X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

বাংলাদেশি পাসপোর্ট পেয়ে আপ্লুত কিংসলে

আপডেট : ১৬ জুন ২০২১, ২০:৩৬

নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার এলিটা কিংসলে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পেয়েছেন অনেক দিন হয়েছে। জাতীয় পরিচয়পত্রও মিলেছে কিছু দিন হলো। এবার এলিটা কিংসলে পেলেন বাংলাদেশি পাসপোর্ট। বুধবার সকালে দশ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট গ্রহণ করেছেন নাইজেরিয়ার নাগরিকত্ব প্রত্যাহার করে আসা এই স্ট্রাইকার।

লাল-সবুজ পাসপোর্ট হাতে পেয়ে এই ফুটবলার এখন খুব আপ্লুত। বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘আমি ফুটবলার, সব সময় খেলতে চাই। জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্টের জন্য খেলতে পারছিলাম না। এখন আমি বাংলাদেশি হিসেবে ফুটবল খেলতে পারবো। আর কোনও বাধা নেই। আমি শিগগিরই মাঠে নেমে ক্লাবের হয়ে খেলতে চাই। এরপর বাংলাদেশ দলে জায়গা করে নিতে চাই। যদিও পথটা সহজ নয়। পারফরম্যান্স দেখিয়ে জায়গা করে নিতে হবে।’

এলিটা কিংসলে নাইজেরিয়ান হিসেবে বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবল খেলছেন দশ বছর ধরে। এরমধ্যে বাংলাদেশি মেয়ে লিজাকে বিয়ে করেছেন বছর পাঁচেক হলো। তখন থেকেই বাংলাদেশের নাগরিক হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। সফলও হয়েছেন। মার্চে বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে নাগরিকত্ব সনদ পেয়েছেন। লকডাউনের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্র পেতে তার দেরি হয়। শেষ পর্যন্ত এক সপ্তাহ আগে তার হস্তগত হয়েছে জাতীয় পরিচয়পত্র। অবশেষে আজ পেলেন ই-পাসপোর্ট। এর ফলে বসুন্ধরা কিংসের হয়ে ঘরোয়া লিগে অংশগ্রহণ করার জন্য আর কোনও বাধা রইলো না কিংসলের।

/টিএ/এফআইআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আইভরি কোস্টকে কাঁপিয়ে দিয়েছে ১০ জনের ব্রাজিল

আইভরি কোস্টকে কাঁপিয়ে দিয়েছে ১০ জনের ব্রাজিল

মিসরকে হারিয়ে টিকে থাকলো আর্জেন্টিনা

মিসরকে হারিয়ে টিকে থাকলো আর্জেন্টিনা

বাংলাদেশে হচ্ছে না মেয়েদের এশিয়ান কাপ বাছাই

বাংলাদেশে হচ্ছে না মেয়েদের এশিয়ান কাপ বাছাই

এ মাসেই শুরু হচ্ছে প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল

এ মাসেই শুরু হচ্ছে প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২২:৫৯

ফর্মহীনতায় টেস্ট ও ওয়ানডে থেকে বাদ পড়লেও কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে ঠিকই বিবেচনায় ছিলেন সৌম্য সরকার। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই হাফসেঞ্চুরিতে শীর্ষ রান সংগ্রাহক হয়ে নির্বাচকদের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন। তবে নিয়মিত ওপেনার লিটন ফিট থাকলে ওপেনিংয়ে খেলা হতো না সৌম্যর। লিটনের ইনজুরিই মূলত সুযোগ করে দিয়েছে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানকে! তিন ম্যাচে দুই হাফসেঞ্চুরিতে তার সংগ্রহ ১২৬ রান। বল হাতেও নিয়েছেন তিনটি উইকেট। তাই রবিবার ৬৮ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরার পাশাপাশি হয়েছেন সিরিজ সেরাও।

কয়েকদিন আগেই সৌম্য জানিয়েছিলেন, কারো সঙ্গেই তার প্রতিযোগিতা নেই। নিজের সঙ্গেই নিজে প্রতিযোগিতা করে সামনে এগিয়ে যেতে চান সব সময়। রবিবার ম্যাচসেরার পুরস্কার হাতে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে সৌম্য বলেছেন, ‘সিরিজ সেরা হয়ে অনুভূতি ভালো। ভালো খেলেছি, এটাই সবচেয়ে বড় কথা। পজিশন নিয়ে আমি চিন্তা করিনি। চেষ্টা ছিল যখন সুযোগ পাবো, নিজের সেরাটা দিতে পারলে আমার জন্য খুব ভালো হবে। ওটাই মাথায় ছিল সব সময়।’

