X
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

মাকড়সার জালে বদলে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার ভূমিচিত্র

আপডেট : ১৬ জুন ২০২১, ১৮:৩৭
image

বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পর অস্ট্রেলিয়ায় দেখা দিয়েছে নতুন এক বিপদ। শহরের আশেপাশের এলাকার ছোট ছোট মাঠ আর গাছে দেখা যাচ্ছে বিশালাকৃতির মাকড়সার জাল। ভিক্টোরিয়ার জিপসল্যান্ডের বাসিন্দারা জানিয়েছেন ভারি বর্ষণের কয়েক দিন পরেই দেখা যাচ্ছে এসব বিশাল মাকড়সার জাল। এক জায়গায় প্রায় এক কিলোমিটার দীর্ঘ রাস্তা ঢেকে গেছে এই জালে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটা মাকড়সাদের টিকে থাকার কৌশল। অপেক্ষাকৃত উঁচু ভূমিতে উঠে যেতে এই জাল বিস্তার করে তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ভিক্টোরিয়া মিউজিয়ামের পতঙ্গ কিউরেটর ড. কেন ওয়াকার জানান, মনে হচ্ছে আশেপাশের গাছে লাখ লাখ মাকড়সা বসত গেড়েছে। তিনি বলেন, ‘মাটিতে থাকা মাকড়সাদের খুব দ্রুত গাছে উঠার দরকার পড়ে। শিকারী প্রাণী থেকে বাঁচতে গাছে আশ্রয় নেয় তারা। আর এই কারণেই জাল বিছিয়ে রেখেছে তারা।’ আর এথেকেই তৈরি হয়েছে বিশাল বিশাল জাল। যা ঢেকে ফেলেছে সালে ও লংফোর্ড শহরের মধ্যকার ভেজা জমি।

স্থানীয় কাউন্সিলর ক্যারোলিন ক্রসলি জানান তিনি গত সোমবার এমব্যাংকমেন্ট লেক এলাকায় বন্যার ক্ষয়ক্ষতি পরিদর্শনে যান। কিন্তু প্রাকৃতিক পরিস্থিতি দেখে হতবাক হয়ে যান। ক্রসলি জানান তিনি আগেও এরকম দেখেছেন, কিন্তু এতো বিশালাকৃতির জাল কখনওই দেখেননি তিনি।

ক্যারোলিন ক্রসলি বলেন, ‘এটা ভীতিকর নয়-সুন্দর। চারদিকের গাছ ও বেড়াসহ সবকিছু জালের চাদরে ঢাকা পড়েছে। ওই সময়ে সূর্য ডুবে যাচ্ছিলো, আলোটাও ছিলো সুন্দর, বাতাসে কাঁপছিলো মাকড়সার জালের চাদর।’

স্থানীয় আরেক বাসিন্দা আমান্দা ট্রেজার জানান প্রাথমিকভাবে তাদের বাড়ির সবাই ভেবেছিলেন রাস্তার পাশ ঢাকতে এই জাল বিছানো হেছ। তিনি বলেন, আগে কখনও এতো বিপুল পরিমাণ দেখিনি। এটা সত্যিই অবাক করার মতো।

ধারণা করা হচ্ছে সপ্তাহখানেক পর থেকেই এসব জাল হারিয়ে যাবে। ভারি বৃষ্টি কিংবা জোরালো বাতাস বয়ে গেলেই এসব জাল অদৃশ্য হয়ে যাবে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

ডেল্টার দাপট অস্ট্রেলিয়ায়, জরুরি অবস্থা ঘোষণা

ডেল্টার দাপট অস্ট্রেলিয়ায়, জরুরি অবস্থা ঘোষণা

করোনারোধী পোশাক বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে বড় অংকের জরিমানা

করোনারোধী পোশাক বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে বড় অংকের জরিমানা

লিবীয় উপকূলে নৌকাডুবিতে ৫৭ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০৩:৪৭
image

অভিবাসীদের বহনকারী আরও একটি নৌকা লিবিয়া উপকূলে ডুবে গেছে। জাতিসংঘের এক অভিবাসন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এই ঘটনায় অন্তত ৫৭ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার মুখপাত্র সাফা মাসেলি জানিয়েছেন, রবিবার উপকূলীয় খুমস শহর থেকে নৌকাটি রওনা দেয়। এতে অন্তত ৭৫ আরোহী ছিলেন। মাসেলি জানান, সোমবার ১৮ জনকে উদ্ধার করে উপকূলে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

