X
সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

মুক্তিযোদ্ধাদের গার্ড অব অনারে নারী কর্মকর্তায় আপত্তি, প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি

আপডেট : ১৫ জুন ২০২১, ১২:২২

মৃত্যুবরণকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ‘গার্ড অব অনার’ দেওয়ার ক্ষেত্রে নারী ইউএনও (উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা) বাদ রাখতে সংসদীয় কমিটির সুপারিশ যাতে বাস্তবায়ন না হয় সে জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের দাবি উঠেছে সংসদে। মঙ্গলবার (১৫ জুন) পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এ দাবি করেন। সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সময় সংসদে উপস্থিত ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সুপারিশ তুলে ধরে শিরীন বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধারা মারা যাওয়ার পর তাদের যে সম্মান প্রদর্শন করা হয় তাতে যেন নারী ইউএনও’রা (উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা) উপস্থিত না থাকেন বা তারা যাতে সেই কাজটি না করেন সংসদীয় কমিটির পক্ষ থেকে সেই সুপারিশ করা হয়েছে। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে এমন কারণ দেখিয়ে এই সুপারিশ করা হয়। আমি বিস্মিত, হতবাক ও ব্যথিত যে, আমার সহকর্মীরা, এই সংসদের মাননীয় সংসদ সদস্যরা এমনটি উত্থাপন করতে পেরেছেন। সংবিধানে বলা আছে, নারী-পুরুষে কোনও বৈষম্য করা যাবে না। সেই দেশে যখন এ ঘটনা ঘটে তখন আমরা স্তব্ধ হয়ে যাই।’

স্পিকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের সামনে আমাদের প্রধানমন্ত্রী, শুধু বাংলাদেশ নয় তিনি সারা পৃথিবীতে সুনাম অর্জন করেছেন একজন নারী ও সফল নেতা হিসেবে। আজকে আপনি স্পিকারের পদে বসে আছেন। এই সংসদে আমার বোনেরা সব বসে আছেন।’

সংবিধানে বলা আছে নারী পুরুষের কোনও কাজে বৈষম্য হবে না উল্লেখ করে জাসদের এই এমপি বলেন, ‘সেই দেশে আজকে যখন এ ঘটনা ঘটে, আমরা হতবাক হয়ে যাই। স্তব্ধ হয়ে যাই। কারণ একটি হচ্ছে সম্মান প্রদর্শন আর অন্যটি জানাজা। জানাজার সঙ্গে সম্মান প্রদর্শনের কোনও সম্পর্ক নেই।’

তিনি বলেন, ‘একটি জেলায় একজন জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি দিয়ে বলেছেন কোনও হিন্দু ম্যাজিস্ট্রেট যেন কোনও মুসলমান মুক্তিযোদ্ধাকে এই সম্মান প্রদর্শন না করেন। কী অবস্থা তৈরি হচ্ছে আমাদের দেশে! যখন আমরা জঙ্গিবাদের উত্থান দেখি, ফতোয়াবাজি দেখি, দেখি মৌলবাদের আস্কারা-আষ্ফালন। সেই সময় এ ধরনের ঘটনা যদি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি থেকে আসে, তা কিছুতেই বরদাস্ত করা যায় না।’

এ ধরনের কলুষিত সিদ্ধান্ত যাতে না আসে তার জন্য শিরীন আখতার প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী, কোনও বীর মুক্তিযোদ্ধা মারা যাওয়ার পর তাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান জানায় সংশ্লিষ্ট জেলা/উপজেলা প্রশাসন। ডিসি বা ইউএনও সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে সেখানে থাকেন। কফিনে সরকারের প্রতিনিধিত্বকারী কর্মকর্তা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

অনেক স্থানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে নারী কর্মকর্তারা রয়েছেন, আর সেখানেই আপত্তি তুলেছে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

রবিবার সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা ওঠার পর সরকারের কাছে সুপারিশ রাখা হয়েছে গার্ড অব অনার দেওয়ার ক্ষেত্রে নারী ইউএনওদের বিকল্প খুঁজতে। সংসদীয় কমিটির এই সুপারিশের পর বিভিন্ন রাজনৈতিক ও নারী সংগঠনগুলো প্রতিবাদ করেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠেছে সমালোচনা।

