X
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

শেষ দিনেও ক্যাম্পাসে যাননি ভিসি কলিমউল্লাহ, শিক্ষার্থীদের মিষ্টি বিতরণ 

আপডেট : ১৪ জুন ২০২১, ১৭:১৯

শেষ কর্মদিবসেও ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত ছিলেন রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। তার বিদায়ের দিনে ক্যাম্পাসে মিষ্টি বিতরণ, আতশবাজিসহ আগরবাতি প্রজ্বলন করেছেন শিক্ষার্থীরা।

রবিবার (১৩ জুন) ছিল উপাচার্য কলিমউল্লাহর শেষ কর্মদিবস। এদিন চার বছর মেয়াদ পূর্ণ হয়েছে তার। মেয়াদ বর্ধিত না হওয়ায় তাকে বিদায় নিতে হয়। এ উপলক্ষে রাত ৮টায় ক্যাম্পাসে মিষ্টি বিতরণ, আতশবাজিসহ আগরবাতি প্রজ্বলন করেন শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে আনন্দ উদযাপন করেন তারা।

তবে রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের সহকারী পরিচালক এহতেরামুল হক স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিদায়ী উপাচার্য কলিমউল্লাহ তার চার বছর মেয়াদকালে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। একই সঙ্গে সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন বিদায়ী উপাচার্য।

শিক্ষার্থীরা জানান, গত চার বছর উপাচার্য কলিমউল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয়কে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছেন। দুই-তিন বছরের সেশনজটে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। বিদায়ের দিনে তার প্রতি ঘৃণা জানাতে আতশবাজি ও মিষ্টি বিতরণ করেছেন তারা।

এদিকে উপাচার্য কলিমউল্লাহ সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টায় অনলাইনে ক্লাস নিয়ে নজির স্থাপন করেছেন বলে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন।

প্রতিদিন ২২ ঘণ্টা কাজ করার দাবি, দীর্ঘদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকা, একাই ২৬টি কোর্সের দায়িত্ব নেওয়া, হিন্দি গানে ড্যান্স, অনিয়ম-দুর্নীতির প্রমাণ ও সর্বশেষ শিক্ষামন্ত্রীকে নিয়ে উদ্ভট মন্তব্য করে বিতর্কের জন্ম দেন কলিমউল্লাহ। কিন্তু তার বিরুদ্ধে সবচেয়ে বড় অভিযোগ, ক্যাম্পাসে না থেকে ঢাকায় বসে লিয়াজোঁ অফিসের নামে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন কার্যক্রম চালাতেন তিনি।

বেরোবি শিক্ষার্থীদের মিষ্টি বিতরণ

এ নিয়ে বিভিন্ন সময়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ ও ক্যাম্পাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলন হলেও তিনি কর্ণপাত না করে লিয়াজোঁ অফিসে কার্যক্রম চালাতেন।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, লিয়াজোঁ অফিসে বসে নিয়োগ বাণিজ্য চালাতেন, সিন্ডিকেট মিটিং ক্যাম্পাসে না করে লাখ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে অর্থ আত্মসাৎ করেছেন, ফাউন্ডেশন ট্রেনিংয়ের নামে নিয়োগকৃত শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কাছ থেকে ব্যবসা করতেন, তার পছন্দের দোকান থেকে দামি পোশাক কেনা, তার লিখিত বই উচ্চমূল্যে কেনা; এমনি পছন্দের সেলুন থেকে নির্দিষ্ট মাপে উচ্চমূল্যে চুল কাটাতে হতে ফাউন্ডেশন ট্রেনিংয়ে অংশগ্রহণকারীদের। যা সবার জন্য বাধ্যতামূলক ছিল।

এসব বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও অধিকার সুরক্ষা পরিষদ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ দেয়। যার তদন্ত শেষ করেছে ইউজিসির গঠিত তদন্ত কমিটি।

এরই মধ্যে উপাচার্যকে ক্যাম্পাসে না পেয়ে অধিকার সুরক্ষা পরিষদ ক্যাম্পাসে হাজিরা খাতা টানিয়ে দিয়েছিল। সর্বশেষ ১ জুন ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকের ভেতরে পুনরায় হাজিরা খাতা টানিয়ে দেওয়া হয়। সেখানে উপাচার্যের হাজিরা নিয়ে মূল্যায়নে বলা হয়েছিল, ‘ডিসকোয়ালিফাইড’ এবং সুপারিশ করা ছিল দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি।