বেঁচে যাওয়া আরোহীরা নাইজেরিয়া, ঘানা এবং গাম্বিয়ার নাগরিক। তারা জানিয়েছেন, যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে নৌকাটি বন্ধ হয়ে যায়। আর খারাপ আবহাওয়ার কারণে তখন ডুবে যায়। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার মুখপাত্র সাফা মাসেলি এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘জেলে এবং কোস্ট গার্ড সদস্যরা যাদের উপকূলে ফিরিয়ে এনেছেন তারা জানিয়েছেন, তলিয়ে যাওয়াদের মধ্যে অন্তত ২০ জন নারী এবং দুই শিশু রয়েছেন।’

ইউরোপে উন্নত জীবনের সন্ধানে যেতে চাওয়া অভিবাসী ও শরণার্থী বোঝাই নৌকা ডুবির সর্বশেষ ঘটনা এটি। গত সপ্তাহে লিবীয় উপকূলে ভূমধ্যসাগরে আরেকটি নৌকা ডুবিতে প্রায় ২০ জনের মৃত্যু হয়। এছাড়া পাঁচশ’ জনকে আটক করে লিবিয়ায় ফেরত নেওয়া হয়।

গত কয়েক মাসে লিবিয়া থেকে ইউরোপে পাড়ি জমানোর ঘটনা বেড়েছে। এই বছরের প্রথম অর্ধে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সমর্থনে লিবিয়ার কোস্ট গার্ড প্রায় ১৫প হাজার শরণার্থী, আশ্রয় প্রার্থী এবং অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করলেন প্রেসিডেন্ট

তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করলেন প্রেসিডেন্ট

ঈদের নামাজ চলাকালীন মালির প্রেসিডেন্টকে হত্যা চেষ্টা

ঈদের নামাজ চলাকালীন মালির প্রেসিডেন্টকে হত্যা চেষ্টা

যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করলো নাইজেরীয় দস্যুরা

যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করলো নাইজেরীয় দস্যুরা

দক্ষিণ আফ্রিকায় লুটপাট, ২৫ হাজার সেনা মোতায়েন করছে সরকার

দক্ষিণ আফ্রিকায় লুটপাট, ২৫ হাজার সেনা মোতায়েন করছে সরকার

এই বছরই ইরাক ছাড়বে মার্কিন বাহিনী

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০৩:০৬
image

এই বছরের শেষ নাগাদ যুদ্ধরত মার্কিন বাহিনী ইরাক ছেড়ে যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। যদিও এই সময়ের পর ইরাকের সামরিক বাহিনীকে প্রশিক্ষণ এবং উপদেশ দেওয়া চালিয়ে যাবে মার্কিন সেনাবাহিনী। হোয়াইট হাউজে ইরাকি প্রধানমন্ত্রী মুস্তফা আল-খাদিমির সঙ্গে বৈঠকের পর এই ঘোষণা দিয়েছেন বাইডেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট-এর অবশিষ্টাংশ মোকাবিলায় স্থানীয় বাহিনীকে সহায়তা দিতে বর্তমানে ইরাকে প্রায় আড়াই হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে। যুদ্ধরত সেনা তুলে নেওয়া হলেও ইরাকে প্রায় একই সংখ্যক মার্কিন সেনাই থেকে যাবে। তবে যুদ্ধরত সেনা সরিয়ে নেওয়াকে ইরাকি প্রধানমন্ত্রীকে সহায়তা করার পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে।

গত বছর ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি এবং    ইরান সমর্থিত একটি শিয়া গোষ্ঠীর নেতাকে হত্যার পর থেকে ইরাকে মার্কিন সেনাদের উপস্থিতি নিয়ে তীব্র বিতর্ক চলছে। রাজধানী বাগদাদে এক ড্রোন হামলা চালিয়ে তাদের হত্যা করে মার্কিন বাহিনী। এই ঘটনার পর ইরান সমর্থিত রাজনৈতিক দলগুলো ইরাক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বিদেশি সেনাদের প্রত্যাহারের দাবি তোলে।

ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণার মাধ্যমে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের শুরু করা আরেকটি যুদ্ধের অবসান ঘটালেন জো বাইডেন। এই বছর তিনি আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

