X
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

মুক্তিযুদ্ধের সব দলিল অবমুক্ত করবে ভারত

আপডেট : ১৪ জুন ২০২১, ১৪:৪৭

পঞ্চাশ বছর আগে যে ঐতিহাসিক মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের জন্ম এবং যে যুদ্ধের সামরিক অঙ্গনে ভারতেরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল–ভারতের হেফাজতে থাকা সেই সংক্রান্ত যাবতীয় দলিল দস্তাবেজ ও নথিপত্র ডিক্লাসিফাই (অবমুক্ত বা প্রকাশ) করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিল্লি। 

শনিবার (১২ জুন) দিল্লির সাউথ ব্লকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, পঁচিশ বছর পেরিয়ে গেলেই ভারত তাদের সব যুদ্ধ ও সামরিক অভিযানের কাগজপত্র, চিঠি বা ই-মেইল প্রকাশ্যে নিয়ে আসবে।

আর যে যুদ্ধগুলোর বয়স পঁচিশ বছরেরও বেশি (যেমন একাত্তর) সেক্ষেত্রে আর্কাইভ বিশেষজ্ঞরা সেগুলো খতিয়ে দেখবেন এবং সেই যুদ্ধের ইতিহাস সংকলনের পর সব নথিপত্র ভারতের ‘ন্যাশনাল আর্কাইভস’ বা জাতীয় মহাফেজখানায় সংরক্ষণ করা হবে। 

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং নিজে ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেছেন এবং তিনিই এই সিদ্ধান্তে সিলমোহর দিয়েছেন।

রাহুল বেদী

ভারতের শীর্ষস্থানীয় প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ রাহুল বেদী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘আমি যতদূর জানতে পেরেছি বাষট্টির চীন-ভারত যুদ্ধের ফাইলপত্র ছাড়া বাকি সব যুদ্ধ বা অভিযানই এই সিদ্ধান্তের আওতায় আসবে। ফলে অবশ্যই একাত্তরও তার মধ্যে পড়বে।’

‘এই উপমহাদেশের ইতিহাসে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে একটি মাইলফলক হিসেবে ধরা হয়। সেই যুদ্ধের নানা অজানা দিক এর ফলে উন্মোচিত হবে ধরেই নেওয়া যায়’—মন্তব্য করেন তিনি।

বাষট্টির যুদ্ধে চীনের কাছে ভারতের শোচনীয় পরাজয়কে স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে একটি অন্যতম অগৌরবের অধ্যায় বলে ধরা হয়। ফলে সেটির নথিপত্র প্রকাশের ক্ষেত্রে একটা অস্বস্তি আজও কাজ করছে।

যেমন, ওই যুদ্ধে ভারতীয় সেনার ভূমিকা নিয়ে একটি রিপোর্ট দিয়েছিল হেন্ডারসন-ব্রুকস-ভগত কমিশন, যার বিষয়বস্তু আজ ছয় দশক পরেও প্রকাশ্যে আনা হয়নি। তবে একাত্তরের ক্ষেত্রে সেরকম কোনও সমস্যা নেই; বরং শুধু মুক্তিবাহিনী নয়, সেটি ছিল ভারতীয় সেনার জন্যও গর্বের মুহূর্ত। কিন্তু সেই যুদ্ধের সব দলিল অবমুক্ত হলে নতুন কী তথ্য জানা যেতে পারে?

জেনারেল স্যাম মানেকশ

প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন:

ক) তৎকালীন সেনাপ্রধান জেনারেল স্যাম মানেকশ (‘স্যাম বাহাদুর’) যুদ্ধের জন্য কী ধরনের কৌশল ঠিক করেছিলেন বা অধস্তন কর্মকর্তাদের কী ধরনের নির্দেশ পাঠাচ্ছিলেন? 

খ) মুক্তিবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া ও অস্ত্র সাহায্যের পেছনে কী ধরনের পরিকল্পনা ছিল? 

গ) যুদ্ধের পরিকল্পনায় কলকাতায় ইস্টার্ন ফ্রন্টিয়ারের প্রধান জগজিৎ সিং অরোরার অবদান কী ছিল? 

