদের বিক্ষোভের মুখে হিমাগারে আলু সংরক্ষণের অতিরিক্ত ভাড়া প্রত্যাহার করেছেন কুড়িগ্রামের হিমাগার মালিকরা। শনিবার (১২ জুন) রাত সাড়ে ৮টার দিকে হিমাগার মালিক পক্ষ ও আলু চাষিদের প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকের পর অতিরিক্ত ভাড়া প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠকে উপস্থিত আলু চাষিদের প্রতিনিধি এবং আলু চাষি ও ব্যবসায়ীদের প্রতিবাদ কর্মসূচি বাস্তবায়নে গঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতা শাহ্ আলম মোস্তফা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শনিবার (১২ জুন) দুপুরে সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ি বাজার এলাকায় কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে হিমাগারের ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন আলু চাষিরা।

আলু চাষিদের প্রতিনিধি শাহ্ আলম মোস্তফা বলেন, শনিবার বিক্ষোভ কর্মসূচির পর আলু চাষি ও ব্যবসায়ীদের ডেকে পাঠান জেলার এ হক হিমাগারের মালিক ও কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য পনির উদ্দিন আহমেদ। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এমপির বাসায় আলু চাষিদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে হিমাগারের বর্ধিত ভাড়া ৩৩০ টাকা বাতিল করা হয়। তবে আগের ভাড়ার চেয়ে ১০ টাকা বাড়িয়ে বস্তাপ্রতি ২৬০ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করা হয়। কমিশন বাদ দিলে এই ভাড়া ২০০-২৩০ টাকা পর্যন্ত হবে।

শাহ্ আলম মোস্তফা বলেন, আলু চাষিদের আন্দোলন এবং গণমাধ্যম কর্মীদের আন্তরিক সহযোগিতার ফলে হিমাগার মালিকরা বর্ধিত ভাড়া বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন। এতে করে কৃষকদের জয় হয়েছে, কৃষির জয় হয়েছে। আমরা সবার কাছে কৃতজ্ঞ।

এ ব্যাপারে মোস্তফা কোল্ড স্টোরেজের মালিক গোলাম মোস্তফা বলেন, এমপি সাহেব আলু চাষিদের সঙ্গে বৈঠক করে যে সিদ্ধান্ত দেবেন সেটাই কার্যকর হবে।

/এএম/

সম্পর্কিত

‘রোহিঙ্গা’ বলায় মাইক্রোচালককে পিটিয়ে হত্যা!

‘রোহিঙ্গা’ বলায় মাইক্রোচালককে পিটিয়ে হত্যা!

রংপুর বিভাগে করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু

রংপুর বিভাগে করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু

জরিমানা পরিশোধ না করে পুলিশ পরিদর্শককে পেটানোর অভিযোগ

জরিমানা পরিশোধ না করে পুলিশ পরিদর্শককে পেটানোর অভিযোগ

হাসপাতালে ২৭ ঘণ্টা চিকিৎসা না পেয়ে সাংবাদিকের মায়ের মৃত্যু

হাসপাতালে ২৭ ঘণ্টা চিকিৎসা না পেয়ে সাংবাদিকের মায়ের মৃত্যু

জরিমানা ও ব্যবস্থাপকের কারাদণ্ডে যা বললো প্রিমিয়ার সিমেন্ট

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ২০:৫৫

মুন্সীগঞ্জে প্রিমিয়ার সিমেন্টের কারখানায় কর্মরত শ্রমিকের মৃত্যুকে ‘দুর্ঘটনা’ বলে দাবি করেছে প্রতিষ্ঠানটির বিপণন ও জনসংযোগ বিভাগ। একই সঙ্গে কারখানা খোলা রাখায় প্রিমিয়ার সিমেন্টকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের করা ১০ লাখ টাকা জরিমানা ও ব্যবস্থাপকের কারাদণ্ডের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার সুযোগ রয়েছে বলেও জানিয়েছে তারা।

