X
বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ব্রাজিলে করোনায় মৃত্যু ছাড়ালো ৫ লাখ, টিকার দাবিতে বিক্ষোভ

আপডেট : ২০ জুন ২০২১, ১৭:৪১

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বিপর্যস্ত ব্রাজিল। লাতিন আমেরিকার এ দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৫ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃত্যুর তালিকায় এখন বিশ্বের দ্বিতীয় অবস্থানে ব্রাজিল। এমন পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ জানিয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভ্যাকসিন কার্যক্রম ধীরগতিতে চলতে থাকলে শীতের শুরুতে আক্রান্ত ও মৃত্যুতে আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করবে দেশটি।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, পরিস্থিতি খুবই জটিল। এখন পর্যন্ত দেশটির মাত্র ১৫ শতাংশ মানুষকে টিকার আওতায় আনা হয়েছে। ধীরগতি টিকা কার্যক্রমের পেছনে ব্রাজিলের কট্টর ডানপন্থি প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো'র উদাসীনতাকেই দায়ী করছেন অনেকে। শুরু থেকেই করোনাভাইরাস সম্পর্ক একের পর এক নেতিবাচক মন্তব্য করে যাচ্ছেন তিনি। এমনকি মাস্ক পড়াসহ সামজিক দূরত্ব মানতেও নারাজ তিনি। বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা করা হয় তাকে।

স্বাস্থ্যবিধি না মানার পাশাপাশি টিকা না নেওয়ায় ব্রাজিলে কোভিড পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। স্থানীয় সময় শনিবার সরকারি তথ্যমতে নতুন করে দুই হাজার ১শ’ ৭৯ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। একই দিন আক্রান্ত হয়েছেন ৮১ হাজারের বেশি মানুষ। এ নিয়ে ব্রাজিলে মৃতের সংখ্যা ৫ লাখ ছাড়িয়েছে। যা বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে।  

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, গত মার্চ থেকে ব্রাজিলে গড়ে দৈনিক ১৫শ’র বেশি মানুষ করোনায় মারা যাচ্ছেন। এত মৃত্যুর কারণ হিসেবে বলসোনারো সরকারের টিকা কার্যক্রমে ধীরগতির কারণকেই দুষছেন দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তা গঞ্জালো ভেসিনা।

তিনি বলেন, পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু খুবই অপ্রত্যাশিত। এই সংখ্যা আরও বাড়বে। কারণ ভ্যাকসিন দিতে সময়ের প্রয়োজন হচ্ছে। খুব সম্ভবত এ বছরটা ব্রাজিলের জন্য আরও কঠিন হতে যাচ্ছে। টিকা কার্যক্রম দেরিতে শুরু হওয়ায় এমন পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে’।

এমন বাস্তবতায় শনিবার টিকা কার্যক্রমের গতি বাড়াতে বলসোনারো সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে বিক্ষোভ করেছেন দেশটির হাজার হাজার মানুষ। রাজধানীসহ বেশ কয়েকটি শহরে নানা শ্রেণী পেশার মানুষ বিক্ষোভে অংশ নেন। 

বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৩৮ লাখ ৭৩ হাজার ছাড়িয়েছে। সংক্রমণ এড়াতে অধিকাংশ দেশ টিকা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

উহানের সব বাসিন্দার করোনা পরীক্ষা করবে চীন

উহানের সব বাসিন্দার করোনা পরীক্ষা করবে চীন

চীনে ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

চীনে ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ এ মাসেই!

ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ এ মাসেই!

চীনে প্রবল বন্যায় তিন শতাধিক মৃত্যু

চীনে প্রবল বন্যায় তিন শতাধিক মৃত্যু

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের বাইরে গোলাগুলি

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ২৩:৫০

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগনের প্রবেশদ্বারের কাছেই গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে দফতরটি সাময়িক সময়ের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়। এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

ভার্জিনিয়ার আরলিংটন কাউন্টিতে অবস্থিত মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতরের কাছাকাছি গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পেন্টাগনের কাছে মেট্রোয় গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়। এরপরই প্রতিরক্ষা দফতর লকডাউন করা হয়।