এই হাজিরা খাতায় উল্লেখ করা হয়, ৩১ মে পর্যন্ত উপাচার্য হিসেবে ক্যাম্পাসে উপস্থিত ছিলেন মাত্র ২৪০ দিন। তার মোট কার্যকাল ১ হাজার ৪৬০ দিনের মধ্যে অনুপস্থিতি ছিল ১ হাজার ২২০ দিন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহ্বায়ক ড. মতিউর রহমান বলেন, যোগদানের পর থেকেই নানা বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন কলিমউল্লাহ। শেষ দিনেও ক্যাম্পাসে এলেন না। আইন-কানুনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নিজের মতো করে বিদায় নিলেন। দায়িত্ব হস্তান্তর পর্যন্ত করলেন না। এটি একটি খারাপ উদাহরণ হয়ে থাকবে।

বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বলেন, উপাচার্য কলিমউল্লাহর বিদায় আমাদের ব্যথিত করেনি বরং অনেক আনন্দ দিয়েছে। এখন আমাদের একটাই চাওয়া, তার সব অনিয়ম-দুর্নীতি তদন্ত করে দ্রুত সময়ের মধ্যে বিচার শুরু করা। 

এসব বিষয়ে জানতে উপাচার্য কলিমউল্লাহর মোবাইল নম্বরে অর্ধশতবার ফোন দিলেও রিসিভ করেননি। এমনকি একাধিকবার মেসেজ দিলেও উত্তর দেননি। 

 

/এএম/

সম্পর্কিত

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

অগ্নিকাণ্ডের ১৫ দিনেও চালু হয়নি আইসিইউ

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ০১:৪৬

অগ্নিকাণ্ডের পর ১৫ দিন কেটে গেলেও এখনও চালু হয়নি টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ)। ফলে আইসিইউ সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এ জেলার ১২ উপজেলার করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীরা।

জানা গেছে, গত ১৫ জুলাই টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ ইউনিটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনের সূত্রপাত হয় হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা থেকে। ওইদিন ইউনিটের ১০টি শয্যায় থাকা রোগীদের তাড়াহুড়ো করে হাসপাতালের বাইরে নিরাপদ স্থানে রাখা হয়। অক্সিজেন সাপোর্ট না পেয়ে অনেকে রোগীর অবস্থা অবনতি হয়। এমতাবস্থায় একাধিক রোগীকে অন্যত্র রেফার্ড করেন চিকিৎসকরা। এর মধ্যে ওইদিন বাইরে অনেকেরই মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সোহানা নাসরিনকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি প্রতিবেদনে জানায়, আইসিইউতে হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা মেশিনের মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার এবং নির্দেশনা অনুযায়ী মেশিন ব্যবহার না করার কারণে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছিল। প্রতিবেদনটিতে আটটি সুপারিশও করা হয়েছে।

এদিকে এই অগ্নিকাণ্ডের পর ১৫ দিন গেলেও আইসিইউ সেবা চালু করতে পারেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ফলে এ জেলার মুমূর্ষু রোগীরা এখন আইসিইউ সেবা থেকে বঞ্চিত। বর্তমানে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ৫৬ জন করোনা রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রোগীর স্বজনদের অভিযোগ, আইসিইউ সেবা বন্ধ থাকায় মুমূর্ষু রোগীদের অন্যত্র রেফার্ড করা হচ্ছে। হাসপাতালে আইসিইউ সেবা না পেয়ে অনেকেরই মৃত্যু হচ্ছে।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) শফিকুল ইসলাম সজিব বলেন, ‘আইসিইউ এখনও চালু হয়নি। আইসিইউ প্রস্তুতের কাজ অনেকটাই শেষের দিকে। আগামী শনিবার নাগাদ চালু হতে পারে।’

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) জেলায় করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে ৫৩০টি নমুনা পরীক্ষায় ১২৫ জনের দেহে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৪৬৯ জনে। আর মৃত্যু হয়েছে ২০৯ জনের।

/এফআর/

সম্পর্কিত

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

৩ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরি চলাচল শুরু

৩ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরি চলাচল শুরু

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ০১:১২

নোয়াখালীর হাতিয়ার ঠেঙ্গারচর এলাকায় মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় ট্রলারডুবির ঘটনায় এক জেলের লাশ ও ১১ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

মারা যাওয়া শ্যামল চন্দ্র জলদাস (২৩) উপজেলার চরকিং ইউনিয়নের দাসেরহাট এলাকার দক্ষিণ শুল্লুকিয়া গ্রামের মতিলাল চন্দ্র জলদাসের ছেলে। উদ্ধার ১১ জেলে ওই ইউনিয়নের বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোস্টগার্ড হাতিয়ার স্টেশন কমান্ডার লে. এ এস এম লুৎফর রহমান।