শনিবার (২৪ জুলাই) বিকালে বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য জানিয়েছেন প্রিমিয়ার সিমেন্ট মিলস লিমিটেডের বিপণন ও জনসংযোগ বিভাগের কর্মকর্তা ফেরদৌস আমিন।

তিনি বলেন, ‘সিমেন্ট ভারী শিল্প এবং জাতীয় জনগুরুত্বপূর্ণ প্রজেক্ট। নিরবচ্ছিন্ন সিমেন্ট সরবরাহ অব্যাহত রাখায় কারখানা পুরোপুরি বন্ধ করা যায় না। তাই নির্দিষ্ট কিছু সময়ে রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করা হয়। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ১৪ দিনের লকডাউন থাকায় রক্ষণাবেক্ষণ কার্যক্রম চলছিল কারখানায়। এ সময়ে অসাবধানতাবশত একটি দুঃখজনক দুর্ঘটনা ঘটেছে। তবে সরকারি বিধিনিষেধ মানার কারণে ওই দিন কারখানায় কোনও কর্মী উৎপাদন কাজে নিয়োজিত ছিল না।’

ফেরদৌস আমিন বলেন, ‘আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে ঘটনার পরই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ যথাযথ কর্তৃপক্ষকে দুর্ঘটনার বিষয়টি জানানো হয়। তবে ঘটনাস্থলে এসে সঠিক কারণ নিরূপণে ঘাটতি থাকায় জরিমানার পাশাপাশি প্রিমিয়ার সিমেন্ট মিলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপককে কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এই সিদ্ধান্ত পুনরায় বিবেচনার সুযোগ এখনও ফুরিয়ে যায়নি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সিমেন্ট কারখানার ভেতরে আবাসন ব্যবস্থা আছে। সবসময় হাজারখানেক লোক থাকেন। ঈদের দিন ও পরদিন এখানে ঈদ উদযাপনের ব্যবস্থা ছিল। গত বছর প্রথম লকডাউনের সময় কারখানায় প্রায় দুই হাজার লোকের তিন বেলা খাওয়ার ও থাকার ব্যবস্থা করেছিলাম আমরা। কাজেই করোনা পরিস্থিতিতে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের করা জরিমানা ও ব্যবস্থাপকের কারাদণ্ড মওকুফের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানাই।’

প্রসঙ্গত, সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কারখানা খোলা রাখার দায়ে প্রিমিয়ার সিমেন্টকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে প্রিমিয়ার সিমেন্ট মিলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) নজরুল ইসলামকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হামিদুর রহমান এ জরিমানা ও কারাদণ্ড দেন। ওই দিন সকাল সাড়ে ১০টায় কারখানায় কর্মরত শাহাবুল (৩৮) নামের এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়। খবর পেলে বিকালে ভ্রাম্যমাণ আদালত কারখানায় অভিযান চালান।

/এএম/

সম্পর্কিত

পদ্মা সেতু এড়িয়ে ফেরি চলার কোনও সুযোগ নেই

পদ্মা সেতু এড়িয়ে ফেরি চলার কোনও সুযোগ নেই

কারখানা খোলা রাখায় এ-ওয়ান পলিমারকে জরিমানা

কারখানা খোলা রাখায় এ-ওয়ান পলিমারকে জরিমানা

ট্রলারডুবির ১৮ ঘণ্টা পর ১৬ জেলে জীবিত উদ্ধার

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ২০:৪৭

বঙ্গোপসাগরে ঝড়ের কবলে পড়ে ভোলার জেলেদের মাছ ধরার একটি ট্রলার ডুবে যাওয়ার ১৮ ঘণ্টা পর ১৬ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (২৪ জুলাই) বিকাল ৩টার দিকে কোস্ট গার্ডের একটি দল তাদের উদ্ধার করে।

এ সময় মনপুরা জেলে সমিতির নেতৃবৃন্দ তাদের উদ্ধার কাজে সহায়তা করে। এর আগে শুক্রবার (২৩ জুলাই) রাত ৯টায় ঝড়ের কবলে পড়ে আবু সাইদ মাঝির ট্রলারটি চরপিয়াল পয়েন্টে ১৬ জেলেকে নিয়ে ডুবে যায়। তবে জেলেরা জীবিত উদ্ধার হলেও দুর্ঘটনা কবলিত ট্রলারটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