ঘ) আত্মসমর্পণে পাকিস্তানি সেনাকে বাধ্য করার ক্ষেত্রে ভারতের আর একজন জেনারেল জে এফ আর জেকবের ভূমিকা নিয়েও নানা রকম তর্কবিতর্ক আছে– কিন্তু আসল সত্যিটা কী?

ঙ) বঙ্গোপসাগরে পাকিস্তানি ডুবোজাহাজ পিএনএস গাজীর ধ্বংস হওয়ার পেছনে আসল রহস্যটা কী? 

চ) যুদ্ধ শেষে স্বাধীন বাংলাদেশের মাটি থেকে ভারতের সৈন্য প্রত্যাহার নিয়ে সেনাবাহিনী কী ভেবেছিল? পাকিস্তানি যুদ্ধবন্দিদের দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারেই বা তাদের কী মত ছিল?

এবং এরকম আরও বহু বিষয়, যার সুস্পষ্ট উত্তর এখনও খুব ভালোভাবে জানা নেই।

ভারতের সামরিক ইতিহাসবিদদের যাচাই বাছাই শেষে একাত্তরের এসব অজানা তথ্যই দিনের আলো দেখবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

করোনায় আটকে আছে ত্রিদেশীয় বৈঠক

করোনায় আটকে আছে ত্রিদেশীয় বৈঠক

ভারত থেকে ২০০ টন অক্সিজেন আসছে

ভারত থেকে ২০০ টন অক্সিজেন আসছে

ভারত-চীন-রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন মোমেন

ভারত-চীন-রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন মোমেন

বাংলাদেশের প্রতি এখন ভারতীয়দের অন্য নজর

বাংলাদেশের প্রতি এখন ভারতীয়দের অন্য নজর

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২৩:৫১

চীনের সঙ্গে কেনা চুক্তির আওতায় দেশে আরও ১০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা বিমানবন্দরে পৌঁছেছে বলে বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক।

টিকা গ্রহণ করতে তিনি বিমানবন্দরে আছেন জানিয়ে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ১০ টার কিছু সময় পরে টিকাবহনকারী বিমান বিমানবন্দরে পৌঁছেছে।

এর আগে আজ সন্ধ্যায় চীনের সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসছে বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

তারপর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা, দিবাগত রাত ১টা ও ৩টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে টিকা এসে পৌঁছাবে।

টিকা হাতে পাওয়ার পর সেগুলো সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির কোল্ড স্টোরেজে রাখা হবে বলে জানান ডা. শামসুল হক।

এদিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপ-মহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকার জানান, মোট ৩০ লাখ ডোজ কোভিড টিকা দেশে আনতে ২৯ জুলাই  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর অত্যাধুনিক তিনটি ড্রিমলাইনার (একটি বোয়িং ৭৮৭-৯ ও দুইটি বোয়িং ৭৮৭-৮) ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে চীনের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে প্রয়োজনীয় তাপমাত্রায় বিশেষ ব্যবস্থার মাধ্যমে এসব টিকা দেশে আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। আন্তর্জাতিক এভিয়েশন নীতিমালা ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সুরক্ষানীতি যথাযথভাবে অনুসরণ করে করোনা মহামারীকালীন সময়ে সাশ্রয়ী খরচে টিকা, ভেন্টিলেটর ও অন্যান্য সুরক্ষাসামগ্রী পরিবহন করছে বিমান।  

উল্লেখ্য, সিনোফার্মের দেড় কোটি ডোজ টিকা কিনতে চীনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সরকার। তিন মাসের মধ্যে এগুলো দেশে আসবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এর আগে চুক্তির আওতায় গত ৩ জুলাই দিনে এবং ওইদিন রাতে দুই দফায় ২০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা চীন থেকে দেশে পৌঁছায়। এরপর গত ১৭ জুলাই ১০ লাখ এবং ১৮ জুলাই আরও ১০ লাখ, মোট ২০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসে।

তারও আগে গত ১২ মে পাঁচ লাখ এবং ১৩ জুন ছয় লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে দেয় চীন সরকার।

সেই হিসেবে উপহার এবং কেনা চুক্তির আওতায় মোট ৫১ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে এসেছে। বৃহস্পতিবার রাতে ৩০ লাখ ডোজ হাতে এলে মোট ৮১ লাখ সিনোফার্মের টিকা পাবে বাংলাদেশ।