তিনি বলেন, ২৭ জুলাই মাছ ধরার ট্রলার নিয়ে রওনা হন ১২ জেলে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সাগরে না গিয়ে ঠেঙ্গারচরে আশ্রয় নেন। বৃহস্পতিবার ট্রলার নিয়ে এলাকায় রওনা হন তারা। মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় আবহাওয়ার কবলে পড়ে তাদের ট্রলার ডুবে যায়। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ৮টায় ১১ জেলেকে জীবিত ও একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। রাত সাড়ে ১০টায় মৃত জেলের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

/এএম/

সম্পর্কিত

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ০০:১৬

নারায়ণগঞ্জের বহুল আলোচিত চাঁনমারি বস্তিটি শতভাগ উচ্ছেদ করেছে জেলা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশের এ বস্তিতে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। এতে সেখানে থাকা পাঁচ শতাধিক ঘর গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় পাঁচ শতাধিক ঘর ছিলো এই চাঁনমারি বস্তিতে। প্রশাসনের নাকের ডগায় এ বস্তিতে কয়েক যুগ ধরেই মাদক ব্যবসা চলছিলো। নিয়মিতই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানও হতো এখানে। তবে শত প্রচেষ্টার পরও এখানে বন্ধ করা যায়নি মাদক ব্যবসা।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম বলেন, ‘এটি অনেক পুরান বস্তি। এর পাশে অবস্থিত পুলিশ সুপার, জেলা প্রশাসক ও জেলা দায়রা জজসহ গুরুত্বপূর্ণ কার্যালয় রয়েছে। এই বস্তিতে মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বেশ কয়েকবার সংঘর্ষ হয়েছে। তাছাড়া যতবারই এই বস্তি উচ্ছেদ হয়েছে ততবারই কোনও না কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি যোগদানের পর থেকেই নারায়ণগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল, এই এখান থেকে মাদক নির্মূল করা এবং এই বস্তি অপসারণ করা। নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ গত তিন দিন এই উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করেছে এবং বৃহস্পতিবার বস্তিটি শতভাগ উচ্ছেদ করা হয়েছে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

অগ্নিকাণ্ডের ১৫ দিনেও চালু হয়নি আইসিইউ

অগ্নিকাণ্ডের ১৫ দিনেও চালু হয়নি আইসিইউ

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

৩ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরি চলাচল শুরু

৩ ঘণ্টা পর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরি চলাচল শুরু

রাস্তা পার হতে গিয়ে প্রাণ হারালেন স্বামী-স্ত্রী

রাস্তা পার হতে গিয়ে প্রাণ হারালেন স্বামী-স্ত্রী

অবিবাহিত বড় ভাই, আত্মহত্যা ছোট ভাইয়ের

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ০০:০৭

ভোলার চরফ্যাশনে বড় ভাই অবিবাহিত থাকায় পরিবারের বাধার মুখে প্রেমিকাকে বিয়ে করতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন ছোট ভাই মো. রিয়াজ (১৮)।

বুধবার (২৮ জুলাই) রাতে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের উত্তর আইচা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। 

পুলিশ ও স্বজনরা জানিয়েছেন, কয়েক মাস ধরে অপরিচিত এক মেয়ের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন রিয়াজ। কিছুদিন আগে ওই মেয়ের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক হয়। বুধবার ওই মেয়েকে বিয়ে করার জন্য পরিবারকে জানান। কিন্তু বড় ভাই অবিবাহিত থাকায় পরিবার বাধা দেয়। ওই দিন রাতেই বিষপান করেন রিয়াজ। তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শশীভূষণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রেমিকাকে বিয়ে করতে পরিবারের সম্মতি না পেয়ে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে ওই যুবক। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

/এএম/

সম্পর্কিত

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

৭১ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ায় তরুণীর আত্মহত্যা

৭১ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ায় তরুণীর আত্মহত্যা

বীর মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা, তিন ছেলেকে কুপিয়ে জখম

বীর মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা, তিন ছেলেকে কুপিয়ে জখম