 

 

/ইএইচএস/আইএ/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৯:২২

দড়ি লাফে জোড়া বিশ্ব রেকর্ড করেছেন ঠাকুরগাঁওয়ের রাসেল ইসলাম। গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম উঠেছে তার। তার অর্জনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিনন্দন জানিয়েছেন।

রবিবার (১ আগস্ট) বিকালে দলের চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খানের সই করা এক বার্তায় এ কথা জানানো হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের সিরজাপাড়া গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে ১৮ বছর বয়সী রাসেল ইসলাম। তিনি শিবগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী।

অভিনন্দন বার্তায় ফখরুল বলেন, ‘ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা রহিমানপুর ইউনিয়নের সিরাজপাড়া গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে রাসেল ইসলাম ৩০ সেকেন্ডে এক পায়ে ১৪৫ বার দড়ি লাফানোর বিশ্ব রেকর্ড গড়েন। এর আগে বিশ্ব রেকর্ডটি ছিল ৩০ সেকেন্ডে ১৪৪ বার।  রাসেল পূর্বের বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে যে অর্জনের মধ্য দিয়ে এলাকার ও দেশের সুনাম বয়ে এনেছেন, তাতে আমি গর্ববোধ করে তার সাফল্য কামনা করছি।’

প্রসঙ্গত, এক পায়ে ৩০ সেকেন্ড দড়ি লাফে আগের বিশ্ব রেকর্ড ছিল ১৪৪ বার লাফানোর। রাসেল ১৪৫ বার লাফিয়ে রেকর্ড গড়েন। আর ১ মিনিটে এক পায়ে ২৫৬ বার লাফানোর বিশ্ব রেকর্ড থাকলেও ২৫৮ বার লাফিয়েছেন রাসেল। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের সনদ হাতে পেয়েছেন তিনি।

 

/এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৯:১০

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। রবিবার (১ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘শ্রমিকদের যাতায়াত সুবিধাসহ নিরাপত্তা নিশ্চিত না করে কারখানা খোলার সিদ্ধান্ত চরম  স্বেচ্ছাচারী। শ্রমিকদের জীবন-জীবিকা নিয়ে কারও ছিনিমিনি খেলার অধিকার নেই।’

তারা এও বলেন, ‘শ্রমিকশ্রেণী মালিকদের মুনাফার বলি হতে পারে না।’
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ, বামনেতা সাইফুল হক, রাজেকুজ্জামান রতনসহ অনেকে।

/এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ২০:৩৮

করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধক টিকা প্রদানে সরকারের খরচে দুর্নীতি হচ্ছে জানিয়ে অবিলম্বে তা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। সামগ্রিকভাবে ব্যর্থতার দায়ে তিনি অবিলম্বে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের অপসারণ দাবি করেন।

রবিবার (১ আগস্ট) ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে এক নাগরিক সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকি এসব কথা বলেন। "করোনা মোকাবেলা, শ্রমিকদের হয়রানি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধসহ সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে এ নাগরিক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়"।

ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে নাগরিক সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকিসহ অন্যান্যরা সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলার ব্যাপারে লাগাতার টালবাহানা করে যাচ্ছে। সরকারের বিবেচনাহীন এই সিদ্ধান্ত কোটি কোটি শিক্ষার্থীর জীবনই কেবল ক্ষতিগ্রস্ত করেনি, গোটা শিক্ষা ব্যবস্থাকেই এখন প্রায় ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে এসেছে।’

অবিলম্বে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিয়ে শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবি জানান সাকি। তিনি বলেন, ‘প্রয়োজনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্লাসের সময়সীমা এবং কর্মদিন কমিয়ে এনে হলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে, এর কোনও বিকল্প নেই।’

‘ভ্যাকসিন সংগ্রহ এই মূহুর্তে সরকারের প্রধান কাজ’ উল্লেখ করে গণসংহতিপ্রধান বলেন, ‘ক্রয়ের স্বচ্ছতা আমরা চাই, কিন্তু যে দামেই ভ্যাকসিন পাওয়া যাক, তাতেই আমাদের ভ্যাকসিন ক্রয় করা উচিত, কেননা লকডাউনের আর্থিক ক্ষতি ভ্যাকসিনের আপাত উচ্চ দামের চেয়ে অনেক বহুগুণ বেশি।’