শুরুতে কিছুটা ধীরস্থির ভাবে ব্যাটিং করলেও সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে আগ্রাসী ভঙ্গিতে খেলতে থাকেন সৌম্য। শুরুতে স্লো ব্যাটিং করার কারণ জানাতে গিয়ে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘নতুন বলে কিছুটা ভ্যারিয়েশেন ছিল। তখন চিন্তা করেছি, এখন জোড়াজুড়ি না অপেক্ষা করি। একটা ওভারে বড় রান নিতে পারলে মোমেন্টামটা আমাদের দিকে আসবে। এটার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। আর প্রত্যেক ওভারে একটা করে বাউন্ডারি মারার চেষ্টা করেছি।’

সৌম্য টি-টোয়েন্টি সিরিজে ব্যাটিং-ফিল্ডিংয়ের পাশাপাশি নিয়মিত বোলিংও করেছেন। রবিবার তো জিম্বাবুয়ের দ্রুত দুই উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণও নেন তিনি। নিজের অলরাউন্ডস পারফরম্যান্সের ব্যাপারে বলতে গিয়ে সৌম্য বলেছেন, ‘ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং সব সময়ই করা হয়। এত ভালোভাবে (তিন বিভাগে) কখনো সুযোগ পাওয়া হয়নি। ফিল্ডিংয়ে সব সময় চেষ্টা করি নিজের সেরাটা দেওয়ার। আর বোলিংয়ে যে কয় ওভারই পেয়েছি, চেষ্টা করেছি ভালো করতে।’

দলে তামিম, মুশফিক ছিলেন না। ইনজুরিতে লিটন ও মোস্তাফিজও ছিল না। তারপরও ২-১ ব্যবধানে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। পুরো দল পেলে সিরিজটি আরও ভালো ভাবে শেষ করতে পারতেন বলে মনে করেন সৌম্য, ‘টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনেক আক্রমণাত্মক থাকতে হয়, ইতিবাচক থাকতে হয়। যারা ছিল না ওদের কথা চিন্তা করলে তো হবে না, যারা ছিল ওরা সবাই সবার সেরাটা দিয়েছে। অবশ্যই আমরা তাদেরকেও মিস করেছি। আমাদের মূল ১১ জন খেলতে পারলে সিরিজটা আরও ভালো ভাবে শেষ করা যেত।’

পাশাপাশি শামীমের ব্যাটিং স্কিল নিয়ে সৌম্য বলেছেন, ‘শামীমের ব্যাটিংটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সবচেয়ে বড় ব্যাপার ওর ব্যাটিংয়ে ইতিবাচক দিক আছে। একটা ক্ষুধার্ত মনোভাব ছিল যে, ম্যাচটা ও জেতাবে। আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে। নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই ফিনিশ করে এসেছে।’

/আরআই/এফআইআর/

সম্পর্কিত

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২২:১২

টিভি-টুর্নামেন্ট দিয়েই ক্রিকেটে শামীম হোসেনের যাত্রা শুরু। সেই তরুণটিই এখন জাতীয় দলের ক্রিকেটার। শুক্রবার হারারে স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয় তার। শুধু কি তাই, টানা দুই ম্যাচে দুর্দান্ত দুটি ইনিংস খেলে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন সবাইকে।

অবশ্য এই তাক লাগানো ইনিংসের একটিতে হতাশা নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছিল। আগের দিন ২৯ রানের বিস্ফোরক ব্যাটিং করলেও দলকে জেতাতে পারেননি। কিন্তু রবিবার ১৫ বলে ৩১ রানের বিধ্বংসী ইনিংসে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছেড়েছেন চাঁদপুর থেকে উঠে আসা এই তরুণ। ম্যাচ শেষে সংবাদ মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন।

দুই ম্যাচ খেলা শামীম বুঝে গেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কতটা কঠিন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অনেক কঠিন। এতদিন অনূর্ধ্ব-১৯ খেলেছি বা ক্লাব খেলেছি। তার চেয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অনেক কঠিন তা বুঝতে পেরেছি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খারাপ বল কম পাওয়া যায়। বেশিরভাগ সময়ই ভালো বল আসে, সেগুলোই সাহস করে মারতে হয়। এই দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হয়।’