পেন্টাগন ফোর্স প্রোটেকশন এজেন্সি টুইট বার্তায় জানিয়েছে, ট্রানজিট সেন্টারের কাছে গোলাগুলির খবরে লকডাউন করা হয়েছে। আপাতত এই স্পর্শকাতর জায়গা সাধারণকে এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় মেট্রোর পাতাল রেলের পরিষেবা সাময়িক বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। গোলাগুলিতে কয়েকজন আহত হয়ে থাকতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, এক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তবে পুরো ঘটনার বিস্তারিত এখনও জানায়নি পুলিশ। এলাকটি ঘিরে রেখেছে নিরাপত্তা বাহিনী।

/এলকে/

সম্পর্কিত

ইরাকের লুট হওয়া ১৭ হাজার শিল্পকর্ম ফিরিয়ে দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ইরাকের লুট হওয়া ১৭ হাজার শিল্পকর্ম ফিরিয়ে দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

করোনা উহান থেকেই ছড়িয়েছে, দাবি মার্কিন আইনপ্রণেতার

করোনা উহান থেকেই ছড়িয়েছে, দাবি মার্কিন আইনপ্রণেতার

ভারতের কাছে হারপুন ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রয় চুক্তি অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

ভারতের কাছে হারপুন ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রয় চুক্তি অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিজয় বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি: আফগান জেনারেল

তালেবানের বিজয় বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি: আফগান জেনারেল

৩ থেকে ১৭ বছর বয়সীদেরও টিকা দেবে আমিরাত

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ২৩:৪৭

৩ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদেরও করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। সোমবার টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শিশুদের চীনের তৈরি সিনোফার্ম ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে টুইটে বলা হয়েছে, ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এবং ব্যাপকভিত্তিক মূল্যায়নের পরই শিশুদের ভ্যাকসিন দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর আগে গত জুনে কর্তৃপক্ষ ৯০০ শিশুর ওপর এই ট্রায়াল চালানোর ঘোষণা দিয়েছিল।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে বর্তমানে ১২ থেকে ১৫ বছরের শিশুদের ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে।

রবিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটির ৯০ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে পূর্ণাঙ্গ ডোজ টিকা নিয়েছে ৭০ দশমিক ৫৭ শতাংশ মানুষ।

আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারস জানিয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতে এ পর্যন্ত ছয় লাখ ৮৫ হাজার ৪৬২ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে এক হাজার ৯৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। সূত্র: রয়টার্স, ওয়ার্ল্ডোমিটারস।

/এমপি/

সম্পর্কিত

কলকাতা পৌরসভায় নিরঙ্কুশ জয়ের পথে তৃণমূল!

কলকাতা পৌরসভায় নিরঙ্কুশ জয়ের পথে তৃণমূল!

দিল্লিতে দলিত শিশুকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা, পুরোহিত গ্রেফতার

দিল্লিতে দলিত শিশুকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা, পুরোহিত গ্রেফতার

অবরুদ্ধ আফগান শহর থেকে বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ

অবরুদ্ধ আফগান শহর থেকে বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ

৬২ গাছে কোপ, জরিমানা ৪৫ কোটি টাকা

৬২ গাছে কোপ, জরিমানা ৪৫ কোটি টাকা

কলকাতা পৌরসভায় নিরঙ্কুশ জয়ের পথে তৃণমূল!

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ২৩:১৬

সেপ্টেম্বর মাসে কলকাতা পৌরসভার ১৪৪টি ওয়ার্ডে নির্বাচনের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। এতে সদ্য একুশের বিধানসভা ভোটের নিরিখে বিজেপির চেয়ে যথেষ্ট এগিয়ে রয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। বিধানসভার ভোটের নিরিখে যদি ভোটাররা পৌরসভায় ভোট দেয় তাহলে কলকাতার ছোট নবান্ন দখলে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্টতা পেতে চলেছে তৃণমূল। অপরদিকে, ব্যাকফুটে থাকছে বিজেপি।

তৃণমূল সূত্রে খবর, ইতোমধ্যেই কলকাতাসহ রাজ্যের একাধিক পৌরসভায় দলের জেলা নেতৃত্বকে ভোটের প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। রাজ্যের প্রশাসনিক কর্তারাও ভোট করার বিষয়ে প্রস্তুত বলে নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলে সেপ্টেম্বর মাসের তৃতীয় সপ্তাহে নির্বাচন হতে পারে। নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা হলে সবচেয়ে বেশি নজর থাকবে কলকাতা পৌরসভার দিকে। ২০০৫-২০১০ বাদ দিলে, গত ২০ বছরে যে চারটি পৌর নির্বাচন হয়েছে তার মধ্যে তিনবারই তৃণমূল বোর্ড গড়েছে। ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে ব্যাপক ফলের পরের বছর ২০১৫ সালে কলকাতা পৌরসভায়ও দারুণ ফল পায় তৃণমূল। ১৪৪টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১১৪টিতে বিজয়ী হয় তারা। বিজেপিকে ছাপিয়ে বামরা প্রধান বিরোধী দলের আসন ছিনিয়ে নেয়।