উদ্ধার জেলেরা হলেন- আবু সাইদ সায়েদ, আউয়াল, আলামিন, সুফিয়ান, নাছির, আরিফ, সাগর, সিরাজ, আবদুর বারী, আকতার, শরিফ, হামিফ, গফুর, জাকির, আরতাব ও আলাউদ্দিন মাঝি। তাদের বাড়ি ভোলার চরফ্যাশন ও নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে।

মনপুরা জেলে সমিতির সভাপতি নাছির মহাজন জানান, শুক্রবার রাত ৮/৯টার দিকে চরফ্যাশন উপজেলার সারামজ ঘাট থেকে ১৬ জেলে নিয়ে একটি ফিশিং ট্রলার সাগরে মাছ ধরতে যায়। রাতে বঙ্গোপসাগরের চর পিয়াল পয়েন্টে ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় জেলেদের কেউ ডুবন্ত ট্রলারে আবার কেউ সাঁতরে চরে আশ্রয় নেন। কেউ আবার কেওড়া গাছে ঝুলে জীবন রক্ষা করেন। খবর পেয়ে শনিবার মনপুরা কোস্ট গার্ডের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে জেলেদের জীবিত উদ্ধার করে।

কোস্ট গার্ড দক্ষিণ জোনের মনপুরা কন্টিনজেন্ট কমান্ডার এরফারুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, কোস্ট গার্ড ১৬ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করেছে। দুর্ঘটনা কবলিত ট্রলারটিও উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

পাওনাদারের লাশ নিয়ে দেনাদারের বাড়িতে স্বজনরা

পাওনাদারের লাশ নিয়ে দেনাদারের বাড়িতে স্বজনরা

শের-ই-বাংলা মেডিক্যালে ১১ জনের মৃত্যু

শের-ই-বাংলা মেডিক্যালে ১১ জনের মৃত্যু

তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে যুবকের গলায় জুতার মালা

তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে যুবকের গলায় জুতার মালা

বিয়ের রাত কাটলো লঞ্চের ডেকে

বিয়ের রাত কাটলো লঞ্চের ডেকে

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ২০:৫৪

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে (৩০) রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে সিদ্দিকুর রহমান নামের এক স্বামীর বিরুদ্ধে। শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল ১০টায় উপজেলার চর আমান উল্যাহ ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগীর পিতা বলেন, ‘১২ বছর আগে একই গ্রামের সামছুল হকের ছেলে মো. ছিদ্দিকুর রহমানের (৩৫) সঙ্গে আমার বড় মেয়ের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে এক মেয়ে ও দুই ছেলে।’

ভুক্তভোগী বলেন, ‘বিয়ের কয়েক বছর ভালোভাবে সংসার কাটলেও গত ২-৩ বছর ধরে ছিদ্দিকুর রহমান দুই লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে আমাকে ঘরের দরজা বন্ধ করে রশি দিয়ে বেঁধে বেপরোয়া মারধর করে মেরে ফেলার হুমকি দেন। সন্তানদের রেখে আমাকে বাড়ি থেকে বের করে দেন। নিরুপায় হয়ে বাবার বাড়িতে চলে আসি। আমার পুরো শরীরে আঘাতের চিহ্ন। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে চরজব্বার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।’

চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল হক বলেন, ‘বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

শান্তির প্রস্তাব নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে কাদের মির্জা

শান্তির প্রস্তাব নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে কাদের মির্জা

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে গরু বিক্রির ১৫ লাখ টাকা লুট

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে গরু বিক্রির ১৫ লাখ টাকা লুট

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ১৯:৫৬

চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো চার থানার পুলিশ কর্মকর্তাদের শরীরে যুক্ত হয়েছে ক্যামেরা। এর আগে ঢাকায় ট্রাফিক পুলিশ ‘বডি ওর্ন ক্যামেরা’র এ কার্যক্রম শুরু করলেও থানা পর্যায়ে এবারই প্রথম চালু হয়েছে।