অভিষেক ম্যাচে শামীম ২৯ রান করলেও দল জিততে পারেনি। এই তরুণ জানালেন, আগের ম্যাচের এই ব্যর্থতাই তাকে ভালো করতে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে, ‘আল্লাহর রহমতে অনেক ভালো লাগছে। গত ম্যাচে শেষ করতে পারিনি, তাই মনে রেখেছিলাম পরের ম্যাচে সুযোগ পেলে আমার লক্ষ্য থাকবে শেষ করে আসা। সেই সুযোগটা পেয়ে আমি সফলও হয়েছি। আমার টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে অভিষেক হয়েছে। এটা আমার জন্য খুব ভালো হয়েছে। এই ফরম্যাট দিয়েই আমি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে মানিয়ে নিবো।’

আগের ম্যাচের মতো এই ম্যাচটিতেও হোঁচট খেতে পারতো বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত অবশ্য ৫ উইকেটে জিতেছে সফরকারীরা। যদিও শামীমের কখনোই মনে হয়নি, দল হারতে পারে, ‘যখন সৌম্য-রিয়াদ ভাই ব্যাটিং করছিল, সবাই আমরা পজিটিভ ছিলাম। আমি যখন ড্রেসিংরুমে খেলা দেখছিলাম, তখন মনে ছিল যে আজ জিতবো। যেভাবেই হোক আমরা জিতবো ইনশাআল্লাহ।’

মাহমুদউল্লাহ ও শামীম মিলে পঞ্চম উইকেটে ১৯ বলে ৩৭ রানের জুটি গড়েছেন। এই সময়টাতে অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ বেশ কিছু পরামর্শ দিয়েছিলেন শামীমকে। কী ছিল সেটা? এমন প্রশ্নের জবাবে শামীম বলেছেন, ‘রিয়াদ ভাই আমাকে বলছিল যে, ওভারে ১০ করে আসলে ম্যাচটা সহজে চলে আসবে। একটা বাউন্ডারি বা একটা সিক্স আসলেই হবে। আমি সেই পরিকল্পনা ধরে খেলেছি।’

/আরআই/এফআইআর/

সম্পর্কিত

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

প্রত্যাশা পূরণ করতে পারলেন না সাকিব

প্রত্যাশা পূরণ করতে পারলেন না সাকিব

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২১:৪৩

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে সাকিব আল হাসানের হাত থেকেই অভিষেক ক্যাপ পেয়েছেন শামীম হোসেন। প্রথম ম্যাচে ২৯ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেললেও দলকে জেতাতে পারেননি। তবে নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আর ভুল করেননি। ১৫ বলে ৩১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন এই তরুণ। তার ব্যাটেই টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতেছে সফরকারীরা।

সিরিজ জয়ের পর সাকিবের সঙ্গে ট্রফি হাতেই ছবি তুলে পোস্ট করেছেন সামাজিক মাধ্যমে। ক্যাপশন দিয়ে শামীম লিখেছেন সাকিবের সঙ্গে প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ জিতে তিনি গর্বিত, ‘আলহামদুলিল্লাহ, অভিষেকের পরে আমি প্রথম সিরিজ জিতেছে। সাকিব ভাইয়ের সাথে আন্তর্জাতিক সিরিজ জিততে পেরে গর্বিত। ইনশাআল্লাহ আমি আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করবো।’

বাবার মৃত্যুর খবর শুনে দ্রুতই দেশে ফিরে আসেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। সতীর্থের শোকে মর্মাহত শামীম নিজের ইনিংসটি তাই আমিনুল ইসলামকে উৎসর্গ করেছেন। লিখেছেন, ‘বিশেষ উৎসর্গ আমিনুল ইসলাম বিপ্লবকে। আল্লাহ আপনার বাবা হারানোর শোক ভুলিয়ে দিক, আর আপনার বাবাকে জান্নাত দান করুক।’

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলে আসার পর বেশ কয়েকটি টুর্নামেন্ট ও সিরিজে দারুণ ছন্দে ছিলেন শামীম। যেমন আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে শেষ দুই ওয়ানডেতে ঝড় তুলেছিলেন। বঙ্গবন্ধু টি টোয়েন্টি কাপে তো সেরা ফিল্ডার হয়ে মাহমুদউল্লাহর কাছ থেকে ব্যাটই উপহার পেয়েছিলেন। প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে সর্বশেষ ঢাকা লিগে ব্যাট কিংবা বোলিংয়ে খুব একটা সুযোগ না পেলেও ফিল্ডিংয়ে নিজের কাজটা ঠিকই করে গেছেন। পেয়েছেন সেরা ফিল্ডারের পুরস্কার। এই কারণেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে কুড়ি ওভারের ফরম্যাটে তার ওপর আস্থা রাখেন নির্বাচকরা।