কুপিয়ে ছাত্রলীগ নেতার কবজি কেটে নিলেন অপর নেতা  

কুপিয়ে ছাত্রলীগ নেতার কবজি কেটে নিলেন অপর নেতা  

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২৩:৪৪

জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ভোরে তিনি মারা যান।

তার নাম তানজিদা মোরশেদ (২৬)। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ২০১২–১৩ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী ছিলেন। নগরের হালিশহর এলাকায় পরিবার নিয়ে থাকতেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর রবিউল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘তানজিদা মোরশেদ আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্রী ছিলেন। তার বাবা বেঁচে নেই। দুই বোনের মধ্যে সে ছোট। বড় বোনের বিয়ে হয়ে যাওয়ায় মাকে নিয়ে সে নগরের হালিশহর এলাকায় থাকতেন। জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আজ ভোরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। সকাল সাড়ে ১০টায় জানাজা শেষে হালিশহর বি ব্লকের বিহারি কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।’

তার মা পারভীন নাহার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ঈদের এক দিন আগে তানজিদার জ্বর হয়েছিল। বাসার পাশের ফার্মেসি থেকে ওষুধ কিনে খাওয়ার পরও জ্বর কমেনি। উল্টো শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। পরে অবস্থা আরও খারাপ হতে থাকে। শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে বুধবার (২৮ জুলাই) দুপুর ২টায় আমরা তাকে প্রথমে মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানে সিট খালি না পেয়ে ডায়াবেটিক হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করি।’

তিনি আরও বলেন, ‘সেখানে রাত ১২টা পর্যন্ত অক্সিজেনের সুবিধা দিয়ে রাখার পর, সার্জিস্কোপ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাকে আইসিইউতে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ভোর সাড়ে ৫টার দিকে মারা যায়।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

সর্বশেষ

কাতারে খেজুর উৎসবের পর্দা নামছে আজ

কাতারে খেজুর উৎসবের পর্দা নামছে আজ

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৯ কোটি ৭২ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৯ কোটি ৭২ লাখ ছাড়িয়েছে

কিউবায় আটক বিক্ষোভকারীদের মুক্তি দাবি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

কিউবায় আটক বিক্ষোভকারীদের মুক্তি দাবি ইউরোপীয় ইউনিয়নের

তিউনিসিয়াকে গণতান্ত্রিক পথে ফেরার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

তিউনিসিয়াকে গণতান্ত্রিক পথে ফেরার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

অগ্নিকাণ্ডের ১৫ দিনেও চালু হয়নি আইসিইউ

অগ্নিকাণ্ডের ১৫ দিনেও চালু হয়নি আইসিইউ

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

সংঘর্ষে নিহত নন, তালেবানের হাতে ‘খুন’ হয়েছেন দানিশ সিদ্দিকি

সংঘর্ষে নিহত নন, তালেবানের হাতে ‘খুন’ হয়েছেন দানিশ সিদ্দিকি

হেলেনা জাহাঙ্গীর আটক

হেলেনা জাহাঙ্গীর আটক

রামেবির প্রতিষ্ঠাকালীন উপাচার্য মাসুম হাবিব আর নেই

রামেবির প্রতিষ্ঠাকালীন উপাচার্য মাসুম হাবিব আর নেই

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৫০০ ঘরের বস্তিটি

অবিবাহিত বড় ভাই, আত্মহত্যা ছোট ভাইয়ের

অবিবাহিত বড় ভাই, আত্মহত্যা ছোট ভাইয়ের

ভারতকে হারিয়ে ওয়ানডে সিরিজের বদলা নিলো শ্রীলঙ্কা

ভারতকে হারিয়ে ওয়ানডে সিরিজের বদলা নিলো শ্রীলঙ্কা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

আইসিইউ খালি নেই রংপুর বিভাগের করোনা হাসপাতালে

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল শুরু ১ আগস্ট

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

রংপুরে বিভাগে ২৯ দিনে ৪৪৪ জনের মৃত্যু

সিনোফার্মের টিকা নিলেন ২২৬ চীনা নাগরিক

সিনোফার্মের টিকা নিলেন ২২৬ চীনা নাগরিক

চারমাস ধরে সুনসান সুন্দরবন, সংকটে ট্যুর কর্মীরা

চারমাস ধরে সুনসান সুন্দরবন, সংকটে ট্যুর কর্মীরা

চাঁদপুর হাসপাতালে ৮ ঘণ্টায় ৭ মৃত্যু

চাঁদপুর হাসপাতালে ৮ ঘণ্টায় ৭ মৃত্যু

কুষ্টিয়ায় আরও ১১ মৃত্যু

কুষ্টিয়ায় আরও ১১ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে ২৪ ঘণ্টায় ১৬ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে ২৪ ঘণ্টায় ১৬ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু 

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু 

© 2021 Bangla Tribune