হোয়াইট হাউজে আলোচনার সময় বাইডেন ইরাকি প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, ‘আমরা এই নতুন পর্যায়ে প্রবেশ করলেও আমাদের সন্ত্রাস দমন সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।’ জবাবে আল খাদিমি বলেন, ‘আজ আমাদের সম্পর্ক যেকোনও সময়ের চেয়ে জোরালো। আমাদের সহযোগিতা অর্থনীতি, পরিবেশ, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, সংস্কৃতি এবং আরও বহু কিছুতে।’ তিনি জোর দিয়ে বলেন, ইরাকে কোনও যুদ্ধরত বিদেশি সেনার প্রয়োজন নেই।

২০০৩ সালে প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হুসেনকে উৎখাত এবং তার ব্যাপক বিধ্বংসী অস্ত্র ধ্বংসের অজুহাতে ইরাকে আগ্রাসন শুরু করে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বিদেশি বাহিনী। তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ ‘স্বাধীন ও শান্তিপূর্ণ ইরাকের’ প্রতিশ্রুতি দিলেও দেশটি নিমজ্জিত হয় রক্তক্ষয়ী সাম্প্রদায়িক বিভাজনে।

২০১১ সালে যুদ্ধরত মার্কিন বাহিনী ইরাক ছেড়ে যায়। তবে ইরাক সরকারের অনুরোধে তিন বছর পরে আবারও দেশটিতে প্রবেশ করে তারা। ওই সময়ে দেশটির একটি বিশাল এলাকা নিয়ন্ত্রণ শুরু করে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট। ২০১৭ সালে আইএস-এর পতন ঘটলেও গোষ্ঠীটির অবশিষ্টাংশ নির্মূলে দেশটিতে থেকে যায় মার্কিন বাহিনী।

/জেজে/

সম্পর্কিত

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

সত্যি হতে চলেছে ‘মানব সমাজের পতন’ নিয়ে এমআইটি’র ১৯৭২ সালের পূর্বাভাস!

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

ইরানের নির্মিত ড্রোন দিয়ে জর্ডানে হামলা

ইরানের নির্মিত ড্রোন দিয়ে জর্ডানে হামলা

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

নাভালনি ও তার ঘনিষ্ঠদের ওয়েবসাইট ব্লক করলো রাশিয়া

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০২:১৭
image

বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সাই নাভালনি এবং তার বেশ কয়েকজন ঘনিষ্ঠ ব্যক্তির মালিকানাধীন ওয়েবসাইট ব্লক করে দিয়েছে রাশিয়ার কর্তৃপক্ষ। সোমবার কারাবন্দী এই নেতার টিমের পক্ষ থেকে এই খবর জানানো হয়েছে।  পার্লামেন্ট নির্বাচন সামনে রেখে দেশটিতে বিরোধী দলের সমর্থক, স্বাধীন সাংবাদিক এবং মানবাধিকার কর্মীদের বিরুদ্ধে চাপ বৃদ্ধির অংশ হিসেবে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

আগামী সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচন। ২০২৪ সালে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে এই পার্লামেন্ট নির্বাচনের মাধ্যমে নিজের ক্ষমতা সংহত করতে চান প্রেসিডেন্ট ভ্রাদিমির পুতিন। দুই দশকেরও বেশি সময় ক্ষমতায় থাকা পুতিন গত বছর সংবিধান সংশোধন করে ২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার সুযোগ তৈরি করেছেন।

সোমবার থেকে বিরোধী দলীয় নেতা নাভালনির ওয়েবসাইট এবং তার শীর্ষ কৌশলবিদ লিওনিদ ভলকভ এবং দীর্ঘদিনের মিত্র লিওবভ সোবোলের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। নাভালনির ফাউন্ডেশন ফর ফাইটিং করাপশন এবং ৪০টি আঞ্চলিক কার্যালয়ের নেটওয়ার্কে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। এছাড়া নাভালনিকে সমর্থনকারী চিকিৎসক জোটের সাইটেও প্রবেশের সুযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

রুশ কর্তৃপক্ষের দাবি, রাশিয়ার প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয়ের নির্দেশে এসব ওয়েবসাইট ব্লক করা হয়েছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

তিউনিসিয়ায় রাজনৈতিক অস্থিরতায় বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