/আরআই/এফআইআর/

সম্পর্কিত

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

প্রত্যাশা পূরণ করতে পারলেন না সাকিব

প্রত্যাশা পূরণ করতে পারলেন না সাকিব

অলিম্পিক ইতিহাসে একই দিনে সোনা জিতলেন ভাই-বোন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২১:১৫

জাপানের আবে পরিবারের জন্য দিনটা ভীষণ আনন্দের। কারণ এক ঘণ্টার ব্যবধানে অলিম্পিকে অনন্য কীর্তি গড়েছেন এই পরিবারের দুই ভাই-বোন! জুডোতে সোনা জিতে চমকে দিয়েছেন সবাইকে। রবিবার টোকিও অলিম্পিকে সোনা জিতে চারদিকে হইচই ফেলে দেওয়া এই দু’জন হলেন- হিফুমি ও উতা আবে। অলিম্পিক ইতিহাসে দুই ভাই-বোনের একই দিনে সোনার পদক জেতার ঘটনা এবারই প্রথম!

৫২ কেজিতে প্রথম সোনার পদক জেতেন ছোট বোন ২১ বছর বয়সী উতা। ঠিক এক ঘণ্টা পর বড় ভাই ২৩ বছর বয়সী হিফুমিও সোনা জিতে পরিবারের আনন্দ আরও বাড়িয়ে দেন। তিনি জেতেন ৬৬ কেজি ওজন শ্রেণিতে।

অনন্য এই কীর্তি গড়ার পর উচ্ছ্বসিত দুজনেই। এদের মাঝে বড় ভাই হিফুমির তো অলিম্পিকে অংশ নেওয়া কিছুটা অনিশ্চিতও ছিল! শেষ পর্যন্ত সোনা জিততে পেরে হিফুমি বলেছেন, ‘আমার মনে হয় আমরা ইতিহাসের পাতায় নাম উঠিয়েছি। আমাদের সামর্থ্য আছে ইতিহাস বদলে ফেলার। অলিম্পিক গেমস একটি অবস্থার মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছে। এর জন্য অনেককে ধন্যবাদ দিতে হয়।’

উতা শেষ চার বছর ধরে কঠোর পরিশ্রম করে আসছিলেন। অলিম্পিকে এসে তার পরিশ্রম স্বার্থক হয়েছে। তাই উতা বলেছেন, ‘সত্যি বলতে চার বছর অনেক পরিশ্রম করেছি। এখন সোনা জিতে ভালো লাগছে। আমার ভাইও সোনা জিতেছে। নিজেকে নির্ভার মনে হচ্ছে। একে অন্যকে এর জন্য আমরা অভিনন্দনও জানিয়েছি।’

/টিএ/এফআইআর/

সম্পর্কিত

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২০:৫২

টি-টোয়েন্টি সিরিজটা হাত ফসকে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল। দ্বিতীয় ম্যাচ হেরে যাওয়াতে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিটা হয়ে দাঁড়ায় সিরিজ নির্ধারণী। শেষ পর্যন্ত দলগত ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ শেষ ম্যাচে ৫ উইকেটে হারিয়েছে জিম্বাবুয়েকে। তাতে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানেও নিশ্চিত করেছে সফরকারীরা।

শুরুতে বোলারদের উদারতায় জিম্বাবুয়ে ১৯৪ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দেওয়ায় ম্যাচটা যে জমজমাট হতে যাচ্ছে সেটি টের পাওয়া যাচ্ছিল। হলোও তা-ই। ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ জয় পেয়েছে ৪ বল হাতে রেখে।  

অবশ্য দুই ওপেনারে শুরুটা খারাপ ছিল না। সৌম্য সরকার কিছুটা মেরে খেলার চেষ্টায় ছিলেন। তৃতীয় ওভারে মুজারাবানির বলে নাঈম হাত খুলতে গিয়ে তালুবন্দি হন মিডঅফে। ৭ বলে নাঈম ফেরেন ৩ রান করে। এরপর সৌম্য-সাকিব মিলে পাওয়ার প্লেতে রানের চাকা সচল রেখেছেন।