সংবাদ সম্মেলনে ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু বলেন, ‘অগণতান্ত্রিক সরকারের একের পর এক ভুল সিদ্ধান্তের কারণে  করোনা মোকাবিলা করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। সরকার গার্মেন্টস শ্রমিকদের সাথে অমানবিক নির্যাতন করে যাচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পড়াশুনা বন্ধ করে দেশকে ধ্বংস করে দিয়েছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি নুরুল হোক নূর বলেন, ‘মানুষ তীব্র ভোগান্তি নিয়ে ঢাকায় আসায় আমরা যখন সমালোচনা করেছি তখন ৩১ জুলাই সন্ধ্যায় সরকার সিদ্ধান্ত নেয় যে, গণপরিবহন রবিবার ১২টা পর্যন্ত চলবে। এটা স্পষ্ট যে সরকারের কাজের সমন্বয়হীনতা এবং এ সমন্বয়হীনতা হয়েছে গতবছরের শুরু থেকে। লকডাউন দেওয়া, গার্মেন্টস খোলা, শ্রমিকদের ঢাকা আনা-নেওয়া নিয়ে অন্তত পাঁচবার এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন‑ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, মাহমুদুর রহমান মান্না, সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম প্রমুখ।

আরও পড়ুন: সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

/এসটিএস/এমএস/

সম্পর্কিত

শিক্ষার্থীদের ওপর ভ্যাট আরোপে সরকারের গণবিরোধী চরিত্র স্পষ্ট : গণসংহতি

শিক্ষার্থীদের ওপর ভ্যাট আরোপে সরকারের গণবিরোধী চরিত্র স্পষ্ট : গণসংহতি

সংগ্রামই আবদুস সালামকে বাঁচিয়ে রাখবে: জোনায়েদ সাকি

সংগ্রামই আবদুস সালামকে বাঁচিয়ে রাখবে: জোনায়েদ সাকি

হেফাজত নেতা ইকবাল হোসেনের মৃত্যুর তদন্ত চায় গণসংহতি

হেফাজত নেতা ইকবাল হোসেনের মৃত্যুর তদন্ত চায় গণসংহতি

খালেদা জিয়ার বাসার সব স্টাফ করোনামুক্ত

খালেদা জিয়ার বাসার সব স্টাফ করোনামুক্ত

সব জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন দরকার: ডা. জাফরুল্লাহ

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭:৪৮

দেশের ৬৪ জেলার প্রত্যেকটিতে অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন করা দরকার বলে মনে করেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘অক্সিজেন উৎপাদনের সবচেয়ে উন্নত হচ্ছে জার্মান টেকনোলজি। মাসে ৫০ টন অক্সিজেন উৎপাদন করতে সক্ষম টেকনোলজির দাম মাত্র ৬ কোটি টাকা। বহু ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান আছে যারা এটা করতে পারে।’

রবিবার (১ আগস্ট) ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে এক নাগরিক সংবাদ সম্মেলনে জাফরুল্লাহ চৌধুরী এসব কথা বলেন। ‘করোনা মোকাবিলা, শ্রমিকদের হয়রানি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধসহ সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে এ নাগরিক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

৬৪ জেলায় অক্সিজেন উৎপাদন কেন্দ্র করতে পারলে কেউ অক্সিজেনের অভাবে মারা যাবে না বলেও মন্তব্য করেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে জাফরুল্লাহ অভিযোগ করেন, করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের ভুলের কারণে মানুষ মরছে। সরকারের ভুলের কারণে শিক্ষা ধ্বংস হচ্ছে।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘রাজনৈতিক দলকে ছোট করা ছাড়া সরকারের আর কোনেও কাজ আছে বলে আমার মনে হয় না। প্রধানমন্ত্রীর কথা আর কাজের মিল নেই। উনি সব সময় বলছে আমরা যুদ্ধে আছি, কিন্তু উনি তো যুদ্ধ দেখেন নাই।’