২০১৫ কলকাতা পৌর নির্বাচনে সুপার ফ্লপ শো হয় বিজেপির। ভোটের ঠিক আগে চিত্রনায়িকা বর্তমানে রাজ্যসভার সদস্য রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কে দলে নিয়ে চমক দেওয়ার চেষ্টা করে বিজেপি। তাকে প্রার্থী করা হচ্ছে প্রচার করা হয়। আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা না হলেও তিনি যে দলের মেয়র পদপ্রার্থী তা বুঝিয়েছিল গেরুয়া শিবির। কিন্তু রাজনৈতিক চালে ভুল করে বিজেপি। রূপা সে সময় কলকাতার ভোটার ছিলেন না। পশ্চিমবঙ্গ পৌরসভা আইন অনুযায়ী কোনও একটি বিশেষ পৌর এলাকার ভোটার না হলে সেখানে ভোটে লড়া যায় না। তাই চালে ভুল করে শেষে পিছিয়ে আসতে হয় তাদের।

বিজেপি সেবার পেয়েছিল মাত্র সাতটি আসন, বামেরা জেতে ১৫টিতে। পরে বিজেপির টিকিটে জিতে আসা দুই কাউন্সিলর তৃণমূলে যোগ দেন।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে ধরাশায়ী করে ক্ষমতায় ফেরার পর এবার তৃণমূল যে আরও বেশি সংখ্যক ওয়ার্ডে জিতে কলকাতা পৌরসভায় ক্ষমতায় ফিরবে তেমনটাই স্পষ্ট ইঙ্গিত মিলছে। কলকাতার সবকটি বিধানসভা ও লোকসভা আসনেই শেষ তিনটি নির্বাচনে অনায়াসে জিতেছে তৃণমূল। সদ্য শেষ হওয়া একুশের বিধানসভা নির্বাচনের নিরিখে কলকাতা পৌরসভার ১৪৪টি ওয়ার্ডের মধ্যে বিজেপি ১১ আর কংগ্রেস মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে। বামেরা সব আসনে হেরে বিধানসভা ভোটের মতোই সম্পূর্ণ নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে।

বিধানসভা ভোটের আগে দক্ষিণ কলকাতার যাদবপুর বিধানসভার অর্ন্তগত ১০২ নম্বর ওয়ার্ডে দুই বারের সিপিএম কাউন্সিলর রিঙ্কু নস্কর বিজেপিতে যোগ দেন। তিনি বিজেপির পক্ষ থেকে যাদবপুর বিধানসভায় প্রার্থী হন। কিন্তু ভোটে তিনি তৃতীয় স্থানে চলে যান। শুধু তাই নয়, তার নিজের ওয়ার্ড ১০২ নম্বরে ভোটের নিরিখে তৃতীয় স্থানে চলে যান তিনি। এখানে তৃণমূল ১৬০৮ ভোটে জয় লাভ করে। সিপিএম পায় দ্বিতীয় স্থান।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে কলকাতায় বিজেপিই ছিল তৃণমূলের প্রধান প্রতিপক্ষ। বামেরা যাদবপুর ছাড়া সব বিধানসভা আসনেই তৃতীয় স্থান লাভ করে।

রাজনৈতিক মহলের মতে, একুশের ভরাডুরি পর বিজেপি দ্রুত ঘর গুছিয়ে পৌর ভোটে নেমে তৃণমূলকে সর্বাত্মক চ্যালেঞ্জ করা কার্যত অসম্ভব। তাই আসন্ন কলকাতা পৌর নির্বাচনে হয়তো বিরোধী দলের আসনে বসতে হতে পারে বিজেপিকে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

দিল্লিতে দলিত শিশুকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা, পুরোহিত গ্রেফতার

দিল্লিতে দলিত শিশুকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা, পুরোহিত গ্রেফতার