তিউনিসিয়ায় রাজনৈতিক অস্থিরতায় বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

‘অপ্রতিরোধ্য হামলা’ চালানোর সক্ষমতা রয়েছে রাশিয়ার: পুতিন

‘অপ্রতিরোধ্য হামলা’ চালানোর সক্ষমতা রয়েছে রাশিয়ার: পুতিন

১ মাস ‘ইন্টারনেট বিচ্ছিন্ন’ থাকার পরীক্ষা চালালো রাশিয়া

১ মাস ‘ইন্টারনেট বিচ্ছিন্ন’ থাকার পরীক্ষা চালালো রাশিয়া

ঘুষখোর পুলিশ কর্মকর্তার অট্টালিকায় সোনার টয়লেট

ঘুষখোর পুলিশ কর্মকর্তার অট্টালিকায় সোনার টয়লেট

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০০:০৪

সীমান্ত বিরোধের জেরে ভারতের আসাম ও মিজোরামের সাধারণ মানুষের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬ পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। ছয়জনই আসামের নিরাপত্তা সদস্য। দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে এ নিয়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে কেন্দ্রের সহায়তা কামনা করেছেন তারা।

সোমবার আসামের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন, তার রাজ্যের ৬ পুলিশ সদস্য সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন। ‘আসামের ৬ পুলিশ সদস্য মিজোরাম সীমান্তে নিহতে দুঃখ পেয়েছি। পুলিশ জওয়ানরা তাদের সাংবিধানিক সীমানা রক্ষার জন্য জীবন দিয়েছেন। নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি’।

অন্যদিকে এ ঘটনায় শোক ও নিন্দা জানিয়েছেন মিজোরামের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লালচামলিয়ানা। পুরো ঘটনায় তিনি প্রতিবেশী রাজ্য সরকারকে দায়ী করে বলেন, আসাম সরকারের অযৌক্তিক আচরণের বিরুদ্ধে নিন্দা জানাচ্ছে তার রাজ্য সরকার। মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গাও সমালোচনা করেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিভি জানিয়েছে, সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক হয় উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের। সেখানে নানা বিষয় নিয়ে অমতি শাহের সঙ্গে তাদের আলাপ হয়। এরপরই স্থানীয় সময় সোমবার মিজোরাম এবং আসামের সীমান্ত এলাকায় বিবাদে জড়ান দুই রাজ্যের মানুষ। আসামের চাচর জেলা ও মিজোরামের কোলাসিব জেলার স্থানীয় লোকজন ও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে মোতায়েন করা হয় বাড়তি নিরাপত্তা সদস্য। কিন্তু তাতেও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। সেখানে গোলাগুলির ঘটনাও ঘটে। রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৬ পুলিশ সদস্য প্রাণ হারান। তবে সাধারণ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এ নিয়ে দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। হতাহতের ঘটনায় একে অপরকে দায়ী করে অমিত শাহকে ট্যাগ করছেন তারা। এমনকি দোষীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানান।

মিজোরামের আইজল, কোলাসিব ও মামিতে জেলার সঙ্গে আসামের চাচর, হাইলাকান্দি ও করিমগঞ্জ জেলার ১৬৪ কিলোমিটারের বেশি সীমান্ত রয়েছে। সীমান্ত এলাকা নিয়েই দুই রাজ্যের বাসিন্দাদের মধ্যে বিরোধ রয়েছে দীর্ঘদিনের।

/এলকে/

সম্পর্কিত

পাকিস্তান বর্ডার ক্রসিং নিয়ে তালেবান ও আফগান সরকারের পাল্টাপাল্টি দাবি

পাকিস্তান বর্ডার ক্রসিং নিয়ে তালেবান ও আফগান সরকারের পাল্টাপাল্টি দাবি

ভারত-চীনের মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা নেই: জয়শঙ্কর

ভারত-চীনের মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা নেই: জয়শঙ্কর

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে সম্মত হয়েছে আদিবাসী মুসলিমরা: আসামের মুখ্যমন্ত্রী

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে সম্মত হয়েছে আদিবাসী মুসলিমরা: আসামের মুখ্যমন্ত্রী