 

/জেএ/সিএ/এফএএন/

সম্পর্কিত

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

২৪ ঘণ্টায় আরও ২৩৯ মৃত্যু

২৪ ঘণ্টায় আরও ২৩৯ মৃত্যু

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২২:৩৫

দেশে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি শুরুর পর এখন পর্যন্ত ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে ১ কোটি ২৮ লাখ ৫০ হাজার ৮৩৪ ডোজ। এর মধ্যে এক ডোজ নিয়েছেন ৮৫ লাখ ২১ হাজার ৩৫০ জন এবং টিকার দুই ডোজ নিয়েছেন ৪৩ লাখ ২৯ হাজার ৪৮৪ জন। এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকার ফর্মুলায় ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটের তৈরি কোভিশিল্ড, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানান যায়। এদিন মোট টিকা দেওয়া হয়েছে ২ লাখ ৫৮ হাজার ৮৫ ডোজ।       

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়,আজ কোভিশিল্ডের কোনও ডোজ দেওয়া হয়নি। এখন পর্যন্ত কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৫৮ লাখ ২০ হাজার ৩৩ জন। আর  দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৪২ লাখ ৯৮ হাজার ৮৬ জন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের পাঠানো তথ্য থেকে আরও জানা যায়, প্রথম ডোজ নেওয়া ৫৮ লাখ ২০ হাজার ৩৩ জনের মধ্যে সাড়ে ১৪ লাখের মতো মানুষের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে সংকট। এদের সবাইকেই অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকারই দ্বিতীয় ডোজ দিতে হবে। কেননা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এখনও দুই কোম্পানির দুই ডোজের টিকা গ্রহণের কোনও সিদ্ধান্ত দেয়নি।

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ আজ দেওয়া হয়নি তবে দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৪০২ জন। আর এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে ৫০ হাজার ৯২৫ জনকে।

এছাড়া ২০ লাখ ৬৬ হাজার ৬৫১ ডোজ সিনোফার্মের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে এখন পর্যন্ত। এর মধ্যে  প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২০ লাখ ৩৫ হাজার ৯৪৩ জনকে আর দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৩০ হাজার ৭০৮ জনকে।

মডার্নার টিকা এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে ৬ লাখ ১৫ হাজার ১৩৯ ডোজ, আর আজকে দেওয়া হয়েছে ৬৯ হাজার ৬৮৬ ডোজ।

আর এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছে ১ কোটি ৪০ লাখ ৯০ হাজার ৩৭৩ জন।

 

/এসও/এফএএন/  

সম্পর্কিত

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

২৪ ঘণ্টায় আরও ২৩৯ মৃত্যু

২৪ ঘণ্টায় আরও ২৩৯ মৃত্যু

অবৈধ মজুতদারদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হবে: খাদ্যমন্ত্রী

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২১:০৭

বেসরকারিভাবে চাল আমদানির বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। তিনি জানিয়েছেন, চালের অবৈধ মজুতদারদের বিরুদ্ধে দ্রুতই অভিযান শুরু হবে। 

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ঢাকায় সরকারি বাসভবন থেকে ‘চালের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা, কৃষি বিপণন অধিদফতরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. আসাদুল্লাহ এবং খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক শেখ মুজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। 

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, এবার পুরো বোরো মৌসুমেই চালের দাম বেশি। কিন্তু চাল উৎপাদনে ঘাটতি নেই, বাজারে পর্যাপ্ত চাল আছে বলে কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে। কিন্তু চালের দাম কিছুতেই বাগে আসছে না।

মন্ত্রী বলেন, ‘সরকার ভোক্তাদের স্বার্থ রক্ষায় চালের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ইতোমধ্যে পদক্ষেপ নিয়েছে। বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে, এটি আরও জোরদার করা হবে। পাশাপাশি অবৈধ মজুতদারদের বিরুদ্ধে দ্রুতই অভিযান শুরু হবে।’