ভয়াবহ বন্যার কবলে পশ্চিমবঙ্গ, ১৬ জনের মৃত্যু

ভয়াবহ বন্যার কবলে পশ্চিমবঙ্গ, ১৬ জনের মৃত্যু

অবরুদ্ধ আফগান শহর থেকে বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ

অবরুদ্ধ আফগান শহর থেকে বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ

ইরাকের লুট হওয়া ১৭ হাজার শিল্পকর্ম ফিরিয়ে দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ২৩:০৩

লুট হওয়া ১৭ হাজার মূল্যবান শিল্পকর্ম ইরাককে ফিরিয়ে দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এ বিষয়ে দু’দেশের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে দেশটির হাজার বছরের পুরনো শিল্পকর্ম রয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাদ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

২০০৩ সালে ইরাকে মার্কিন হামলার পর বহু মূল্যবান প্রত্নতত্ত্ব সম্পর্দ চুরি অথবা লুট হয়ে যায়। যুদ্ধ চলকালীন সরকার সঠিকভাবে তদারকি না করতে পারায় মূল্যবান নিদর্শনগুলো লুট হয়। ইরাকের প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের পতনের পর প্রস্তরযুগ, ব্যাবিলিয়ন, আসিরিয়ান ও ইসলামিক যুগের প্রায় ১৫ হাজার পুরাকীর্তি চুরি বা ধ্বংস করে লুটেরাদের দল। 

দীর্ঘসময় গড়ানোর পর ইরাকের ১৭ হাজার শিল্পকর্ম দেশটিকে ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরাকের সংস্কৃতি ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, লুট হওয়া হাজার বছরের পুরাতন সম্পদ ফিরিয়ে দিতে দু’দেশ একমত হয়েছে। শিল্পকর্মের মধ্যে ৩ হাজার ৫০০ বছরের পুরাতন মাটির ফলকে লেখা পৃথিবীর প্রথম মহাকাব্য গিলগামেশের উল্লেখযোগ্য অংশ রয়েছে। আগামী মাসেই ওয়াশিংটন গিলগামেশ শিল্পকর্মটি ফিরিয়ে দেওয়ার কথা রয়েছে।  

গিলগামেশ শিল্পকর্ম

ইরাক থেকে লুট হওয়া শিলালিপিগুলো ৪ হাজার ৫০০ বছরের পুরোনো। এগুলো সুমেরীয় সভ্যতার ব্যবসা-বাণিজ্যের বিভিন্ন নথি বহন করে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের বাইরে গোলাগুলি

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের বাইরে গোলাগুলি

করোনা উহান থেকেই ছড়িয়েছে, দাবি মার্কিন আইনপ্রণেতার

করোনা উহান থেকেই ছড়িয়েছে, দাবি মার্কিন আইনপ্রণেতার

ভারতের কাছে হারপুন ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রয় চুক্তি অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

ভারতের কাছে হারপুন ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রয় চুক্তি অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

তালেবানের বিজয় বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি: আফগান জেনারেল

তালেবানের বিজয় বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি: আফগান জেনারেল

দিল্লিতে দলিত শিশুকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা, পুরোহিত গ্রেফতার

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ২২:২৪

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ৯ বছরের এক কন্যাশিশুকে শ্মশানঘাটে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের পরিবার এবং স্থানীয় বাসিন্দাদের বিক্ষোভের মুখে ঘটনার প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর দিল্লি পুলিশ অভিযুক্ত একজন পুরোহিত ও তার তিন সঙ্গীকে গ্রেফতার করেছে। দিল্লি সরকার এই ঘটনার দ্রুত বিচার নিশ্চিতের অঙ্গীকার করেছে।

বিভিন্ন দলিত সংগঠন অবশ্য বলছে, ধর্ষিতা মেয়েটি যেহেতু দলিত বা নিম্নবর্ণীয় সমাজের তাই এই ঘৃণ্য অপরাধের বিরুদ্ধেও তেমন জোরালো প্রতিবাদ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।

দক্ষিণ-পশ্চিম দিল্লিতে ক্যান্টনমেন্ট এলাকার পাশ ঘেঁষেই রয়েছে একটি বাল্মিকী বস্তি, যে সম্প্রদায়ের লোকজন মূলত পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে জীবনধারণ করেন।