বেশি সন্তান জন্ম দিলে মিলবে ১ লাখ রুপি পুরস্কার

বেশি সন্তান জন্ম দিলে মিলবে ১ লাখ রুপি পুরস্কার

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৩০

আফগানিস্তানের ন্যাশনাল আর্মি ও সীমান্ত পুলিশের অন্তত ৪৬ জন সদস্যকে আশ্রয় দিয়েছে পাকিস্তান। রবিবার তাদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর আন্ত-বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আফগান সেনাবাহিনীর কমান্ডার ৫ কর্মকর্তাসহ ৪৬ জন সেনা সদস্যের জন্য আশ্রয় ও সহযোগিতা চান। পাকিস্তান-আফগানিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্তে নিরাপত্তা পরিস্থিতির কারণে তারা তাদের সামরিক ফাঁড়ির নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখতে পারেননি।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী আরও জানায়, এই বিষয়ে আফগানিস্তানের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তথ্য ও প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পাদনের জন্য যোগাযোগ করছে।

বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, যথাযথ প্রক্রিয়া শেষে এই সেনা ও কর্মকর্তাদের আফগান সরকারের কাছে সম্মানজনক উপায়ে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে ১ জুলাই আরও ৩৫ জন আফগান সেনা পাকিস্তানে আশ্রয় নিয়েছেন বলে আইএসপিআর-এর বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। যথাযথ প্রক্রিয়ায় পরে তাদের আফগান সরকারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

সূত্র:ডন

/এএ/

সম্পর্কিত

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

করোনা টিকার মিশ্র ডোজ নিয়ে গবেষণায় সুখবর

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

চলতি বছরে আফগানিস্তানে রেকর্ড সংখ্যক হতাহত: জাতিসংঘ

সর্বশেষ

লিবীয় উপকূলে নৌকাডুবিতে ৫৭ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা

লিবীয় উপকূলে নৌকাডুবিতে ৫৭ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা

বগুড়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

বগুড়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

মধ্যনগরকে উপজেলা ঘোষণা করায় মিষ্টি বিতরণ

মধ্যনগরকে উপজেলা ঘোষণা করায় মিষ্টি বিতরণ

এই বছরই ইরাক ছাড়বে মার্কিন বাহিনী

এই বছরই ইরাক ছাড়বে মার্কিন বাহিনী

সিলিন্ডারের দাম নিয়ে বাগবিতণ্ডায় দোকানে আগুন, যুবকের মৃত্যু

সিলিন্ডারের দাম নিয়ে বাগবিতণ্ডায় দোকানে আগুন, যুবকের মৃত্যু

সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫১তম জন্মদিন আজ

সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫১তম জন্মদিন আজ

নাভালনি ও তার ঘনিষ্ঠদের ওয়েবসাইট ব্লক করলো রাশিয়া

নাভালনি ও তার ঘনিষ্ঠদের ওয়েবসাইট ব্লক করলো রাশিয়া

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

ডেল্টার দাপট অস্ট্রেলিয়ায়, জরুরি অবস্থা ঘোষণা

ডেল্টার দাপট অস্ট্রেলিয়ায়, জরুরি অবস্থা ঘোষণা

করোনারোধী পোশাক বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে বড় অংকের জরিমানা

করোনারোধী পোশাক বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে বড় অংকের জরিমানা

১২০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ স্বাস্থ্য সংকটে সিডনি

১২০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ স্বাস্থ্য সংকটে সিডনি

মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়ার সেরা ৩-এ বাংলাদেশি কিশোয়ার

মাস্টারশেফ অস্ট্রেলিয়ার সেরা ৩-এ বাংলাদেশি কিশোয়ার

নিউ জিল্যান্ডে করোনার ‘ইমিউনিটি দায়’ চুকাচ্ছে শিশুরা

নিউ জিল্যান্ডে করোনার ‘ইমিউনিটি দায়’ চুকাচ্ছে শিশুরা

ডেল্টায় সংক্রমণের বেশি ঝুঁকিতে তরুণরা

ডেল্টায় সংক্রমণের বেশি ঝুঁকিতে তরুণরা

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপে অস্ট্রেলিয়ার ৭ শহর লকডাউন

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপে অস্ট্রেলিয়ার ৭ শহর লকডাউন

অতিসংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কবলে অস্ট্রেলিয়া

অতিসংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কবলে অস্ট্রেলিয়া

© 2021 Bangla Tribune