তিনি বলেন, ‘সরকারিভাবে চাল আমদানি হচ্ছে এবং বেসরকারিভাবে চাল আমদানির বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।’ মিল মালিক ও ব্যবসায়ীদের ভোক্তাদের প্রতি মানবিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অতি মুনাফাখোর ও অবৈধ মজুতদারদের সঙ্গে কোনও আপস করা হবে না।’
সভায় মিল মালিকদের প্রতিনিধি কুষ্টিয়ার আব্দুর রশিদ বলেন, ‘এ বছর ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষক নায্যমূল্যও পেয়েছে। ধান চালের ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত নন এমন কিছু ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান ধানের অবৈধ মজুত করেছে অধিক মুনাফার আশায়। মনিটরিংয়ের মাধ্যমে এ সকল ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিতে হবে।’

ব্যবসায়ী প্রতিনিধি এসিআই লিমিটেডের অনুপ কুমার সাহা বলেন, বাংলাদেশে ধানের দাম বেশি হওয়ার কারণে চালের দাম বেশি হচ্ছে। কৃষকের উৎপাদন খরচ কম হলে চালের দামও কমে যাবে। কৃষি পণ্যের উৎপাদন খরচের সঠিক পরিসংখ্যান থাকলে বাজার মনিটরিং সহজ হবে বলেও জানান তিনি। 

/এসআই/এমআর/

সম্পর্কিত

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২১:৪৩

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৩৯ জন। এদের নিয়ে সরকারি হিসাবে মোট মারা গেলেন ২০ হাজার ২৫৫ জন। একই সময়ে শনাক্ত হয়েছেন ১৫ হাজার ২৭১ জন। এ নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে মোট শনাক্ত হলেন ১২ লাখ ২৬ হাজার ২৫৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি রোগীর মৃত্যু এবং সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে ঢাকা বিভাগে। মারা যাওয়া ২৩৯ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন ৭৬ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৫৭ জন, রাজশাহী বিভাগের ১৩ জন, খুলনা বিভাগের ৪৫ জন, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের ১৪ জন করে, রংপুর বিভাগের ১১ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের ৯ জন।

আর শনাক্ত হওয়া ১৫ হাজার ২৭১ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ছয় হাজার ৯৯৬ জন, ময়মনসিংহ বিভাগের ৬৮৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের তিন হাজার ৭৬৮ জন, রাজশাহী বিভাগের ৭৩৫ জন, রংপুর বিভাগের ৭৪৮ জন, খুলনা বিভাগের এক হাজার ১৯ জন, বরিশাল বিভাগের ৬৫৬ জন এবং সিলেট বিভাগের ৬৬০ জন।

এর আগে ২৫ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদফতরের বুলেটিনে অধিদফতরের মুখপাত্র অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, সংক্রমণ ও মৃত্যুতে এগিয়ে ঢাকা।

জেলাভিত্তিক শনাক্তের হিসাবে ঢাকা জেলা শীর্ষে অবস্থান করছে। আর ঢাকায় ইতোমধ্যে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা চার লাখ ছাড়িয়ে গেছে জানিয়ে তিনি সেদিন বলেছিলেন, তারপরে আছে যথাক্রমে চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, সিলেট, বগুড়া, নারায়ণগঞ্জ, খুলনা, ফরিদপুর। সবচেয়ে কম রোগী রাজশাহীতে।

‘জেলাভিত্তিক বিশ্লেষণ ছাড়াও বিভাগভিত্তিক মৃত্যুর হারেও ঢাকা বিভাগ প্রথম। এরপর রয়েছে খুলনা বিভাগ’, বলেন অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম।

 

/জেএ/আইএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা আসছে রাতে

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২১:৫২

চীনের সিনোফার্মের আরও ৩০ লাখ ডোজ টিকা বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাতে দেশে আসছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। স্বাস্থ্য অধিদফতর গঠিত ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা, দিবাগত রাত ১টা ও ৩টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে টিকা এসে পৌঁছাবে।

টিকা হাতে পাওয়ার পর সেগুলো সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির কোল্ড স্টোরেজে রাখা হবে বলে জানান ডা. শামসুল হক।