শনিবার (২৪ জুলাই) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (পশ্চিম) উপ-কমিশনার মো. আব্দুল ওয়ারীশ আনুষ্ঠানিকভাবে এই পাইলট প্রকল্পের উদ্বোধন করেন।

তিনি জানান, পাইলট প্রকল্পের আওতায় আপাতত সিএমপির চার বিভাগের চার থানায় এই কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। চার থানা হচ্ছে- ডবলমুরিং, কোতোয়ালী, পাঁচলাইশ এবং পতেঙ্গা। প্রত্যেক থানাকেই সাতটি করে ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ১৬ থানায় এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে।

এর আগে ঢাকায় ট্রাফিক পুলিশ এই কার্যক্রম শুরু করে। থানা পর্যায়ে দেশে প্রথমবারের মতো কার্যক্রমটি শুরু করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ। এই ক্যামেরায় ছবি, অডিও, ভিডিও রেকর্ড হয়। জিপিএস প্রযুক্তির মাধ্যমে যেকোনও স্থানে বসেই সবকিছু তদারকি করা যাবে।

এ সম্পর্কে জানতে ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, এই উদ্যোগ ডিজিটালাইজেশনের পথে পুলিশকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নেবে। এসব ক্যামেরা ভ্রাম্যমাণ সিসিটিভির কাজ করবে। যেকোনও ঘটনা আমাদের চোখ এড়িয়ে গেলেও এই ক্যামেরা সবকিছু রেকর্ড করে রাখবে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

শান্তির প্রস্তাব নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে কাদের মির্জা

শান্তির প্রস্তাব নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে কাদের মির্জা

জরিমানা পরিশোধ না করে পুলিশ পরিদর্শককে পেটানোর অভিযোগ

জরিমানা পরিশোধ না করে পুলিশ পরিদর্শককে পেটানোর অভিযোগ

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে গরু বিক্রির ১৫ লাখ টাকা লুট

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে গরু বিক্রির ১৫ লাখ টাকা লুট

নিখোঁজের দুই দিন পর পর্যটকের লাশ উদ্ধার

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ১৯:৩৬

সিলেটের জাফলংয়ে পানিতে ডুবে নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন পর ইমরান আহমেদ (১৮) নামের এক পর্যটকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

ইমরান আহমেদ টাঙ্গাইলের ঘাটাইল থানার ফুলমালির চালা এলাকার ফরিদ মিয়ার ছেলে এবং স্থানীয় ফজরগঞ্জ মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষার্থী।

শনিবার (২৪ জুলাই) বিকালে জাফলংয়ের জিরো পয়েন্টের ডাউকি নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে গত বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) বিকালে জাফলংয়ের ডাউকি নদীর জিরো পয়েন্ট এলাকায় গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হন ইমরান।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন ট্যুরিস্ট পুলিশ জাফলং জোনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন শেখ। তিনি বলেন, শনিবার বিকালে জাফলংয়ের ডাউকি নদীর জিরো পয়েন্টে এলাকায় তার লাশ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

/এএম/

সম্পর্কিত

ঈদের চতুর্থ দিনেও বসেছে পশুর হাট

ঈদের চতুর্থ দিনেও বসেছে পশুর হাট

মাছ ধরা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০

মাছ ধরা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০

সুনামগঞ্জে ৮ চিকিৎসক-নার্স করোনায় আক্রান্ত

সুনামগঞ্জে ৮ চিকিৎসক-নার্স করোনায় আক্রান্ত

সিলেটে ভোটগ্রহণ নিশ্চিতে কঠোর অবস্থানে থাকবে প্রশাসন

সিলেটে ভোটগ্রহণ নিশ্চিতে কঠোর অবস্থানে থাকবে প্রশাসন

সর্বশেষ

গৃহযুদ্ধ থেকে অলিম্পিক, সিরিয়ার এক কিশোরীর বিস্ময়কর যাত্রা

গৃহযুদ্ধ থেকে অলিম্পিক, সিরিয়ার এক কিশোরীর বিস্ময়কর যাত্রা

শান্তিচুক্তির বিরোধিতাকারী তালেবান যোদ্ধাদের দলে ভেড়াচ্ছে আইএস!