সাকিব মেরে খেলতে থাকেন বেশ কিছুক্ষণ। এই মেরে খেলতে গিয়েই বিপদ ডেকে আনেন অষ্টম ওভারে। এই ওভারে লুক জংউইর বলে দুটি ছক্কা মারলেও চতুর্থ বলে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন বদলি ফিল্ডার মুসাকান্দাকে। সাকিবের ১৩ বলের ইনিংসে ছিল ১টি চার ও দুটি ছয়।

প্রয়োজনের এই সময় সৌম্য-মাহমুদউল্লাহ মিলেই এগিয়ে নেন স্কোরবোর্ড। সৌম্য ফিফটি তুলে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে পৌঁছানোর পর ভেঙে যায় ৬৩ রানের এই জুটি। যেটি গড়ে দেয় জয়ের মূল ভিত। ম্যাচসেরা ইনিংস খেলা সৌম্য ৬৮ রানে ফেরেন। তার ৪৯ বলের ইনিংসে ছিল ৯টি চার ও ১টি ছয়।

আফিফ নামার পর স্কোরবোর্ড দ্রুত সমৃদ্ধ করতে সচেষ্ট ছিলেন। ৫ বলে ১৪ রান করে বোল্ড হয়ে ফিরেছেন মাসাকাদজার স্পিনে। তার বিদায়ে চাপেই পড়ে গিয়েছিল সফরকারীরা। দলকে সেখান থেকেই উদ্ধার করেছেন মূলত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ও শামীম। দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে মাহমুদউল্লাহ ২৮ বলে ফিরে যান ৩৪ রানে। তাতে ছিল ১টি চার ও দুটি ছয়। এই ঘুরে দাঁড়ানো পরিস্থিতিতে শামীমের অবদানও কম নয়। ১৫ বলে ঝড়ো গতির ৩১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন বাংলাদেশকে। তার ইনিংসে ছিল ৬টি চারের মার।

জিম্বাবুয়ের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন মুজারাবানি ও জংউই।

এর আগে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের বোলিংয়ের ওপর ছড়ি ঘোরায় জিম্বাবুয়ে। টস জিতে ব্যাট করে ৫ উইকেটে তারা সংগ্রহ করে ১৯৩! হারারেতে এই বড় স্কোরের পেছনে তিন জনের বড় অবদান! তাসকিন আহমেদ, নাসুম আহমেদ ও সাইফউদ্দিন। উদার হস্তে চার ওভারে রান দেওয়াতেই ফুলেফুঁপে উঠে স্বাগতিকদের সংগ্রহ। সবচেয়ে বেশি ব্যয়বহুল ছিলেন সাইফউদ্দিন। এদের মাঝে তাসকিনের চতুর্থ ওভারে আসে ৩০ রান। এরপর ১১তম ওভারে নাসুমের ওভারে ২১ ও সাইফের ১৮তম ও ২০তম ওভারে উঠেছে ১৯ ও ১৬ রান! টি-টোয়েন্টিতে এমন কয়েকটি ওভারই জয়ের পুঁজি পেতে যথেষ্ট।

তবে সবচেয়ে বেশি আগ্রাসী রেজিস চাকাভা ও ওয়েসলে মেধেভেরেকে ফিরিয়ে রাশ টেনে ধরার সুযোগ ছিল সফরকারীদের। কিন্তু বোলিং ব্যর্থতায় সেটি সম্ভব হয়নি। মেধেভেরের ৫৪, চাকাভার ৪৮ ও শেষ দিকে রায়ান বার্লের ঝড়োগতির ৩১ রান বড় পুঁজি পেতে ভূমিকা রাখে জিম্বাবুয়ের। 

সবচেয়ে বেশি ব্যয়বহুল সাইফ ৪ ওভারে ১ উইকেটের বিনিময়ে দিয়েছেন ৫০ রান। সৌম্য ৩ ওভারে ১৯ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট। শরিফুল ২৭ রানে একটি ও সাকিব ২৪ রানে নিয়েছেন সমসংখ্যক উইকেট। ম্যাচসেরার সঙ্গে সিরিজ সেরাও হয়েছেন সৌম্য সরকার। 

/এফআইআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

প্রত্যাশা পূরণ করতে পারলেন না সাকিব

প্রত্যাশা পূরণ করতে পারলেন না সাকিব

সম্পর্কিত

আইভরি কোস্টকে কাঁপিয়ে দিয়েছে ১০ জনের ব্রাজিল

অলিম্পিক ফুটবলআইভরি কোস্টকে কাঁপিয়ে দিয়েছে ১০ জনের ব্রাজিল

মিসরকে হারিয়ে টিকে থাকলো আর্জেন্টিনা

অলিম্পিক ফুটবলমিসরকে হারিয়ে টিকে থাকলো আর্জেন্টিনা

বাংলাদেশে হচ্ছে না মেয়েদের এশিয়ান কাপ বাছাই

বাংলাদেশে হচ্ছে না মেয়েদের এশিয়ান কাপ বাছাই

এ মাসেই শুরু হচ্ছে প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল

এ মাসেই শুরু হচ্ছে প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল

মৌসুম শুরুর আগেই মেসি-রোনালদোর লড়াই?

মৌসুম শুরুর আগেই মেসি-রোনালদোর লড়াই?

করোনা পজিটিভ করিম বেনজিমা

করোনা পজিটিভ করিম বেনজিমা

বাংলাদেশে হচ্ছে না সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ

বাংলাদেশে হচ্ছে না সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ

রিচার্লিসনের হ্যাটট্রিকে জিতেছে ব্রাজিল, হেরেছে আর্জেন্টিনা

অলিম্পিক ফুটবলরিচার্লিসনের হ্যাটট্রিকে জিতেছে ব্রাজিল, হেরেছে আর্জেন্টিনা

কেমন ছিল মুক্তিযুদ্ধের সেই দিনগুলো

সালাউদ্দিনের স্মৃতিতেকেমন ছিল মুক্তিযুদ্ধের সেই দিনগুলো

৭ গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে জামালদের জয়

৭ গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে জামালদের জয়

১২৩ গোল করে সাবিনা-কৃষ্ণাদের ট্রফি জয়ের আনন্দ

১২৩ গোল করে সাবিনা-কৃষ্ণাদের ট্রফি জয়ের আনন্দ

এএফসি কাপের স্বাগতিক হতে পারেনি বাংলাদেশ 

এএফসি কাপের স্বাগতিক হতে পারেনি বাংলাদেশ 

সর্বশেষ

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

১ কোটি ১৮ লাখের বেশি ভ্যাকসিন দেওয়া শেষ

১ কোটি ১৮ লাখের বেশি ভ্যাকসিন দেওয়া শেষ

পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে দুই রাজনৈতিক কর্মী নিহত

পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে দুই রাজনৈতিক কর্মী নিহত

কুমিল্লায় একদিনে রেকর্ড ৭০১ শনাক্ত, মৃত্যু ১৫

কুমিল্লায় একদিনে রেকর্ড ৭০১ শনাক্ত, মৃত্যু ১৫

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

কোভিড মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়তে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কোভিড মোকাবিলায় সামাজিক আন্দোলন গড়তে হবে: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

সম্প্রচারের আগে কাদা মেখে বিতর্কে জার্মান সাংবাদিক

সম্প্রচারের আগে কাদা মেখে বিতর্কে জার্মান সাংবাদিক

দুর্বল দেশগুলোকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া আবশ্যক

কপ-২৬ মন্ত্রিপর্যায়ের বৈঠকে পরিবেশমন্ত্রীদুর্বল দেশগুলোকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া আবশ্যক

সাতক্ষীরায় করোনার চেয়ে উপসর্গে মৃত্যু ছয় গুণ

সাতক্ষীরায় করোনার চেয়ে উপসর্গে মৃত্যু ছয় গুণ

‌‘ইত্যাদি’ এবার মেট্রোরেলের ডিপোতে!

‌‘ইত্যাদি’ এবার মেট্রোরেলের ডিপোতে!

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাহস করে মারতে হয়: শামীম

সাকিবের সঙ্গে ট্রফি জিতে গর্বিত শামীম

অলিম্পিক ইতিহাসে একই দিনে সোনা জিতলেন ভাই-বোন

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

সৌম্যর বিদায়ের পর চাপে বাংলাদেশ 

প্রত্যাশা পূরণ করতে পারলেন না সাকিব

নাঈম ফিরলেও রানের চাকা সচল রেখেছেন সৌম্য-সাকিব

বোলারদের উদারতায় ফুলে-ফেঁপে উঠলো জিম্বাবুয়ের স্কোরবোর্ড

অলিম্পিক হকিস্টিক দিয়ে মাথায় মেরে বসলেন আর্জেন্টিনার এক খেলোয়াড়!

© 2021 Bangla Tribune