সিনোফার্মের দেড় কোটি ডোজ টিকা কিনতে চীনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে সরকার। তিন মাসের মধ্যে এগুলো দেশে আসবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এর আগে চুক্তির আওতায় গত ৩ জুলাই দিনে এবং ওইদিন রাতে দুই দফায় ২০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা চীন থেকে দেশে পৌঁছায়। এরপর গত ১৭ জুলাই ১০ লাখ এবং ১৮ জুলাই আরও ১০ লাখ, মোট ২০ লাখ ডোজ টিকা দেশে আসে।

তারও আগে গত ১২ মে পাঁচ লাখ এবং ১৩ জুন ছয় লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে দেয় চীন সরকার।

সেই হিসেবে উপহার এবং কেনা চুক্তির আওতায় মোট ৫১ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে এসেছে। বৃহস্পতিবার রাতে ৩০ লাখ ডোজ হাতে এলে মোট ৮১ লাখ সিনোফার্মের টিকা পাবে বাংলাদেশ। 

 

/জেএ/আইএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ দেশে পৌঁছেছে

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

সিনোফার্মের টিকা ২০ লাখ দেওয়া শেষ 

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

সর্বশেষ

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৯ কোটি ৭২ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৯ কোটি ৭২ লাখ ছাড়িয়েছে

কিউবায় আটক বিক্ষোভকারীদের মুক্তি দাবি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

কিউবায় আটক বিক্ষোভকারীদের মুক্তি দাবি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

তিউনিসিয়াকে গণতান্ত্রিক পথে ফেরার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

তিউনিসিয়াকে গণতান্ত্রিক পথে ফেরার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

অগ্নিকাণ্ডের ১৫ দিনেও চালু হয়নি আইসিইউ

অগ্নিকাণ্ডের ১৫ দিনেও চালু হয়নি আইসিইউ

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

সংঘর্ষে নিহত নন, তালেবানের হাতে ‘খুন’ হয়েছেন দানিশ সিদ্দিকি

সংঘর্ষে নিহত নন, তালেবানের হাতে ‘খুন’ হয়েছেন দানিশ সিদ্দিকি

হেলেনা জাহাঙ্গীর আটক

হেলেনা জাহাঙ্গীর আটক

রামেবির প্রতিষ্ঠাকালীন উপাচার্য মাসুম হাবিব আর নেই

রামেবির প্রতিষ্ঠাকালীন উপাচার্য মাসুম হাবিব আর নেই

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

অবিবাহিত বড় ভাই, আত্মহত্যা ছোট ভাইয়ের

অবিবাহিত বড় ভাই, আত্মহত্যা ছোট ভাইয়ের

ভারতকে হারিয়ে ওয়ানডে সিরিজের বদলা নিলো শ্রীলঙ্কা

ভারতকে হারিয়ে ওয়ানডে সিরিজের বদলা নিলো শ্রীলঙ্কা

লেনোভো বাজারে নিয়ে এলো দুটি নতুন ট্যাব

লেনোভো বাজারে নিয়ে এলো দুটি নতুন ট্যাব

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনায় আটকে আছে ত্রিদেশীয় বৈঠক

করোনায় আটকে আছে ত্রিদেশীয় বৈঠক

ভারত থেকে ২০০ টন অক্সিজেন আসছে

ভারত থেকে ২০০ টন অক্সিজেন আসছে

ভারত-চীন-রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন মোমেন

ভারত-চীন-রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন মোমেন

বাংলাদেশের প্রতি এখন ভারতীয়দের অন্য নজর

বাংলাদেশের প্রতি এখন ভারতীয়দের অন্য নজর

ভারত থেকে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়লো, সঙ্গে আরও কড়াকড়ি

ভারত থেকে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়লো, সঙ্গে আরও কড়াকড়ি

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে বাংলাদেশে

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে বাংলাদেশে

মোমেনকে ধন্যবাদ জানালেন মমতা

মোমেনকে ধন্যবাদ জানালেন মমতা

ভারতকে রেমডিসিভির হস্তান্তর

ভারতকে রেমডিসিভির হস্তান্তর

৫ লাখ ডোজ টিকা আসছে ঈদের আগে

৫ লাখ ডোজ টিকা আসছে ঈদের আগে

ভ্যাকসিন না এলে টাকা ফেরত

ভ্যাকসিন না এলে টাকা ফেরত

© 2021 Bangla Tribune