দেশে কোনেও রাজনীতি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমলারা, ব্যবসায়ীরা প্রধানমন্ত্রীর কাঁধে বন্দুক ঠেকিয়ে দেশ শাসন করছে। সরকার আজ যেটা বলছে কাল সেটা মানছেন না। সরকার লকডাউন করছেন নিজেই লকডাউন মানছেন না।’

কলকারখানা খোলার ব্যাপারে দ্বিমত নেই উল্লেখ করে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘কলকারখানা খোলার ব্যাপারে কতগুলো নিয়ম আছে। শ্রমিকদের টিকা দিতে হবে। টিকা দেওয়া কঠিন কোনও কাজ না। গার্মেন্টস মালিকদেরও দায়িত্ব আছে।’

সংবাদ সম্মেলনে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘আপনারা দেখছেন গতকাল থেকে কী একটা তুঘলকি কাণ্ড ঘটছে। হাজার হাজার লোক আসছে। কোনও একটা রেসপন্সেবল গভর্নমেন্ট এটা করতে পারে?’

মান্না বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ডিসেম্বর পর সবাইকে টিকার আওতায় আনা হবে। এটা কি সম্ভব। আমাদের ১৩ কোটি মানুষকে ২৬ কোটি ডোজ দিতে হবে। লাগবে ২৬ কোটি টিকা, কিন্তু কতজনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। কত টিকা আছে, এটা সঠিক হিসাব সরকার দিতে পারে না। কত টিকা আসবে এটা তাদের জানা নেই।’

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, অদূরদর্শিতা, জনগণকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য ও সরকারের বাণিজ্যিক স্বার্থের কারণে বাংলাদেশ অবস্থা আজ বিপদগ্রস্ত। টিকা দেওয়ার কোনেও প্রস্তুতি নাই। সরকারের কথার সঙ্গে বাস্তবতার কোনও মিল নাই।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ডাকসুর সাবেক ভিপি নূরুল হক নূর। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেএসডির কার্যকারি সভাপতি সা কা ম আনিছুর রহমান খান, বিকল্প ধারা বাংলাদেশের মহাসচিব অ্যাড. শাহ আহমেদ বাদল, গণফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়কারী শহিদ উল্লাহ কায়সার, ছাত্র অধিকার পরিষদের সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ।

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপসারণ দাবি করলেন জোনায়েদ সাকি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭:১৬

করোনা সংক্রমণ ও ক্রমাগত মুত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধির ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যেও মালিকদের স্বার্থে গার্মেন্টসসহ রফতানিমুখী সকল শিল্প-কারখানা খোলা রাখা ও জোরপূর্বক শ্রমিকদের কারখানায় ফিরতে বাধ্য করার সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন।

রবিবার (১ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সংগঠনের ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা লকডাউন চলাকালে শিল্প-কারখানা খোলা রাখার সরকারি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার এবং সকল শ্রমিকের খাদ্য-চিকিৎসা, শতভাগ করোনা টিকা নিশ্চিত ও সবেতনে ছুটির দাবি জানান।

সংগঠনের ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মানিক হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন— বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সদস্য ও বাসদ (মার্কসবাদী) এর কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়কারী ফখরুদ্দিন কবির আতিক, শ্রমিক নেতা আক্কাস আকন্দ, ইউনূস আলী, ভজন বিশ্বাস প্রমুখ।

 

/এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

সর্বশেষ

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

ভোলার ঢাকাগামী নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী

ভোলার ঢাকাগামী নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী

সেই পিয়াসা আটক 

সেই পিয়াসা আটক 

মানবপাচারবিরোধী ক্যাম্পেইনে মোশাররফ-তিশা

মানবপাচারবিরোধী ক্যাম্পেইনে মোশাররফ-তিশা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

সরকারের এক মিনিটও ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই: টুকু

সরকারের এক মিনিটও ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই: টুকু

আগস্টের প্রথম প্রহরে শত আলো জ্বললো

আগস্টের প্রথম প্রহরে শত আলো জ্বললো

© 2021 Bangla Tribune