যে নৃশংস ঘটনার বিরুদ্ধে ওই এলাকার বাসিন্দারা সোমবার থেকে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছেন, সেটি ঘটেছিল তার আগের দিন রাতেই। নিহত মেয়েটির মা বলছিলেন, ‘আমরা সেদিন গাঁয়ে গিয়েছিলাম, আর আমাদের বাচ্চা শ্মশানঘাটের ওয়াটার কুলার থেকে খাবার পানি নিতে গিয়েছিল। শ্মশানের মন্দিরের পুরোহিত বা পন্ডিতজি আমাদের ফোন করে হঠাৎ খবর দেয়, কুলার থেকে পানি নিতে গিয়ে আমাদের মেয়ে নাকি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছে। সে রাতেই তাড়াহুড়ো করে ওর সৎকার করে দেওয়া হয়। কিন্তু আমাদের বিশ্বাস, পণ্ডিতজি আর ওর দলবল আমাদের মেয়েকে জীবন্ত পুড়িয়ে দিয়েছে।’

রাধেশ্যাম নামে মূল অভিযুক্ত ওই পুরোহিতকে সোমবার রাতেই পুলিশ গ্রেফতার করেছে। সঙ্গে আটক করা হয়েছে লক্ষ্মীনারায়ণ, কুলদীপ ও সালিম নামে তার তিনজন সঙ্গীকেও। তাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ, হত্যা, ভয় দেখানো ও প্রমাণ লোপাট করাসহ বিভিন্ন অভিযোগ আনা হয়েছে।

পুরানা নাঙ্গাল নামের ওই এলাকায় অবশ্য এখনও পুলিশের বিরুদ্ধে অসন্তোষ তীব্র। অনেকেই বলছিলেন, চারজন অভিযুক্তকে পুলিশই জিপে করে সরিয়ে নিয়ে গেছে। ওই দলিত শিশুর পরিবার গরিব ও বাল্মিকী বলেই বিচার পাচ্ছে না।

কেউ কেউ আবার জানাচ্ছেন, নিহত মেয়েটির মা-বাবাকে থানার ভেতরেই উল্টো মারধর করা হয়েছিল। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, পুলিশের মদতেই ওই শ্মশানঘাটে বহুদিন ধরে চলছিল জুয়া, মদ্যপান ও নানা অসামাজিক কাজকর্মের আখড়া।

এই মুহুর্তে অভিযুক্তদের মৃত্যুদণ্ড ছাড়া তারা যে আর কোনও শাস্তিতেই সন্তুষ্ট হবেন না বাল্মিকীরা সেটাও স্পষ্ট করে দিয়েছে।

দিল্লি সরকারের মন্ত্রী রাজেন্দ্র গৌতম ওই বস্তিতে গিয়ে কথা দিয়ে এসেছেন, দোষীদের অবশ্যই উপযুক্ত শাস্তি হবে। তিনি বলেন, ‘দেশের রাজধানীতে এমন ঘটনা ভাবাই যায় না। উত্তরপ্রদেশের দেহাত অঞ্চলে শোনা যায় ভিকটিমের পরিবারকেই ভয় দেখিয়ে বয়ান বদলাতে বাধ্য করা হয়। কিন্তু দিল্লিতেও কেন এমন ঘটনা ঘটবে?’

তিনি বলেন, ‘যদিও দিল্লিতে আইন-শৃঙ্খলা আর পুলিশ রাজ্য সরকারের হাতে নেই, তবু নির্দিষ্ট সময়ের ভেতর দোষীরা যাতে সাজা পায় আমরা তা নিশ্চিত করবো।’

নিম্নবর্ণের বলেই জোরালো প্রতিবাদ নেই

দলিত সংগঠনগুলো প্রশ্ন তুলছে, এমন পাশবিক ঘটনাতেও দিল্লির প্রতিবাদ স্তিমিত কেন। ভীম আর্মির নেতা হিমাংশু বাল্মিকী বলেন, ‘এদেশে একটা গরু মরলেও মিডিয়া থেকে আরএসএস সবাই হইচই শুরু করে দেয়, কিন্তু এখন তারা চুপ কেন?’

তিনি বলেন, ‘অভিযুক্তরা মুসলিম হলে বিজেপি এতোক্ষণে কী করতো ভাবুন তো? ১০ মাইল দূরে পার্লামেন্টের অধিবেশন চলছে, কারও মুখে একটা আওয়াজ পর্যন্ত নেই। এই মেয়েটি দলিত নাহলে সব বড় দলের নেতাদের তো এখানে এসে ক্ষতিপূরণ ঘোষণার হিড়িক পড়ে যেতো! আমাদের বস্তিতে আসতে ওনাদের কী নাকে দুর্গন্ধ লাগে?’