শান্তিচুক্তির বিরোধিতাকারী তালেবান যোদ্ধাদের দলে ভেড়াচ্ছে আইএস!

জরিমানা ও ব্যবস্থাপকের কারাদণ্ডে যা বললো প্রিমিয়ার সিমেন্ট

জরিমানা ও ব্যবস্থাপকের কারাদণ্ডে যা বললো প্রিমিয়ার সিমেন্ট

ট্রলারডুবির ১৮ ঘণ্টা পর ১৬ জেলে জীবিত উদ্ধার

ট্রলারডুবির ১৮ ঘণ্টা পর ১৬ জেলে জীবিত উদ্ধার

কৃষকের ঘর থেকে জাতীয় দল, কেমন চলছে শরিফুলের দিনকাল

কৃষকের ঘর থেকে জাতীয় দল, কেমন চলছে শরিফুলের দিনকাল

২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট স্থগিত

২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট স্থগিত

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

লকডাউন অমান্য: রাজধানীতে গ্রেফতার ৩৮৩ জন

লকডাউন অমান্য: রাজধানীতে গ্রেফতার ৩৮৩ জন

কমলাপুর বিআরটিসি ডিপোতে হঠাৎ আগুনে পুড়লো বাস

কমলাপুর বিআরটিসি ডিপোতে হঠাৎ আগুনে পুড়লো বাস

প্রতিদ্বন্দ্বী ইসরায়েলের, খেলতে না চাওয়ায় শাস্তি

প্রতিদ্বন্দ্বী ইসরায়েলের, খেলতে না চাওয়ায় শাস্তি

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

এক ক্যাটাগরিতে তিন রেকর্ড চীনের, ভারতের প্রথম পদক

এক ক্যাটাগরিতে তিন রেকর্ড চীনের, ভারতের প্রথম পদক

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘রোহিঙ্গা’ বলায় মাইক্রোচালককে পিটিয়ে হত্যা!

‘রোহিঙ্গা’ বলায় মাইক্রোচালককে পিটিয়ে হত্যা!

রংপুর বিভাগে করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু

রংপুর বিভাগে করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু

জরিমানা পরিশোধ না করে পুলিশ পরিদর্শককে পেটানোর অভিযোগ

জরিমানা পরিশোধ না করে পুলিশ পরিদর্শককে পেটানোর অভিযোগ

হাসপাতালে ২৭ ঘণ্টা চিকিৎসা না পেয়ে সাংবাদিকের মায়ের মৃত্যু

হাসপাতালে ২৭ ঘণ্টা চিকিৎসা না পেয়ে সাংবাদিকের মায়ের মৃত্যু

লকডাউনে বগুড়া থেকে হিলিতে চকলেট কিনতে যাওয়ায় জরিমানা

লকডাউনে বগুড়া থেকে হিলিতে চকলেট কিনতে যাওয়ায় জরিমানা

মদপানে ২ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫

মদপানে ২ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫

লকডাউন অমান্য করায় ব্যবসায়ীর ৭ দিনের জেল

লকডাউন অমান্য করায় ব্যবসায়ীর ৭ দিনের জেল

ময়লার ভাগাড় ও রাস্তায় পড়ে আছে চামড়া

ময়লার ভাগাড় ও রাস্তায় পড়ে আছে চামড়া

রংপুরে আরও ১৫ মৃত্যু, খালি নেই আইসিইউ বেড

রংপুরে আরও ১৫ মৃত্যু, খালি নেই আইসিইউ বেড

দানের মাংস বেচে মাদক কিনছে ওরা!

দানের মাংস বেচে মাদক কিনছে ওরা!

© 2021 Bangla Tribune