প্রায় ৯ বছর আগে দিল্লিতে নির্ভয়া কাণ্ড নামে পরিচিত ধর্ষণ মামলায় নিহত মেয়েটি যে উচ্চবর্ণের ছিল এবং গোটা দিল্লি যে প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই প্রতিবাদে মুখর হয়েছিল, দলিত নেতারা সখেদে সেটিও মনে করিয়ে দিচ্ছেন। সূত্র: বিবিসি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

৩ থেকে ১৭ বছর বয়সীদেরও টিকা দেবে আমিরাত

৩ থেকে ১৭ বছর বয়সীদেরও টিকা দেবে আমিরাত

কলকাতা পৌরসভায় নিরঙ্কুশ জয়ের পথে তৃণমূল!

কলকাতা পৌরসভায় নিরঙ্কুশ জয়ের পথে তৃণমূল!

ভয়াবহ বন্যার কবলে পশ্চিমবঙ্গ, ১৬ জনের মৃত্যু

ভয়াবহ বন্যার কবলে পশ্চিমবঙ্গ, ১৬ জনের মৃত্যু

সর্বশেষ

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের বাইরে গোলাগুলি

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের বাইরে গোলাগুলি

৩ থেকে ১৭ বছর বয়সীদেরও টিকা দেবে আমিরাত

৩ থেকে ১৭ বছর বয়সীদেরও টিকা দেবে আমিরাত

স্ত্রীকে অপহরণের অভিযোগে সেনাসদস্য গ্রেফতার

স্ত্রীকে অপহরণের অভিযোগে সেনাসদস্য গ্রেফতার

বঙ্গোপসাগরে বিকল সেন্টমার্টিনগামী যাত্রীবাহী ট্রলার

বঙ্গোপসাগরে বিকল সেন্টমার্টিনগামী যাত্রীবাহী ট্রলার

আগের দিন থেকেই উত্তেজনায় কাঁপছিলেন নাসুম

আগের দিন থেকেই উত্তেজনায় কাঁপছিলেন নাসুম

তবুও পা মাটিতেই রাখছেন মাহমুদউল্লাহরা

তবুও পা মাটিতেই রাখছেন মাহমুদউল্লাহরা

কলকাতা পৌরসভায় নিরঙ্কুশ জয়ের পথে তৃণমূল!

কলকাতা পৌরসভায় নিরঙ্কুশ জয়ের পথে তৃণমূল!

৩ লাখ ২২ হাজার টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

৩ লাখ ২২ হাজার টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

ইরাকের লুট হওয়া ১৭ হাজার শিল্পকর্ম ফিরিয়ে দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ইরাকের লুট হওয়া ১৭ হাজার শিল্পকর্ম ফিরিয়ে দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

৭ গোলের ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীর জয়

৭ গোলের ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনীর জয়

করোনার টিকা ছাড়াই সুই পুশ, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক বরখাস্ত

করোনার টিকা ছাড়াই সুই পুশ, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক বরখাস্ত

অবশেষে অস্ট্রেলিয়া-বধ

অবশেষে অস্ট্রেলিয়া-বধ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

উহানের সব বাসিন্দার করোনা পরীক্ষা করবে চীন

উহানের সব বাসিন্দার করোনা পরীক্ষা করবে চীন

চীনে ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

চীনে ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ এ মাসেই!

ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ এ মাসেই!

চীনে প্রবল বন্যায় তিন শতাধিক মৃত্যু

চীনে প্রবল বন্যায় তিন শতাধিক মৃত্যু

লকডাউন কার্যকরে সেনা মোতায়েন চান ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

লকডাউন কার্যকরে সেনা মোতায়েন চান ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ব্রাজিলের নির্বাচন ব্যবস্থা বদলের দাবি বলসোনারো সমর্থকদের

ব্রাজিলের নির্বাচন ব্যবস্থা বদলের দাবি বলসোনারো সমর্থকদের

বিক্ষোভে উত্তাল ফ্রান্স

বিক্ষোভে উত্তাল ফ্রান্স

ডেল্টা সংক্রমণে বিপর্যস্ত মালয়েশিয়া

ডেল্টা সংক্রমণে বিপর্যস্ত মালয়েশিয়া

বিরল তুষারপাতে ঢেকে গেলো ব্রাজিল

বিরল তুষারপাতে ঢেকে গেলো ব্রাজিল

ইতালি প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বাড়লো

ইতালি প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বাড়লো

© 2021 Bangla Tribune